ঢাকা, বুধবার, ১৮ জুলাই, ২০১৮ ২২:৩৭:০৬

Ekushey Television Ltd.

ছেলের জন্য ৮৩ বছর বয়সে বিয়ে!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:৪৭ পিএম, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ মঙ্গলবার | আপডেট: ১১:৪৯ পিএম, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ মঙ্গলবার

বয়স চলছে ৮৩। এটা তার কাছে কিছুই না। এ বয়সেও বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন আবার। অন্যদিকে পাত্রীর বয়স ৩০। বিয়ের উদ্দেশ্য একটাই। সম্পত্তি দেখার জন্য তাঁর একটা ছেলে প্রয়োজন!

সম্প্রতি ভারতের রাজস্থান রাজ্যে এ ঘটনা ঘটেছে। ৮৩ বছর বয়স্ক ওই পাত্রের নাম সুখরাম ভৈরব।

সুখরামের এটা প্রথম বিয়ে নয়। এর আগে থেকেই তিনি বিবাহিত। রয়েছে দুটি মেয়েও। কিন্ত মেয়েরা সম্পত্তি দেখভাল করতে পারবে না বলে মনে করেন সুখরাম। তাই নিজের সহায় সম্পত্তি দেখভালের জন্য একটা ছেলে চাই তাঁর। আর সেই ছেলের আশায় আবার বিয়ে করলেন তিনি।

প্রথম স্ত্রী থাকার পরও দ্বিতীয় বিয়ে করে পুলিশের চোখে অপরাধী হয়ে পড়েছিলেন সুখরাম। কিন্তু সুখরামের প্রথম পক্ষের স্ত্রী বাট্টো স্বামীর দ্বিতীয় বিয়েতে মত দেওয়ায় আপাতত পুলিশি ঝামেলা থেকে নিস্তার পেয়েছেন তিনি।

রাজস্থান রাজ্যের সমরাদা গ্রামে ওই বিয়ে করেন সুখরাম। বিয়েতে আর জাঁকজমক করতে চাননি, মাত্র ১২ জন গ্রামবাসীকে সাক্ষী রেখেছিলেন তিনি। জানা যায়, সুখরাম ভৈরবের প্রথম পক্ষে কন্যা ছাড়াও একটি ছেলে ছিল। কিন্তু আজ থেকে ২০ বছর আগে ছেলেটি মারা যায়। এরপর থেকে হতাশ হয়ে পড়েন সুখরাম ভৈরব। সুখরামের বিপুল সম্পত্তি দেখাশুনার আর কেউ ছিল না। যে কারণে সুখরাম সব সময় চাইতেন তাঁর একটা ছেলে হোক।

সুখরাম জানান, তাঁর প্রথম পক্ষের স্ত্রীর এরইমধ্যে দুটি কন্যা সন্তান আছে। তবে পুত্র সন্তানের আশাতেই এই দ্বিতীয় বিয়ের সিদ্ধান্ত।

স্থানীয় অতিরিক্ত জেলা শাসক রাজনারায়ণ শর্মা বলেন, ‘বিষয়টি শুনেছি। সুখরাম ভৈরবের দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে তথ্য জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।’ ওই গ্রামে গিয়ে বিষয়টি সবিস্তারে শুনবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।


এসি/

ফটো গ্যালারি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি