ঢাকা, শনিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৮ ২১:৩৩:২৩

Ekushey Television Ltd.

মান্নানের বাসায় হাসান সরকার

আলী আদনান

প্রকাশিত : ০৪:১২ পিএম, ১০ এপ্রিল ২০১৮ মঙ্গলবার

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার সহযোগিতা চাইতে বর্তমান মেয়র অধ্যাপক এম এ মান্নানের বাসায় গিয়েছেন। আজ মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় তিনি মেয়রের মহাখালীর ডিওএসএইচের বাসভবনে যান। সেখানে দুই নেতার মধ্যে নির্বাচন নিয়ে কথা হয়। দলীয় প্রার্থীকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন এম এ মান্নান।

প্রসঙ্গত গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও বর্তমান মেয়র অধ্যাপক এম এ মান্নান এবং কেন্দ্রীয় নির্বিহী কমিটির সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য হাসান উদ্দিন সরকার। বহু হিসেব নিকেশ আর জল্পনা-কল্পনার পর বিএনপি সোমবার রাতে হাসান উদ্দিন সরকারকে গাজীপুরে মনোনয়ন দেয়। মনোনয়ন পেয়ে আজ দুপুরে হাসান উদ্দিন সরকার দোয়া চাইতে এবং সহায়তা চাইতে এম এ মান্নানের বাসায় যান।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর জেলা বিএনপির সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক ও মেয়র পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী শওকত হোসেন সরকার, জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক সোহরাব হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক মাহাবুবুল আলম শুক্কুর, বিএনপি নেতা কবীর আহমেদ, বশীর উদ্দিন বাচ্চু, জুন্নুরাইন সোহেল প্রমুখ।

দুই নেতার বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এমন নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এমএ মান্নান এ সময় হাসান উদ্দিন সরকারকে মনোনয়ন পাওয়ায় অভিনন্দন জানান। নির্বাচনে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন। এ সময় তিনি বলেন, গত নির্বাচনে আপনি যেভাবে আমাকে সহযোগিতা করেছেন, এবারো ঠিক সেই ভাবে আমি আপনার পাশে আছি, থাকব। আওয়ামী লীগকে কোনো ছাড় নয়। গাজীপুরে দলীয় প্রার্থী জয়ী করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মান্নান।

প্রসঙ্গত, গাজীপুরের রাজনীতিতে দেড় দশকেরও বেশি সময় ধরে এই দুই নেতার মধ্যে সম্পর্কটা এমন যে, এই ভালো তো, এই মন্দ। তাদের রাজনৈতিক মতবিরোধ ও বৈরি সম্পর্ক বিভিন্ন সময়ে দেখে আসছে দলের নেতাকর্মীরা। ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনে গাজীপুর-২ আসনের দলীয় মনোনয়ন নিয়ে রেষারেষি চরম আকার ধারণ করে। দীর্ঘদিনের সেই দূরত্ব ঘুচে ২০১৩ সালের সিটি নির্বাচনে। এম এ মান্নান দলীয় মনোনয়ন পেলে হাসান সরকার সব বিভেদ ভুলে তার পক্ষে সর্বশক্তি নিয়ে ঝাপিয়ে পড়েন। দলীয় প্রার্থীর জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। তবে নির্বাচনের পর আবারও দূরত্ব সৃষ্টি হয় গাজীপুরের রাজনীতিতে শক্ত অবস্থানে থাকা এ দুই নেতার মধ্যে। এমতাবস্থায় আসন্ন নির্বাচন সামনে রেখে এ দুই নেতার সাক্ষাৎ নির্বাচনে সুফল নিয়ে আসতে পারে বলে মনে করছেন স্থানীয় বিএনপি নেতারা।

/ এআর /

 

 

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি