ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২৩:৪৪:১৮

দক্ষ সাব এডিটর না থাকলে কপালে দুর্গতি আছে : বুলবুল

দক্ষ সাব এডিটর না থাকলে কপালে দুর্গতি আছে : বুলবুল

দক্ষ সাব এডিটর না থাকলে মিডিয়ার কপালে দুর্গতি আছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি, একুশে টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী ও প্রধান সম্পাদক মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল। তিনি বলেন, একটি মিডিয়া কতটুকু ভালো করবে, কতোটা পাঠকপ্রিয়তা পাবে তা নির্ভর করবে সাবএডিটরদের দক্ষতার উপর। তিনি আজ মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন । ঢাকা সাবএডিটরস কাউন্সিলের অভিষেক ও সম্মাননা উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল এ সময় নিজের অতীত জীবনের সাংবাদিকতার স্মৃতিচারণ করে বলেন, আমি নিজে সাব এডিটর হিসেবে কাজ করে আজকে এই পর্যায়ে এসেছি। গণমাধ্যমে অনেক পরিবর্তন হয়তো সময়ের ব্যবধানে আসবে। কিন্তু সাবএডিটরদের গুরুত্ব কখনো শেষ হবে না। বর্তমান সাংবাদিকতার নানা দিক তুলে ধরে তিনি বলেন, অনেকে বলেন, প্রিন্ট মিডিয়া ১০ বছরের মধ্যে বন্ধ হয়ে যাবে। আমি এ কথায় বিশ্বাস করি না। বিশ্বের অনেক জায়গায় প্রিন্ট ভার্সনের সার্কুলেশন কমলেও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় সার্কুলেশন বেড়েছে। মানুষ এখনো প্রিন্ট ভার্সনে আস্থা পায়। সাব এডিটরের দায়িত্ববোধের বিষয়ে তিনি বলেন, একজন রিপোর্টার তার নিউজে হুজুরের ফতোয়া `কোট` করতে পারবেন। কিন্তু সাব এডিটরকে তা সম্পাদনা করতে গিয়ে ভাবতে হবে ওই ফতোয়া সমাজে বিশৃংখলা সৃষ্টি করবে কীনা? তেমনি ক্যামেরাম্যান পূণ্যার্থীদের স্নানের দৃশ্যের ছবি তুলবেন। সাব এডিটর দেখবেন সেই ছবিতে কোনো নারীর সম্মানহানি হওয়ার সম্ভাবনা আছে কি না? সাবএডিটরস কাউন্সিলের নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে এই সাংবাদিক নেতা বলেন, আমরা যতো বেশি পেশাদার সাংবাদিক তৈরি করতে পারবো ততো বেশি এ পেশার উন্নয়ন হবে। নেতা হওয়া বড় কথা নয়। পেশাদার সাংবাদিক হওয়াই বড় কথা। ডিএসইসির সভাপতি শহীদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, প্রেস ক্লাব সভাপতি শফিকুর রহমান, সাধারন সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন প্রমুখ। / এআর /
ইআরএফ সম্পাদক জিয়ার বাবার ইন্তেকাল

ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) সাধারণ সম্পাদক ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল অর্থসূচকের সম্পাদক জিয়াউর রহমানের বাবা সাবেক উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আব্দুস সামাদ (৮৪) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না....রাজিউন)। আজ সোমবার ভোরে কিশোরগঞ্জের ভৈরবে নিজ বাসভবনে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। আব্দুস সামাদ স্ত্রী, দুই ছেলে ও পাঁচ মেয়ে রেখে গেছেন। আজ সোমবার বাদ জোহর কমলপুর মাদ্রাসায় তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষ তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। জিয়াউর রহমানের বাবার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন ইআরএফ সভাপতি ও একুশে টেলিভিশনের পরিকল্পনা সম্পাদক সাইফ ইসলাম দিলালসহ সিনিয়র সাংবাদিকেরা। আরকে// এআর

৩২ ধারা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই: কাদের [ভিডিও]

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন চূড়ান্ত করা হবে। ৩২ ধারা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। বৃহস্পতিবার বিকালে প্রেস ইন্সটিটিউটে গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন। গণমাধ্যম সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমসহ প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া সংশ্লিষ্টরা। সভা শেষে বৈঠকের বিষয় সাংবাদিকদের অবহিত করেন বক্তারা। তারা বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংসদে চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন এখনো চূড়ান্ত হয়নি জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকার ও গণমাধ্যম এক সঙ্গে কাজ করবে। গণমাধ্যম সংশ্লিষ্টরা বলেন, বস্তুনিষ্ট সংবাদ পরিবেশনের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠিত ও মীমাংসিত বিষয়ে বিতর্ক তৈরি করা ঠিক নয়। গণতন্ত্রের সম্মুখযাত্রায় গণমাধ্যমকে সরকারের পাশে থাকার আহ্বান জানানো হয় সভায়।

সাংবাদিক আবদুস সালামের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

উপমহাদেশের প্রখ্যাত সাংবাদিক ও দ্য বাংলাদেশ অবজারভারের সাবেক সম্পাদক আবদুস সালামের ৪১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। এ উপলক্ষে আবদুস সালাম স্মৃতি সংসদ ও তার পরিবার বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির অংশ হিসেবে আবদুস সালাম স্মৃতি সংসদ ও পরিবারের উদ্যোগে সকাল ১০টায় মরহুমের বনানী কবরস্থানে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়।সাংবাদিকতায় একুশে পদকপ্রাপ্ত আবদুস সালাম ভাষা আন্দোলনে প্রথম কারাবরণকারী সম্পাদক, পাকিস্তান সম্পাদক পরিষদের সভাপতি, সাবেক পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য, বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটউটের প্রতিষ্ঠাতা মহাপরিচালক ও জাতীয় প্রেস ক্লাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন।/ এআর /

আজ বিশ্ব বেতার দিবস

বিশ্ব বেতার দিবস আজবিশ্ব বেতার দিবস আজ মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি)। দিবসটি উপলক্ষে এবারের প্রতিপাদ্য ‘ক্রীড়াঙ্গণে বেতার’।বিশ্ব বেতার দিবস ২০১৮ উপলক্ষে আজ আগারগাঁওয়ের জাতীয় বেতার ভবনে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। জাতীয় বেতার ভবন মিলনায়তনে বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক নারায়ণ চন্দ্র শীলের সভাপতিত্বে ‘বিশ্ব বেতার দিবস ও শ্রোতা সম্মেলন ২০১৮’-এর উদ্বোধন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন তথ্যমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখবেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ কে রহমতুল্লাহ ও তথ্যসচিব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ। বিকাল ৫টায় সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমদ। বিশ্ব বেতার দিবস উপলক্ষে দেওয়া বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং দেশ ও জাতির আকাঙ্ক্ষাকে ধারণ করে বাংলাদেশ বেতার আরও বহুদূর এগিয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন। আবদুল হামিদ বলেন, ১৯৩৯ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে বাংলাদেশ বেতার শক্তিশালী গণমাধ্যম হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের মহান স্বাধীনতা ও মুক্তি সংগ্রামেও বাংলাদেশ বেতার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ বেতারে প্রচার ছিল সাহসী ও তাৎপর্যপূর্ণ সিদ্ধান্ত। মহান মুক্তিযুদ্ধে ‘স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র’ মুক্তিপাগল দেশপ্রেমিক জনতাকে উজ্জীবিত করতে অপরিসীম ভূমিকা পালন করে। রাষ্ট্রপতি বলেন, দুর্যোগ-দুর্বিপাকে বেতারের সতর্কতামূলক বার্তা সাধারণ মানুষকে সঠিক দিকনির্দেশনা দেয়। বাংলাদেশ বেতারে কৃষি, শিক্ষা, জনসংখ্যা ও স্বাস্থ্যবিষয়ক কার্যক্রমের পাশাপাশি সম্প্রতি ক্রীড়া ক্ষেত্রে বেতার কার্যকর অবদান রেখে যাচ্ছে। বিশ্ব বেতার দিবসে দেওয়া বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত ও সুখী-সমৃদ্ধ, স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলায় বেতার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আশাবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বিশ্ব বেতার দিবস উপলক্ষে আমি বাংলাদেশসহ বিশ্বের বেতার শ্রোতা, সম্প্রচারকর্মী, শিল্পী, কলাকুশলীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি। এসএইচ/

 নতুন কিছু জানাতে পারছে না র‌্যাব

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারওয়ার ও মেহেরুন রুনির হত্যাকাণ্ডের ছয় বছর আজ রোববার। অথচ এখন পর্যন্ত এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন হয়নি। তদন্ত সংস্থা র‌্যাব নতুন করে কিছুই জানাতে পারছে না। তদন্তে নতুন কিছু নেই বলে শনিবার জানিয়েছেন র‌্যাবের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ১৩ মার্চ নতুন দিন ধার্য করেছেন আদালত। এ নিয়ে প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ৫৪ বারের মতো পেছাল। গত ১ ফেব্রুয়ারি মামলার প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। তবে র‌্যাব প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকা মহানগর হাকিম মাহমুদা আক্তার নতুন এ দিন ধার্য করেন। ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক গোলাম মোস্তফা সারোয়ার ওরফে সাগর সারোয়ার ও এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন নাহার রুনা ওরফে মেহেরুন রুনি দম্পতি রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারে নিজ বাসায় খুন হন। হত্যাকাণ্ডের পর রুনির ভাই নওশের আলম রোমান শেরেবাংলা নগর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। প্রথমে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন ওই থানার এক উপ-পরিদর্শক (এসআই)। চার দিন পর চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়। দুই মাসেরও বেশি সময় তদন্ত করে ডিবি রহস্য উদঘাটনে ব্যর্থ হয়। পরে হাইকোর্টের নির্দেশে ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল হত্যা মামলাটির তদন্তভার র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তবে ছয় বছরেও মামলার কোনো অগ্রগতি করতে পারেনি তারা। আদালত বার বার প্রতিবেদন দাখিল করতে বললেও ৫৪ বারের মতো সময় নিয়েছে র‌্যাব। ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি সকালে রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজারের ভাড়া ফ্ল্যাট থেকে মাছরাঙা টিভির বার্তা সম্পাদক সাগর সরওয়ার ও এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনির রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। এসএইচ/

ডিআরইউ মিডিয়া কাপ ক্রিকেটের এন্ট্রি আহবান

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) নতুন আঙ্গিকে ‘সামিট-ডিআরইউ মিডিয়া কাপ ক্রিকেট-২০১৮’ আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছে। আগামী ০৫ মার্চ থেকে এই টুর্নামেন্ট শুরু হবে। এই উপলক্ষে গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানকে এ টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তি এ তথ্য জানানো হয়। টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণের জন্য আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবারের মধ্যে ১০ সদস্যের (৮ জন খেলোয়াড় ১ জন কোচ ও ১ জন ম্যানেজার) তালিকা নিজস্ব প্রতিষ্ঠানের প্যাডে ডিআরইউ কার্যালয়ে জমা দেওয়ার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়েছে।   উল্লেখ্য, অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দল ১ জন করে অতিথি খেলোয়াড় অন্তভূক্ত করতে পারবেন। তবে অতিথি খেলোয়াড়কে অবশ্যই ডিআরইউ’র সদস্য হতে হবে। মাঠে খেলবেন ৬ জন করে। অংশগ্রহণকারী দলগুলোর প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে গ্রুপিং ও টিম চূড়ান্ত করা হবে। খেলোয়াড় তালিকার সাথে কোচ ও ম্যানেজারের মোবাইল নাম্বার এবং ই-মেইল আইডি অবশ্যই জমা দিতে হবে।  উল্লেখ্য, ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় ডিআরইউ সদস্য ব্যতিত কোনো খেলোয়াড় অংশ নিতে পারবেন না।   এমএইচ/টিকে

নবম ওয়েজ বোর্ডের কার্যক্রম শুরু

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের সাথে মঙ্গলবার সচিবালয়ে তাদের নিজ নিজ দফতরে পৃথক বৈঠক করেছেন সংবাদকর্মীদের জন্য নবগঠিত নবম ওয়েজ বোর্ডের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. নিজামুল হক। এ বৈঠকের মধ্যদিয়ে নবগঠিত নবম ওয়েজ বোর্ডের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিচারপতি নিজামুল হক প্রথমে হাসানুল হক ইনুর সাথে সচিবালয়ের তার দফতরে সাক্ষাৎ করেন এবং নবম ওয়েজ বোর্ডের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। এ সময় তাকে বোর্ডের চেয়ারম্যান নিয়োগ করায় সরকারের প্রতি ধন্যবাদ জানান। তথ্যমন্ত্রী তাকে ওয়েজ বোর্ড কার্যক্রমের রূপরেখা তৈরির আহবান জানান। উপস্থিত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত তথ্য সচিব মো. নাসির উদ্দিন এবং যুগ্ম সচিব (প্রেস) ও নবম ওয়েজ বোর্ডের সদস্য সচিব মো. মিজান উল ইসলাম এ সময়। ওয়েজ বোর্ড চেয়ারম্যান তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের সাথেও তার সচিবালয়ের দফতরে সাক্ষাৎ করেন এবং নবম ওয়েজ বোর্ডের কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা করেন। চেয়ারম্যান পরে প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) পরিদর্শন করেন এবং নবম ওয়েজ বোর্ডের কার্যালয় স্থাপনের জন্য পিআইবি’র পুরাতন ভবনের তৃতীয় তলার একটি অংশ নির্বাচন করেন। পিআইবি’র মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীর ও ওয়েজ বোর্ডের সদস্য সচিব মিজান উল ইসলাম এ সময় চেয়ারম্যানের সাথে ছিলেন। উল্লেখ্য, সরকার ২৯ জানুয়ারি আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারক মো. নিজামুল হককে চেয়ারম্যান করে সংবাদকর্মীদের জন্য ১৩ সদস্যবিশিষ্ট নবম ওয়েজ বোর্ড গঠন করে। সূত্র: বাসস   আর

গণমাধ্যম কর্মী আইন পাস করুন: বিএফইউজে

অবিলম্বে গণমাধ্যম কর্মী (চাকরির শর্তাবলী) আইন পাস করার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল ও মহাসচিব ওমর ফারুক। শনিবার এক বিবৃতিতে বলেন, বিএফইউজে নেতৃত্বে দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের পর নবম ওয়েজ বোর্ড গঠন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর এ উদ্যোগের ফল যাতে গণমাধ্যমের সকলেই বিশেষ করে ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরতরাও পেতে পারেন সে জন্য উল্লেখিত আইনটি পাস করা জরুরি। বিএফইউজে’র পক্ষ থেকে তিন বছর আগেই আইনের খসড়া তথ্য মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হয়েছে। নেতৃবৃন্দ আশা করেন, নবম ওয়েজ বোর্ডের প্রথম বৈঠকের পূর্বেই সরকার এ আইনটি কার্যকর করবেন।   আর

সাংবাদিক শিমুল হত্যার এক বছর আজ

সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যার এক বছর পূর্ণ হলো আজ। ২০১৭ সালের দোসরা ফেব্রুয়ারি সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষের সময় মেয়র হালিমুল হক মিরুর গুলিতে নিহত হন শিমুল। এ ঘটনায় এক বছরেও শোক কাটিয়ে ওঠতে পারেনি শিমুলের পরিবার। এদিকে, জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরের দাবি জানিয়েছেন স্বজন ও সহকর্মীরা। শাহজাদপুরের পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরুর রাস্তা নির্মাণ কাজে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় শাহজাদপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি বিজয় মাহমুদকে মারধরের ঘটনায় দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সেই সংঘর্ষের খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে মেয়র মিরুর গুলিতে আহত হন দৈনিক সমকালের স্থানীয় প্রতিনিধি আবদুল হাকিম শিমুল। পরদিন ৩ ফেব্রুয়ারি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার।সে সময় শিমুলের হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে সিরাজগঞ্জসহ দেশজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। এ ঘটনায় শিমুলের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগমের দায়ের করা মামলায় মেয়র মিরুসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে গত বছরের দোসরা মে চার্জশিট দেয় পুলিশ। বর্তমানে মামলাটি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন। প্রধানমন্ত্রীর সহায়তায় সরকারি চাকরি হওয়ায় দুই শিশু সন্তান নিয়ে কর্মস্থল বগুড়ায় থাকেন শিমুলের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম। স্বামী হত্যার দ্রুত বিচার দেখতে চান তিনি।এদিকে, দল ও মেয়রের পদ থেকে বরখাস্ত মিরু কারাগারে থাকলেও অন্য আসামিরা রয়েছে জামিনে। অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চান স্বজন ও সহকর্মীরা। মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরেরও দাবি জানিয়েছেন তারা। এসএইচ/

সব পত্রিকা মজুরি বোর্ড রোয়েদাদ বাস্তবায়ন করবে: তথ্যমন্ত্রী

আগামীতে সব পত্রিকা মজুরি বোর্ড রোয়েদাদ বাস্তবায়ন করবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। মঙ্গলবার তথ্য অধিদফতরের সভা কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। নবম ওয়েজ বোর্ড গঠনের বিষয় জানাতেই এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যমকে মজুরি বোর্ড রোয়েদাদের আওতায় আনতে সরকারের সদিচ্ছার কোনো অভাব নেই। ২০১৬ সালে এই লক্ষ্যে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছিল। কিন্তু সেই কমিটি কোনো প্রস্তাব করেনি। তবুও আমরা হাল ছাড়িনি। ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার কর্মীদের বিষয়টি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে বোর্ড সুপারিশ করবে বলে নবম ওয়েজ বোর্ডের প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, সাংবাদিকদের কল্যাণে আমরা শুধু সাংবাদিক সহায়তা নীতি প্রণয়ন করেই ক্ষান্ত হইনি, আইনের মাধ্যমে  সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করেছি। বেসরকারি টেলিভিশন, রেডিও, অনলাইন গণমাধ্যমের সুষ্ঠু বিকাশের লক্ষ্যে জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা, জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা প্রণয়ন করেছি এবং জাতীয় সম্প্রচার আইন প্রণয়নের কাজ চলছে। সংবাদ সম্মেলনের মন্ত্রী নবম ওয়েজবোর্ড অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং সহযোগিতার জন্য অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে ধন্যবাদ জানান। সংবাদ সম্মেলনে তথ্য প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট তারানা হালিম, ভারপ্রাপ্ত তথ্য সচিব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা কামরুন নাহার উপস্থিত ছিলেন। কেআই/টিকে 

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি