ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ১১:২২:৪৬

আজ শান্তিতে নোবেল ঘোষণা: তালিকায় শেখ হাসিনা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০১:০৭ পিএম, ৬ অক্টোবর ২০১৭ শুক্রবার | আপডেট: ০৩:৪৯ পিএম, ৬ অক্টোবর ২০১৭ শুক্রবার

প্রতি বছর অক্টোবর মাসে ঘোষণা করা হয় নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম। এ বছর ইতোমধ্যে চিকিৎসা, পদার্থ, রসায়ন ও সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা হয়ে গেছে। বাকি আছে শুধু শান্তি ও অর্থনীতিতে পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণার। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার বিকেল চারটায় নরওয়ে থেকে ঘোষণা করা হবে শান্তিতে নোবেল পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নাম।

কে বা কারা এ বছরের শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেতে যাচ্ছেন ! এ নিয়ে এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে।

এ বছর নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ৩১৮ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। মনোনীতদের মধ্য থেকে কয়েকজন ব্যক্তি ও দুটি সংস্থা এবারের শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পাওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে আছেন বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, রোমান ক্যাথলিকদের ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস, জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল, সিরিয়ার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা হোয়াইট হেলমেটস এবং এর নেতা রিদ আল সালেহ, ইরানের পরমাণু চুক্তির মধ্যস্থতাকারী ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান ফেদরিকা মোগেরিনি ও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ, তুরস্কের ক্যান ডি এন্ডার এবং কামহুরিয়াত, জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা, আমেরিকান সিভিল লিবার্টিস ইউনিয়ন, রাইফ বাদাই এবং গাম্বিয়ায় শান্তি স্থাপনে ভূমিকা পালনকারী আঞ্চলিক জোট ইকোনমিক কমিউনিটি অব ওয়েস্ট আফ্রিকান স্টেটস (ইকোওয়াস) এর নাম বেশ জোড়ালোভাবেই শুনা যাচ্ছে।

এ ছাড়া আলোচনায় রয়েছেন আন্তর্জাতিক লায়ন্স ক্লাব, উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ, অভিনেতা লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন প্রাপ্তদের নাম সব সময় গোপন থাকে। গত ৫০ বছর ধরে এটা করা হয়। এরপরও কিছু কিছু নাম প্রকাশ পেয়ে যায়। পুরস্কার ঘোষণার আগে শান্তিতে মনোনয়ন পাওয়া ব্যক্তিদের নিয়ে খবর অনেক সময় সঠিকও হয় না।

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে আলোচনায় এসেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্ব মানবতার কল্যাণে ব্রতী শেখ হাসিনা কিছু দিন আগেও পেয়েছেন ‘মাদার অব হিউম্যানিটি খেতাব। মিয়ানমার সেনাবহিনীর নির্মম নির্যাতনের স্বীকার হয়ে বাংলাদেশ পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের জীবনের নিরাপক্ষা দিয়ে বিরল ইতিহাস স্থাপন করেছেন শেখ হাসিনা। প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে প্রবেশের অনুমতি দিয়ে নিশ্চিত মৃত্যুর হাত বাঁচিয়েছেন শেখ হাসিনা। নিশ্চিত করছেন তাদের খাদ্য ও আশ্রয়েরও। তাই এ বছর নোবেল শান্তি পুরস্কার শেখ হাসিনা হাতে ‍উঠলেও এতে অবাক হওয়ার কিছু থাকবেনা।

 

এমআর/টিকে


 
 

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি