ঢাকা, শনিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৮ ২২:৫৬:৪০

Ekushey Television Ltd.

সেনা পরিবারের হয়েও সিএমএইচে কেন আস্থা নেই খালেদার : কাদের

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০১:৫৫ পিএম, ১৪ জুন ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৩:৪২ পিএম, ১৪ জুন ২০১৮ বৃহস্পতিবার

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়ার সিএমএইচে চিকিৎসা নিতে রাজি না হওয়ার সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বলেছেন, সেনাবাহিনীর পরিবারের সদস্য হয়েও খালেদা জিয়া কেন সেনাবাহিনীর (সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর) হাসপাতালকে বিশ্বাস করেন না- এটা আমার প্রশ্ন।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর মহাখালী আন্তঃনগর বাস টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত হয়ে খালেদা জিয়া কারাগারে। খালেদা জিয়ার ব্যাক্তিগত চিকিৎসকরা তাঁর সঙ্গে দেখা করে এসে বলেছেন যে, বিএনপির শীর্ষ নেত্রী মাইল্ড স্ট্রোক করেছেন বলে তাদের ধারণা। এমতাবস্থায় তারা খালেদা জিয়াকে বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তির কথা বলেছেন। বিএনপিও কারা কর্তৃপক্ষের কাছে এই দাবি জানিয়েছেন। তবে কারা কর্তৃপক্ষ খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউ অথবা সিএমএইচে চিকিৎসা নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে। তাতে রাজি হন নি খালেদা জিয়া।

এ বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, তিনি (খালেদা জিয়া) যখন বিএসএমএমইউতে যেতে রাজি হননি তখন তাকে সিএমএইচের প্রস্তাব দেওয়া হয়। সিএমএইচ অনেক ভালো হাসপাতাল। এর চেয়ে ভালো চিকিৎসার গ্যারান্টি অন্য কোথাও নেই। সবচেয়ে ভালো ব্যবস্থাপনার হাসপাতালও এটাই। এরপরও তিনি কেন সিএমএইচকে গ্রহণ করছেন না, বুঝলাম না। এটা আর্মির হাসপাতাল। সেনাবাহিনীর পরিবারের সদস্য হয়েও খালেদা কেন সেনাবাহিনীর (সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর) হাসপাতালকে বিশ্বাস করেন না এটাই আমার প্রশ্ন।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা বিএনপির নতুন ইস্যু উল্লেখ করে কাদের বলেন, বিএনপি কি তার চিকিৎসা চান নাকি রাজনীতি করতে চান? বিএনপির নেতারা এটা নিয়ে রাজনীতির ইস্যু খুঁজছে। সিএমএইচ যাদের পছন্দ না, নিশ্চয়ই তারা এ নিয়ে রাজনীতি করছে।

জেল কোড অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউতে নেওয়ার কোনো বিধান নেই। সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ বিষয়ে ওবায়েদুল কাদের বলেন, ইউ আর রং (আপনি ভুল)। তাকে সিএমএইচে নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

/ এআর /



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি