ঢাকা, সোমবার, ২৮ মে, ২০১৮ ১:৫১:০৭

Ekushey Television Ltd.

রোহিঙ্গা সঙ্কটের অবসান ঘটাতে হবে : নিরাপত্তা পরিষদ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৬:২০ পিএম, ৩০ এপ্রিল ২০১৮ সোমবার

রোহিঙ্গা পরিস্থিতিকে একটি মানবিক সঙ্কট এবং মানবাধিকারের সঙ্কট হিসেবে দেখছেন জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধি দল। তারা বলেছেন, সঙ্কটের সমাধান না করে এই সমস্যা এভাবে ফেলে রাখা যায় না। রোহিঙ্গা ক্যাম্প ঘুরে দেখে সোমবার ঢাকা ছাড়ার আগে নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধি দলের পক্ষে কুয়েতের স্থায়ী প্রতিনিধি মনসুর আয়াদ আল-ওতাইবি বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের বলেন, যে বার্তা আমরা মিয়ানমার, রোহিঙ্গা শরণার্থী আর পুরো বিশ্বকে দিতে চাই, তা হল এই সঙ্কটের অবসান ঘটাতে এবং সমাধানের একটি পথ খুঁজে বের করতে আমরা বদ্ধপরিকর।
প্রতিনিধি দলের নেতা নিরাপত্তা পরিষদের চলতি মাসের সভাপতি গুস্তাবো আদোলফো মেসা কুয়াদ্রা ভেলাসকাসও ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, মিয়ানমারের সেনবাহিনীর বর্বরতা থেকে বাঁচতে দেশটির রাখাইন প্রদেশের রোহিঙ্গা দলে দলে নাফ নদী পেরিয়ে বাংলাদেশে এসে অবস্থান নিয়েছে। এ পর্যন্ত প্রায় ৮ লাখ রোহিঙ্গার আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ। তাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বারবার বলে আসছে বাংলাদেশ সরকার।
পরিপ্রেক্ষিতে জাতিসংঘের সবচেয়ে ক্ষমতাধর পর্ষদ হিসেবে বিবেচিত নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ দেশের প্রতিনিধিসহ ৪০ সদস্যের এই প্রতিনিধি দলের সদস্যরা রোববার কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ঘুরে দেখেন। সোমবার তারা রওয়ানা হন মিয়ানমারের নেপিদোর উদ্দেশ্যে।
গতবছর অগাস্টে মিয়ানমারের রাখাইন থেকে নতুন করে রোহিঙ্গাদের ঢল শুরু হয়ার পর এই প্রথম জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের কোনো প্রতিনিধি দলে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করল।
মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ব্যাপক হত্যা নির্যাতনের মুখে গত আট মাসে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। সেনাবাহিনীর ওই অভিযানকে জাতিসংঘ বর্ণনা করে আসছে জাতিগত নির্মূল অভিযান হিসেবে।
নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্য দেশের প্রতিনিধিরা রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি দেখতে বাংলাদেশে এলেও এই সঙ্কটে জাতিসংঘের এই পর্ষদ কীভাবে সম্পৃক্ত হবে তা নিয়ে মিয়ানমারের দুই মিত্র দেশ রাশিয়া ও চীনের ভিন্নমত ছিল।   
কুয়েতের প্রতিনিধি মনসুর আয়াদ আল-ওতাইবি এক প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের বলেন, চীন বা রাশিয়ার দিক থেকে কোনো বাধা তিনি দেখেননি।
তারা নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য এবং তারাও আমাদের সাথে আছে। তাদের বক্তব্য গতকাল আপানারা শুনেছেন। আজ তারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন এবং এই সঙ্কটের সমাধানে পৌঁছানোর ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন।
অবশ্য তারা যে এ সমস্যার  সহজ বা তাৎক্ষণিক কোনো সমাধান দেখতে পাচ্ছেন না, সে কথাও বলেন  মনসুর আয়াদ আল-ওতাইবি।
এর আগে তারা গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহার রিজভী,পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম উপস্থিত ছিলেন।
/ এআর /

ফটো গ্যালারি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি