ঢাকা, বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ৩:৫১:৪৪

প্রেগন্যান্সির জন্য স্পেশাল বডিস্যুট পরে থাকতাম : শ্রদ্ধা কাপুর

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৫:৪৮ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৯:০৬ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার

বরাবরই সাদাসিধে, মিষ্টি, নরম স্বভাবের চরিত্রে দেখা গেছে শক্তি কাপুরের মেয়ে শ্রদ্ধা কাপুরকে। ‘আশিকি টু’, ‘এবিসিডি টু’, ‘বাগি’, ‘হাফ গার্লফ্রেন্ড’ কোনোটাই তার ব্যতিক্রম নয়। এই প্রথম তিনি অভিনয় করবেন ডার্ক সাইডের চরিত্রে।


হাসিনা পার্কারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। ছবিতে প্রেগন্যান্সির দৃশ্যে অভিনয় করতে হয়েছে কাপুরকে। ছবিতে ওজন বাড়াতে হয়েছে শ্রদ্ধা কাপুরকে।


এ নিয়ে এক সাক্ষাৎকারে আনন্দবাজারকে এ বলিউড অভিনেত্রী বলেন. যখনই কোনও নতুন ছবির কাজ শুরু করি, মনের মধ্যে একটা ভয় সব সময় কাজ করে। তবে একঘেয়ে কাজ আমার পছন্দ নয়। খুব তাড়াতাড়ি বোরড হয়ে যাই। বিভিন্ন ধরনের চরিত্র, ছবির গল্প আমাকে আকৃষ্ট করে। হাসিনা পার্কার সম্পর্কে মানুষ বেশি জানে না। এই ছবি হাসিনাকে জনসমক্ষে আনবে।


অভিনয়ের সময় খাওয়াদাওয়ার ব্যাপারে তেমন কোনও বাধানিষেধ ছিল না। আর এমনিতেও আমি বেশ ফুডি। তাই মন-প্রাণ খুলেই খেয়েছি। ওয়ার্ক আউটও একদম বন্ধ ছিল। ওজন বাড়লেও হাতে আর পায়ে কিছুতেই মেদ লাগছিল না। তাই কিছুটা প্রস্থেটিক মেকআপের সাহায্য নেওয়া হয়েছিল। চরিত্রটির জন্য অনেক রকমের লুক টেস্ট হয়েছিল। ডার্ক ব্রাউন লেন্স পরেছি, হানি বেসড মেকআপ লাগিয়েছি। প্রথম দিন যখন নিজেকে হাসিনা পার্কারের রূপে দেখেছিলাম, খুব খুশি হয়েছিলাম। শেষমেশ তবে আমার হার্ডওয়র্ক কাজে এল। অবশ্য আসল চ্যালেঞ্জটা এখনই। অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে হচ্ছে।


এ ছাড়া এই ছবিতে প্রথম বার একজন মায়ের চরিত্রে অভিনয় করলাম। হোমওয়র্ক হিসেবে কয়েক জন অন্তঃসত্ত্বা মহিলার ভিডিয়ো-ব্লগ দেখেছিলাম। ছবিতে প্রেগন্যান্সির দৃশ্যের জন্য একটা স্পেশাল বডিস্যুট পরতে হয়েছিল। অভ্যস্ত হওয়ার জন্য সেটা বাড়িতেও পরে থাকতাম।
সূত্র : আনন্দবাজার।

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি