ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে, ২০১৮ ১৯:০১:১৮

Ekushey Television Ltd.

মেলানিয়া ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নকলের অভিযোগ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৩:২১ পিএম, ৮ মে ২০১৮ মঙ্গলবার

যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প অনলাইনে শিশুদের নিরাপত্তা বিষয়ে যে বুকলেট প্রকাশ করেছেন, সেটি কি ওবামা শাসনামলে একই বিষয়ে প্রকাশ করা বুকলেটের হুবহু নকল, খোদ এমন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে।

মাত্র গতকালই বেশ ঢাক-ঢোল পিটিয়ে মেলানিয়া ট্রাম্প শিশুদের অনলাইনে নিরাপদ রাখার বিষয়ে তার প্রচারণা শুরু করেছেন। এ উপলক্ষে তাঁর প্রকাশ করা বুকলেটটির নাম "টকিং উইথ কিডস এবাউট বিয়িং অনলাইন"। এটির সঙ্গে ব্যাপক মিল রয়েছে চার বছর আগে ওবামা প্রশাসনের সময় বের করা একই বিষয়ক একটি বুকলেটের। দুটি বুকলেটের আকারে শুধু নয়, লেখাতেও অনেক মিল।

এই দুটি বুকলেটের অদ্ভূত মিল নিয়ে টুইটারে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। দ্য রুড পান্ডিত নামে একজন লিখেছেন, `মজার তথ্য: হোয়াইট হাউজ `টকিং উইথ কিডস এবাউট বিয়িং অনলাইন` নামে ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প এবং `ফেডারেল ট্রেড কমিশনের` বুকলেট নিয়ে ঢাক পেটাচ্ছে। আসলে বুকলেটটির ভূমিকাটি ছাড়া আর পুরোটাই ওবামা আমলে এফটিসি`র প্রকাশ করা বুকলেটের হুবহু নকল।"

ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প বলেছেন, তিনি `বি বেস্ট` বলে যে প্রচারণার উদ্যোগ নিয়েছেন, সেটির উদ্দেশ্য শিশুদের সামাজিক, মানসিক এবং শারীরিক স্বাস্থ্যের গুরুত্ব সম্পর্কে শিক্ষা দেয়া। সোমবার হোয়াইট হাউজের রোজ গার্ডেনে তিনি এটির উদ্বোধন করেন। তিনি বলেন, সোশ্যাল মিডিয়া শিশুদের ওপর ইতিবাচক এবং নেতিবাচক- দু ধরণের প্রভাবই রাখতে পারে। কিন্তু বেশিরভাগ সময় একটি নেতিবাচক ভাবেই ব্যবহার করা হয়।

মেলানিয়া ট্রাম্প `সাইবার বুলিয়িং` বা অনলাইনে লোকজনকে যারা উত্যক্ত-হয়রানি করে, তাদের বিরুদ্ধে কাজ করার কথা বলেছেন এর আগেও। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই তার স্বামী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেই যেভাবে টুইটারে বিভিন্ন আক্রমণাত্মক পোস্ট দেন সেগুলির প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন। সাংবাদিক ক্যাথি আরিউ লিখেছেন, মেলানিয়া সাইবার বুলিদের বিরুদ্ধে কথা বলছেন। এটা পরিহাসের মতো শোনাচ্ছে। তার স্বামী নিজেই একজন বড় সাইবার বুলি বলে পরিচিত।

মেলানিয়া ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নকলের অভিযোগ নিয়ে এ ধরণের বিতর্ক আগেও হয়েছে। দুবছর আগে রিপাব্লিকান পার্টির সম্মেলনে তিনি দৃঢ় পারিবারিক মূল্যবোধ সম্পর্কে একটি বক্তৃতা দেন। সেই বক্তৃতাও ছিল সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামার দেয়া একটি বক্তৃতার প্রায় হুবহু নকল।

সূত্র: বিবিসি বাংলা
এমজে/

ফটো গ্যালারি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি