ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ৩:১০:০২

সাল হাশিশ

এক টুকরো ‘ভূস্বর্গ’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৩:২১ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৭ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৩:২৩ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৭ বৃহস্পতিবার

মাঝেমাঝে স্বর্গটাকে খুব কাছাকাছি মনে হয়। বিশেষ করে মিশরের মতো পুরাতত্ত্ব নিদর্শনে ভরপুর একটি দেশে গেলে মনে হবে স্বর্গে চলে এসেছি। বিশেষ করে এর উপকূলের কাছে এলাকাগুলো দেখলে যেকোনো পর্যটকরা থমকে যান। অঞ্চলটা যেন একটি রিসোর্ট শহর।


সারাবছর অসংখ্য পর্যটক ভীড় জমান মিশরে। পর্যটকদের কথা বিবেচনা করে অধিকাংশ ক্ষেত্রে রিসোর্টগুলো সৈকতের আশপাশে গড়ে তোলা হয়েছে এখানে। যাতে স্বল্প খরচে থাকার সুবিধা পান পর্যটকরা।


হারাগাদা, শার্ম এল শেখ শহরের কথাই বলা যাক। এসব স্থানে কম খরচে থাকা যাবে। অন্যদিকে, এল গোনা, আইন এল সোখনা এবং নর্থ কোস্টে বিলাসী পর্যটনের ব্যবস্থাও আছে।


গুস্টোর সৈকতও অসাধারণ এক স্থান। এখানে দাঁড়ালে চোখের সামনে অপরূপ সব দৃশ্য ঘোরাফেরা করতে থাকবে। এমনকি সৈকতের সাদা ছাতাগুলোও অসম্ভব সুন্দর লাগে দেখতে। অসম্ভব ভালো কাটবে দুপুরটা । ব্যাপক আয়োজন চলে এসব সৈকতে। একবার গেলে বুঝতে পারবেন মিশরীয়রা কতটা আনন্দ করতে পারে।

 
এরপর আসা যাক সাল হাশিশের কথায়। অসম্ভব সুন্দর এক জায়গা সাল হাশিশ। সাল হাশিশে গেলে দুই চোখ জুড়িয়ে যাবে। সাগরে বিশাল একটা অংশ চোখের সামনে ভেসে থাকবে। বিনোদনের অনেক ব্যবস্থা রয়েছে এখানে। এখানে দেখতে পারবেন রাস্টিক হর্স ক্লাবের ঘোড়া, বানর এবং উঁটের আস্তাবল।


সাল হাশিশে কয়েকটা দিন থাকার পর এই স্মৃতি বাকি জীবন বয়ে বেড়াতে পারবেন। অনাবিল প্রশান্তি নিয়ে বাড়ি ফেরেন এখানে  ঘুরতে আসা পর্যটকরা।

সূত্র : ঈজিপশিয়ান স্ট্রিট
এমআর/এআর


 
 

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি