ঢাকা, বুধবার, ২৫ এপ্রিল, ২০১৮ ১৪:৫২:৩৩

রোমাকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে ফাইনালের পথে লিভারপুল

চ্যাম্পিয়নস লীগ:

রোমাকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে ফাইনালের পথে লিভারপুল

রোমার বিপক্ষে দাপুটে জয় তুলে নিয়েছে লিভারপুল। মোহামেদ সালাহ ও রবের্তো ফিরমিনোর জোড়া গোলে রোমাকে উড়িয়ে দিয়েছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। মঙ্গলবার রাতে ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের প্রথম লেগে রোমাকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখলো ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। সর্বশেষ ২০০৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ফাইনাল খেলেছিল অলরেডরা। ১১ বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ওঠার পথে কিছুটা এগিয়ে গেল অ্যানফিল্ডের ক্লাবটি।তবে বড় ব্যবধানে হারলেও শেষ দিকে পাওয়া মুল্যবান দুটি অ্যাওয়ে গোল আশা জোগাচ্ছে বার্সেলোনাকে হারিয়ে শেষ চারে ওঠা রোমাকে। একের পর এক আক্রমণ করতে থাকা লিভারপুল ম্যাচের ৩৬তম মিনিটে পায় গোলের দেখা। ফিরমিনোর পাস ধরে বাঁ-পায়ের দুর্দান্ত কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন সালাহ। বল ক্রসবারের নিচের দিকে লেগে ভিতরে ঢোকে। ২০০৮ সালের স্টিভেন জেরার্ডের পর প্রথম অলরেড ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা পাঁচ ম্যাচে গোল করলেন সালাহ। ম্যাচের ৪৫তম মিনিটে দুর্দান্ত এক কাউন্টার এটাক থেকে আবারও রোমা ডিফেন্স এবং গোলকিপার এলিসনকে বোকা বানিয়ে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন সালাহ। তবে এবারও সহায়তায় ফিরমিনো। এ গোলে মৌসুমের ৪৭টি ম্যাচে ৪৩টি গোল করলেন মিশরের ফরোয়ার্ড।বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দিলেও লিভারপুলের দুর্দান্ত আক্রমণভাগের কল্যাণে সেটি আর পেরে ওঠেনি রোমা। দ্বিতীয়ার্ধ শুরু করা লিভারপুল ম্যাচের ৫৬তম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়ায়। ডান দিক থেকে সালাহর পাস পেয়ে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন মানে। ৩-০ গোলে এগিয়ে থেকেও যেন গোলের ক্ষুধা মিটেনি লিভারপুলের। ম্যাচে নিজের প্রথম গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার ফিরমিনো। ৬১তম মিনিটে ডি-বক্সে ঢুকে ডিফেন্ডার জুয়ান জেসুসকে কাটিয়ে সালাহর গোলমুখে বাড়ানো বল টোকা দিয়ে জালে পাঠান ফিরমিনো। এক হালি গোল খেয়ে যেন ছন্নছাড়া হয়ে পড়ে রোমানরা। এই সুযোগে ৬৯তম মিনিটে আবারও ফিরমিনোর গোল করলে ৫-০ গোলের বিশাল লিড পায় ক্লপের দল।শেষ ১০ মিনিটে ম্যাচের চেহারা আচমকা পাল্টে যায়। চার মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল খেয়ে বসে স্বাগতিকরা। ম্যাচের ৮১তম মিনিটে রোমার হয়ে একটি সান্ত্বনাসূচক গোল করেন এডিন জেকো। বার্সেলোনার বিপক্ষে দুই লেগেই গোল করেছিলেন বসনিয়ার এই স্ট্রাইকার। ম্যাচের ৮৫তম মিনিটে ডি বক্সের ভেতর জিমস মিলনারের হ্যান্ডবলের সুবাদে পেনাল্টি পায় রোমা। স্পট কিক থেকে গোল করেন পেরোত্তি। ২ গোল শোধ দিয়ে ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে আরও আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে রোমা কিন্তু আর শেষ রক্ষা হয়নি। ফলে ৫-২ গোলের জয় নিয়েই ফাইনালের পথে অনেকটা এগিয়ে রইল লিভারপুল। দ্বিতীয় লেগে রোমার মাঠে ড্র করলেই ফাইনালে উঠে যাবে তারা। রোমার সামনে সুযোগ থাকবে এওয়ে গোলের সুবিধা নিয়ে লিভারপুলকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে ওঠার সুযোগ।আগামী ২ মে অলিম্পিক স্টেডিয়ামে লিভারপুলকে দ্বিতীয় লেগে স্বাগত জানাবে রোমা। তাদের জন্য ওই ম্যাচে অনুপ্রেরণা হতে পারে বার্সার বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো জয়। সূত্র: গোল ডটকমএকে/ এমজে
সানিয়া মির্জার অন্তঃসত্ত্বায় যা বললেন ফারাহ খান   

অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন ভারতের টেনিস সেনসেশন সানিয়া মির্জা। পাকিস্তানের তারকা ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের সাথে সানিয়ার সংসারে শীঘ্রই বাড়তে যাচ্ছে নতুন সদস্য। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারের মাধ্যমে নিজের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পোস্টটি ভাইরাল হয়েছে অনেক আগেই। সেই পোস্টে মন্তব্য করছেন নামীদামী লোকজন। সবথেকে নজর কেড়েছে ফারাহ খানের মন্তব্য। বলিউড পাড়ার খ্যাতিমান নৃত্য ও চলচ্চিত্র পরিচালক ফারাহ খান সানিয়া মির্জার পোস্টে মন্তব্য করেন, “শেষ পর্যন্ত!!! বিষয়টা এত লম্বা সময় গোপন রাখা সত্যিই অনেক কষ্ট সাধ্য ছিল”। ফারাহ খানের মন্তব্যে পালটা মন্তব্য করেছেন বলিউড অভিনেত্রী টাবু। সাবেক এই গ্ল্যামারাস নায়িকা লেখেন, “তাও তোমার কাছ থেকে!” ফারাহ খানের মন্তব্য থেকে স্পষ্ট যে, সানিয়া মির্জা অনেক দিন থেকেই তাঁর গর্ভধারণের বিষয়টি গোপন রেখে এসেছেন। আর এই গোপনীয়তার অংশ ছিলেন খোদ ফারাহ খান নিজেও। টাবুর মন্তব্য থেকে স্পষ্ট যে, ফারাহ খান কীভাবে এতদিন বিষয়টা নিজের পেটে আটকে রাখতে পারলেন তা ভেবে বেজায় বিস্মিত তিনি। টাবুর মন্তব্যের জবাবে ফারাহ খান সবশেষে লেখেন, “কংগ্রাচুলেশন!!! খোদার দরবারে শুক্রিয়া যে তোমরা শেষমেশ খবরটি প্রকাশ করেছ। এমন একটি সুখবর এতদিন চেপে রাখাটা আসলেই কষ্টকর”। ফারাহ খানের টুইটটিতে এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন হাজার লাইক পরেছে সানিয়া ভক্তদের। এছাড়া টুইটটিকে রিটুইট (শেয়ার) করা হয়েছে অন্তত ১৯০ বার। এদিকে নিজেদের আগত সন্তানের নামের বিষয়ে মুখ খুলেছেন সানিয়া মির্জা। গোয়ার একটি অনুষ্ঠানে সম্প্রতি সানিয়া বলেন যে, “আমাদের সন্তান ছেলে বা মেয়ে যেই হোক না তার নামের সাথে বাবা ও মা দুই জনের নামই থাকবে। নামের শেষে ‘মির্জা মালিক’ পদবী থাকবে”। আগত সন্তান হিসেবে শোয়েব মালিক কন্যা শিশু আশা করছেন বলেও জানান সানিয়া মির্জা।    সূত্রঃ এনডিটিভি //এস এইচ এস//এসি    

দুর্ভাগ্যজনক আউটের শিকার সাকিব 

দলের দুঃসময়ে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন সাকিব আল হাসান। তখন ৪৪ রানেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ৩ উইকেট চলে যায়। এর পরে দারুণ চাপে পরে সাকিবের দল। সাকিব মাঠে নামার পরে তার কাছে বাড়তি প্রত্যাশাটাও ছিল। কিন্তু সে আশা গুঁড়েবালি! চালকের আসনে যেতে পারলেন আর কই?  অবশ্য এতে সাকিবের দোষ নেই। স্ট্রাইকিং এন্ডে থাকা উইলিয়ামসন কলটা দিয়েছিলেন, পরে আবার `না` করে দেন। এতে সাকিব কল পেয়ে মাঝ পিচে পর্যন্ত গিয়ে ফিরে আসতে চাইলেও পারেননি। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সূর্যকুমার যাদবের সরাসরি থ্রোতে ২ রান করেই প্যাভিলিয়নে ফিরতে হয় সাকিবকে। দুর্ভাগ্যজনক রান আউটের শিকার হলেন তিনি। এর আগে ১২ আর ২৭ রানের দুটি ইনিংসের পর শেষ দুই ম্যাচে সমান ২৪ রান করে করেন এই অলরাউন্ডার। এর মধ্যে একটিতে ছিলেন অপরাজিত। কেআই/এসি  

বিতর্কে এবার ভারতীয় ক্রিকেটার যুজবেন্দ্র চাহাল

ভারতীয় ক্রিকেটার মহম্মদ শামি ও হার্দিক পান্ডিয়ার রেশ কাটতে না কাটতে এবার নতুন করে বিতর্কে জড়ালেন যুজবেন্দ্র চাহাল। তারকা এ স্পিনারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, কন্নড় এক অভিনেত্রীর সঙ্গে নাকি তিনি চুটিয়ে প্রেম করছেন। এমনকি তারা নাকি গোপনে বিয়েও করেছেন! সোশাল মিডিয়ায় তাদের প্রেম-বিয়ে নিয়ে নাকি বেশ উত্তাপ ছড়াচ্ছে। টাইমস নাউয়ের প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে। তানিশকা কাপুর নামের ওই অভিনেত্রীর সঙ্গে তার কোন ধরণের সম্পর্ক নেই বলে সাফ জানিয়ে দেন স্যোশাল  মিডিয়ায় সক্রিয় থাকা হরিয়ানার স্পিনার চাহাল। সোমবারই বিরাটের দলের ২৭ বছর বয়সী স্পিনার টুইটারে বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেন।  টুইটে তিনি লেখেন, আমি বলতে চাই, আমার জীবনে এখন এমন কিছুই ঘটছে না। আমি বিয়ে করছি না। আমি এবং তানিশকা দু`জনেই খুব ভালো বন্ধু। আমার অনুরোধ, দয়া করে গুজব ছড়াবেন না। আমি আশা করব, সবাই আমার ব্যাক্তিগত বিষয়টি বুঝবেন। আমার বিয়ে নিয়ে পোস্ট করা বন্ধ করুন। কিছু পোস্ট করার আগে তা যাচাই করে নিন।    জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার আইপিএলে’ বিরাট কোহলির দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে খেলছেন। আরকে//এসি  

অপ্রতিরোধ্য রোনালদো, সেমির পথে রিয়াল

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, গ্যারেথ বেল ও করিম বেনজেমাকে ইতোমধ্যে অপ্রতিরোধ্য ত্রয়ী হিসেবে চিনে গেছে ফুটবল বিশ্ব। তবে বাকি দুইজনকে ছাড়িয়ে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো উঠে এসেছেন দলের মধ্যমণি হয়ে। গত বুধবারের ম্যাচে বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে অপ্রতিরোধ্য খেলে ফের চিনিয়েছেন নিজের জাত। আর এতে রিয়াল মাদ্রিদ ও রোনালদো যেন পরষ্পরের বিপরীত নাম হয়ে উঠেছে। বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে অবিশ্বাস্য খেলে রিয়াল মাদ্রিদকে নিয়ে যাবেন চ্যাম্পিয়ন লীগের সেমি ফাইনালে, এমনই প্রত্যাশা রিয়াল সমর্থকদের। রোনালদো চ্যাম্পিয়ন লীগে ১২ ম্যাচ খেলে করেছেন ২২ গোল। গত ১১ ম্যাচের প্রতিটিতেই তিনি অন্তত একটি করে গোল পেয়েছেন। বায়ার্ন ডিফেন্ডার জেরুম বোয়াটেং বলেন, রোনালদোকে আটকানো অসম্ভব। একমাত্র দলীয়ভাবেই তাকে আটকানো যাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বোয়াটেং আরও বলেন, একজন আক্রমণকারীর এর চেয়ে শক্তিশালী হতে পারে না। সে তার বাম-পা, ডান-পা, মাথা, শরীর সমানভাবে কাজে লাগাতে পারেন। আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো জলে উঠায়, দলের অন্য দুই নির্ভার স্ট্রাইকার বেল ও বেনজেমা একেবারেই চাপমুক্ত খেলেন বলেও মত দেন বোয়াটেং। এদিকে ইনজুরি থেকে ফিরে আসা গ্যারেথ বেলও আছেন ফুরফুরে মেজাজে। দ্বিতীয় লীগে বায়ার্নের উপর আক্রমণের ধার বাড়াতে মুখিয়ে আছেন তিনিও। এদিকে ঘরের মাঠে নামার আগে বেশ চোট সমস্যায় জর্জরিত বায়ার্ন ম্যানেজমেন্ট ৷ চোটের জন্য দলে নেই আর্তুরো ভিদাল ৷ গোলদুর্গের নিচে দায়িত্ব সামলাতে পারবেন না দলের একনম্বর গোলরক্ষক ম্যানুয়েল ন্যুয়র ৷ অন্যদিকে রিয়ালে চোটের সমস্যা খালি নাচোর চোট ৷ টানা দু‘বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা রিয়াল মাদ্রিদের সামনে এবার হ্যাটট্রিকের হাতছানি ৷ তাই বায়ার্ন কাঁটা উপড়ে ফেলতে বদ্ধপরিকর তাঁরাও ৷ চ্যাম্পিয়ন্স লিগে স্বপ্নের ফর্মে রয়েছেন রোনাল্ডো ৷ ধারাবাহিক ভাবে গোলও পাচ্ছেন তাই মেগা ম্যাচে রিয়ালের কি ফ্যাক্টর হয়ে উঠতে চলেছেন তিনিই ৷ অন্যদিকে বায়ার্নের তুরুপের তাস হয়ে উঠতে পারেন পোল্যান্ডের তারকা স্ট্রাইকার রবার্ট লেওয়ানডস্কি ৷ বুধবার রাত ১২ টা ১৫ তে ফের ফুটবলপ্রেমী জনতা চোখ সেঁটে নেবেন টিভি পর্দার সঙ্গে, ইউরোপ সেরার এই লড়াইতে কে কাকে কিক আউট করতে পারে তা দেখার জন্য ৷ সূত্র: এএফপি  এমজে/  

এবার ইনজুরিতে মাহমুদুল্লাহ

টাইগার শিবিরে আবারো ইনজুরির হানা। তামিম, মুশফিক, নাসিরের পর এবার এটির স্বীকার মাহমুদুল্লাহ। গোড়ালির ব্যথা নিয়েই বেশ কয়েক মাস খেলছিলেন তিনি। তবে বিসিএলের গত রাউন্ডে খেলার সময় ব্যথাটা বেড়ে যায়। তাই চিকিৎসকের পরামর্শেই বিসিএলের শেষ রাউন্ডে খেলছেন না তিনি। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন,  মাহমুদুল্লাহর গোড়ালিতে আগেই ব্যথা ছিল। ও সেটা ম্যানেজ করেই শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফি ও বিসিএলে আগের রাউন্ডে খেলেছে। তবে বিসিএলের শেষ রাউন্ডে খেলার সময় ব্যথা অসহনীয় হয়ে ওঠে। আপাতত তাকে একটি ইনজেকশন দেওয়া হয়েছে। তিনি এখন বিশ্রামে আছেন। আশা করছি, অল্প সময়েই মধ্যেই তিনি সুস্থ হয়ে ক্যাম্প থাকবেন। প্রসঙ্গত, আগামী ১৩ মে জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হবে। জুনের শুরুতে আফগানিস্তান এবং শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। বর্তমানে টাইগার শিবিরে ইনজুরিতে পড়া ক্রিকেটারদের তালিকাটা বেশ লম্বা। যাদের মধ্যে রয়েছেন মুশফিক, নাসির, তাসকিন, মোসাদ্দেক ও মিরাজ। এছাড়া পুনর্বাসন চলছে তামিম ইকবালের।   আর

নিজেকে ফিট রাখতেই প্রথম শ্রেণির ম্যাচ: মাশরাফি

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসরে রেকর্ড করে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। তাই বল হাতে দারুণ এই সময়টা নষ্ট করতে চাচ্ছেন না তিনি। আজ আবার বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) শেষ রাউন্ডের ম্যাচ খেলতে মাঠে নামছেন তিনি। মঙ্গলবার খুলনা শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে উত্তরাঞ্চলের বিপক্ষে খেলতে নামবেন মাশরাফি। এর আগে গত বছর সেপ্টেম্বরে সর্বশেষ প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছিলেন। জাতীয় লিগে বরিশালের বিপক্ষে এই মাঠেই নেমেছিলেন তিনি। গতবারের মতো এবারও ম্যাচ ফিটনেস ধরে রাখাই এই ম্যাচ খেলার লক্ষ্য বলে জানালেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক। তিনি গণমাধ্যমকে জানান, বিশেষ কোনো উদ্দেশ্য নেই। খেলার মধ্যে নিজেকে রাখাই মূল চিন্তা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট যেহেতু ওয়ানডে ছাড়া অন্য কোনো ফরম্যাটে খেলি না, তাই খেলার সুযোগ নষ্ট করা উচিত না। ২০০৯ সালের জুলাই মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে কিংসটাউনে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন মুর্তজা। সেটা ছিল মাশরাফির অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক টেস্ট। ম্যাচের তৃতীয় দিন ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। সেই ম্যাচই তার ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত শেষ টেস্ট হয়ে আছে। আন্তর্জাতিক টেস্ট ক্রিকেটে না ফিরলেও গত আট বছরে বেশকিছু প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ২০০৯ সালের পর থেকে এ পর্যন্ত ৬টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফি। এর মধ্যে ২০১০ সালে একটি, ২০১২ সালে একটি, ২০১৪ সালে দুটি ম্যাচ খেলেন তিনি। ২০১৪ সালের পর দীর্ঘ তিন বছরেরও বেশি সময় বিরতি দিয়ে আবারো ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে এসে ২টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেন। তবে মাশরাফি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলতে নামলেই গুঞ্জন তৈরি হয়, আবারো টেস্ট খেলার সম্ভাবনা মাশরাফির। এবারও একই গুঞ্জন। অল্প সময়ের ব্যবধানে তিনটি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলায় টেস্ট খেলার সম্ভাবনা নিয়ে কথা উঠেছে। অবশ্য মাশরাফি সব পরিস্কার করে দিলেন। তিনি জানালেন, কোনো বিশেষ ভাবনা তার মধ্যে নেই। আমি খুব বেশি দূরের ব্যাপার নিয়ে ভাবতে পছন্দ করি না। টেস্ট নিয়ে ভাবছি না। নিজেকে ফিট রাখতে যখন সামনে যে ক্রিকেট আসে, সেটা ভালো মতো খেলাই লক্ষ্য।  আর

জয় দিয়েই জবাব দিলেন এভারটন গুরু

দলের টানা পরাজয়ে নিজের খেলার স্টাইল নিয়ে বার বার প্রশ্নের মুখে পড়েছেন এভারটন গুরু অ্যালারডাইস। তবে দলের বাজে পারফরমেন্সের কারণে জবাব দিতে পারেননি। তাই নিউক্যাসলের সঙ্গে জিতেই মুখ খুললেন অ্যালারডাইস। জয়ের পর অ্যালারডাইস বলেন, ‘আপনারা কি বলেন, আমার স্টাইলের মধ্যে ভুল আছে? সমালোচনা করুন, কিন্তু ধাক্কা দিবেন না’ গতকাল সোমবার নিউক্যাসলের সঙ্গে নিজেদের আধিপত্য ধরে রেখেছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের বাজে পারফরমেন্স করা এভারটন। দলীয় স্ট্রাইকার ওয়ালকটের গোলে নিউক্যাসলকে হারিয়ে দিয়েছে অ্যালারডাইসের শিষ্যরা। চলতি বছরের জানুয়ারির পর এটাই ওয়ালকটের প্রথম গোল। আর এতেই নিউক্যাসেল অ্যালারডাইসের অধীনে এভারটনের পারফরমেন্স নিয়ে অনেক ভক্তই সমালোচনা করেছেন। তবে নিউক্যাসলের সাবেক কোচ অ্যালারডাইচ ঠিকই জানতেন, তার সাবেক শিষ্যদের ব্যাপারে ভালোই জবাব দেবেন ওয়ালকটরা। এদিকে নিজের স্টাইল নিয়ে মুখ খোলেছেন অ্যালারডাইস। তিনি বলেন, ‘খেলাটা খেলে খেলোয়াড়রা, আমার স্টাইলের মধ্যে কি ভুল আছে, সেটা ধরিয়ে দিন। আপনারা আমাদের ফুটবলকে ধাক্কা দিতে পারেন না। আপনি আমাদের কিছু ভুল খেলার সমালোচনা করতে পারেন। কিন্তু এর জন্য আপনি আমাকে আঘাত করতে পারেন না। খেলার শেষ ১০ মিনিট বাদে বাকি সময় আমরা আধিপত্যের সঙ্গে খেলেছি’। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে এভারটন আছে ৮ নম্বরে। অন্যদিকে ৩৪ ম্যাচ খেলে ৯০ পয়েন্ট নিয়ে শিরোপা দৌড়ে এগিয়ে ম্যানচেষ্টার সিটি। সমান সংখ্যক ম্যাচ খেলে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সংগ্রহ ৭৪ পয়েন্ট। ম্যানচেস্টার আছে দুই নম্বরে। এদিকে নিউক্যাসল ৩৪ ম্যাচ খেলে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে ১০ নম্বরে রয়েছেন। সূত্র: বিবিসি এমজে/  

দুর্দান্ত ক্যাচে জিতল পাঞ্জাব

শুরু থেকে অসাধারণ ব্যাটিং করেও দিল্লিকে বন্দরে পৌঁছে দিতে পরেননি সুরেশ আয়ার। সোমবার দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের বিপক্ষে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পেল পাঞ্জাব। এর নেপথ্যে নায়ক মুজিবর রহমান। শেষ বলে উইকেট নিয়ে দলকে জেতালেন তিনি। ৪ রানের এই জয়ে আইপিএলের এক নম্বর দল এখন পাঞ্জাব। ৮ উইকেটে মাত্র ১৪৩ রান করেছিল তারা দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের বিপক্ষে। ৮ উইকেটে ১৩৯ রানে থামে দিল্লি। শেষ ওভারে জয়ের জন্য দিল্লির প্রয়োজন ছিল ১৭ রান। কঠিন লক্ষ্যের সামনে দাঁড়িয়েও দারুণ ব্যাটিং করে গেছেন তরুণ ক্রিকেটার করুণ নায়ার। ওভারের প্রথম বল ডট। দ্বিতীয় বলে ছয় হাঁকিয়ে দলকে খেলায় রাখেন নায়ার। পরের দুই বলে নেন ২ রান। পঞ্চম বলে বাউন্ডারি হাঁকালে শেষ বলে টার্গেট দাঁড়ায় ৫ রান। শেষ বলে ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু মুজিবের বলে লং অফে ক্যাচ উঠে গেলে তা লুপে নিতে ভুল করেননি অ্যারন ফিঞ্চ। আর তাতেই থেমে যায় নায়ারের একার লড়াই। পায়ের ব্যথায় দিল্লির বিপক্ষে নিজে থেকে সরে দাঁড়ান ক্রিস গেইল। ক্যারিবিয়ান তারকার অনুপস্থিতির প্রভাব বেশ টের পাওয়া গেছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ব্যাটিংয়ে। তার বদলে লোকেশ রাহুলের সঙ্গে উদ্বোধনী জুটি গড়েন অ্যারন ফিঞ্চ। দ্বিতীয় উইকেটে মায়াঙ্ক আগারওয়ালের সঙ্গে লোকেশের ৩৬ রানের জুটি ছিল সর্বোচ্চ। মিডল অর্ডারে ডেভিড মিলার ও করুন নায়ারের ৩১ রান ছিল কিছুটা স্বস্তির। ৩৪ রানের সেরা ইনিংস খেলেন নায়ার। মিলারের ব্যাটে আসে ২৬ রান। এছাড়া লোকেশ (২৩), আগারওয়াল (২১) ও যুবরাজ সিং (১৪) দুই অঙ্কের ঘরে রান করেন। পাঞ্জাবের ব্যাটিং দুর্দশায় মূল ভূমিকা রাখেন দিল্লির লিয়াম প্লাঙ্কেট। তিন উইকেট নেন তিনি ৪ ওভারে মাত্র ১৭ রান দিয়ে। দুটি করে পান ট্রেন্ট বোল্ট ও আবেশ খান। লক্ষ্যে নেমে দিল্লি রানের গতি ধরে রেখেছিল। তবে অঙ্কিত রাজপুত, এন্ড্রু টাই, রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও মুজিব উর রহমানের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে বেশ কয়েকবার হোঁচট খায় তারা। শেষ ওভারে দিল্লিকে ঠেকানোর দায়িত্ব পান মুজিব। নায়ার দ্বিতীয় বলে ৬ মারার পর চতুর্থ ও পঞ্চম বলে ২ ও ৪ রান নেন। শেষ বলে দরকার ছিল ৫ রান। ছক্কা হাঁকানোর শটই খেলেছিলেন নায়ার। কিন্তু লং অফে উড়ন্ত বলটি লুফে নেন ফিঞ্চ। ৪৫ বলে ৫৭ রানে আউট নায়ার। পাঞ্জাবের জয়ে বল হাতে দুটি করে উইকেট নেন রাজপুত, মুজিব ও টাই। এ জয়ে ৬ ম্যাচে পঞ্চম জয় পায় পাঞ্জাব। এতে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠল তারা। আর মাত্র ২ পয়েন্ট নিয়ে সবার শেষে দিল্লি। সূত্র: ক্রিকইনফো একে// এআর

মা হতে চলেছেন সানিয়া  

মা হতে চলেছেন ভারতীয় টেনিস সুন্দরী সানিয়া মির্জা। সোমবার টুইটারে তেমনটাই ইঙ্গিত দিলে সানিয়া। সানিয়া লিখেছেন, “#BabyMirzaMalik “৷ আর শোয়েব লিখেছেন, “#MirzaMalik”৷ ভারত-পাক দম্পতির এই পোস্ট রীতিমত ভাইরাল৷ সানিয়া-শোয়েবকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তার বন্ধুবান্ধবরা৷   গত মাসে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে ভারতীয় টেনিস সুন্দরী জানিয়েছিলেন, তার পছন্দ মেয়ে৷ শুধু তাই নয়, তাদের সন্তান শোয়েব ও দু’জনেরই পদবি (মির্জা-মালিক) ব্যবহার করবে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি। তিনটি ডাবল গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালকিন সানিয়া হাঁটুর চোটের জন্য গত অক্টোবর থেকে কোর্টের বাইরে৷ ফলে ডাবলসে এক নম্বর জায়গা হারান তিনি। উল্লেখ্য যে, ২০০৯ সালে পাকিস্তান ক্রিকেট তারকা শোয়েব মালিকের সঙ্গে বাগদান হয় সানিয়ার৷ পরের বছর অর্থাৎ ২০১০ চারমিনারের শহরে জাঁকজমকভাবে পাকিস্তানি রীতি মেনে সানিয়াকে বিয়ে করেন শোয়েব৷ তার পর বেশিরভাগ সময় নিজের পেশায় একে অপরের থেকে দূরে থাকেন সানিয়া-শোয়েব৷ পরে দুবাই বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কিনে দু’জনে এক সঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত নেন ভারত-পাক এই টেনিস-ক্রিকেট দম্পতি৷ সূত্র: কলকাতা টুয়েন্টিফোর  এমএইচ/এসি  

মালদ্বীপকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ 

বাংলাদেশের সামনে মালদ্বীপ দাঁড়াতেই পারলো না। তারা কোনো প্রতিরোধই করতে পারেনি। তাদের ৩-০ সেটে উড়িয়ে দিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে এশিয়ান সিনিয়র মেনজ সেন্ট্রাল জোন ইন্টারন্যাশনাল ভলিবল চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালে নাম লিখিয়েছে বাংলাদেশ। শনিবার নেপালের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ৩-১ সেটে জিতে টুর্নামেন্টে শুভ সূচনা করেছিল বাংলাদেশ। সেই নেপালই দ্বিতীয় ম্যাচে মালদ্বীপকে তিন সেটে উড়িয়ে দিয়ে ম্যাচ জিতে নিয়েছে গতকাল। তাই বাংলাদেশ-মালদ্বীপ ম্যাচটা একতরফা হবে, তা ধরে নিয়েই হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে গিয়েছিলেন অনেক দর্শক। বড় জয়ের উচ্ছ্বাস নিয়েই মাঠ ছাড়তে পেরেছেন তারা। ২৫-১৫, ২৫-১৫ ও ২৫-২২ পয়েন্টে তিনটি সেট জিতেছে বাংলাদেশ। শেষ সেটটিতে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েছিল মালদ্বীপ। টানা দুই ম্যাচ হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিল তারা। এসি  

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি