ঢাকা, বুধবার, ২৫ এপ্রিল, ২০১৮ ১০:২৭:২২

Ekushey Television Ltd.

সামান্য মাটি খুঁড়লেই আগুন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:২৩ পিএম, ১০ জানুয়ারি ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ১১:৫৩ পিএম, ১০ জানুয়ারি ২০১৮ বুধবার

অনেকটা জাদুর মত। সামান্য মাটি খুঁড়ে দিয়াশলাই এর কাঠি জ্বালালেই জ্বলে উঠবে আগুন। বেরিয়ে আসবে লেলিহান শিখা।

ভারতের আসানসোল রাজ্যের দামোদার নদীর একটি চরে এমনই দৃশ্য দেখতে পাওয়া যাবে। আর এ উপলক্ষ্যে চলতি শীত মৌসুমে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এখানে পিকনিক করতে আসছেন অনেকেই।

রান্নার জন্য খাবার, মসলা ইত্যাদি পাতিলে বসিয়ে দিয়ে দিয়াশলাই জ্বালিয়ে দিলেই হল। রান্নার জ্বালানি এখানেই আছে। আর সে কারণেই হয়তো পিকনিকের জন্য প্রতিদিন প্রচুর ভীড় জমছে এখানে।

তবে শুনতে আকর্ষণীয় মনে হলেও এর পিছনের কারণ কিন্তু অবশ্য বেশ ভীতিকর। এ চরের মাটির নিচে থাকা কয়লা থেকে উৎপন্ন হয় মিথেন গ্যাস। আর সেই মিথেন গ্যাস বের হয়েই রান্নার চুলার মতই আগুনের জোগাড় দিচ্ছে।

ভারতের আসানসোল একটি কয়লা অঞ্চল। আর কয়লার কারণে এখানে প্রচুর মিথেন গ্যাস উৎপন্ন হয়। আসানসোলের হীরাপুর এবং রানিগঞ্জ এলাকায় গ্যাস উত্তোলন করে গ্রেট ইস্টার্ন এনার্জি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। আর সেই গ্যাসই দামোদারের চর থেকে বের হয়ে আসছে। রান্নার কোনো ঝামেলা নেই বলে বনভোজন, চড়ুইভাতি করতে ভিড় জমাচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দারাও।

এখন পর্যন্ত এ গ্যাসের প্রভাবে বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি না হলেও নদীর পানিতেও দেখা গেছে গ্যাসের বুদবুদ। আর তাতে বেশ উদ্বীগ্ন জ্বালানী ও পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা।

খনি বিশেষজ্ঞরা দামোদার নদের চরে পিকনিক করা থেকে বিরত থাকতে সবাইকে অনুরোধ করেন। যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনার বিষয়ে সতর্কও করেন তারা। বর্ণহীন এবং গন্ধহীন হওয়ায় মিথেন গ্যাসের উপস্থিতি আগে বুঝা যায় না। আর তাই সামান্য স্ফুলিঙ্গেও দাউ দাউ করে জ্বলে উঠতে পারে আগুন।

 

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এসএইচএস//টিকে    

 

ফটো গ্যালারি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি