ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৮ ২০:১১:৪০

Ekushey Television Ltd.

ঋতুস্রাবের সময় ৫ করণীয়

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৩:৩৬ পিএম, ২৭ মে ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০২:৩৯ পিএম, ২ জুন ২০১৮ শনিবার

ঋতুস্রাব বিষয়ে এখনও দ্বিধা কাটিয়ে উঠতে পারেননি অনেকে। তাই মেয়েরা এই বিষয়টি নিয়ে এখনও সর্বসমক্ষে কথা বলতে লজ্জা পায়। কিন্তু মাসের ওই একটা সময় সমস্যা তো থাকেই। কোনও কাজ করতে গেলেই ক্লান্তি। তার উপর রয়েছে বারবার প্যাড পালটানোর ঝামেলা। কিন্তু এই সময়ই স্বাস্থ্যের দিকে সবচেয়ে বেশি নজর রাখা দরকার। কারণ ঋতুস্রাব থেকেই ছড়াতে পারে ইনফেকশন। তাই পিরিয়ডের শুরু থেকেই এবিষয়ে যত্ন নেওয়া উচিত।

নিয়মিত প্যাড পালটাতে হবে

অনেকেই প্যাড বা ট্যাম্পন পালটানোর সময় আলসেমি করেন। কখনও আবার পিরিয়ড কমে এলে প্যাড পালটানোর কথা ভুলে যান। এখান থেকেই ছড়াতে পারে ব্যাকটেরিয়াল বা ভ্যাজাইনাল ইনফেকশন। বিশেষজ্ঞদের মতে, চার ঘণ্টা অন্তর প্যাড পালটানো উচিত। একটি প্যাড তার বেশি সময় পরে থাকলে ইনফেকশনের প্রবণতা বাড়ে। কারণ তা মেনস্ট্রুয়াল ব্লাড ব়্যাশ ও ইউটিআই-এর সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয়। ফলে হাজার ব্যস্ততা থাকুক, নিয়মিত প্যাড পালটানো নিতান্ত দরকার।

নিয়মিত যোনি পরিষ্কার করা দরকার

এই সময় সবথেকে বেশি দরকার যোনি পরিষ্কার রাখা। শুধু প্যাড পালটালেই হবে না। তার সঙ্গে এটিও দরকার। না হলে ব্যাকটেরিয়া সেখানেই থেকে যায়। ফলে পরে সেখান থেকে ইনফেকশন ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকে। আবার এখানেও একটি পদ্ধতি রয়েছে। অনেকে নিয়মিত যোনি পরিষ্কার করেন। কিন্তু সঠিক পদ্ধতিতে নয়। সেটি সামনে থেকে পিছনে। এর ফলে কলুষিত পদার্থ যোনিতে যেতে পারে না।

সব রকম প্রোডাক্ট ব্যবহার করা উচিত নয়

যোনি পরিষ্কার করার জন্য বাইরে থেকে কোনও কেমিক্যাল প্রয়োগ করার দরকার পড়ে না। এটি নিজে থেকেই পরিষ্কার হতে পারে। কারণ এর আশপাশে উপকারী ও ক্ষতিকর, দুই রকম ব্যাকটেরিয়াই থাকে। কোনও কেমিক্যাল প্রয়োগ করলে উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলোও ধ্বংস হয়ে যায়। সেটা কখনই কাম্য নয়। আর যদি তা করতেও হয়, হালকা গরম পানিতে পরিষ্কার করা উচিত।

প্যাড বা ট্যাম্পন, যে কোনও একটি ব্যবহার করুন

পিরিয়ডের সময় যে কোনও একটি জিনিস ব্যবহার করুন। হয় প্যাড বা ট্যাম্পন। কারণ শরীর একটি জিনিসের সঙ্গে সয়ে যায়। তখন অন্য জিনিসের প্রবেশ সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। এক ফলে ব্যাকটেরিয়া তৈরি হতে পারে।

নিয়মিত গোসল করুন

পিরিয়ডসের সময় গোসল করতে ভাল লাগে না ঠিকই। কিন্তু এই সময়ই প্রতিদিন গোসল করা উচিত। এতে দেহের নোংরা বেরিয়ে যায়। বিশেষত গোপনাঙ্গ পরিষ্কার থাকে। এছাড়া ঋতুস্রাবের সময় যে মুড সুইং হয়, সেটি আটকাতেও ম্যাজিকের মতো কাজ করে গোসল।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

একে//



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি