ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ জুন, ২০১৭

চিকুনগুনিয়া সতর্কতায় রাজধানীর ২১টি এলাকাকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৫:৪৬ পিএম, ১২ জুন ২০১৭ সোমবার | আপডেট: ০৭:৩৯ পিএম, ১২ জুন ২০১৭ সোমবার

চিকুনগুনিয়া সতর্কতায় রাজধানীর ২১টি এলাকাকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা

চিকুনগুনিয়া সতর্কতায় রাজধানীর ২১টি এলাকাকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা

বছরের সবচেয়ে আলোচিত ভাইরাসজনিত রোগ চিকুনগুনিয়া। ২০০৮ সালে বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে মশাবাহিত এ রোগ প্রথম ধরা পড়ে। তবে চলতি বছরে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় চিকুনগুনিয়ার প্রাদুর্ভাব বেড়ে যায়। এরিমধ্যে ঢাকা মহানগরীর ২১টি এলাকাকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। চিকনগুনিয়া প্রতিরোধে সচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি মশা নিধনে ব্যবস্থা গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। 

বর্ষা মৌসুমে জ্বর-সর্দি-কাশি স্বাভাবিক রোগ হিসেবে পরিচিত। তবে চিকুনগুনিয়া এরিমধ্যে পরিচিতি পেয়েছে অস্বাভাবিক রোগ হিসেবে। নগরীর বিভিন্ন হাসপাতাল ঘুরে দেখা যায়, মৌসুমি রোগে আক্রান্তদের প্রায় ২০ শতাংশই চিকুনগুনিয়ার শিকার।

এডিস প্রজাতির এডিস ইজিপ্টি, এডিস এলবোপিকটাস মশার মাধ্যমে চিকুনগুনিয়া ছড়াচ্ছে। চিকিৎসকরা বলছেন, ডেঙ্গু বা জিকা ভাইরাসও একই ভাবে ছড়ায়।
মশাবাহিত এ রোগ প্রতিরোধে মশা নিধনের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবি নগরবাসীর।

এদিকে, মশাবাহিত চিকুনগুনিয়ার জন্য ঢাকা মহানগরীর অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ২১টি এলাকা চিহ্নিত করা হয়েছে। ঢাকা উত্তর সিটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তা অবশ্য বলছেন, পুরো নগরীই ঝুঁকির মধ্যে। তবে আতংকিত না হয়ে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহবান জানান তিনি।
সাধারনত দিনের বেলা যেসব মশা কামড়ায় তা থেকে চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। ঘর-বাড়ির আশপাশ পরিস্কার রাখতে ও মশা নিধনে জরুরি পদক্ষেপ নেয়ার আহবান বিশেষজ্ঞ ও চিকিৎসকদের।

 

 

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি