ঢাকা, শনিবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৮ ২২:৫৬:০৪

Ekushey Television Ltd.

৯১ বছর বয়সি দাদির ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০২:৫৭ পিএম, ৩১ মে ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৩:০২ পিএম, ৩১ মে ২০১৮ বৃহস্পতিবার

৯১ বছর দাদি আর তাঁর ২৫ বছর বয়সি নাতির ঘরোয়া একটি প্রতিযোগিতার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে অনলাইনে। আর এ ভিডিও দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে দর্শকরা। দাদিকে দেখে আপনার চোখও নির্ঘাত কপালে উঠবে!

রস স্মিথ ৫ বছর আগে একটি ভিডিও করতে শুরু করে৷ সেই ভিডিওর একটি বাস্কেটবল শটের জন্যই তিনি দাদির দ্বারস্থ হন৷ দাদি পলিনের তখন থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় যাত্রা শুরু৷ তারপর থেকে তাঁর খ্যাতি তো আকাশচুম্বী৷

নাতি স্মিথ বলেন, ‘‘আমাদের মজা বিশ্বব্যাপী৷ সকলেই জানেন গ্র্যানি মজাদার৷’’ প্রথমদিকের ভিডিওগুলি ভাইরাল হলেও বাণিজ্যিকভাবে সেগুলো লাভজনক হচ্ছিল না৷ কারণ, তখন স্মিথ এমবিএ এবং ফুটবল খেলা নিয়ে ব্যস্ততার জন্য ভিডিওতে মনোনিবেশ করতে পারছিলেন না৷ এরপর তাঁর মনে হয় দাদির সঙ্গে ভিডিও করলেই তিনি ভালো কাজ করতে পারবেন৷ তারপরই তিনি পাকাপাকিভাবে দাদির সঙ্গে কাজ শুরু করেন৷

কখনও দাদি আর নাতি ছোট্ট বল লক্ষ্যে ছুঁড়তে সফল, তো কখনও তারা পোষ্যদের খোঁজে দোকানে গিয়েছেন, এমনি মজাদার সব ভিডিও থেকেই ‘গ্র্যানি’ আজ দারুণ জনপ্রিয়৷

৯০টি বসন্তের রঙ তিনি দেখেছেন৷ ৯১ বছর বয়সে পৌঁছেও তাঁর মন এখনও তরুণ৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি তাঁর জনপ্রিয়তার আস্বাদ নেন চুটিয়ে৷ পথেঘাটে-দোকানে তাঁকে নিয়ে হইচই শুরু হয়৷ তাঁর বেশ মজাই হয় এটা দেখে৷

একটি বাণিজ্যিক সংস্থার কর্মকর্তা রাসেল স্কিনিডার এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘আসলে এখনকার দিনে দাদি আর নাতির মধ্যে এমন সম্পর্ক দেখাই যায় না৷ এ জন্যই তাঁদের ভিডিও লোকে এত পছন্দ করেন৷’’

কথাটা সত্যি৷ নাতি স্মিথও বলেন, ‘‘আজকাল অনেকেই বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের যথাযোগ্য সম্মান দেয় না৷ তখন আমিও সে দলেই পড়তাম৷ বৃদ্ধ হয়ে যাওয়া মানেই ফুরিয়ে যাওয়া, একা থাকা নইলে নার্সিংহোমে থাকা৷ কিন্তু দাদির সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে দেখেছি বৃদ্ধদের জীবনটাও খুব রঙিন৷ তাঁরা ছোট ছোট জিনিসে খুব আনন্দ পায়, আমরা ব্যস্ততার জন্য যেগুলো দেখতেই পাই না, সেগুলো তাঁরা দেখেন ভালো করে৷’’

তাঁদের ভিডিওর জনপ্রিয়তা দেখে স্মিথ অবাক হয়ে যান৷ তাঁরা এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় কাজ করছেন এবং ভবিষ্যতে তাঁরা টেলিভিশনেও কাজ করবেন৷ নিউক্লিয়ার পরিবার, ইঁদুর দৌড়ের ভিড়েও যে সম্পর্ক হারিয়ে যায়নি, তারই প্রমাণ এই দাদি-নাতির ভাইরাল ভিডিও৷ ভাইরাল ভিডিওটি সমাজে সম্পর্কের উষ্ণতা ছড়িয়ে দিচ্ছে৷

এমজে/

 



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি