ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭ ১১:৫৯:২৯

আ.লীগ সংখ্যালঘুদের জমি দখল করছে: রিজভী

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৩:১৯ পিএম, ২৮ আগস্ট ২০১৭ সোমবার | আপডেট: ০৯:৫৩ পিএম, ২৯ আগস্ট ২০১৭ মঙ্গলবার

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার এবং তার লোকেরা সংখ্যালঘুদের জমি দখল করছে, হিন্দুদের ঘরবাড়ি, জমি দখল করছে, খ্রিস্টানদের জমি দখল করছে। তাঁদের উপাসনালয়গুলো দখল করছে।


সোমবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দ্রুত সুস্থতা কামনায় আয়োজিত মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রিজভী এসব কথা বলেন। মুগদা থানা জাতীয়তাবাদী তাঁতী দল এই মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে।


রুহুল কবির রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ নেতাদের বক্তব্যে সাম্প্রদায়িকতার গন্ধ পাচ্ছি। আওয়ামী লীগকে উদ্দেশ করে রিজভী বলেন, আপনারা এ দেশে সংখ্যালঘুদের জমি দখল করছেন। প্রধান বিচারপতিকে দেশ ছেড়ে যাওয়ার হুমকি দিচ্ছেন। তাঁকে দেশছাড়া করে কি তাঁর জমি দখল করবেন?


অনুষ্ঠানে রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগের নেতারা প্রধান বিচারপতিকে বিদেশে যেতে বলছেন। তিনি বিদেশে কোথায় যাবেন? তাঁকে বিদেশ পাঠিয়ে দিয়ে কি তাঁর সব দখল করবেন?


আদিম মানুষের জীবনযাপন যেমন তাঁদের কিছু কর্তা নিয়ন্ত্রণ করতেন, এ সরকারও সে ধরনের বলে মন্তব্য করেন রিজভী।
রিজভী আরো বলেন, এখানে বলা হয় গণতন্ত্র আছে, পার্লামেন্ট আছে, বিচার বিভাগ আছে, কিন্তু এগুলো সবই বিদেশিদের দেখানোর জন্য। আসল কথা হচ্ছে, এ দেশে গণতন্ত্র নেই, সব মিডিয়ায় দেখানোর জন্য। শুধু একজন ব্যক্তির কথাই সব চলবে।
আইনগতভাবে এই সরকার ও সরকারের প্রধানমন্ত্রী অবৈধ উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ক্ষমতায় থাকার জন্য আওয়ামী লীগ সবকিছু লুটপাট করছে এবং গণতন্ত্রকে হত্যা করছে। মানুষের ঘরবাড়ি, মার্কেট দখল করছে। যারা প্রতিবাদ করছে, তাদের পাকিস্তানের দালাল বলা হচ্ছে। মানুষ কি কথা বলতে পারবে না? সব অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সরকার জড়িত। এই বাকশালীরা এখন গণতন্ত্রকে অপহরণ করছে।


প্রধান বিচারপতির উদ্দেশে রিজভী বলেন, আপনি কোটি মানুষের মনে যে বিশ্বাস স্থাপন করেছেন, এ অবস্থায় দেশ ছেড়ে যাবেন না। আপনি যদি না যান, তাহলে বোঝা যাবে আপনি এ দেশের অনেক বীরদের একজন বীর।
//এআর


 
 

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি