ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭ ১৯:৪৫:৪১

অন্তঃসত্ত্বাদের ডায়াবেটিসের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৭:১৭ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৭:২৬ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার

আজ ‘বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস ২০১৭’। দিবসটি উপলক্ষ্যে একুশে টেলিভিশন অনলাইন মুখোমুখী হয় সংশ্লিষ্ট তিনজন বিশেষজ্ঞের। বিশেষজ্ঞের মধ্যে ছিলেন বারডেম জেনারের হাসপাতালের এন্ডোক্রিনলজি বিভাগের প্রধান প্রফেসর মো. ফারুক পাঠান, ন্যাশনাল কাউন্সিল বাংলাদেশ ডায়াবেটিস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য অধ্যাপক এমিরেটস হাজিরা মাহতাব ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের এন্ডোক্রিনলজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. ফরিদ উদ্দিন। কথা হয় তাদের সঙ্গে ডায়াবেটিসে আক্রান্তের কারণ, লক্ষণ, দেশ ও দেশের বাইরে এ রোগের ব্যপকতা, নিরাময়ের উপয় ও সতর্ক থাকার বিভিন্ন দিক নিয়ে। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন একুশে টেলিভিশন অনলাইন প্রতিবেদক রিজাউল করিম

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: এবার ‘বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস ২০১৭’ র প্রতিপাদ্য ‘নারী এবং ডায়াবেটিস’। প্রতিপাদ্যে নারীদেরকে কেন এমন বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হলো?

হাজিরা মাহতাব: নারীরা সাধারণত উন্নত-অনুন্নত দেশে অবহেলিত। তারা কিন্তু কোনো অংশে পুরুষের তুলনায় কম ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হয় না। অনেক ক্ষেত্রে একটু বেশিই হয়। অনেক ক্ষেত্রে সামাজিকভাবে অবহেলিত হয়। বিয়ে হয় না, হলে আবার স্বামী নিতে চায় না। সন্তান হলে অনেকের গর্ভপাত হয়। এমনকি বিকলঙ্গ বাঁচ্চাও হতে পারে।সেক্ষেত্রে সব মহিলার অধিকার যে, তারা সুচিকিৎসা পাবে এবং তাদের চিকিৎসাও আয়ত্বে থাকবে, এমনকি এ ব্যাপারে ধারণা পাওয়াও সহজতর হবে।

অনেক নারী-ই এখনও জানেনই না, ডায়াবেটিস কী? এ ক্ষেত্রে এ্যাকসেস টু কেয়ার বিষয়টা নিশ্চিত করতে হবে। নারীরা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হচ্ছে অথচ তাদের অনেকেই ডায়াবেটিস সম্পর্কে অজ্ঞ। বিষয়টি মাথায় রেখেই ‘নারী এবং ডায়াবেটিস’প্রতিপাদ্য রাখা হয়েছে।

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসের শুরুর ইতিহাসটা যদি জানতে চাই, এটা কত আগে থেকে পালন হয়ে আসছে এবং এটার পেছনের বাংলাদেশের অবদান কতটুকু?

ফরিদ উদ্দিন: ওয়ার্ল্ড ডায়াবেটিস ফেডারেশন প্রথম প্রস্তাব করে যে, ডায়াবেটিস সচেতনতায় একটা দিবস পালন করা যায়। তাদের প্রস্তাবে ডব্লিউএইচও যোগ দেয়। তারপর ১৯৯১ সালের ১৪ নভেম্বর বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস হিসেবে সারা দুনিয়ায় (যেখানে এসোসিয়েশন আছে) পালন হয়ে আসছে। যেখানে এসোসিয়েশন নাই, সেখানে ব্যক্তিগত বা সামাজিকভাবে পালন হয়ে আসছে।

পালনের বিষয়ে গুরুত্ব দিয়েই জাতিসংঘ্ এটাকে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে। একমাত্র নন কমিউনিকেশন ডিজিস হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে এই ডায়াবেটিসকে। আর এ স্বীকৃতি পেতে যত ধরণের প্রস্তাব দেওয়া, প্রস্তাব পাশ করা, সব ধরণের প্রচেষ্টা-ই বাংলাদেশের। এটাই আমাদের গর্ব। ২০০৬ সালে রেজুলেশনের মাধ্যমে এটা পাশ হয় এবং ২০০৭ থেকে এটা পালন হয়ে আসছে। আজকে সারা বিশ্বে এটা পালন হচ্ছে। বিশেষ করে জাতিসংঘের সদস্য দেশগুলোতে এটা পালন বাধ্যতামূলক হয়েছে।

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: ডায়াবেটিসের প্রতিরোধটা কীভাবে হতে পারে?

হাজিরা মাহতাব: এটার প্রথম প্রতিরোধ সচেতনতা। এটা কঠিন কিছু না। আমাদের বিশেষজ্ঞসহ সবাইকে এর সচেতনতায় এগিয়ে আসতে হবে।প্রত্যেকটা মহিলা যখন প্রেগনেন্ট হয় তখন তাদের ব্লাড সুগার করতে হবে। বিশেষ করে যাদের বংশে ডায়াবেটিস থাকে তাদের এ ব্যাপারে গুরুত্ব দিতে হবে। নারীদের গর্ভবতী হলে প্রথম চেকাপটাই ডায়াবেটিসটা করা উচিত। তবে বিশ থেকে চব্বিশ সপ্তাহের মধ্যে করা অতি জরুরি।

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: কোনো নারী গর্ভবতী অবস্থায় ডায়াবেটিস ধরা পড়লে তার পরবর্তী করণীয় কী হতে পারে?

হাজিরা মাহতাব: খাদ্যে কিছু নিয়ম মানতে হবে। নিয়মিত মুভমেন্টের কিছু বিষয় আছে। এরপরও যদি নিয়ন্ত্রণে না থাকে তো গর্ভবতী হওয়ার পর যতবারই টেস্ট করে ততবারই ডায়াবেটিস টেস্ট করা যেতে পারে।

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: ডায়াবেটিস থেকে বাঁচতে খাদ্য তালিকায় কী থাকা উচিত?

ফারুক পাঠান: ডায়াবেটিস সতর্কতায় খাদ্য তালিকায় ভারসাম্য রাখতে হবে। আমার উচ্চতা কত? ওজন কত? কী কাজ করি? বয়স কত? তার ভীত্তিতে ভারসাম্য খাদ্য খেতে হবে। আমাদের দেশের মানুষের খাদ্যাভ্যাসের ভিতরে ৯০ শতাংশ কার্বোহাড্রেড। আর ভারসাম্য খাবারের ৫০ শতাংশ-ই কার্বোহাইড্রেড। এটা কমাতে পারলেই আমার খাবার প্রকৃত ভারসাম্য আসলো। ডায়াবেটিস এর চিন্তায় ডায়েট করতে হবে, এমন কোনো শব্দ নাই। প্রতিদিন তিন ঘন্টা অন্তর খাবার খান। নিয়মিত ও পরীমিত খান সেটাই ব্যালেন্স বা ভারসাম্য। প্রতিদিন খাওয়ার ১০ মিনিট পর হাটতে হবে।

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: যাদের ডায়াবেটিস হয়নি, তবে ভয়-ডায়াবেটিস হলো কী না, তাদের বিষয়ে কী বলবেন?

ফরিদ উদ্দিন: প্রথমতো তাদের সুগার টেস্ট করাতে হবে। টেস্ট অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নিতে হবে। তবে যারা অপেক্ষাকৃত ধনী পরিবারের। যাদের পিতা-মাতার ডায়াবেটিস আছে।তাদের অনেকেই আমাদের কাছে আসে। তাদের দেখা যায় ডায়াবেটিস হয়নি, কিন্তু ডায়াবেটিক হওয়ার প্রারম্ভিক পর্যায়ে। তাদের অনেকেই হয়তো ৫ বছর পর ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হবে। তো আমাদের পরামর্শ হলো এ হাইরিক্স গ্রুপ যারা আছে, তাদের ব্লাড সুগার টেস্ট করা উচিত। ডায়াবেটিস হলে তার চিকিৎসা নিবে। না হলে বা প্রি ডায়াবেটিসে থাকলে বিনা পয়সার ওষুধ নিতে হবে। আর তা হলো ডায়েট ঠিক করা আর হেল্দি লাইফ চালিয়ে যাওয়া।

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: বলা হয়ে থাকে ডায়াবেটিসে নারী মৃত্যুর হার বেশি। কেন তাদের মৃত্যুর ঝুঁকি বেশি?

হাজিরা মাহতাব: প্রথম কারণ হচ্ছে ডিজিস।অর্থাৎ সচেতন থাকে না। গর্ভবতী অবস্থায় অসচেতনতার কারণে ডায়াবেটিসটা মারাত্মক পর্যায়ে যায়। তখন তা মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস উপলক্ষ্যে এবার বাংলাদেশে কর্মসূচি কী?

ফারুক পাঠান: বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ ডায়াবেটিস সমিতি এ বিষয়কে মাথায় রেখে আমরা প্রি কনসেপশন কেয়ার কর্মসূচী হাতে নিয়েছি। যেটার মাধ্যমে আমরা ধর্মীয় নেতা-ঈমাম ও কাজীদের মাধ্যমে সেবা দিব। কাজীদের কাছে লিফলেট থাকবে। যেখানে লেখা গর্ভবতী হওয়ার আগেই ডায়াবেটিস পরীক্ষা ও সে অনুযায়ী চিকিৎসা নেওয়াসহ যাবতীয় পরামর্শ থাকবে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট সরকারি চিকিৎসা কেন্দ্রেও এ ব্যাপারে বিনামূল্যে পরামর্শ দেওয়ারও পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

একুশে টেলিভিশন অনলাইন: ধন্যবাদ আপনাদেরকে। আাপনাদের মূল্যবান সময় দেওয়ার জন্য।

ফরিদ উদ্দিন: অনলাইনসহ একুশে টেলিভিশন পরিবারের সবাইকে ধন্যবাদ।

একুশে টেলিভিশনে তিন চিকিৎসকের আলোচনাটি শুনতে পারেন নিচের লিংকে গিয়ে...

/ এআর /

                  

 

                

 


 
 

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি