ঢাকা, রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২১:৩৪:৪১

গণহত্যার দায়ে অভিযুক্ত হতে পারে মিয়ানমার : জাতিসংঘ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৪৪ পিএম, ৬ ডিসেম্বর ২০১৭ বুধবার

মিয়ানমারের সেনা কর্মকর্তাদের গণহত্যার দায়ে অভিযুক্ত করা যেতে পারে বলে মত দিয়েছেন জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশনের প্রধান জায়েদ রা’দ আল হোসেন।

জাতিসংঘের হিউম্যান রাইটস কাউন্সিলের কাছে দেওয়া বক্তব্যে জায়েদ বলেন, জাতিসংঘের তদন্তকারী দল সেখানে গণহত্যার যথেষ্ট প্রমাণ পেয়েছে। আগস্টে সামরিক বাহিনীর নিধনযজ্ঞ শুরু হওয়ার পর থেকে দেশটিতে গণহত্যার প্রমাণ পেয়েছে ওই তদন্তকারী দল।

এসময় জায়েদ বলেন, নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করার প্রমাণ পাওয়া গেছে। রাখাইনের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে ওই জওয়ানরা। শুধু তাই নয়, এসময় বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়া মানুষকে নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করে তারা। নারী ও শিশুদের গণধর্ষণ করে। পুড়িয়ে দেয় মসজিদ, মন্দির, বিদ্যালয় ও মার্কেটগুলো।

তিনি এসময় প্রশ্ন তোলেন, এরপরও কেউ বলতে পারবেন যে সেখানে গণহত্যা হয়নি। এসময় জায়েদ ৪৭ সদস্যের মানবাধিকার কাউন্সিলকে দেশটির সুনির্দিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগে বিচার শুরুর আহ্বান জানান। তিনি আরও বলেন, এজন্য মানবাধিকার কমিশনকে নতুন প্রকিয়া শুরু করতে হবে।

এর আগে মিয়ানমার সরকার জাতিসংঘসহ বিশ্বের অভিযোগ অস্বীকার করে বলে, দেশটিতে কোন ধরণের বল প্রয়োগ হচ্ছে না। বরং রোহিঙ্গারা কেন দেশটি ছেড়ে যাচ্ছে, সে বিষয়েও তারা অবগত নয় বলে দাবি করে। তবে তারা দেশটির ওই অঞ্চলে জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিকদের যেতে বাধা দিচ্ছে। 

জায়েদ আরও বলেন, গত আগস্টে মিয়ানমারে গণহত্যা শুরু হওয়ার পর থেকে বাংলাদেশে কমপক্ষে ৬ লাখ ২৬ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে এসেছে। এখনো প্রতিদিনই দেশটিতে হাজার হাজার রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করছে। এরই মধ্যে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে একটি সমঝোতা চুক্তি হয়েছে। তবে দেশটিতে রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হওয়ার আগ পর্যন্ত তাদের ফেরত পাঠানো ঠিক হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে মিয়ানমার সরকার ও সেনা বাহিনীর কাছে  একটি শক্ত বার্তা পাঠাতে অ্যামেনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল মানবাধিকার কাউন্সিলকে একটি প্রস্তাব পাশের আমন্ত্রণ জানিয়েছে।

সূত্র: আল-জাজিরা

এমজে/ এআর

 

 

 

 

 

 

 

 

 


 
 

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি