ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮ ৩:২৩:৩৭

সেনা উদ্যোগে শিশু বিনোদন কেন্দ্র হ্যাপী আইল্যান্ড [ভিডিও]

সেনা উদ্যোগে শিশু বিনোদন কেন্দ্র হ্যাপী আইল্যান্ড [ভিডিও]

সেনাবাহিনীর উদ্যোগে নির্মিত রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদের পাশে শিশুদের বিনোদনের জন্য হ্যাপী আইল্যান্ড উদ্বোধন করা হয়েছে। সোমবার রাঙামাটির আরণ্যক পর্যটন কেন্দ্রের পাশে নির্মিত হ্যাপী আইল্যান্ডের উদ্ধোধন করেন চট্টগ্রাম জিওসি মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর কবির তালুকদার। অনুষ্ঠানে রাঙামাটি রিজিয়নের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল  গোলাম ফারুখ, রাঙামাটি সদর জোন কমান্ডার লেফটেনেন্ট কর্নেল রেদওয়ান আগমেদসহ সেনা বাহিনীর পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে ৪৫ একর জায়গায় নির্মিত হ্যাপী আইল্যান্ডে শিশুদের বিনোদনের জন্য ওয়াটার পার্ক, রাইডার ছাড়াও পিকনিট স্পটসহ বিনোদনের ব্যবস্থা রয়েছে। ভিডিও:  
মৌলভীবাজারে নবনির্মিত কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন

মৌলভীবাজার জেলায় নবনির্মিত কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের  উদ্বোধন করা হয়েছে। রোবাবার এ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, দক্ষ ও প্রশিক্ষিত মানবসম্পদই পারে একটি দেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধের দিকে নিয়ে যেতে। বর্তমান সরকার ২০২১ সালে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সে লক্ষ্যে সরকার দেশের প্রতিটি জেলা উপজেলায় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের কাজ করছে। মন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশের বেকারত্ব দূরীকরণ ও দারিদ্র্য বিমোচনে কারিগরি প্রশিক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। বর্তমান সরকার অভিবাসন ব্যবস্থাকে স্বচ্ছ ও গতিশীল করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। অভিবাসীদের নিরাপত্তা ও অধিকার রক্ষাসহ বিদেশে যাওয়ার জন্য সহজে অর্থ সংস্থান, বৈধপথে রেমিট্যান্স প্রেরণের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধিতে কাজ করছে। জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম-এর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার নবনির্মিত কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন  অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) শেখ মোহাম্মদ নাহিদ নিয়াজ। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মৌলবীবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দা সায়রা মহসিন। (বিজ্ঞপ্তি)   এমএইচ/

অন্যের হয়ে জেল খাটছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১ যুবক ও ১ নারী (ভিডিও)

আসামী না হয়েও অন্যের হয়ে জেল খাটছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এক যুবক ও এক নারী। অথচ অবাধে ঘুরে বেড়াচ্ছে প্রকৃত আসামীরা। স্বজনদের অভিযোগ, তাদেরকে লোভ দেখিয়ে মিথ্যা আসামী বানানো হয়েছে। দ্রুত প্রকৃত আসামীদের গ্রেফতার করে নিরপরাধ ব্যক্তিদের মুক্তি দাবি করেছেন তারা। পরিবারটি একেবারেই সংগতিহীন। দিন আনা, দিন খাওয়া। আর এ সুযোগটাই নেন স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী, ইউপি সদস্য আব্দুল হান্নান। রিক্সা কিনে দেয়ার লোভ দেখিয়ে আখাউড়ার সেলিম মিয়াকে তার হয়ে মাদক মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে পাঠান। আদালত জামিন না দিয়ে আসামীকে কারাগারে পাঠায়। প্রায় এক মাস ধরে হান্নান সেজে কারাগারে আছেন সেলিম। মুল আসামী ইউপি সদস্য, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা হান্নান আছেন সবার সামনেই। অসুস্থ স্বামীর চিকিৎসার জন্য ৫শ টাকা পাবেন হাজেরা বেগম। আরেক মাদক মামলার আসামী শোভা বেগম টাকা দিতে চাইলেন হাজেরাকে। তবে শর্ত তার হয়ে আদালতে হাজিরা দিতে হবে। গত ৬ মার্চ আদালত আসামীকে কারাগারে পাঠায়। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ ভুক্তভোগীদের স্বজনেরা। মিথ্যা আসামী সাজানোর দুটি ঘটনাতেই আইনজীবী ছিলেন দোলন আরা দুলি। ঘটনাটি জানাজানি হলে শো-কজ করা হয় তাকে। এ বিষয়ে অভিযুক্তদের সাথে কথা বলতে গেলে তাদের পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। প্রকৃত আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গহনা তৈরি করে সাতক্ষীরার তরুন- তরুনীরা স্বাবলম্বী (ভিডিও)

বাহারি ডিজাইনের ইমিটেশন গহনা তৈরি করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার তরুন- তরুনীরা। এখানকার তৈরি ইমিটেশনের গহনা দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করা হয়। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সরকারি সহযোগিতা পেলে এই শিল্পের যেমন বিকাশ ঘটবে, তেমনি কর্মসংস্থান হবে অনেক মানুষের। সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার উত্তর সখিপুরের এই পাড়াটি রুলিপাড়া হিসেবে পরিচিত। এখানের তরুণ- তরুণীরা ব্যস্ত রুলি তৈরির কাজে। চোখে সমস্যা থাকায় গহনার দোকানে কাজ হয়নি যুবক মিজানের। পরে তিনি ঢাকা থেকে পিতলের পাত এনে বাড়িতে বসে রুলি তৈরির কাজ শুরু করেন পাঁচ বছর আগে। বাজারে রুলির ব্যাপক চাহিদা থাকায় তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। স্থানীয় বাজার ও ঢাকার অনেক দোকানে সাজানো বাহারী ইমিটেশন গহনার কারিগর এখন তিনি। মিজান প্রতিমাসে উপার্জন করেন ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা। এই শিল্পের বিকশে স্বল্প সুদে ঋণ দেয়ার দাবি সংশ্লিষ্টদের। আর শিল্প সংশ্লিষ্টদের সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে বলে জানিয়েছেন বিসিকের এই কর্মকর্তা। সাতক্ষীরার আড়াই শতাধিক তরুন-তরুনী ইমিটেশনের গহনা তৈরি করে স্বাবলম্বী হয়েছেন।

বাজেটে পরিবেশবান্ধব গাড়ী আমদানির ওপর বিশেষ জোর (ভিডিও)

আসন্ন বাজেটে পরিবেশবান্ধব গাড়ী আমদানির ওপর বিশেষ জোর দেয়ার কথা জানিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড- এনবিআর। পরিবেশবান্ধব গাড়ীর ক্ষেত্রে করকাঠামো পুনর্বিন্যাস করা যায় কিনা, তা নিয়ে ইতোমধ্যে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে বলেও জানান এনবিআরের সদস্য রেজাউল হাসান। আর পরিবেশবিদরা বলছেন, এর ফলে যেমন পরিবেশের ভারসাম্য ঠিক থাকবে; তেমনি কমবে জ্বালানি খরচ। এক সময় প্রাইভেট কার বিলাসিতার বাহন মনে করা হলেও বর্তমানে তা অনেকের জন্য হয়ে ওঠেছে অপরিহার্য। এমন বাস্তবতায় কর কাঠামো স্তরে কিছুটা পরিবর্তন করা গেলে উন্নতমানের পরিবেশবান্ধব গাড়ী আমদানি সহজ হবে বলে মনে করছেন আমদানিকারকরা। পরিবেশবিদরাও বলছেন, পরিবেশবান্ধব গাড়ীর ব্যবহার বাড়ানো গেলে দূষণ কমানোর পাশাপাশি জ্বালানি সাশ্রয় হবে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড পরিবেশবান্ধব গাড়ী আমদানিতে শুল্কস্তর সহনীয় করতে কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন, এনবিআরের সদস্য রেজাউল হাসান। আগামী বাজেটে এ’ব্যাপারে ইতিবাচক সাড়া মিলবে বলেও আশা করছেন তিনি।

শিশুর অস্বাভাবিক মৃত্যুকে হত্যাকাণ্ড দাবী (ভিডিও)

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে প্রাইভেট শিক্ষিকার বাসায় অস্বাভাবিকভাবে শিশু সানজিদার মৃত্যুকে হত্যাকাণ্ড বলছেন পরিবারের সদস্যরা। আর শিক্ষিকা জানিয়েছেন, দোলনার দড়ি নিয়ে খেলতে গিয়ে ফাঁস লেগে মৃত্যু হয়েছে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী সানজিদার। পুলিশ বলছে, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। শনিবার বিকাল ৪টার দিকে বিছালিয়া মহিলা মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী সানজিদা প্রাইভেট পড়তে যায় পাশের যাত্রাবাড়ীর বিবির বাগিচায় ফুলকলি হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা নুসরাত জাহানের কাছে। সন্ধ্যার পর পুলিশ নুসরাত জাহানের বেড রুম থেকে সানজিদার গলায় ফাঁস লাগানো মৃতদেহ উদ্ধার করে। পরিবারের অভিযোগ, সানজিদাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। ফুলকলি হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা নুসরাত জাহান ও তার স্বামী মোরশেদ আলম বলেছেন, দোলনার দড়ি নিয়ে খেলা করতে গিয়ে গলায় ফাঁস লেগে মৃত্যু হয়েছে সানজিদার। পুলিশ বলছে, ফরেনসিক রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। সানজিদার মৃত্যুর ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা করেছে যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ।

নানামুখী তৎপরতার পরও কমছে না সড়ক দুর্ঘটনা (ভিডিও)

রাস্তা সংস্কার, মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ এবং ট্রাফিক বিভাগের নানামুখী তৎপরতার পরও কমছে না সড়ক দুর্ঘটনা। বিশেষ করে উৎসবের সময় অনভিজ্ঞ চালক ও বেপরোয়া গতির গাড়ি ছিনিয়ে নিচ্ছে অসংখ্য প্রাণ। এ’সব মৃত্যুকে নিছক দুর্ঘটনা না বলে কারণ অনুসন্ধান করে ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ দিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। যাত্রী কল্যাণ সমিতির তথ্য অনুযায়ি, ২০১৬ সালে দেশে ৪ হাজার ৩শ’ ১২টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে ৬ হাজার ৫৫ জন। ২০১৭ তে দুর্ঘটনার সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪ হাজার ৯শ’ ৭৯টি; নিহত হয়েছে ৭ হাজার ৩৯৭ জন। এক বছরের ব্যবধানে দুর্ঘটনা বেড়েছে ১৫ দশমিক ৫ শতাংশ। দুর্ঘটনা কবলিত যানবাহনের মধ্যে আছে ১ হাজার ২৪৯টি বাস, ১ হাজার ৬৩৫টি ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান, ২৭৬টি হিউম্যান হলার, ২৬২টি ব্যক্তিগত গাড়ি, জিপ ও মাইক্রোবাস, ১ হাজার ৭৪টি অটোরিক্সা, ১ হাজার ৪৭৫টি মোটর সাইকেল, ৩২২টি ব্যাটারিচালিত রিকসা এবং ৮২৪টি নসিমন। সড়ক দুর্ঘটনার কারণ ও প্রতিকার নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন মত দিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। দুর্ঘটনা কমাতে চেষ্টার কমতি নেই বলে জানিয়েছে ট্রাফিক বিভাগ। দূরপাল্লার গাড়ী এবং পথচারীদের রাস্তায় চলাচলে সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শও দিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

হাত হারানো শিশুটি ছটফট করছে

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে পরিবহণগুলো যেন লাগাম ছাড়া হয়ে পড়ছে। সড়ক দুর্ঘটনার নামে একরে পর এক মানুষ হত্যা করে যাচ্ছে। দেখেও যেন দেখার কেউ নেই। কয়েকদিন আগে রাজধানী ঢাকায় তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীবের হাত কেড়ে নিয়েছে দুটি বাস। এবার বগুড়ায় কেড়ে নিল সুমি নামের একটি শিশুর হাত একটি ট্রাক। মায়ের হাত ধরে মহাসড়ক পার হচ্ছিল আট বছরেরম শিশু সুমি খাতুন। হঠাৎ মায়ের হাত থেকে ছুটে যায় শিশুটি। হোঁচট খেয়ে পড়ে মহাসড়কে। নিয়তি এখানেই খারাপ। মুহূর্তে ছুটে আসা ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয় তার বাঁ হাত। বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় কনুইয়ের ওপর থেকে। বগুড়ার শেরপুর উপজেলার শেরুয়া বটতলা এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে রোববার বেলা দেড়টায় মর্মস্পর্শী এ দুর্ঘটনা ঘটে। পথচারীরা শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠালেও শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া কচি হাতটির খোঁজ আর মেলেনি। আহত সুমিকে প্রথমে শেরপুর উপজেলার দুবলাগাড়ি উপস্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং পরে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সুমি শেরপুর উপজেলার শাহ বন্দেগি ইউনিয়নের ফুলতলা দক্ষিণপাড়ার ভ্যানচালক দুলাল খানের মেয়ে। গ্রামের ব্র্যাক স্কুলে শিশু শ্রেণিতে পড়ে সে। হাসপাতালের বারান্দায় শিশুটি মা মা বলে কাতরাচ্ছিল। কাটা হাতের ক্ষতস্থান ব্যান্ডেজ করা হলেও তাজা রক্তে ভিজে গিয়েছিল তা।হাসপাতালে মেয়ের বিছানায় বসে নির্বাক তাকিয়েছিলেন মা মরিয়ম বেগম। মরিয়ম বলেন, তার স্বামী হতদরিদ্র ভ্যানচালক। বাড়িতে ছোট একটা মুদি দোকানও রয়েছে। তিন মেয়ের মধ্যে সুমি সবার ছোট। রোববার দুপুরে এলাকার একটি দাওয়াতে তিনি সুমিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন। হঠাৎ সে হাত থেকে ছুটে হোঁচট খেয়ে মহাসড়কে ওপর পড়ে যায়। ওই সময় বগুড়ার দিক থেকে আসা একটি পাথরবাহী ট্রাক তার হাতের ওপর দিয়ে চলে যায়। সন্ধ্যা ছয়টার দিকে শিশুটির খালু জানান, শিশুটিকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিকেল চারটার দিকে প্রথমে জরুরি বিভাগে ভর্তি করানো হয়। সেখান থেকে শিশু সার্জারি ওয়ার্ডে পাঠানো হয়। এরপর একজন নার্স এসে এক ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করেন। ওই নার্স ছাড়া এখন পর্যন্ত কোনো চিকিৎসক সুমির খোঁজ নেননি, চিকিৎসাও দেননি। রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে ওয়ার্ডজুড়ে নার্সদের কাছে ছুটোছুটি করেছি, কেউ পাত্তা দিচ্ছে না। জানতে চাইলে ওই ওয়ার্ডের একজন নার্স বলেন, রেজিস্ট্রার অনুযায়ী বেলা চারটায় শিশুটিকে জরুরি বিভাগে ভর্তি করা হয়। সাড়ে চারটায় তাকে ওয়ার্ডে পাঠানো হয়। এই ওয়ার্ডে এই মুহূর্তে কোনো চিকিৎসক না থাকলেও রয়েছেন ৫ নম্বর ওয়ার্ডে। সেখানকার চিকিৎসক ইতিমধ্যেই শিশুটির কাগজপত্র দেখে চিকিৎসাও লিখে দিয়েছেন। এক ব্যাগ রক্ত দিতে বলেছেন। চিকিৎসা পেলেই রক্তক্ষরণ বন্ধ হবে। এসএইচ/

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে বায়োচার সম্পর্কিত প্রশিক্ষণ   

দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার দাউদপুরে বায়োচার প্রজেক্টের আয়োজনে দাউদপুর সিসিডিবি প্রকল্প অফিসে দিনব্যাপী বায়োচার প্রয়োগে কৃষক ফসল উৎপাদন বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়।  রবিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ৭নং দাউদপুর ইউনিয়নের ২০ জন সফল কৃষকদের নিয়ে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি অফিসার আবু রেজা মোঃ আসাদুজ্জামান, আরো উপস্থিত ছিলেন কিচেন কাউন্সিলর শেফালী মার্ডি, মিডিয়া কর্মী এম এ সাজেদুল ইসলাম (সাগর) প্রমুখ। বায়োচার প্রশিক্ষণ স্টিফান হেম্রমের সঞ্চালনায় কর্মশালাটির সভাপতিত্ব করেন সিসিডিবি এরিয়া ম্যানেজার পার্থ প্রতিন সেন। এসি

রাজধানীতে ৮টন জাটকা ইলিশ জব্দ (ভিডিও)

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর মাছের আড়ত থেকে ৮টন জাটকা ইলিশ জব্দ করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। সেসময় ৭জনকে দুই বছর করে কারাদন্ড দেয়া হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনাকারী র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট জানান, জাটকা নিধন বন্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে। শনিবার রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ির মাছের আড়তে অভিযান চালায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। সেসময় জব্দ করা হয় ৮টন জাটকা ইলিশ। পাশাপাশি জাটকা বিক্রির অপরাধে ৭ জনকে ২ বছর করে কারাদন্ড দেয় র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। তবে বিক্রেতারা বলছেন, তারা এই অপরাধের সঙ্গে জড়িত নয়। অসাধূ ব্যবসায়ীরা জাটকা বিক্রির সাথে জড়িত বলে জানালেন মৎস্য কর্মকর্তা। এদিকে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট জানান, জাটকা নিধন বন্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে। জব্দ করা এসব জাটকা মাছ এতিমখানায় দান করা হবে বলেও জানান তিনি।

যানজটে ৩২ লাখ কর্মঘন্টা নষ্ট (ভিডিও)

যানজটে প্রতিদিন নগরবাসীর নষ্ট হচ্ছে ৩২ লাখ কর্মঘন্টা। বছরে ক্ষতি হচ্ছে ৯৮ হাজার কোটি টাকার বেশি। রাজধানীতে বাসের গতি ঘন্টায় ৯ কিলোমিটারের নিচে। এদিকে, যানজট কমাতে মেট্রোপলিটন পুলিশের দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা থাকলেও তা বাস্তবায়নে নেই কার্যকর উদ্যোগ। ইউলুপ কিংবা পরিকল্পিত সড়ক ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি দখলমুক্ত ফুটপাতের নকশাও প্রক্রিয়াধীন অনেক বছর। এ’ অবস্থায় যানজট মুক্ত শহর গড়তে আইনের দৃশ্যমান প্রয়োগ এবং গণপরিবহন বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সোনারগাঁও মোড়। যানবাহনের এই স্থিরাবস্থা নতুন নয়। তবে, ভিআইপি রাস্তার সিগন্যাল ছাড়া হয় ঘনঘন। তবুও কমেনা যানজট। কখনো কখনো কারওয়ান বাজারের এই যানবাহনের জটলা ছড়ায় ফার্মগেইট থেকে বিজয় সরণী পর্যন্ত। অন্যদিকে বাংলা মোটর থেকে শাহবাগ। প্রধান সড়কগুলোতে সৃষ্ট এমন যানজটে প্রতিদিন নাকাল হয় মানুষ। যানজটের লাগাম টানতে ট্রাফিক ব্যবস্থায় শৃংঙ্খলা আনার তাগিদ দিয়েছেন নগর বিশ্লেষকরা। কর্মজীবী মানুষের প্রাত্যহিক ভোগান্তি কমাতে যানজট নিয়ন্ত্রণের কৌশল হিসেবে পরিবহনের অপরিকল্পিত অবস্থান বন্ধ করা এবং ট্রাফিক আইন ভঙ্গকারীর কঠোর শাস্তি নিশ্চিতের পরামর্শ দিয়েছেন এই সড়ক বিশ্লেষক। নাগরিক ভোগান্তি কমাতে ট্রাফিক বিভাগ কাজ করছে বলে জানালেন কর্মকর্তারা। ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ কমাতে মানসম্মত গণপরিবহন চালু করা হলে যানজট কমবে বলেও মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি