ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ জুলাই, ২০১৭ ৮:৩০:৪৫

চট্টগ্রামে ভারতীয় শিক্ষার্থীর রক্তাক্ত লাশ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:১৫ এএম, ১৫ জুলাই ২০১৭ শনিবার | আপডেট: ০২:০৩ পিএম, ১৫ জুলাই ২০১৭ শনিবার

ছবি : প্রতিকী

ছবি : প্রতিকী

চট্টগ্রামে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া এক ভারতীয় শিক্ষার্থীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে, আহত অবস্থায় উদ্ধার হয়েছে তার আরেক সহপাঠী। তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। শুক্রবার রাত ১টার দিকে নগরীর আকবর শাহ থানার আবদুল হামিদ সড়কের একটি বাসা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

নিহত আসিফ শেঠ (২৬) এবং আহত উইলসন (২৬)চট্টগ্রামের বেসরকারি ইউএসটিসি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তারা আব্দুল হামিদ সড়কের একটি বাসায় পাশাপাশি কক্ষে ভাড়া থাকতেন।

শুক্রবার রাত একটার দিকে ইউসুফ ভবন থেকে আসিফ শেঠ (২৬) নামের ওই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশের শরীরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার উইলসন সিং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ।

নগরের আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীরের ভাষ্য, ইউসুফ ভবনের পঞ্চম তলার একটি ফ্ল্যাটে থাকতেন ইউএসটিসির ভারতীয় চার শিক্ষার্থী। ফ্ল্যাটের তিনটি কক্ষের মধ্যে একটিতে থাকতেন নিহত আসিফ শেঠ। আরেকটিতে উইলসন। আরেকটি কক্ষে নীরাজ গুরু তাঁর স্ত্রী জোসনাকে নিয়ে থাকতেন।

নীরাজের বরাত দিয়ে ওসি আলমগীর গণমাধ্যমকে জানান, গতকাল রাতে ফ্ল্যাটে সবাই একসঙ্গে বসে গল্প করেন এবং মদ্যপান করেন। এরপর নীরাজ তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে নিজের কক্ষে চলে যান। আসিফ উইসনের কক্ষে যান। রাত সাড়ে ১২টার দিকে উইসনের কক্ষ অন্ধকার দেখে নীরাজ বারবার ধাক্কা দিতে থাকেন। কিন্তু ভেতর থেকে কোনো সাড়াশব্দ পাননি। পরে বিকল্প চাবি দিয়ে দরজা খোলেন। দরজা খুলে নীরাজ দেখতে পান, বাসার ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় আছেন উইলসন। আর মেঝেতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন আসিফ শেঠ।

ওসি আলমগীর আরও জানান, নীরাজ প্রতিবেশীদের সঙ্গে নিয়ে উইলসন ও আসিফকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান নীরাজ। সেখানে চিকিৎসক আসিফকে মৃত ঘোষণা করেন। আসিফের শরীরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন ছিল।

পুলিশ নীরাজ ও তাঁর স্ত্রী জোসনাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। পুরো বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করে দেখছে বলে জানিয়েছে।

//এআর//

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি