ঢাকা, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২:৪৫:২৪

মধ্যরাতে রবের বাসায় রাজনীতিবিদদের বৈঠক

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৮:৪২ এএম, ১৪ জুলাই ২০১৭ শুক্রবার | আপডেট: ০৫:১৭ পিএম, ১৫ জুলাই ২০১৭ শনিবার

আ স ম আবদুর রবের উত্তরার বাসায় বৃহস্পতিবার রাতে কয়েকজন রাজনীতিবিদ বৈঠক করেন; ফাইল ছবি

আ স ম আবদুর রবের উত্তরার বাসায় বৃহস্পতিবার রাতে কয়েকজন রাজনীতিবিদ বৈঠক করেন; ফাইল ছবি

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি নেতা আ স ম আবদুর রবের বাসায় সাবেক রাষ্ট্রপতি এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, আবদুল কাদের সিদ্দিকী, মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ কয়েকজন রাজনীতিবিদের বৈঠক হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর উত্তরায় রবের বাসায় এ বৈঠক হয়। যদিও আয়োজকদের পক্ষ থেকে এই বৈঠককে ‘চা চক্র’ বলা হচ্ছে। পুলিশের বাধায় অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করতে হয়েছে।

বৈঠক সূত্র জানায়, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি সাইফুল হক, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান ও বজলুর রশীদ ফিরোজ, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, গণফোরামের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সুব্রত চৌধুরী ও শফিউল্লাহ, বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী এতে উপস্থিত ছিলেন। সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারও সেখানে ছিলেন বলে জানা গেছে।

বদিউল আলম মজুমদার গণমাধ্যমকে জানান, রবের দাওয়াতে রাত ৮টার দিকে ওই বাসায় গিয়েছিলেন। পুলিশ আসার পর রাত ১১টার দিকে তারা খাওয়া-দাওয়া সেরে যার যার মতো করে চলে যান। ওই আয়োজনকে ঈদ পরবর্তী পুনর্মিলনী দাবি করে বদিউল আলম বলেন, এ অনুষ্ঠানে এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হব ভাবিনি।

বৈঠকে অংশ নেয়া এক নেতা বলেন, এটি নিছকই চা-চক্র। এখানে রাজনীতি ও দেশের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা উঠে এসেছে। পাশাপাশি বন্যা পরিস্থিতি, রাজধানীর জলাবদ্ধতা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, গুম-খুন-বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, ফরহাদ মজহার অপহরণ ঘটনা নিয়েও কথা হয়।

এ বিষয়ে আ স ম আবদুর রব বৃহস্পতিবার রাতে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমার বাসায় রাজনীতিকদের চা-চক্রের দাওয়াত দিয়েছি। ঘরে ভেতর চা-চক্র করতে পুলিশের অনুমতি লাগে না। এখানে পুলিশের কোনো বিষয় না। আমি পুলিশ কর্মকর্তাকে বলেছি, এখানে রাজনৈতিক কোনো বিষয় না। তোমরা এখন যাও। তারপরও তারা বাসার সামনে অবস্থান নিয়ে অতিথিদের প্রবেশে বাধা দেয়।’

বি চৌধুরী, আ স ম রব, মাহমুদুর রহমান মান্না ও আবদুল কাদের সিদ্দিকী গত কয়েক বছর ধরে আওয়ামী লীগ-বিএনপির বাইরে ‘বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি’ গড়ে তোলার কথা বলছেন। যদিও সেটি আজও দৃশ্যমান হয়নি।

সূত্র আরও জানায়, ওই বৈঠকে সিপিবি’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরউল্লাহ, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকির অংশ নেয়ার কথা থাকলেও তারা উপস্থিত ছিলেন না।

//এআর

 

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি