ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৮ ২৩:৫৪:৪৪

দুই লাখ সাত হাজার ইয়াবাসহ আটক ৬

দুই লাখ সাত হাজার ইয়াবাসহ আটক ৬

রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোড থেকে দুই লাখ সাত হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে র‌্যাব। এসময় সাড়ে ১৬ লাখ টাকাসহ টেকনাফের অন্যতম তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী জহির আহমেদ ওরফে মৌলভী জহিরসহ ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে দুটি বাসা থেকে এসব উদ্ধার ও আটক করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক উইং কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান। মুফতি মাহমুদ খান জানান, সকালে র‍্যাব ২-এর একটি আভিযানিক দল বিভিন্ন তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডে অভিযান চালায়। সেখানের দুটি বাসায় রক্ষিত অবস্থায় দুই লাখ সাত হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। যার বাজার মূল্য সাত কোটি ২৪ লাখ ৮৫ হাজার টাকা। এ সময় নগদ ১৬ লাখ ৬৪ হাজার টাকাও উদ্ধার করা হয়। এ সময় আটক করা হয় ফয়সাল আহমেদ (৩১), মিরাজ উদ্দিন নিশান (২১), তৌফিকুল ইসলাম ওরফে সানি (২১) ও সঞ্জয় হালদারকে (২০)।  পরে জিজ্ঞাসাবাদের তাঁদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এফিফ্যান্ট রোডের আরেকটি বাসা থেকে এই চক্রের মূল ব্যক্তি জহির আহম্মেদ ওরফে মৌলভী জহির (৬০), মমিনুল আলম মোমিনকে (৩০) আটক করা হয়। মুফতি মাহমুদ খান জানান, মৌলভী জহির প্রায় ১৫ বছর আগে থেকে টেকনাফে সিএনএফ এজেন্ট হিসেবে ব্যবসা করেন। আর সেই সুবাদে তিনি ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত হন। জহিরের স্ত্রী, কন্যা, জামাতা থেকে শুরু করে পুরো পরিবার ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে জড়িত বলেও জানান তিনি। জিজ্ঞাবাদে জহির আহমেদ র‍্যাবকে জানিয়েছেন, এ ধরনের বড় বড় ইয়াবার চালান তিনি ও তার লোকজন বার্মাইয়া আলমের (মিয়ানমারের বড় ইয়াবা ব্যবসায়ী) কাছ থেকেই সংগ্রহ করতেন। এরপর তাঁর জামাতা আবদুল আমিন, নুরুল আমিন ও আটক মোমিন টেকনাফ এবং কক্সবাজার হয়ে ঢাকায় নিয়ে আসতেন। এ ক্ষেত্রে তারা বিলাসবহুল বাস ও কুরিয়ার সার্ভিস ব্যবহার করতেন। র‍্যাব পরিচালক জানান, বার্মাইয়া আলম মিয়ানমারের নাগরিক হলেও টেকনাফে তার বাড়ি রয়েছে। তিনি ওই এলাকায় বহু বছর আগে থেকেই আসা-যাওয়া করেন। বার্মাইয়া আলমের বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। অচিরেই তাঁর বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হবে বলেও জানান মুফতি মাহমুদ। / এআর /
রোজ গার্ডেন কিনে নিচ্ছে সরকার(ভিডিও)

রোজ গার্ডেন প্যালেস, দেশের অন্যতম ঐতিহাসিক নিদর্শন। ১৯৪৯ সালে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ গঠনের পরিকল্পনা হয় এই রোজ গার্ডেনেই। পরবর্তীতে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই স্বাধীনতা পায় বাঙালী। ঐতিহাসিক গুরুত্ব বিবেচনায় রোজ গার্ডেন কিনে নিচ্ছে সরকার। ইতিহাসবিদরা বলছেন, রোজ গার্ডেনের মতো দেশের ঐতিহাসিক স্থাপনাগুলো সংরক্ষণে উদ্যোগী হওয়া প্রয়োজন। রোজ গার্ডেন, পুরান ঢাকার ঐতিহাসিক এক বাগানবাড়ী। ১৯৩১ সালে ঋষিকেশ দাশ নামের শৌখিন ব্যবসায়ী ২২ বিঘা জমির উপর নির্মাণ করেন দ্বিতল ভবনটি। তবে, বাসভবন হিসেবে নয়, ভবনটি শুরু থেকেই বিনোদন কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হতে থাকে। প্রায় ৭ হাজার বর্গফুট আয়তনের ভবনটি উচ্চতায় ৪৫ ফুট। স্থাপত্যে করিন্থীয়-গ্রিক শৈলী অনুসরণ করা হয়েছে। লতাপাতা, জ্যামিতিক নকশায় ভবনের বিভিন্ন অংশ কাঠ, রঙিন কাঁচ ও লোহার সমন্বয়ে তৈরি। বাগানে সুদৃশ্য ফোয়ারা, পাথরের ভাস্কর্য। মনোরম এই ভবনটি সাজানোর কাজ শেষ করতে পারেন নি ঋষিকেশ। দেউলিয়া হয়ে ১৯৩৭ সালে খান বাহাদুর আবদুর রশীদের কাছে বিক্রি করে দিলে বাড়ির নাম হয় রশীদ মঞ্জিল। এরপর ১৯৬৬ সালে এর মালিকানা পান রশীদের বড় ভাই কাজী হুমায়ুন বশীর। ভবনটি পরিচিতি পায় হুমায়ুন সাহেবের বাড়ি হিসেবে। ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন এই বাড়িতে বসেই পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ গঠনের পরিকল্পনা হয়। মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী দলটির জন্মস্থান হিসেবে ইতিহাসের পাতায় ঠাঁই করে নিয়েছে রোজ গার্ডেন। ১৯৮৯ সালে রোজ গার্ডেনকে সংরক্ষিত ভবন ঘোষণা করে প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর। চলতি বছরের ৮ আগস্ট ৩শ’ ৩১ কোটি ৭০ লাখ টাকায় ভবনটি কিনে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। সরকারের সিদ্ধান্তকে সময়োপযোগী উল্লেখ করে ঐতিহ্যবাহী অন্যান্য স্থাপনা সংরক্ষণে উদ্যোগ নেয়ার দাবি জানিয়েছেন ইতিহাসবিদরা। ইতিহাস-ঐতিহ্যের স্বার্থেই প্রত্তাতাত্ত্বিক এ’সব নিদর্শন সংরক্ষণ জরুরি।

জয় বাংলা মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের শোক দিবস পালন 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন জয় বাংলা মুক্তযোদ্ধ প্রজন্মলীগ।         আজ বুধবার সকালে ধানমন্ডীর ৩২ নম্বরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় তারা। এসময় শোক দিবস উপলক্ষ্যে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধায় উপস্থিত ছিলেন মো. আকরাম হোসেন বাদল সভাপতি জয় বাংলা মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বহী সংসদ। মো. কামরুল হাসান পাপ্পু সাধারণ সম্পাদক জয় বাংলা মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বহী সংসদ প্রমুখ।    এমএইচ/এসি      

শিক্ষার্থী অপহরণ: ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি

রাজধানী বাড্ডা থেকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে অপহরণ করা হয়েছে বলে দাবি করেছে তার পরিবার। মঙ্গলবার থেকে তাকে খুঁজে না পেয়ে বুধবার সকালে বাড্ডা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে পরিবারটি। অপহরণকারীরা ফোন করে তার মুক্তির জন্য ১০ লাখ টাকা দাবি করেছে বলেও জানায় তারা।     অপহরণকৃত ওই শিক্ষার্থীর নাম এনামুল হক ওলেন (২৩)। তিনি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী। অপহরণের বিষয়ে বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, অপহরণের ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে একটি জিডি করা হয়েছে।    আমরা অভিযোগের ভিত্তিতে কে বা কারা কী উদ্দেশ্যে তাকে অপহরণ করেছে, তা নিশ্চিত হতে তদন্ত করছি। এমএইচ/এসি     

আজ বি. চৌধুরীর বাসায় কামাল রব মান্নাদের বৈঠক

বিশিষ্ট আইনজীবী ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন ঐক্য প্রক্রিয়ার মহাসমাবেশে এক মঞ্চে দেখা যাবে একমঞ্চে উঠছে সরকারবিরোধী দলগুলো। সভাবেশের মূল উদেশ্যে হলো চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে বিরোধী দলে করণীয় কি এবিষয় আলোচনা। ঈদের পর আগামী ২২ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এই মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। জামায়াতে ইসলামী বাদে সরকারবিরোধী অবস্থানে থাকা বিএনপিসহ প্রায় সবক’টি রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতাকে সমাবেশে উপস্থিত থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ড.কামাল হোসেনের পক্ষে ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব ফরোয়ার্ড পার্টির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবম মোস্তফা আমিন তাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এদিকে ড. কামাল হোসেন আহূত মহাসমাবেশে যোগ দেয়া না দেয়াসহ পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করতে আজ বুধবার আলোচনায় বসছেন যুক্তফ্রন্টের নেতারা। সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বারিধারার বাসভবন মায়াবীতে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ যুক্তফ্রন্টের নেতারা বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। বৈঠকে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীও উপস্থিত থাকতে পারেন বলে জানা গেছে। বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জেএসডি সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন মঙ্গলবার বলেন, চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আমরা আমাদের করণীয় ঠিক করতে আলোচনায় বসব। এই বৈঠকে ড. কামাল হোসেন আহূত সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মহাসমাবেশে যোগ দেয়া না দেয়া নিয়েও আলোচনা হবে। জানা গেছে, ড. কামাল হোসেনকে সামনে রেখে সরকারবিরোধী দলগুলোর শীর্ষ নেতাদের এক মঞ্চে আনার প্রক্রিয়া অনেক দূর এগিয়েছে। জামায়াতে ইসলামীকে বাইরে রেখে বাকিরা মিলে একটি বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলার চেষ্টা চলছে, সেই চেষ্টারই আনুষ্ঠানিক যাত্রা হবে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মহাসমাবেশে। জানতে চাইলে এ প্রসঙ্গে ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব ও ফরোয়ার্ড পার্টির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবম মোস্তফা আমিন বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ঠিক আগ মুহূর্তে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের এই মহাসমাবেশের মাধ্যমে বিশাল শোডাউন করতে চান তারা। তিনি জানান, বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ও সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ সরকারবিরোধী অবস্থানে থাকা বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতারা মহাসমাবেশে উপস্থিত থাকবেন। সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরাও এতে উপস্থিত থাকবেন। ড. কামাল হোসেন এতে সভাপতিত্ব করবেন। টিআর/

১৫ আগস্ট ঢাকার যেসব সড়কে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণে থাকবে

১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাতবার্ষিকী। এদিন যথাযোগ্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পালিত হবে জাতীয় শোক দিবস। সকাল থেকে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্যসহ সবস্তরের জনসাধারণ ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে তার প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করবেন। এসময় রাজধানী ও আশেপাশের এলাকা থেকে বিভিন্ন পরিবহনে ও পায়ে হেঁটে অসংখ্য নেতাকর্মীসহ জনসাধারণ আসবেন। একারণে ধানমন্ডি-৩২ এর চারপাশের রাস্তায় যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করার কথা জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। আজ রোববার বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। বিবৃবিতে বলা হয় ১৫ আগস্ট ভোর থেকে অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত ধানমন্ডি ২৭নং পূর্ব মাথা থেকে রাসেল স্কয়ার ও কলাবাগান হয়ে ধানমন্ডি ২নং রোড ক্রসিং পর্যন্ত (মিরপুর রোড) বন্ধ থাকবে। এছাড়া প্রয়োজনে গাবতলীর দিক থেকে মিরপুর রোড হয়ে আসা যানবাহনগুলোকে মানিক মিয়া এভিনিউয়ে বামে মোড় নিয়ে ফার্মগেটের দিকে, নিউমার্কেটমুখী গাড়িগুলোকে ধানমন্ডি-২৭নং পূর্ব মাথা থেকে ২৭নং রোড পশ্চিম মাথা হয়ে সাত মসজিদ রোড, ধানমন্ডি ২নং রোড, সিটি কলেজ হয়ে সায়েন্স ল্যাবরেটরির দিকে ডাইভারশন দেওয়া হতে পারে। শাহবাগ বা নিউমার্কেট থেকে সায়েন্স ল্যাবরেটরির দিকে আসা গাবতলী ও এয়ারপোর্টগামী গণপরিবহনগুলো ধানমন্ডি ২নং রোড হয়ে জিগাতলা-সাত মসজিদ রোড, ধানমন্ডি ২৭নং রোড পশ্চিম মাথা হয়ে ২৭নং রোড পূর্ব মাথা হয়ে যাবে। পান্থপথ ক্রসিং থেকে রাসেল স্কয়ারের দিকে গাড়ি চলাচল বন্ধ থাকবে। রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী পুষ্পার্ঘ অর্পণ শেষে ভেনু ত্যাগ করার পর সাধারণ জনগণ শ্রদ্ধা নিবেদন করতে পারবেন। এসময় সাধারণ জনসাধারণের গাড়িগুলো রাসেল স্কয়ার থেকে ধানমন্ডি ৬নং রোডের উভয় পাশে এক লাইনে এবং রাসেল স্কয়ার থেকে পান্থপথ ক্রসিং পর্যন্ত উত্তর লেনে এক লাইনে গাড়ি পার্কিং করতে পারবেন বলেও জানানো হয়েছে। টিআর/

রাজধানীতে জেএমবির ৪ সদস্য আটক

নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন জেএমবির চার সক্রিয় সদস্যকে আটক করা হয়েছে। ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম (সিটি) বিভাগ বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ তাদের আটক করে। এসময় দুটি চাপাতি, ৯৬টি ডেটোনেটর, ১০টি ব্যাটারিও উদ্ধার করা হয়। রাজধানীর আব্দুল্লাহপুর থেকে রোববার রাত পৌনে ৯টায় উত্তরা পশ্চিম থানাধীন আব্দুল্লাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন- মহিবুল ইসলাম (২২), মোজাম্মেল হক ওরফে বিল্লাল (৩৪), শামীম আহাম্মদ (২৭) ও দেলোয়ার হোসেন (৩৭)। তাদের বিরুদ্ধে উত্তরা-পশ্চিম থানায় সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলা রুজু হয়েছে। তাদেরকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানায় ডিএমপি। ডিএমপির জনসংযোগ বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান বলেন, গ্রেফতারকৃতরা নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠনটির আদর্শ প্রচার করে আসছিল। তারা রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক ও জননিরাপত্তা বিঘ্নিতকরণসহ ধ্বংসাত্মক কর্যকলাপ করার উদ্দেশ্যে উল্লেখিত বোমা তৈরির সরঞ্জাম নিজ হেফাজতে রাখে। আরকে//

রাজধানীর রমনা লেকে ডুবে ২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু   

রাজধানীর রমনা উদ্যানের লেকে ডুবে দুই স্কুলশিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। মাহফুজ ও আদনান নামে এ দু’শিক্ষার্থী গোসল করতে নামলে এমন দুর্ঘটনা ঘটে। তারা কাকরাইলের উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের নবম শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র।    জানা যায়, রোববার (১২ আগস্ট) দুপুরে স্কুলফাঁকি দিয়ে রমনা উদ্যানে গিয়ে গোসল করতে নেমে দু’জনে ডুবে গেলে তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিকেল সোয়া ৪টার দিকে দু’জনকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। তাদের সহপাঠী আরিফ জানায়, তারা তিনজন ক্লাস না করে দুপুরে রমনা উদ্যানে ঘুরতে আসে। এক পর্যায়ে মাহফুজ ও আদনান গোসল করতে নামে। মাহফুজ সাঁতার জানলেও আদনান জানতো না। কিন্তু মাহফুজের কাঁধে চড়ে আদনান সাঁতরাতে যায়। তখন দু’জনেই পানিতে ডুবে যায়। আরিফের চিৎকারে আশপাশের লোকজন দু’জনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসে। আরিফ জানায়, তার এবং আদনানের বাসার শাহজাহানপুরের গুলবাগে। এসি   

কমলাপুর রেলস্টেশনে মানুষের ঢল(ভিডিও)

ঈদের আগাম টিকিট বিক্রির পঞ্চম দিনেও কমলাপুর রেলস্টেশনে মানুষের ঢল। টিকিটের জন্য অনেকেই আগের দিন সন্ধ্যা থেকে অপেক্ষা করলেও, কারো কারো অপেক্ষা তারও আগের দিন থেকে। শত ঝক্কি-ঝামেলার পরও টিকিট হাতে পেলে সব ক্লান্তি মুছে যাবে বলে মনে করেন টিকিট প্রত্যাশীরা। আজ দেয়া হচ্ছে ২১ আগস্টের টিকিট। তবে আগের দিন সন্ধ্যা থেকেই ঘরমুখি মানুষের এই দীর্ঘ লাইন। অনেকে সময় পার করছেন তাস খেলে, কেউ লুডু আবার কেউবা মেতেছেন গল্প গুজবে। মহিলাদের টিকিটের জন্য রয়েছে আলাদা ব্যবস্থা। তবুও প্রতিক্ষা দীর্ঘ। টিকিট নামক কাঙ্খিত সোনার হরিন মিললেই কেবল স্বস্তি। অনেকেই ২০ তারিখের টিকিট না পেয়ে আবারও লাইনে দাঁড়িয়েছেন ২১ তারিখের টিকিটের জন্য। রেল স্টেশনে জড়ো হওয়া এসব মানুষের পেশা, দায়িত্ব কিংবা সামাজিক মর্যাদা হতে পারে আলাদা। কিন্তু আপনজনের জন্য হৃদয়ের টান এক। তাইতো ধনি-গরিব ভেদাভেদ ভুলে সকলেই এক সারিতে, নীড়ে ফেরার ছাড়পত্রের অপেক্ষায়।

রাজধানীতে যুবলীগ নেতাসহ গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত ৩

রাজধানীর পুরান ঢাকার ওয়ারীর দক্ষিণ মুহসেন্দি এলাকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে ওর্য়াড যুবলীগের  দুই নেতাসহ তিনজন আহত হয়েছেন। আজ শনিবার রাত  ৯টার দিকে দক্ষিণ মুহসেন্দীর সেতুবন্ধন ক্লাবের পাশে  এ ঘটনা ঘটে। আহতদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক)  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হচ্ছেন, ৪১ নম্বর ওর্য়াডের সাধারণ সম্পাদক মো. জুয়েল (৩২), একই ওর্য়াডের ৩ নং ইউনিটের সভাপতি মো. রবিন (৩৫), যুবলীগ কর্মী মো. কাজল (৩৭) । প্রতক্ষ্যদর্শী ও আহত রবিন জানান, দক্ষিণ মুহসেন্দির একটি মাংসের দোকানের সামনে বসে কয়েকজন মিলে কথাবার্তা বলছিলাম। হঠাৎ মুখোশধারী ৫ থেকে ৬ জন  যুবক এসে কোনো কিছু বুঝে উঠার আগেই গুলি চালায়। পরে তারা ফাকা গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায়। এদিকে কি কারণে কারা গুলি চালিয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।  ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক ( এ এস আই)  মো. বাচ্চু মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিন জন গুলিবিদ্ধ হয়ে ঢামেকে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানান তিনি।   এমএইচ/ এসএইচ/  

রাজধানীতে জাবালে নূরের ৬ বাস আটক

রাজধানীতে জাবালে নূর পরিবহনের ছয়টি বাস আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান (র‌্যাব)। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) কর্তৃক রুট পারমিট বাতিল করা স্বত্ত্বেও রাস্তায় চলাচলের অভিযোগে বাসগুলো আটক করা হয়। শনিবার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি মিজানুর রহমান। মিজানুর রহমান জানান, রুট পারমিট বাতিল করা সত্ত্বেও জাবালে নূর পরিবহনের বাস চালানোর অভিযোগে ৬টি বাস রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে আটক করেছে র‌্যাব-১ ও র‌্যাব-৪ সদস্যরা। বিষয়টি যাচাই-বাছাই শেষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান মিজানুর রহমান। জানা যায়, রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে তিনটি বাস আটক করা হয়েছে। এছাড়া শুক্রবার দিবাগত রাতে খিলখেত এলাকা থেকে তিনটি বাস আটক করা হয়। উল্লেখ্য, গত ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলায় জাবালে নূর পরিবহনের বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। এ ছাড়া আহত হন বেশ কয়েকজন। বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের প্রতিবাদে রাস্তায় বিক্ষোভে ফেটে পড়ে শিক্ষার্থীরা। তারা নৌপরিবহনমন্ত্রী ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খানের পদত্যাগ ও ৯ দফা দাবিতে টানা আট দিন ধরে আন্দোলন করেছেন। এ আন্দোলনের জের ধরে ঢাকার অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোয় প্রথমে বাস চলাচল সীমিত হয়ে যায়। আন্দোলনের মধ্যে জাবালে নূর পরিবহনের দুটি বাসের নিবন্ধন বাতিল করে বিআরটিএ। পরে বাসের চালক, মালিক ও হেলপারকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে বাস চলাচল একেবারেই বন্ধ করে দেন পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা। তিন দিনের অঘোষিত ধর্মঘটের পর গত সোমবার সকাল থেকে রাজধানীসহ সারা দেশে বাস চলাচল শুরু করে। একে//

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি