ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭ ২১:৪৬:২৭

বন্ধুর স্ত্রীকে তুলে নিয়ে রাতভর গণধর্ষণ, ভিডিও ধারণ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:০৭ এএম, ১৩ আগস্ট ২০১৭ রবিবার | আপডেট: ০৪:০৬ পিএম, ১৪ আগস্ট ২০১৭ সোমবার

প্রতিকী ছবি

প্রতিকী ছবি

রাজধানীর হাজারীবাগে বন্ধুর সঙ্গে দ্বন্দ্বের জের ধরে তার স্ত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। হাজারীবাগের বাসা থেকে তুলে নিয়ে ওই নারীকে কামরাঙ্গীরচরে একটি মাছের ঘেরে আটকে রেখে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। মোবাইল ফোনে এর ভিডিওচিত্র ধারণ করে ধর্ষকের সহযোগীরা।


ঘটনা কাউকে জানালে ভিডিও ফাঁস ও ওই নারীর শিশু ছেলেমেয়েকে অপহরণের হুমকিও দেওয়া হয়। গত ২৬ মার্চের এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই নারী ৩ আগস্ট হাজারীবাগ থানায় একই এলাকার জুবায়ের খান ও তার আট সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা করেন। পুলিশ দু`জনকে গ্রেফতার করলেও মূল আসামিসহ সাতজন পলাতক।


ভুক্তভোগী গৃহবধূ জানান, তার স্বামী ও জুবায়েরের মধ্যে বন্ধুত্ব ছিল। জুবায়ের তাদের বাসায় নিয়মিত আসত। একপর্যায়ে তাকে কুপ্রস্তাব দিলে জুবায়েরের সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিন্ন করে তার স্বামী। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। গত মার্চে গৃহবধূর স্বামী অসুস্থ হয়ে দীর্ঘদিন হাসপাতালে থাকাকালে ২৬ মার্চ তাকে হাজারীবাগের বাসা থেকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় জুবায়ের ও তার সহযোগীরা। তাকে কামরাঙ্গীরচর এলাকার একটি মাছের ঘেরে আটকে রেখে রাতভর ধর্ষণ করা হয়। জুবায়েরের সহযোগীরা মোবাইল ফোনে এর ভিডিও ধারণ করে রাখে।


ওই নারী জানান, কাউকে ঘটনা জানালে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিল জুবায়ের। তিনি মানসম্মানের ভয়ে সবকিছু মুখ বুজে সহ্য করেছেন। সম্প্রতি স্থানীয়রা সেই ঘটনার দৃশ্য মোবাইল ফোনে দেখার কথা জানান। এ দৃশ্য দেখে স্বামীও তাকে নির্যাতন শুরু করেন। তিনি বাধ্য হয়ে ধর্ষক জুবায়ের ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।


হাজারীবাগ থানার ওসি মীর আলিমুজ্জামান গণমাধ্যমকে বলেন, তারা ওই নারীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করেছেন। মামলার এজাহারভুক্ত নয় আসামির দু`জনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। মূল অভিযুক্তসহ অপর আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।


ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে হাজারীবাগ থানার ওসি বলেন, তারা ভুক্তভোগী নারীর মুখে তা শুনেছেন। এখনও সেই ভিডিও পাওয়া যায়নি। মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে পারলে সবকিছু বেরিয়ে আসবে। পুলিশ সেই চেষ্টা করছে।
//এআর

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি