ঢাকা, বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ৩:৪৭:২৮

চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে বাংলাদেশ

মুশফিকের পর বিদায় নিলেন মমিনুলও

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:৩৪ এএম, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৪:২৭ পিএম, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বৃহস্পতিবার

তৃতীয় দিন সকালে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসটাকে খুব একটা বাড়তে দেননি মুস্তাফিজুর রহমান। নাথান লায়নকে ফিরিয়ে দিয়ে সফরকারীদের ইনিংসটাকে ৩৭৭ রানেই থামিয়ে দেন কার্টার মাস্টার। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৩০৫ রানের জবাবে অস্ট্রেলিয়ার ৭২ রানের লিড দাঁড়ায়। জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই একের পর এক উইকেট হারিয়ে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। ৫০ রানের আগেই পাঁচ পাঁচটি অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান হারিয়ে উইকেটে ধুকছে টাইগাররা। পরে অধিনায়ক মুশফিক ও মনিনুলের দৃঢ়তায় কিছুটা আশা খুঁজে পান দর্শকরা। দীর্ঘক্ষণ মাটি কামড়ে উইকেটে থেকে মুশফিক বিদায় নিলে লিড বড় করার স্বপ্ন ধাক্কা খায়। মমিনুল বিপর্যয় কাটিয়ে উঠার পথ দেখালোও শেষ পর্যন্ত বিদায় নেন লায়নের বলে ক্যাচ দিয়ে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের স্কোর ১৪৯/৮। উইকেটে আছেন অলরাউন্ডার মেহেদি মিরাজ ১০ রানে। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে এসেছেন তাইজুল ইসলাম।

এর আগে ব্যাটিংয়ের শুরুতেই ফিরে যান সৌম্য সরকার। প্যাট কামিন্সের বলে ম্যাট রেনশকে ক্যাচ দেন টাইগার ওপেনার। পুরো সিরিজেই নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন সৌম্য। ঢাকায় দুই ইনিংস মিলে ২৩ রান করার পর চট্টগ্রামে দুই ইনিংস মিলে মাত্র ৪২ রান করলেন তিনি।

সৌম্য ফেরার পর  তামিম-ইমরুল মিলে ইনিংসটাকে মেরামত করার চেষ্টা করছিলেন। তবে দলীয় ৩২ রানে নাথান লায়নের বলে এগিয়ে এসে মারতে গিয়ে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন তিনি। আউট হওয়ার আগে ১২ রান করেন তামিম।

তামিমের পর ধৈর্য্য ধরে রাখতে পারেননি ইমরুল কায়েসও। লায়নের লাফিয়ে উঠা বলটা সামলাতে পারেননি তিনি। সামনে দাঁড়িয়ে থাকা ম্যাক্সওয়েল ক্যাচটি লুফিয়ে নেন। এরপর সাকিব আল হাসানকে ওয়ার্নারের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান লায়ন। মাত্র ২ রান করেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।  

পানি পানের বিরতির পর বোলিংয়ে এসেই আঘাত হেনেছেন প্যাট কামিন্স। ফিরিয়ে দিয়েছেন মাটি কামড়ে পড়ে থাকা মুশফিকুর রহিমকে। বাংলাদেশ অধিনায়কের ব্যাট ছুঁয়ে আসা ক্যাচ গ্লাভসে জমান ম্যাথু ওয়েড।

১০৩ বলে একটি চারে ৩১ রান করে মুশফিক ফিরে যাওয়ার সময় বাংলাদেশের স্কোর ১২৯/৭। মুমিনুল হকের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। স্বাগতিকদের লিড তখন ৫৭ রান। কিছুক্ষণ পরই নাথান লায়নের বলে কট বিহাইন্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন মমিনুল।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিনে আর একটি রানও যোগ করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। অসিদের মূলত ঠেকিয়ে দেন বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ৮৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ওয়ার্নার-স্মিথদের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে যান তিনি।  

চার নম্বরে নাসির
 
প্রথম ইনিংসে প্রথম পাঁচে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান নামিয়েছিল বাংলাদেশ। প্রথম চার ব্যাটসম্যান ফিরেছিলেন অফ স্পিনার ন্যাথান লায়নের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং অর্ডারে পরিবর্তন এনেছে বাংলাদেশ। প্রথম তিনটি স্থান ঠিকই আছে। ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো চার নম্বরে নেমেছেন নাসির হোসেন, যিনি প্রথম ইনিংসে আট নম্বরে ব্যাট করেছিলেন।
 
প্রথম ইনিংসে চার নম্বরে ব্যাট করেছিলেন মুমিনুল হক। লম্বা সময় কিপিংয়ের ব্যাপার না থাকলে চার নম্বরে বাংলাদেশের প্রথম পছন্দ মুশফিকুর রহিম। ঢাকা টেস্টের প্রথম ইনিংসে চার নম্বরে নেমেছিলেন সাব্বির রহমান।
 

অস্ট্রেলিয়ার ৭২ রানের লিড
 
৭২ রানের লিড চতুর্থ দিন আর বাড়তে দেননি মুস্তাফিজুর রহমান। কোনো রান যোগ করার আগেই অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস গুটিয়ে দিয়েছেন বাঁহাতি এই পেসার। ৮৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে তিনিই দলের সেরা বোলার।
 
৫৬ রানে অতিথিদের শেষ ৫ উইকেট তুলে নিয়ে লিডটা একশ রানের নিচে রেখেছে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ৩০৫ রান করা স্বাগতিকরা স্টিভেন স্মিথের দলকে থামিয়েছে ৩৭৭ রানে।
 
অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ১১৯.৫ ওভারে ৩৭৭ (আগের দিন ৩৭৭/৯) (রেনশ ৪, ওয়ার্নার ১২৩, স্মিথ ৫৮, হ্যান্ডসকম ৮২, ম্যাক্সওয়েল ৩৮, কার্টরাইট ১৮, ওয়েড ৮, অ্যাগার ২২, কামিন্স ৪, ও’কিফ ৮*, লায়ন ০; মিরাজ ৩/৯৩, মুস্তাফিজ ৪/৮৪, সাকিব ১/৮২, তাইজুল ১/৭৮, নাসির ০/১৪, মুমিনুল ০/৬, সাব্বির ০/৯)
১১ বল টিকল অস্ট্রেলিয়া
 
চতুর্থ দিন অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস স্থায়ী হয়েছে মাত্র ১১ বল। সাকিব আল হাসান দিনের প্রথম ওভারটি মেডেন নেন। দ্বিতীয় ওভারের পঞ্চম বলে ন্যাথান লায়নকে ফিরিয়ে দেন মুস্তাফিজুর রহমান।  
 
বাঁহাতি পেসারের বলে খোঁচা মেরে স্লিপে ইমরুল কায়েসের হাতে ধরা পড়েন লায়ন। তার বিদায়ে ৩৭৭ রানে গুটিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। চতুর্থ দিন দলটি পারেনি কোনো রান যোগ করতে।
 
আধ ঘণ্টা আগে খেলা শুরু
 
তৃতীয় দিন আড়াই ঘণ্টার বেশি সময়ের খেলা বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে খেলা শুরু হয়েছে নির্ধারিত সময়ের আধ ঘণ্টা আগে- সকালে সাড়ে নয়টায়। সকাল থেকেই পুরো আকাশ মেঘে ঢাকা। চতুর্থ দিন অন্তত ৯৮ ওভার খেলা হবে।
 
জয়ের আশায় বাংলাদেশ
 
অস্ট্রেলিয়া এগিয়ে ৭২ রানে, হাতে রয়েছে ১ উইকেট। লিড আরও বাড়ার সুযোগ রয়েছে। তবে মুস্তাফিজুর রহমান আশাবাদী, ব্যাটসম্যানরা দ্বিতীয় ইনিংসে দায়িত্ব নিয়ে খেললে লড়াইয়ের পুঁজি মিলবে।  
 
তৃতীয় দিন শেষে স্কোর:
 
বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৩০৫
 
অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ১১৮ ওভারে ৩৭৭/৯ (আগের দিন ২২৫/২) (রেনশ ৪, ওয়ার্নার ১২৩, স্মিথ ৫৮, হ্যান্ডসকম ৮২, ম্যাক্সওয়েল ৩৮, কার্টরাইট ১৮, ওয়েড ৮, অ্যাগার ২২, কামিন্স ৪, ও’কিফ ৮*, লায়ন ০*; মিরাজ ৩/৯৩, মুস্তাফিজ ৩/৮৪, সাকিব ১/৮২, তাইজুল ১/৭৮, নাসির ০/১৪, মুমিনুল ০/৬, সাব্বির ০/৯)

সূত্র : ক্রিকইনফো।

//এআর

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি