ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৮ ২১:৫৩:১৩

ভারতে বন্যায় ৩২৪ জনের প্রাণহানি

ভারতে বন্যায় ৩২৪ জনের প্রাণহানি

ভারতের কেরালা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, জেলায় বন্যায় কমপক্ষে ৩২৪ জন মারা গেছেন। প্রায় দুই লাখ মানুষ বন্যার কারণে বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন। প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে এ বন্যা দেখা দিয়েছে রাজ্য জুড়ে। এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, এই বন্যা ১০০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা। এটা কেরালা রাজ্যের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যাও।
পাকিস্তানের ২২তম প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

  পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ও তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খান পাকিস্তানের ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।  আজ শুক্রবার পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যের ভোটে তাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচন করা হয়। ভোটে ইমরান খান পেয়েছেন ১৭৬ ভোট। সংসদে তার বিরোধীদল নওয়াজ শরিফের প্রতিষ্ঠিত দল পিএমএলএন পেয়েছে ৯৬ ভোট। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে ইমরানের প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন শাহবাজ শরিফ। পিএমএল-এন নেতা নির্বাচনে কারচুপির প্রতিবাদে হাতে কালো কাপড় বেঁধে হাজির হন। পিপিপি’র বিলাওল ভুট্টো ভোটদানে বিরত থাকার ঘোষণা দিলেও সংসদ অধিবেশনে উপস্থিত হয়েছেন। তিন নেতাই পরস্পরের সঙ্গে করমর্দন করেছেন। ইমরান খান এমন এক মুহূর্তে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন যেখানে অর্থনৈতিক  সংকট রয়েছে। তবে পাকিস্তানের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করাসহ নতুন এক পাকিস্তান গঠনে তিনি বদ্ধ পরিকর।     নির্বাচনী প্রচারণায় দেশ থেকে দূর্নীতি এবং জনগণের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে  কাজ করবেন বলে ‍জানিয়েছিলেন।   সূত্র: বিবিসি ও ডন।   এমএইচ/ এসএইচ/

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পথে ইমরান খান  

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের ভোটাভুটিতে পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান দেশটির প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন।  আজ শুক্রবার জাতীয় পরিষদের এই ভোট অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে গত জুলাই মাসের নির্বাচনে তার দল তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সর্বোচ্চা আসন পেয়ে জয়ী হয়। শনিবার ইমরান খানের শপথ নেওয়ার কথা রয়েছে। এদিকে, পিটিআইবিরোধী জোট গড়লেও শেষ পর্যন্ত শাহবাজকে সমর্থন দিচ্ছে না বেনজির ভুট্টোর দল পিপিপি। তাই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ইমরান খানই নিশ্চিত। এর আগে, বুধবার স্পিকার পদে আসাদ কায়সার ও ডেপুটি স্পিকার পদে কাসিম সুরি নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিত হওয়ার পরই নতুন স্পিকার আসাদ কায়সার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু করার ঘোষণা দেন। প্রধান বিরোধী দল নওয়াজের পিএমএল-এন ইমরানের প্রধানমন্ত্রী হওয়া ঠেকাতে ১১ দল নিয়ে ঐক্য গড়ে তুলে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে তৃতীয় স্থানে থাকা পিপিপির সঙ্গে ঐকমত্যে পৌঁছতে পারেনি দলটি। ইমরান খান এমন এক মুহূর্তে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন যেখানে অর্থনৈতিক  সংকট রয়েছে। তবে পাকিস্তানের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করাসহ নতুন এক পাকিস্তান গঠনে তিনি বদ্ধ পরিকার।      নির্বাচনী প্রচারণায় দেশ থেকে দূর্নীতি এবং জনগণের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে  কাজ করবেন বলে ‍জানিয়েছিলেন।   সূত্র: বিবিসি।   এমএইচ/  এসএইচ/

মার্কিন লক্ষ্যবস্তুতে হামলার প্রশিক্ষণ নিচ্ছে চীন  

যুক্তরাষ্ট্র ও দেশটির মিত্রদের ওপর হামলার জন্য চীনের সামরিক বাহিনী প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগনের এক সতর্কবার্তায় একথা উল্লেখ করা হয়েছে। মার্কিন কংগ্রেসকে দেওয়া পেন্টাগনের এই বার্ষিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দূরবর্তী স্থানে বোমারু বিমান পাঠানোর সক্ষমতা দ্রুত বাড়ছে চীনের। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।   পেন্টাগনের প্রতিবেদনে চীনের সামরিক সামর্থ্য ও সক্ষমতা বৃদ্ধির কথা গুরুত্ব দিয়ে উল্লেখ করা হয়েছে। বলা হয়েছে, চীনের প্রতিরক্ষা বরাদ্দ ১৯০ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে। যা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বাজেটের এক-তৃতীয়াংশ। এই প্রতিবেদনের বিষয়ে চীনের পক্ষ থেকে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। মার্কিন প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, গত তিন বছরে চীনের পিপল’স লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) বোমারু বিমানগুলো নিজেদের উড্ডয়নের আওতা দ্রুত বাড়িয়েছে। একই সঙ্গে মার্কিন ও মিত্রদের গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক লক্ষ্যবস্তুতে হামলার অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করছে। এতে আরও বলা হয়েছে, চীনের বোমারু বিমানের এসব ফ্লাইটের মধ্য দিয়ে কী প্রমাণ করতে চাইছে তা অবশ্য স্পষ্ট নয়। উল্লেখ করা হয়েছে, চীনের পিএলএ গুয়ামসহ পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলে মার্কিন ও মিত্র শক্তির সামরিক ঘাঁটিতে হামলার সক্ষমতা প্রদর্শন করেছে। চীন দাবি করে আসছে দেশটি পদাতিক বাহিনীকে উড্ডয়ন ও বিজয়ী হিসেবে রূপান্তর ঘটাচ্ছে। পেন্টাগন জানিয়েছে, চীন শক্তি প্রদর্শনের মাধ্যমে তাইওয়ানকে নিজেদের সঙ্গে একীভূত করারও প্রস্তুতি নিচ্ছে। এতে যদি যুক্তরাষ্ট্র সামরিক হস্তক্ষেপ করে তাহলে চীন কার্যকর মার্কিন হস্তক্ষেপে বিলম্ব সৃষ্টি করতে পারে এবং বড়ধরনের স্বল্প সময়ের যুদ্ধে জয়ী হতে চাইবে। পেন্টাগনে এই সতর্কতা এমন সময় আসলো যখন পাল্টাপাল্টি শুল্কারোপের মাধ্যমে চীন ও যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্যযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছে। একই সঙ্গে প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে বিপুল পরিমাণে বৈদেশিক সহায়তার পরিমাণ বাড়াচ্ছে চীন। গত বছরই এই অঞ্চলে চার বিলিয়ন ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি দেয় দেশটি। ২০১৪ সালে প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে চতুর্থ বৃহৎ দাতা দেশ ছিল চীন। অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ও নিউজিল্যান্ডের পরই দেশটির অবস্থান ছিল। তবে বেইজিং তার সহায়তা বাড়িয়ে গেছে। বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রাম্প প্রশাসন দুনিয়াজুড়েই মার্কিন সহায়তার পরিমাণ কমিয়েছে। সব মিলিয়ে তহবিল ব্যয়ের পরিমাণের ভিত্তিতে ২০১৭ সালে এ অঞ্চলের দ্বিতীয় বৃহৎ দাতা দেশে পরিণত হয় চীন। একই বছর প্রতিশ্রুত অর্থ সাহায্যের হিসাবে বৃহত্তম দাতা দেশে পরিণত হয় দেশটি। এসি   

ট্রাম্প প্রশাসনের কোপের মুখে একাধিক রুশ-চীনা বাণিজ্যিক সংস্থা

রাষ্ট্রসংঘের নিষেধাজ্ঞা অগ্রাহ্য করে উত্তর কোরিয়াকে অর্থনৈতিক সাহায্য দিয়েছে বেশ কয়েকটি রুশ ও চীনা বাণিজ্যিক সংস্থা৷ সেই অপরাধে সংস্থাগুলোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল আমেরিকা৷ বুধবার এই সংক্রান্ত একটি তালিকা প্রকাশ করল মার্কিন ট্রেজারি দফতর৷ নিষেধাজ্ঞা খাঁড়া নেমে এসেছে আমেরিকায় ব্যবসা চালান একাধিক বৃহৎ রুশ ও চীনা ব্যবসায়িক সংস্থার উপরে৷ নিরস্ত্রীকরণ ইস্যুতে পিয়ংইয়ং-এর উপরে চাপ সৃষ্টি করার জন্যই এই পন্থা নিয়েছে ওয়াশিংটন৷ মনে করছে আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক মহল৷ জানা গেছে, প্রকাশিত তালিকায় নাম রয়েছে, চীনা সংস্থা দালিয়ান সান মুন স্টার ইন্টারন্যাশনাল লজিস্টিক ট্রেডিং কোম্পানি, লিয়াঙ্গ ইয়ে ও এসআইএনএসএমএস-এর৷ যারা উত্তর কোরিয়াতে সিগারেট ও অ্যালকোহল রফতানি করেছে এবং ব্যবসা করেছে জ্বালানি তেলের৷ যার ফলে গত বছরে পিয়ংইয়ং-এর আয় হয়েছে প্রায় এক বিলিয়ন মার্কিন ডলার৷ একইভাবে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে রুশ সংস্থা প্রফিনেটকে৷ অভিযোগ, রাষ্ট্রসংঘের নিষেধাজ্ঞাকে পাত্তা না দিয়ে উত্তর কোরিয়ার বেশকিছু জাহাজে মালপত্র খালাসে সাহায্য করেছে সংস্থাটি৷ জাহাজগুলোতে ভরে দিয়েছে জ্বালানি৷ কেবল সংস্থাকে কালো তালিকাভুক্ত করেই থেমে থাকেনি মার্কিন ট্রেজারি দফতর৷ ষড়যন্ত করার ঘোরতর অভিযোগ এনেছে সংস্থার ডিজি আলেকজান্দ্রোভিচ কোলছানোবের বিরুদ্ধে৷ নিষেধাজ্ঞা উড়িয়ে রমরমিয়ে পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা, বেআইনি অস্ত্র ব্যবসা ও অন্যান্য ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া৷ সম্প্রতি এই সংক্রান্ত রিপোর্ট জমা পড়ে রাষ্ট্রসংঘ৷ ১৪৯ পাতার রিপোর্টে বলা হয়, জাহাজে করে, সমুদ্র পথে বিভিন্ন দেশে পেট্রোলিয়াম পণ্য ও কয়লা সরবরাহ করছে পিয়ংইয়ং৷ সবার অলক্ষ্যে চালাচ্ছে ব্যালিস্টিক মিসাইলের চোরা চালান৷ এমনকি, সিঙ্গাপুরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ইতিবাচক বৈঠকের পরেও গোপনে পারমাণবিক অস্ত্র ও মিসাইল প্রযুক্তির উন্নতি ঘটিয়ে চলেছেন উত্তর কোরিয়ার সর্বাধিনায়ক কিম জং উন৷ সূত্রের খবর, ২০১৮-র প্রথম পাঁচ মাসে ৫ লাখ ব্যারেলেরও বেশি পেট্রোলিয়াম কিনেছে কিমের দেশ৷ ৪০টি জাহাজে করে ১২০টি আন্তর্জাতিক সংস্থা থেকে এই তেল এসেছে উত্তর কোরিয়ায়৷ কেবল আমদানিই নয়, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বেআইনি রফতানিও চালাচ্ছেন উত্তর কোরিয়ায় সর্বাধিনায়ক৷ রাষ্ট্রসংঘের রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়, ২০১৭-র অক্টোবর থেকে ২০১৮-র মার্চ পর্যন্ত চীন, ভারত এবং অন্যান্য দেশে লোহা ও ইস্পাত সরবরাহ করেছে পিয়ংইয়ং৷ আয় করে ১৪ মিলিয়ন ডলার৷ ঘানা, মেক্সিকো, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, তুরস্ক ও উরুগুয়েতে করে বস্ত্র রফতানি৷ সেখান থেকে আয় হয় ১০০ মিলিয়ন ডলার৷ এমনকি, লিবিয়া, ইয়েমেন ও সুদানে অস্ত্র ও অন্যান্য সামরিক সরঞ্জামও চোরাপথে চালান করে কিমের দেশ৷ সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন একে//

ভারতে বন্যায় মৃতের সংখ্যা ১১৪

ভারতের কেরালায় বিধ্বংসী বন্যায় এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ১১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটির দক্ষিণের রাজ্যটির জনজীবন সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত। শুক্রবার ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর শেষকৃত্য সম্পন্ন করে সন্ধ্যায় কেরালার উদ্দেশে রওনা দেবেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ইতিমধ্যে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের সঙ্গে ফোনে কথা হয়েছে মোদি। রাজ্যের সাম্প্রতিকতম পরিস্থিতির বিষয়ে কথা হয়েছে দু`জনের। মোদি নিজে এদিন উদ্ধারকার্য খতিয়ে দেখতে কেরালা যাচ্ছেন। জানা গেছে, বিগত শতাব্দীতে কখনও এমন বন্যা দেখেনি কেরালা। ১১৪টি প্রাণ কেড়ে নেওয়ার পাশাপাশি এই বন্যায় সম্পদ ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। কাসারাগোদ ছাড়া রাজ্যের ১৩টি জেলাতেই রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। এরনাকুলাম এবং ইদুক্কি জেলায় শনিবারের জন্যও রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে ইতিমধ্যে। শুক্রবার সকালে তিরুঅনন্তপুরমে পৌঁছেছে ন্যাশানাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্সের (এনডিআরএফ) ৫টি ইউনিট। রাজ্য জুড়ে উদ্ধার কাজে লেগে পড়েছে বাহিনীর সদস্যরা। আজই কেরলে পৌঁছনোর কথা এনডিআরএফ-এর আরও ৩০টি দলের। বন্দিপেরিয়ার থেকে বন্যা কবলিত মঞ্জুমালা গ্রামে স্থানান্তরিত করা হয়েছে উপকূল রক্ষীবাহিনীর উদ্ধারকারী দলকে। ইতিমধ্যে ওই গ্রাম থেকে ১৬ জনকে উদ্ধার করেছে বাহিনী। উদ্ধার কার্যের পাশাপাশি ত্রাণ হিসাবে শুকনো খাবারও বিতরণ করা হচ্ছে। জলস্তর ক্রমশ বাড়তে থাকায় কোচিন বন্দর এই মুহূর্তে বন্ধ। ফলে যাবতীয় কাজের জন্য ব্যবহার হচ্ছে কেবল তিরুঅনন্তপুরম এবং কালিকুট বন্দর। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে কেন্দ্রের তরফে সব কেরালাগামী আন্তর্দেশীয় উড়ান পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাকে ভাড়ায় রাশ টানার অনুরোধ করা হয়েছে। কেরালা থেকে যেসব উড়ান দেশটির অন্যত্র যাবে, সেখানেও ভাড়ার বিষয়টি কম রাখার বিষয়ে বলা হয়েছে। সূত্র: জিনিউজ একে//

যুক্তরাষ্ট্রে গভর্নর পদে তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো গভর্নর পদে দলের মনোনয়ন জিতে নিয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের এক প্রার্থী। ক্রিস্টিয়ান হলকুইস্ট নামে সেই ব্যক্তি প্রতিদ্বন্দ্বী তিন প্রার্থীকে পরাজিত করে ভারমন্টের গভর্নর প্রার্থী হিসেবে ডেমোক্রেট পার্টির দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত প্রাথমিক ভোটাভুটির মাধ্যমে ক্রিস্টিন হলকুইস্টকে মনোনীত করে ডেমোক্রেটিক পার্টি। ফলে তিনিই হচ্ছেন কোনো বড় দলের মনোনয়ন পাওয়া প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী। আগামী নভেম্বরের মধ্যবর্তী নির্বাচনে বড় ব্যবধানে জেতার সম্ভাবনা রয়েছে তার। বুধবার এ খবর জানিয়েছে রয়টার্স। যুক্তরাষ্ট্রে সমকামী নারী ও পুরুষদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় লড়াই করছেন ক্রিস্টিন। মনোনয়ন জেতার পর এক সাক্ষাৎকারে বলেন, আমি মনে করি, দেশের বাকি অংশের জন্য ভারমন্ট এক আশার প্রদীপ। আরকে//  

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন আজ: এগিয়ে ইমরান খান

প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে পাকিস্তানের সংসদে ভোট আজ। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা পর্যন্ত ছিল প্রধানমন্ত্রীর প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ সময়। এদিকে, পিটিআইবিরোধী জোট গড়লেও শেষ পর্যন্ত শাহবাজকে সমর্থন দিচ্ছে না বেনজির ভুট্টোর দল পিপিপি। তাই পরিসংখ্যান বলছে, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ইমরান খানই নিশ্চিত। এর আগে, বুধবার স্পিকার পদে আসাদ কায়সার ও ডেপুটি স্পিকার পদে কাসিম সুরি নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিত হওয়ার পরই নতুন স্পিকার আসাদ কায়সার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু করার ঘোষণা দেন। প্রধান বিরোধী দল নওয়াজের পিএমএল-এন ইমরানের প্রধানমন্ত্রী হওয়া ঠেকাতে ১১ দলীয় গড়ে। তবে প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে তৃতীয় স্থানে থাকা পিপিপির সঙ্গে ঐকমত্যে পৌঁছতে পারেনি দলটি। আরকে//

ভারতের মাটিতে জন্ম নিল প্রথম পেঙ্গুইন

ভারতের স্বাধীনতা দিবসে প্রকৃতি প্রেমীদের জন্য সুখবর। ভারতের প্রথম পেঙ্গুইন ছানা জন্ম নিল মুম্বাইয়ের এক চিড়িয়াখানায়।   ব্রিহান মুম্বাই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন ঘোষনা করে গতকাল ১৫ই আগস্ট রাত আটটায় পেঙ্গুইন ছানাটি জন্মগ্রহণ করে।চিড়িয়াখানার ডিরেক্টর ইন চার্জ সঞ্জয় ত্রিপাঠী জানান, জন্মের পর থেকেই বেশ চনমনে রয়েছে ছানাটি। মা পেঙ্গুইন ছানাটিকে খাওয়ানোর চেষ্টা করছে। বীর জীজাবাই ভন্সাল উদ্যানে সদ্যজাত পেঙ্গুইনের বাবা-মা মিস্টার মোল্ট ও ফ্লিপারকে নিয়ে উত্তেজনা ছিল বেশ কয়েকদিন ধরেই। গত জুলাই মাসে ফ্লিপার প্রসব করে। চিড়িয়াখানার সবচেয়ে পুরাতন মহিলা সদস্য ফ্লিপার। উল্টোদিকে মিস্টার মোল্ট নবীনতম সদস্য। এই উদ্যানের পেঙ্গুইন পাড়ার সবচেয়ে চর্চিত নাম মিস্টার মোল্ট ও ফ্লিপার। চিড়িয়াখানায় ঘুরতে আসা মানুষদের কাছেও সেরা আকর্ষণ এরা। প্রায় ৪০ দিন ধরে প্রবল যত্নের সঙ্গে ডিমটির পরিচর্যা করেন চিড়িয়াখানার কর্মীরা। তাদের মধ্যেও উৎসাহের অন্ত ছিল না। পেঙ্গুইনদের জন্য তৈরি একটি বিশেষ শীতল স্থানে ডিমটিকে রাখা হয়। অবশেষে জল্পনার অবসান ঘটিয়ে স্বাধীনতা দিবসের রাতে ডিমের খোলস থেকে মুক্ত হয় সে। প্রায় এক হাজার সাতশ স্কোয়ার ফিট জায়গা জুড়ে তৈরি এই জায়গায় সবসময় ১৬ থেকে ১৮ ডিগ্রি তাপমাত্রার সমতা রাখা হয়। পানির পরিমাণও নিয়মিত দেখা হয়। সেখানে পেঙ্গুইনদের মাছ খেতে দেওয়া হয়। ২০১৬ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার চিড়িয়াখানা থেকে আটটি পেঙ্গুইনকে ভারতে নিয়ে আসা হয়। পরে তাদের নামকরণও করা হয়। ডোরি, ডোনাল্ড, ডাইসি, পোপেই, অলিভ, বাবেল, ফ্লিপার এবং মিস্টার মোল্ট। ওই আটটি পেঙ্গুইন মুম্বাই চিড়িয়াখানার অন্যতম আকর্ষণ। যদিও ডোরি মারা যায়। গত ২৩ অক্টোবর জনসমক্ষে আসার আগেই ব্যাকটেরিয়া ঘটিত সংক্রমণের ফলে পেঙ্গুইন পরিবারের সদস্য সংখ্যা কমে যায়। তবে ভারতের মাটিতে এই প্রথম কোন পেঙ্গুইন জন্ম নিল। সদ্যজাত এই পেঙ্গুইনকে নিয়ে উৎসাহের অভাব নেই চিড়িয়াখানাজুড়ে। পাশাপাশি ভারতের জলবায়ুতে ওরা মানিয়ে নিতে পারছে তা দেখে অনেকেই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন। এমএইচ/এসি  

সমস্যা সমাধানে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কথা বলতে প্রস্তুত তুরস্ক

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মাধ্যকার চলমান সমস্যা সমাধানে তুরস্ক যথেষ্ট আন্তরিক বলে জানিয়েছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলোট ক্যাভাসুগলো। সমস্যা সমাধানে তারা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যে কোনো ধরণের কথা বলেতে প্রস্তুত রয়েছে বলে জানান তিনি। সম্প্রতি আঙ্কারায় বিদেশি রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, সব দ্বন্দ্ব ভুলে আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কথা বলতে প্রস্তুত রয়েছি। তবে এখানে কোনো শর্ত ও হুমকি থাকতে পারবে না।    এদিকে গত শুক্রবার তুরস্ক থেকে আমদানি করা অ্যালুমিনিয়াম ও স্টিলের ওপর দ্বিগুণ শুল্কারোপের ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।   পরে এর পাল্টা জবাবে হিসেবে মার্কিন পণ্যের ওপর দ্বিগুণ শুল্কারোপ করে তুরস্ক। এর মধ্যে রয়েছে যাত্রীবাহী গাড়ি, অ্যালকোহল ও তামাক। উল্লেখ্য, মার্কিন যাজককে সন্ত্রাসবাদ মামলায় বিচার ও বিভিন্ন কূটনৈতিক কারণে দুই ন্যাটো মিত্রের মধ্যে উত্তেজনা চলছে।   তথ্যসূত্র: আল-জাজিরা। এমএইচ/ এসএইচ/  

তুরস্কের পাশে জার্মান চ্যান্সেলর   

যুক্তরাষ্ট্র আর তুরস্কের মধ্যে চলছে এখন চরম উত্তেজনা। ধর্ম যাজককে কেন্দ্র করে বন্ধুত্বের সম্পর্ক এখন রুপ নিয়েছে চরম শত্রুতায়। এর মধ্যেই আংকারার প্রতি সমর্থনের ঘোষণা দিয়েছে জার্মানি। বুধবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগানের সঙ্গে টেলিফোন আলাপে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেল তুরস্কের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেন বলে খবর প্রকাশ করেছে তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদলু এজেন্সি। অ্যাঙ্গেলা মারকেল বলেন, তার সরকার তুরস্কের সঙ্গে সহযোগিতামূলক সম্পর্ক শক্তিশালী করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সর্বোচ্চ পর্যায়ের সফরের মধ্য দিয়ে সে সম্পর্ক এগিয়ে নেওয়া হবে।    সামনে সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান জার্মানি সফরে যাবেন। এছাড়া আগামী কয়েক দিনের মধ্যে তুরস্কের অর্থমন্ত্রী বেরাত আলবায়রাকের সঙ্গে জার্মান অর্থমন্ত্রী পিটার আল্তমেয়ারের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র জানিয়েছে, ফোনালাপের সময় জার্মান চ্যান্সেলর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, জার্মানির স্বার্থেই তুরস্কের শক্তিশালী অর্থনীতি দরকার। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যখন তুরস্কের পণ্যের ওপর নানারকম বাড়তি শুল্ক আরোপের পদক্ষেপ নিয়েছেন এবং আংকারার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন ঠিক তখনই চ্যান্সেলর মেরকেল তুরস্কের প্রতি এই সমর্থনের কথা জানালেন। এসি    

অটল বিহারী বাজপেয়ী আর নেই

দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী। দীর্ঘ অসুস্থতায় ভুগতে থাকা ৯৩ বছর বয়সী সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে নয়াদিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেস (এইমস) হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। দীর্ঘদিন ধরেই বাজপেয়ীর একটি কিডনি অচল ছিল। গত কয়েক বছর ধরে ঠিক মতো সচল ছিল না তার স্মৃতিশক্তি। অসামান্য বাগ্মীতার জন্য খ্যাতি ছিল যার, সেই অটলবিহারী বাজপেয়ী গত কয়েক বছর ধরে কথা বলার ক্ষমতাও হারিয়েছিলেন অনেকটাই। কিডনি, মূত্রনালী ও বুকে সংক্রমণ নিয়ে গত ১১ জুন থেকে টানা হাসপাতালেই ছিলেন তিনি। বুধবার দুপুর থেকেই অটলবিহারী বাজপেয়ীর শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত সঙ্কটজনক হতে শুরু করে। তাকে দেখতে হাসপাতালে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কেন্দ্রীয় বস্ত্রমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযুষ গয়াল-সহ অারো অনেকে। বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীসহ অনেকেই গত কয়েক দিন ধরে নিয়মিত খোঁজখবর নিচ্ছিলেন তার শারীরিক অবস্থার। ১৯৯৬, ১৯৯৮, ১৯৯৯ সালে তিনবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন অটলবিহারী বাজপেয়ী। প্রথম দফায় ১৩ দিন, দ্বিতীয় দফায় ১৩ মাস আর তৃতীয় দফায় পূর্ণ সময়ের জন্য প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশের দায়িত্বভার সামলেছেন তিনি। ২০১৪ সালে মোদির সরকার ক্ষমতায় আসার পরে বাজপেয়ীকে ভারতরত্ন দেওয়া হয়। ২০০২ সালে গুজরাটে ভয়াবহ সাম্প্রদায়িক সহিংসতার সময় এ রাজ্যের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে রাজধর্ম পালনের পরামর্শ দিয়েছিলেন বাজপেয়ী। ভারত যদি ধর্মনিরপেক্ষ না হয়, তা হলে ভারত ভারতই নয়; এমন মন্তব্যও শোনা গিয়েছিল তার মুখে। ১৯২৪ সালে গ্বালিয়রে জন্ম বাজপেয়ীর। বাবা কৃষ্ণবিহারী বাজপেয়ী কবি ছিলেন। দীর্ঘ এবং ব্যস্ত রাজনৈতিক জীবনের ফাঁকে অবসর খুঁজে নিয়ে অটলবিহারীও কাব্যচর্চা করতেন নিয়মিত। গ্বালিয়রেই আর্যসমাজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলেন অটল। তখন ছাত্রাবস্থা। তার পরে যোগ দেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘে। পরবর্তীতে জনসংঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের অত্যন্ত প্রিয়পাত্র হয়ে ওঠেন। ১৯৭৭ সালে জনতা পার্টি সরকারে মন্ত্রী হন তিনি। কিন্তু পরে সংঘপন্থী অন্য নেতাদের সঙ্গে বাজপেয়ীও জনতা পার্টি ছেড়ে বেরিয়ে আসেন, গঠিত হয় ভারতীয় জনতা পার্টি। তথ্যসূত্র: বিবিসি, টাইমস অব ইনডিয়া। এসএইচ/  

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি