ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই, ২০১৮ ২:০৩:৪৩

Ekushey Television Ltd.

যে সাইকেল পানিতে চলে (ভিডিওসহ)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:০৫ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০৪:৫৫ পিএম, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ শনিবার

আমাদের অনেকেরই সাইকেল চালানোর অভিজ্ঞতা আছে। কিন্তু পানিতে সাইকেল চালিয়েছেন কখনো? যদি না চালিয়ে থাকেন এবং চালিয়ে এই রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা উপভোগ করতে চান তাহলে আপনার জন্যই বাজারে এসেছে এমন এক সাইকেল; যা পানিতে চলে।

বিভিন্ন জিনিসের নকশাঁ করা নিউজিল্যান্ড ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘মানটা ফাইভ’ গত বছরের নভেম্বর থেকে বাজার জাত করছে এই বিশেষ সাইকেলটি। এক জোড়া হাইড্রো ফয়লার এবং প্রপেলারসহ ইলেক্ট্রিক বাইকের প্রযুক্তির সমন্বয় করে বানানো হয়েছে এই “হাইড্রোফয়লার এক্সই-১” সাইকেলটি।

সাইকেলটিকে পানির ওপরে ভাসিয়ে রাখতে ব্যবহার করা হয়েছে এই হাইড্রো ফয়লার। আর প্যাডেল করে প্রপেলার চালানোর জন্য এতে রয়েছে ৪০০ ওয়াটের একটি ইলেকট্রিক মোটর।

আর হালকা এই দ্বিচক্র যানটিকে তবে মজবুত করার জন্য মূল কাঠামো তৈরিতে ব্যবহার করা হয়েছে কার্বন ফাইবার। তবে চলার পথে চালক যদি হঠাৎ প্যাডেল করা থামিয়ে দেয় অথবা মোটর থেমেও যায় তাতেও সমস্যা নেই। ভাসমান অবস্থা থেকে এমনকি পানির নিচ থেকে আবার এটিকে চালু করে দিব্যি আরামসে চালিয়ে আসা যাবে। খুব সহজেই বহনযোগ্য এই সাইকেলটিকে ভাঁজ করে গাড়ির পিছনে নিয়ে বহন করা যায়।

২০১১ সালে নিজ বাসার গ্যারেজে প্রথম সাইকেলটির ডিজাইন করেন রোল্যান্ড অ্যালোনজো। পরবর্তীতে ওয়াইকাটো ম্যানেজমেন্ট স্কুলের একদল প্রাক্তন শিক্ষার্থী আর ডিজাইনার হাওয়ার্ড-উইলিস টানা ছয় বছর গবেষণা করে সাইকেলের নকশাটির উন্নয়ন করেন। সর্বশেষ ২০১৭ সালের নভেম্বরে প্রথমবারের মত পূর্ণাঙ্গ সাইকেলটি প্রকাশ করেন তারা।

দলটির পরিচালক হওয়ার্ড-উইলিস সম্প্রতি গণমাধ্যমকে বলেন, “শুরু থেকে অনেক মানুষই আমাদের বলেছে যে, আমরা যা তৈরি করতে চাচ্ছিলাম তা বানানো সম্ভব হবে না। কিন্তু আমি এমন একটি দলের সাথে কাজ করেছি যারা এই ধারণাটিকে বদলে দিতে সক্ষম হয়েছে। এখন যখন পানিতে চলা সাইকেলটির ভিডিও সেসব ব্যক্তিদের দেখাই তখন তাদের প্রতিক্রিয়াটি দেখার মত হয়”।

তবে এই সফলতা যে মোটেও সহজ ছিল না তাও মনে করিয়ে দেন তিনি। বলেন, “এই রকম একটি হাইড্রো ফয়েল সাইকেল তৈরি করাটা ছিল বেশ কঠিন, যা এখনও চ্যালেঞ্জিং। প্রয়োজন হয়েছিল উচ্চ কারিগরি সক্ষমতার। যারা মূল ডিজাইনটিকে বাস্তবে পরিণত করেছে।”

“আমাদের ওয়াইকাটো স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা এগিয়ে এসেছে এবং উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছেন। এমন একদল তরুণ এবং ক্ষুরধার মেধাসম্পন্ন ব্যক্তিদের সাথে কাজ করতে পারাটা ছিল সত্যিই আনন্দের”।

বর্তমানে সাইকেলটিকে বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে বাজারজাত করছে মানটা ফাইভ। মিঠা ও লবণাক্ত দুই ধরণের পানিতেই চলতে পাড়া এই সাইকেলটি কিনতে খরচ হবে মাত্র সাত হাজার ৪৯৫ মার্কিন ডলার বা ছয় লক্ষ ২২ হাজার ৮৫টাকা!

এসএইচএস/টিকে



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি