ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৮ ৫:১৩:৪৯

Ekushey Television Ltd.

ভ্রু নাচানো প্রিয়ার সেই গানটি ইউটিউব কাঁপাচ্ছে  

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:৫৪ পিএম, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ মঙ্গলবার | আপডেট: ১২:১১ এএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বুধবার

সিনেমাটির নায়িকাও নন তিনি, তেমন কোনো গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রেও ছিলেন না। অথচ তিনিই হয়ে উঠলেন সিনেমাটির বিজ্ঞাপন। বলা যায়, তিনিই এখন তার ইন্ডাস্ট্রির সাইনবোর্ড হয়ে গেছেন। যারা কোনোদিন মালায়ম সিনেমার খবর রাখেননি কিংবা জানতেনও না এ নামের ভাষার সিনেমার জন্য কোনো ইন্ডাস্ট্রি আছে তারাও এবার ঘাঁটছেন মালায়াম সিনেমা। ইউটিউবে দেখে নিচ্ছেন ‘প্রিয়া প্রকাশ ওয়ারিয়র’ নামের যা পাচ্ছেন তাই। 

ঠিকই ধরেছেন। ভ্রু কাঁপানো সেই মেয়েটির কথা বলা হচ্ছে যিনি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন সবেচেয়ে বেশি আলোচিত। গালে টোল পড়া লাস্যময়ী এই  তরুণীকে নিয়ে বিশ্বজুড়ে তোলপাড়ের মূলে রয়েছে দিন কয়েক আগেই ফেসবুকে প্রকাশ হওয়া একটি ভিডিও ক্লিপ। সেখানে একটি হাস্যোজ্জ্বল মুখের কিশোরীর চোখ ঘুরে গেল এক হাস্যোজ্জ্বল কিশোরের দিকে। বিগলিত কিশোর সুকৌশলে নিজের হাসিমাখা মুখে এক চোখের ভ্রু নাচিয়ে দিলেন। 

নিমিষেই ওই কিশোরী প্রথমে এক ভ্রু পরে দ্বিতীয় ভ্রু সুনিপুণভাবে নাচিয়ে দিলেন। রীতিমতো বিস্ময়কর। এরপর ওই কিশোরও একইভাবে নিজের দুই ভ্রু নাচিয়ে দিলেন। এরপর মেয়েটির কর্মকাণ্ডে অবাক হবার পালা। মেয়েটি হাসিমুখে চোখ টিপ দিলেন।মেয়েটির এমন ভাব দেখে ছেলেটি অত্যন্ত আবেগে সুখের জোয়ারে ভেসে গেলো। প্রেমমাখা লজ্জায় মুখ লুকালেন বন্ধুর কাছে। মাত্র কয়েক সেকেন্ডের ভিডিও। এ কয়েক সেকেন্ডেই যেন বলা হয়ে গেল না বলা অনেক কথা। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেল, এই ভিডিওটি দক্ষিণী সিনেমার একটি গানের অংশ। ৩ মার্চ মুক্তির অপেক্ষায় থাকা সেই ছবির নাম ‘ওরু আদার লাভ’। ছবিটি পরিচালনা করছেন ওমর লুলু। গানটির শিরোনাম ‘মাণিক্য মালারায়া পুভি’। 

ছবিটির প্রচারণার অংশ হিসেবে প্রকাশ হয় গানটি। আর এটি প্রকাশের পরই রীতিমতো ঝড় বইছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সোশ্যাল মিডিয়ার ভিডিও শেয়ারিং এর সর্বোচ্চ প্ল্যাটফরম ইউটিউবের ট্রেন্ডিং ভিডিওর তালিকায় ১৭তম স্থানে উঠে এসেছে এই দৃশ্য। 

তারচেয়েও অবাক করা বিষয় হচ্ছে ৯ ফেব্রুয়ারি প্রকাশ হওয়া ভিডিওটি এরই মধ্যে ৯২ লাখ ভিউ ছাড়িয়ে গেছে। ভিডিওটির কল্যাণে রাতারাতি `সোস্যাল মিডিয়া` তারকা বনে গেছেন প্রিয়া। কয়েকদিনেই ফেসবুকে তার অনুসারির সংখ্যা ছাড়ায় দেড় লাখেরও বেশি। ভ্যারিফাই হয়েছে তার ব্যবহার করা ফেসবুক ও ইন্সটগ্রাম একাউন্ট। বলে রাখা ভাল এটি শুধু সিনেমাটির অফিসিয়িাল ভিডিও’র ফলাফল। এর বাইরেও ইউটিউবে এ গানটির অনেক লিংক পাওয়া যাচ্ছে। সেগুলোতেও ভিউ লাখে লাখ। ভ্রু কাঁপানো সেই মেয়ে কাঁপিয়ে দিলেন ইউটিউবটাও। নায়িকা না হলেও তাকে দেখতেই বারবার এ গানে ক্লিক করছেন লাখ লাখ দর্শক। 

অবাক করার মতো বিষয় হচ্ছে, প্রিয়া প্রকাশ কিন্তু এ সিনেমার নায়িকা নন। ছবির কিছুটা দৃশ্যেই রয়েছেন তিনি। যদিও ঠিক কী চরিত্রে তিনি থাকছেন, সেটা এখনও খোলাসা করেননি নির্মাতা ওমর লুলু। 

ভারতের কেরালার ত্রিচূরের পুনকুন্নামে জন্ম প্রিয়ার। অষ্টাদশী প্রিয়া স্থানীয় ভিমলা কলেজের বিকম ফার্স্ট ইয়ারের ছাত্রী । তার একটা সুন্দর আদুরে ডাক নামও আছে- ‘প্রিয়ু’। 

প্রিয়ার হাইট ৫ফুট ৫ ইঞ্চি, ওজন ৪৮ কেজি। তার চোখের রঙ কালো এবং চুল বাদামি। ডান্স-ট্র্যাভেলিং এবং গান গাওয়া প্রিয়া অন্যতম ফেভারিট অভ্যাস। প্রিয়া একজন ক্লাসিক্যাল ডান্সার। ছোটবেলা থেকেই প্রিয়ার নাচে প্রবল আগ্রহ। মোহিনিনাট্যম-এ এক ট্রেনড ডান্সার তিনি। বন্ধু মহলে বিপুল জনপ্রিয় তিনি। 

মূলত গায়িকা এবং মডেল হিসাবেই প্রিয়াকে চেনে ত্রিচূর। বলতে গেলে অভিনয়ের জগতে পা রাখার আগে এই দুই ক্ষেত্রই প্রিয়াকে ত্রিচূরে বিপুল জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছিল। 

‘ওরু আদর লাভ’- এর এ ভাইরাল হওয়া গানটি নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্য়াকাউন্টেও শেয়ার করেছেন প্রিয়া। ভিডিওটি ভাইরাল করার জন্য লোকজনকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন তিনি। যেভাবে লোকজন হুমড়ে খেয়ে ভিডিওটি দেখছেন তাতে বেজায় খুশি তিনি।

এর আগে ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবি-র ‘চান্না মেরেয়া’ গানটি নিজের গলায় গেয়ে তার একটি ভিডিও ইউটিউবে শেয়ার করেছিলেন প্রিয়া। সেই ভিডিওটি বিপুলভাবে ভাইরাল হয়েছিল।

কেআই/এসি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি