ঢাকা, শুক্রবার, ২০ জুলাই, ২০১৮ ১:২০:৪১

Ekushey Television Ltd.

সন্তানের নাম রাখা নিয়ে ভোটাভুটি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:৩৭ পিএম, ১৯ জুন ২০১৮ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৯:৫১ পিএম, ১৯ জুন ২০১৮ মঙ্গলবার

সন্তানের নাম কী রাখবেন, তা নিয়ে কুল কিনারা না পেয়ে অবশেষে ভোটাভুটির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাবা মা।

এমনই এক ঘটনা ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রের গোন্ডিয়া জেলায়।

গত ৫ এপ্রিল পুত্র সন্তান হয় মিঠুন আর মানসী বাং দম্পত্তির। সন্তানের জন্য কয়েকটি নাম প্রস্তাব আসলেও, একটি নাম বাছায়ের জন্যই এই ভোটের আয়োজন করা হয়।

মানসী বাং জানান, ছেলে হওয়ার পরে আমার শ্বশুরবাড়ি থেকে তার জন্মকুণ্ডলি তৈরি করা হয়। শ্বশুর-মশাই ঠিকুজি দেখে বলেছেন যে, ছেলে একদিন নেতা হবে বা সামাজিক কাজকর্মের সঙ্গে যুক্ত হবে।

তিনি বলেন, কিন্তু সেই ছেলের নাম কী রাখা হবে, তা নিয়ে আমি আর আমার স্ত্রী অনেক ভেবেও কুল কিনারা করতে পারছিলাম না। আমার বড়ভাই আর তার স্ত্রী বলেছিলেন ইয়ক্শ নামটা রাখা যেতে পারে। দিদি আর বোনদের ছেলেমেয়েরা বলেছিল মামা, ইয়ুভান নামটা ভাল। আর দিদি-বোনেরা নাম দিতে চেয়েছিল ইয়োভিক।

এই তিনটি নামের মধ্যে কোন নামটি বেছে নেবেন, তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারছিলেন না কেউই।

বাংয়ের মাথায় তখন আইডিয়া আসে ভোট নেওয়া যেতে পারে! ব্যাস, যেমন কথা তেমন কাজ। ভোটের আয়োজন করা হয় একেবারে নির্বাচনের মতো করেই।

গঠন করা হয় শিশু নির্বাচন কমিশনও। দিন নির্ধারণ করা হয় ভোটের জন্য ১৫ জুন। ছাপা হয়েছিলো ব্যালট পেপার।

ভোট দেওয়ার জন্য ঘেরা জায়গা, তিনটি নামের প্রস্তাব যারা দিয়েছিলেন, তাদের নামে হোর্ডিং - সবই ছিল একেবারে নির্বাচনের মতো।

প্রায় ২০০ জন ভোট দিয়ে দিয়েছেন। তারপরে ভোট গণনা শুরু হয়।

ভোটের ফলাফলে দেখা যায়, ইয়ুভান নামটি জিতে গেছে। এটা ভগবান শিবের আরেকটা নাম।

বাং দম্পতির পাঁচ বছর বয়সী একটি মেয়ে আছে। ওর নাম ভূমি। তার নামকরণ অবশ্য এরকম ভোট নিয়ে করা হয় নি।

 

ফটো গ্যালারি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি