ঢাকা, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ৪:২৮:২৭

বিচারপতি মানিকের বক্তব্য আদালত অবমাননার শামিল : মির্জা ফখরুল

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:০৪ এএম, ২৭ আগস্ট ২০১৭ রবিবার

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,বিচার বিভাগ নিয়ে সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরীর বক্তব্য সংবিধান লঙ্ঘনের শামিল। আদালত নিয়ে তিনি যা বলেছেন, তা স্পষ্ট আদালত অবমাননা।


জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে রোববার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে তাঁর সমাধিতে বিএনপির পক্ষ থেকে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে মির্জা ফখরুল এ মন্তব্য করেন।


বিএনপির মহাসচিব বলেন, সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সব বিচারপতি সর্বসম্মতিক্রমে ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় দিয়েছেন। এ বিষয়ে প্রশ্ন তুলে যে ভাষায় সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী কথা বলেছেন, তাতে মনে হয় না যে তাঁর বিচারপতি হওয়ার যোগ্যতা ছিল।


শনিবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় ষোড়শ সংশোধনীর রায় ও রায়ের পর্যবেক্ষণ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক। তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বাংলাদেশে থাকার কোনো অধিকার নেই।


বিচারপতি মানিক বলেন, ২৫ দিনে ৪০০ পৃষ্ঠার রায় কোনোভাবেই লেখা সম্ভব নয়। উনি মাত্র ২৫ দিনের মধ্যে ৪০০ পৃষ্ঠার কথা লিখেছেন, যেটা ইমপসিবল (অসম্ভব), যেটা হতে পারে না। এটা তাঁর লেখা রায় মোটেও নয়। ওই সময় প্রধান বিচারপতিকে উদ্দেশ করে সাবেক এই বিচারপতি বলেন, সবচেয়ে বড় কথা, তুমি শুধু প্রধান বিচারপতির পদ ছাড়বা না, এই দেশ ছাড়তে হবে। এ দেশে থাকার কোনো অধিকার তোমার নাই। তুমি যখন বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব স্বীকার করো না, যেটা বিশ্ববাসী স্বীকার করে।


মানিকের ওই বক্তব্যের একদিন পর বিএনপির মহাসচিব বলেন, প্রধান বিচারপতির বিষয়টি জনগণ বিবেচনা করবেন। সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সব বিচারপতির সর্বসম্মতিক্রমে ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় দিয়েছেন। এই বিষয়ে প্রশ্ন তুলে, যে ভাষায় সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক কথা বলেছেন, তাতে মনে হয় না যে তাঁর বিচারপতি হওয়ার যোগ্যতা ছিল।
মির্জা ফখরুল আরও বলেন, আদালত নিয়ে তিনি (ফখরুল) যা বলেছেন, তা স্পষ্টত আদালত অবমাননা।

//এআর

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি