ঢাকা, সোমবার, ২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ৩:৫৩:৫৬

Ekushey Television Ltd.

মা-বাবার মৃত্যুর ৪ বছর পর সন্তানের জন্ম!   

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৫:৩১ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৬:১২ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০১৮ বৃহস্পতিবার

চীনা গাড়ি দুর্ঘটনায় এক দম্পতির মৃত্যু হয়েছিলো ২০১৩ সালে। কিন্তু তাদের মৃত্যুর চার বছর পর তাদের সন্তানের জন্ম হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে চীনে।

চীনের ওই স্বামী-স্ত্রীর নাম শেন লি ও লিউ শি। তাদের ভ্রূণ নিজের গর্ভে ধারণ করে সন্তান জন্ম দেন সারোগেট (গর্ভ ভাড়া) এক মা।     

জানা গেছে, ২০১৩ সালের মার্চে গাড়ি দুর্ঘটনায় তিয়ানতিয়ান নামে ওই শিশুর মা-বাবা মারা যান। কিন্তু মৃত্যুর আগে নিজেদের ডিম্বাণু-শুক্রাণু আইভিএফ-এর মাধ্যমে সন্তান জন্মদানের জন্য জমা রেখেছিলেন তারা। আইভিএফ পদ্ধতিতে শরীরের বাইরে বিশেষ পদ্ধতিতে শুক্রাণু ও ডিম্বাণু নিষিক্ত করা হয়। এ প্রক্রিয়ায় ডিম্বাণু ও শুক্রাণু আলাদা করে সংগ্রহ করে বাইরে টেস্টটিউবের মাধ্যমে কিংবা গর্ভ ভাড়া করে অন্য একজনের গর্ভে প্রতিস্থাপন করে সন্তান জন্ম দেওয়া হয়।   

হিমায়িত ভ্রূণ ব্যবহার করে জন্মদান প্রক্রিয়াটির অনুমতি পাওয়ার জন্য নিহত ওই দম্পতির অভিভাবকদের দুটি ভিন্ন ভিন্ন মামলা লড়তে হয়েছিল। কারণ, চীনে এ সংক্রান্ত আইন নাই। চীনে গর্ভ ভাড়া করা আইনত দণ্ডনীয়। অবশেষে লাওসের এক সারোগেট মা ওই সন্তানের জন্ম দেন।

জানা গেছে, লাওসে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে মৃত মা-বাবার ভ্রূণ সারোগেট মায়ের গর্ভে দেওয়া হয়। পরে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে একটি শিশু জন্ম দেন সারোগেট মা। ছেলে সন্তানটির নাম রাখা হয়েছে শিয়ায়েনশিয়ান। মান্দারিন ভাষায় এর অর্থ-মিষ্টি।

তিয়ানতিয়ানের নাগরিকত্ব নিয়ে এরপর শুরু হয় আরেক সমস্যা। কারণ তিয়ানতিয়ানের জন্ম চীনে নয়। লাওসে। তার সারোগেট মা পর্যটন ভিসা নিয়ে সেখানে গিয়েছিলেন।

দাদা-দাদি ও নানা-নানিকে এরপর রক্ত দিতে হয়। ডিএনএ পরীক্ষাও দিতে হয়। এরপর প্রমাণ মেলে যে তিয়ানতিয়ানই তাঁদের নাতি। ফলে চীনের নাগরিকত্ব পায় তিয়ানতিয়ান।

মৃত ওই দম্পতির বাবা-মা ছেলেটির জন্মের পর খুবই খুশী। তারা জানান, শিশুটি বড় হলে তার জন্মের এই ঘটনাটি জানাবেন। এর আগ পর্যন্ত তার বাবা-মা বিদেশ থাকে বলবেন।  

সূত্র: সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট

একে//এসি

 

ফটো গ্যালারি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি