ঢাকা, শনিবার, ২১ জুলাই, ২০১৮ ১:৪৭:২০

Ekushey Television Ltd.

‘শুদ্ধভাবে কথা বলতে পারলেই কল সেন্টারে চাকরি’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৪২ পিএম, ১৬ এপ্রিল ২০১৮ সোমবার | আপডেট: ১১:১৬ এএম, ২২ এপ্রিল ২০১৮ রবিবার

যদিও বাংলা আমাদের মাতৃভাষা, কিন্তু আমরা অধিকাংশ লোকই সঠিক ও শুদ্ধভাবে বাংলা উচ্চারণ করতে পারি না। এটা শুধু গ্রামের নয়, বরং শহরাঞ্চলে অনেক শিক্ষিত মানুষ এই ভুল প্রতিনিয়ত করে যাচ্ছে।  অথচ এই ভুল কাটিয়ে উঠতে পারলেই দেশের মোট বেকারদের মধ্যে প্রায় অর্ধেকের চাকরির ব্যবস্থা করা সম্ভব। এমনটিই মনে করেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিংয়ের সাবেক প্রেসিডেন্ট আহমেদুল হক।
রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে দু’দিনব্যাপী বিপিও সামিটের দ্বিতীয় দিনে আজ সোমবার সকালের সেশনে বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।
সামিটের এক ফাঁকে একুশে টেলিভিশন অনলাইনকে আহমেদুল হক বলেন, বিশ্বে ৩৫ টি দেশে বাংলা ভাষা-ভাষী লোক বাস করছে। বাংলায় নিয়মিত কথা বলে ৩৫ কোটি মানুষ। ফলে যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিপ্লবের ফলে কল সেন্টারগুলোতে প্রতিনিয়ত তরুণ তরুণীদের চাহিদা বাড়ছে। কিন্তু পর্যাপ্ত দক্ষ তরুণ তরুণীর সংকট এ বাজারে রয়েছে।
এসব কল সেন্টারে কাজ করার জন্য কেমন দক্ষ কর্মী দরকার এমন প্রশ্নের জবাবে আহমেদুল হক বলেন, কে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়লো, কোন বিষয়ে স্নাতক সেটা এখানে দেখা হয় না। তার উচ্চারণ কতটুকু শুদ্ধ ও সুন্দর আদব-কেতা কেমন তা এখানে প্রধান বিবেচ্য বিষয়।
আহমেদুল হক আরও বলেন, বাংলাদেশের ছেলেমেয়েরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ ডিগ্রি নিলেও তাদের মধ্যে দক্ষতা দেখা যায় না। কেউ যদি বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে দক্ষ না হয়, বিশ্ববিদ্যালয় তাকে স্নাতক ডিগ্রী দেওয়া উচিত নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
উল্লেখ্য, বিপিও সামিটের শেষ দিন আজ। এ বছরের মধ্যে ১ লাখ তরুণের চাকরির বাজার সৃষ্টিতে ও দক্ষ জনশক্তি তৈরী করাই এর উদ্দেশ্য।

আআ / এআর



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি