ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭ ১১:০৪:৫৪

সুনামগঞ্জে বন্যায় ৮৯৩ প্রাথমিকের পরীক্ষা স্থগিত

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৫:২৯ পিএম, ১২ আগস্ট ২০১৭ শনিবার | আপডেট: ০১:৩২ পিএম, ১৩ আগস্ট ২০১৭ রবিবার

সুনামগঞ্জে অব্যাহত পাহাড়ি ঢল ও বর্ষণে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় স্থগিত করা হয়েছে বন্যাকবলিত এলাকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষা। জেলার সাতটি উপজেলার ৮৯৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষা দুই দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। পরিস্থিতির উন্নতি না হলে অন্য চারটি উপজেলার বিদ্যালয়ের পরীক্ষাও স্থগিত করা হবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

এদিকে সুনামগঞ্জ পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি শনিবার দুপুর ১২টায় ৭০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ২০৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে এখন পর্যন্ত টানা বৃষ্টিপাত হচ্ছে। উজানের ঢল ও বৃষ্টিপাতে সুনামগঞ্জ সদর, বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ, দিরাই, দোয়ারাবাজার উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এসব উপজেলার সব রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। এসব উপজেলার সঙ্গে জেলা সদরের যোগাযোগ ব্যবস্থা বিঘ্নিত হচ্ছে। 

সুনামগঞ্জ জেলা সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ২৮১টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্লাবিত হয়েছে। সাতটি উপজেলার ৮৯৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। পরিস্থিতির উন্নতি না হলে অন্য চার উপজেলার পরীক্ষাও স্থগিত করা হবে। বিদ্যালয় প্লাবিত হওয়া ও রাস্তাঘাট তলিয়ে যাওয়ায় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের স্কুলে পাঠাতে ভয় করছেন অভিভাবকরা।

এদিকে কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফয়সাল রায়হান জানিয়েছে ঢল ও বর্ষণ অব্যাহত থাকায় সড়ক, বিদ্যালয়, বাড়িঘরসহ নানা প্রতিষ্ঠান প্লাবিত হয়েছে। তবে প্রশাসন পরিস্থিতি মোকাবিলায় মাঠে কাজ করছে এবং প্রতিটি উপজেলায় জরুরি সহায়তা মজুদ রাখা হয়েছে।

ক্রমাগত পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় রোপা আমনের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করছে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

এ পর্যন্ত প্রায় ২ হাজার হেক্টর জমির রোপা আমন ক্ষেত তলিয়ে গেছে। পানির নিচে তলিয়ে গেছে বীজতলাও। বিশ্বম্ভরপুর ও দোয়াবাজার উপজেলার অন্তত ২০টি পুকুরের মাছ ভেসে গেছে বলে মৎস্য বিভাগ জানিয়েছে। 

জেলা প্রশাসন শুক্রবার সন্ধ্যায় জরুরি ভিত্তিতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা করে প্রতিটি উপজেলায় তাৎক্ষণিক দুর্যোগ মোকাবিলায় ৩ টন চাল ও ১০ হাজার করে টাকা পাঠিয়েছে। আজ সন্ধ্যায় ফের জেলা প্রশাসন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি সভা আহ্বান করেছে। পরিস্থিতি মোকাবিলা ও তাৎক্ষণিক তথ্য সরবরাহের জন্য একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। আজ শনিবার সন্ধ্যায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা আহ্বান করেছেন জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম।

আরকে/ডব্লিউএন


 
 

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি