ঢাকা, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২১:০৫:৩৭

২০ বছরের মধ্যে শিশুদের মূর্খ বানাবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৭:০৪ পিএম, ২৩ আগস্ট ২০১৭ বুধবার | আপডেট: ০৯:১৫ পিএম, ২৬ আগস্ট ২০১৭ শনিবার

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আধিপত্যের কারণে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের শিশুরা অশিক্ষিত হবে বলে সতর্ক করেছেন বুকার পুরস্কার বিজয়ী ব্রিটিশ লেখক হাওয়ার্ড জ্যাকবসন।

তিনি বলেন, স্মার্টফোনের ব্যবহার এবং প্রচুর পরিমাণে ফেসবুক, টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মের যোগাযোগের পদ্ধতি বদলে যাচ্ছে। আর এ কারণে এই প্রজন্ম বই পড়ার অভ্যাসও হারিয়ে ফেলছে।

জ্যাকবসন জানান, শুধু তরুণ প্রজন্মই নয়, আমি নিজেও বইয়ের প্রতি আর মনোযোগ দিতে পারছি না। আমার মনোযোগের একটা বড় অংশও চলে যায় মোবাইল-কম্পিউটার স্ক্রিনের পেছনে। আমি আগে যে পরিমাণ বই পড়তে অভ্যস্ত ছিলাম এখন আমার মনোযোগ নেই। তিনি বলেন, আগামী ২০ বছরের মধ্যে এমন শিশুদের পাব যারা পড়তে পারবে না।

পরিসংখ্যান বলছে, পশ্চিমা বিশ্বের শিক্ষার মান এখন অনেক নেমে গেছে। ১৯৮২ সালের পর গত বছরই প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে সাহিত্য পড়ার হার সবচেয়ে কম। গত বছর মাত্র ৪৩ শতাংশ মানুষ বছরে মাত্র একটি বই পড়েছেন। এর বিপরীতে প্রতিদিনই বাড়ছে তরুণদের অনলাইনে কাটানো সময়ের হার। প্রতি সপ্তাহে পাঁচ থেকে ১৫ বছর বয়সীরা গড়ে ১৫ ঘণ্টা অনলাইনে সময় কাটায়।

যুক্তরাষ্ট্রের এক গবেষণায় দেখা গেছে, বর্তমানে কিশোর বয়সীদের মধ্যে একাকিত্বের মাত্রা সবচেয়ে বেশি। ২০০৭ সালে আইফোন বাজারে আসার পর থেকে তাদের মানসিক স্বাস্থ্যেরও অবনতি ঘটেছে অনেক। সূত্র: দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট।।

 

আর/ডব্লিউএন

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি