ঢাকা, সোমবার, ২৮ মে, ২০১৮ ১:৫৫:১৬

Ekushey Television Ltd.

বাবা-মায়ের যে ৭ বদঅভ্যাস সন্তানদের অপছন্দ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:০১ এএম, ১৬ মে ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ১২:৩৩ পিএম, ১৬ মে ২০১৮ বুধবার

শিশু বয়স থেকে সন্তানরা বেড়ে ওঠে বাবা-মায়ের কাছে। সন্তানরা সব ধরণের শিক্ষা পেয়ে থাকে তাদের কাছ থেকে। বাবা-মায়ের ভালো অভ্যাসে সন্তান হয়ে উঠে আদর্শবাদী আর বদঅভ্যাসে হয়ে উঠে বদ মেজাজী। তাই সন্তানের সামনে তারা নিজেরা কি করছে না করছে সেগুলোর প্রতি সতর্ক হওয়া জরুরী।

সন্তানকে যথাযথ বিকশিত করতে চাইলে অবশ্যই তাদের অভ্যাসের উপর নজর দিতে হবে। কোন বদঅভ্যাস থাকলে তা বর্জন করা বাঞ্চনীয়। তবে দেখা যাক, বাবা-মাযের যে বদঅভ্যাস সন্তানের ক্ষতি করে-

১) সন্তানের সামনে ঝগড়া করা

স্বামী-স্ত্রী ঝগড়া হতেই পারে, তাই বলে তাদের সন্তানটির সামনেই ঝগড়া করবে! এই অভ্যাসটা মোটেও সন্তানের জন্য ভালো নয়। এতে সন্তানের মধ্যে নেতিবাচক সাড়া দিবে। তাদের মধ্যে কোন রকম শ্রদ্ধাবোধ তৈরি হবে না। তাই প্রয়োজনে আপনারা অন্য রুমে দরজা বন্ধ করে কিংবা সন্তান যখন সামনে থাকবে না তখন যা ইচ্ছে তাই করুন।

২) সন্তানের সামনেই নেশাজাতীয় খাবার খাওয়া

দেখা যায়, অনেক বাবারাই দুশ্চিন্তা ও যন্ত্রণার মুক্তি পেতে সন্তান সমানে থাকলেও মদ্যপান করে থাকেন। সন্তানের সামনে মদ্যপান বা ধূমপানের অভ্যাস থাকলে তা আপনার সন্তানের শারিরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। কারণ পরবর্তী জীবনে আপনার সন্তানও তা অনুসরণ করতে পারে।

৩) অতিরিক্ত আদর ও শাসন

সন্তানকে অতিরিক্ত আদর করা অভ্যাসটা যেমন খুবই খারাপ তেমনি অতিরিক্ত শাসন করাটাও খুব খারাপ অভ্যাস। সন্তানকে খুব ভালোবাসেন তাই তার সব জিদ পূরণ করছেন এতে ভবিষ্যতে তাকে আয়ত্তে রাখা কঠিন হয়ে যাবে। আবার অতিরিক্ত শাসন করা অনেকেরই অভ্যাস রয়েছে। শাসন করতে হবে ঠিক আছে কিন্তু অতিরিক্ত শাসনে সন্তানের জন্য অমঙ্গল ডেকে আনতে পারে।

৪) নিজের সন্তানই ঠিক

অনেক বাবা-মা আছেন যারা সন্তানের ভুল কখনই চোখে দেখেন না কিংবা ভুল করলেও ভাবতে পারেন না। দেখা গেল আপনার সন্তান বাহিরে কোন অন্যায় করেছে, এখন কেউ একজন বাবা-মাকে বিচার দিতে এলে তারা সন্তানের সামনেই বলে তাদের সন্তান কোন অন্যায় করে নি। এতে সন্তান আরও প্রশ্রয় পেয়ে যাবে।

৫) অসমতা

অনেক অভিভাবকই আছেন যারা তাদের সন্তানকে ছোট বেলা থেকেই বিপরীত লিঙ্গের শিশুর সঙ্গে মিশতে দেয় না। সারাক্ষণ সন্তানকে বলতে থাকে ‘ছেলেরা এমন করে না’, ‘মেয়েদের এটা করতে নেই’। অনেক সময় জোরপূর্বক একসঙ্গে খেলাধূলা করা, আড্ডা দেওয়া বন্ধ করে দেয়। এই অভ্যাসগুলো সন্তানের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

৬) সবসময় শাস্তি দেওয়ার কথা বলে না দেওয়া

অনেক বাবা মায়ের এমন অভ্যাস রয়েছে যারা সবসময় যে কোন কথাতেই সন্তানদের শাস্তি দেওয়ার কথা বলে কিন্তু পরে আর দেয় না। যেমন- ‘আজ থেকে তোমার আইসক্রিম খাওয়া বন্ধ’, তুমি আমার কথা না শুনলে তোমাকে আর কার্টুন দেখতে দেব না। ‘পরীক্ষায় অধিক নাম্বার না পেলে তোমার খেলতে যাওয়া বন্ধ’। এসব অযাথা হুমকী সন্তানরা একসময় বুঝতে পারে। তখন তাদের যা ইচ্ছা তাই করে যায়। পরবর্তী হুমকী আর কাজে লাগে না।

৭) চিৎকার করা কথা বলা

অনেক বাবা-মা চিৎকার করে কথা বলার অভ্যাস রয়েছে। সন্তানের সঙ্গে চিৎকার করে কথা বলার অভ্যাস থাকলে সন্তান পরবর্তীতে কোন কথা শুনবেই না। বরং আপনার সাথে তার সম্পর্ক নষ্ট হবে।

কেএনইউ/

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি