ঢাকা, শনিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৮ ২১:১৬:১০

Ekushey Television Ltd.

এবার ডায়নোসরের কঙ্কাল দিয়ে সাজাবে ঘর

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৮:১১ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০১৮ বৃহস্পতিবার

একটু ভাবুন, দরজা দিয়ে ঘরে ঢুকেই বড় একটা ড্রয়িং রুম৷ আর সেই রুমের মাঝখানে দাঁড়িয়ে রয়েছে একটি ডায়নোসরের কঙ্কাল৷ তার আশপাশে পাতা টেবিল, চেয়ার, সোফা ইত্যাদি৷ আর সেখানেই বসে আড্ডা মারতে পারবেন অতিথিরা৷

জানি কোনও বাড়িতে এমন দৃশ্য আজ পর্যন্ত কারও চোখে পড়েনি। কিন্তু ভবিষ্যতে পড়বে এটা নিশ্চিত। ঘর সাজানোর সরঞ্জাম হিসেবে ব্যবহার হতে চলেছে ডায়নোসরের হাড়। প্যারিসে চলতি সপ্তাহেই রয়েছে তার নিলাম।

কোনও গৃহস্থ বাড়িতে এমন দৃশ্য এখনও পর্যন্ত চোখে পড়েনি৷ কিন্তু ভবিষ্যতে পড়বে৷ ঘর সাজানোর সরঞ্জাম হিসেবে ব্যবহৃত চলেছে ডায়নোসরের হাড়৷ প্যারিসে চলতি সপ্তাহেই রয়েছে তার নিলাম৷ পকেটে টাকা থাকলে বড় লিভিং রুমের জন্য অনায়াসে নিতে পারেন এই নতুন জিনিস৷

অকশন হাউজ বিনোচে এট গিগোয়েলোর তরফে জানানো হয়েছে, ‘ফসিল মার্কেট এখন শুধু বিজ্ঞানীদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই৷ ডায়নোসর এখন ট্রেন্ডি। পোইন্টিংয়ের মতো সাজানোর জলজ্যান্ত বস্তু’।

মানুষ ডায়নোসরের দাঁত খুব বেশি রকম পছন্দ করে বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা৷ কারণ এটির দৈর্ঘ্য সবচেয়ে কম৷ মাত্র ৩.৮ মিটার বা ১২.৫ ফিট৷ সেদিক থেকে দেখতে গেলে ডায়নোসরের নাক ও লেজ প্রায় ১২ মিটার লম্বা৷ ফলে ঘর সাজানোর জন্য দাঁত রাখাই শ্রেয়৷ কিন্তু এই বিপুল গ্রহণযোগ্যতার ফলে দাঁতের দাম বেশিই৷ অথচ নাক ও লেজের দাম সে তুলনায় কম।

উল্লেখ্য, গত ২/৩ বছর ধরে চীন বড় কোনও ডায়নোসরের কঙ্কাল খুঁজছে। দেশের জাদুঘর বা কোনও ব্যক্তিবিশেষের জন্য এই খোঁজ চলছে। একে তো ডায়নোসরের কঙ্কাল দুর্লভ। তার উপরে এত চাহিদার ফলে হু হু করে এর দাম বাড়ছে৷

সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস

একে//টিকে

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি