ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭ ১৭:২৫:২০

২০২১ সালের মধ্যেই শতভাগ ইন্টারনেট: পলক

২০২১ সালের মধ্যেই শতভাগ ইন্টারনেট: পলক

২০২১ সালের মধ্যে দেশে শতভাগ মানুষের কাছে ইন্টারনেট সংযোগ পৌঁছে দিতে কাজ করছে সরকার। সেই সঙ্গে সারাদেশকে ৫০ শতাংশ ব্রডব্যান্ড সংযোগের আওতায় নিয়ে আসা হবে। ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লীতে অনুষ্ঠিত ‘গ্লোবাল সাইবার স্পেস সম্মেলন-২০১৭’-এর ‘ব্রিজিং দা ডিজিটাল ডিভাইড-এমপাওয়ারিং বাই টেকনোলজি লিড ইনক্লুসিভনেস’ শীর্ষক সম্মেলনে ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্পর্কে এসব তথ্য তুলে ধরেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।সম্মেলনে পলক বলেন, প্রযুক্তিবৈষম্য কমাতে চ্যালেঞ্জগুলো গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে তা হচ্ছে- ডিজিটাল অবকাঠামো তৈরি ও সহজ সেবা, ডিজিটাল যন্ত্র ও অ্যাপ্লিকেশন  সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট সেবা, ব্যবহার, দক্ষতাসম্পন্ন জনগোষ্ঠীর অভাব ও সামাজিক ও অর্থনৈতিক সমতা সৃষ্টি করা। এ বিষয়গুলোয় গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এ লক্ষ্যে বাংলা গভনেট, ইনফো সরকার-২ প্রকল্পের পর ইনফো সরকার-৩ প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। এছাড়া ‘কানেকটেড বাংলাদেশ’ নামের একটি প্রকল্পও হাতে নেওয়া হয়েছে।  প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার এবং গবেষণা ও উন্নয়ন খাত থেকে পাঁচ বিলিয়ন ডলার আয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। একে// এআর
এবার স্কাইপও বন্ধ করল চীন

সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম স্কাইপের ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে চীন। মঙ্গলবার থেকেই সে দেশে নিষিদ্ধ করা হয়েছে এটার ব্যবহার। এর আগে থেকেই দেশটিতে ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম ও গুগলের ব্যবহার বন্ধ রয়েছে। বেইজিং জানিয়েছে, অনলাইনে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঠেকাতেই এ ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তবে চীনের এই পদক্ষেপ সাময়িক বলে ধারণা করছে অ্যাপল। এদিকে নিষিদ্ধের পরেও দেশটিতে অনেকের স্কাইপ চালু রয়েছে বলে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। অ্যাপল এক ববিৃতিতে জানিয়েছে, বেশ কয়েকটি ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রোটোকল অ্যাপ চীনের সাইবার আইন মেনে চলছে না। সে কারণে দেশটির জন সুরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে তা বন্ধের দাবি জানানো হয়। তাদের দাবির প্রেক্ষিতেই এটির ব্যবহার বন্ধ করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভিপিএন দিয়ে ফেসবুক, টুইটার, স্কাইপসহ অন্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ব্যবহার করছে চীনের জনগণ। এ কারণে ইন্টারনেট থেকে সব ভিপিএনও সরানোর নির্দেশ দিয়েছে চীনা সরকার।   আর/টিকে

ডুয়েল সিম আসছে আইফোনে

অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের পথ ধরে এবার ডুয়েল সিম সিস্টেম চালু করতে যাচ্ছে প্রযুক্তি ‘জায়ান্ট’ আই-ফোন। আসছে বছরেই আইফোনের নতুন সংস্করণে এ সুবিধা চালু হতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন কেজিআই সিকিউরিটিস এর গবেষক মিং শি কো । উল্লেখ্য, কেজিআই অ্যাপলের গবেষণা প্রতিষ্ঠান। এ লক্ষ্যে ইন্টেল করপোরেশন ও কোয়েলকম থেকে উন্নতমানের চিপ নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান। ইন্টারনেট ও তারবিহীন সংযোগের জন্য এলটিই সবচেয়ে কার্যকর। এলটিইতে দ্রুত ডাটা ট্রান্সমিট হয়ে থাকে। তিনি আরও জানান, ২০১৮ সালে আই-ফোনের যে নতুন সংস্করণ বাজারে আসছে, তাতে ডুয়েল সিমের সুবিধা থাকবে। তবে সব সংস্করণে এ সুযোগ থাকবে না। ভারতের মতো জনবহুল দেশগুলোতে নিজেদের বাজার তৈরি করতে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে অ্যাপল কর্তৃপক্ষ। এদিকে ভারতের বাজার ছেয়ে গেছে স্যামসাং, হুয়াই ও শাওমিতে, এমন খবরে আই-ফোন এবার থাবা বসাতে চায় এ উপমহাদেশে বলে মনে করছে প্রযুক্তিবিদরা। ২০১৮ সালে অ্যাপলের তিনটি মডেল বাজারে আসছে বলে জানা গেছে। এ মডেলগুলিতে ৬.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে থাকবে। নতুন সংস্করণে আসা আইফোনের দাম পড়বে ৬৪৯ ডলার থেকে ৭৪৯ ডলার পর্যন্ত, যা বাংলাদেশি টাকায় ৫৪ হাজার থেকে ৬২ হাজার টাকা পড়বে । ইতোমধ্যে, ২০১৭ সালের শেষ দুটি সংস্করণ আইফোন ৮ এবং আইফোন ১০ বাজারে ছেড়েছে অ্যাপল। আইফোন ৮ সংস্করণ বাজারে তেমন সাড়া না ফেললেও আইফোন ১০ নিয়ে গ্রাহকদের ব্যপক আগ্রহ দেখা গেছে। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এমজে/টিকে

চীনে ইন্টার্নদের ওভারটাইম বন্ধ করছে আইফোন

চীনে ইন্টার্ন কর্মীদের ওভারটাইম বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে উপমহাদেশে আইফোনের যোগান দেওয়া কোম্পানী ফক্সকন। দ্য ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের এক প্রতিবেদনের পরই ফক্সকন এই সিদ্ধান্ত নেয়। টাইমসের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, কমপক্ষে ৬ জন শিক্ষার্থী অভিযোগ করেছে যে, চীনের হেনান প্রদেশে আইফোনের প্রতিষ্ঠানে দিনে ১১ ঘণ্টা কাজ করতে হয়েছে তাদের। যদিও চীনের আইনে শিক্ষার্থীদের সপ্তাহে ৪০ ঘণ্টার উপর কাজ  করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জানা যায়,  ৩ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী প্রতিষ্ঠানটিতে কাজ করছে। তবে অ্যাপল জানিয়েছে, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও এখানে কাজ করছে। তবে তারা স্বেচ্ছায় কাজ করছে। তাদের অতিরিক্ত সময় এখানে থাকার কোন অনুমতি নেই। তবে আইফোন ও ফক্সকন বলছে অতিরিক্ত কাজ করার জন্য তাদেরকে বেশি বেতন দেওয়া হতো। এক বিবৃতিতে অ্যাপল জানিয়েছে, আমরা আমাদের প্রত্যেক যোগানকারীকে সম্মান জানায় । আমাদের প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত প্রত্যেকটি কর্মীকেও আমরা সম্মান করি। কর্মীদের দেখভাল করার দায়িত্বও আমাদেরই । এক বিবৃতিতে ফক্সকন জানিয়েছে, ওভারটাইমের বিষয়টি জানার পরপরই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কোনো শিক্ষার্থীকে নির্দিষ্ট সময়ের অতিরিক্ত কাজে রাখা হবে না। ইন্টার্নদের অবদান মোট কাজের খুবই সামান্য দাবি করে বিবৃতিতে বলা হয়, তারপরও আমরা তাদেরকে কাজ করার সুযোগ দিব। সূত্র: বিবিসি এমজে/ এআর        

ঢাকায় উবারের ১ বছর

সকাল বেলা খুব তাড়াহুড়া করে ঘর থেকে বের হয়েছেন। কিন্তু কোনোভাবেই বাস পাচ্ছেন না। অফিসের ঘড়ি কিন্তু থেমে নেই। অথবা অফিস শেষেও একই অবস্থা। চোখের সামনে দিয়ে কত ব্যক্তিগত গাড়ি আর মোটর সাইকেল যাচ্ছে। কখনও কখনও হয়তো মনে হয়েছে যে কারও কাছ থেকে লিফট নেবেন। কিন্তু কেউ তো গাড়িতে উঠাবে না ভেবে হয়তো কখনও চেষ্টা করেননি। আবার হয়তো ভাবলেন নিজেই একটা গাড়ি বা মোটর সাইকেল কিনবেন। কিন্তু ঢাকা শহরে পার্কিং এর সুবিধাও অপ্রতুল। তবে বিগত ১ বছর যাবত রাজধানীতে এ ধারণা সম্পূর্ণ পাল্টে গেছে। এখন অন্যের গাড়ি কিংবা মোটর সাইকেলে রাইড নিতে পারেন। আর এমনটা সম্ভব হয়েছে উবারে’র যাত্রার মাধ্যমে। প্রয়োজন নেই নিজের গাড়ি বা বাইক কেনার। ২০১৬ সালের ২২ নভেম্বর রাজধানী ঢাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে বিশ্বের সব থেকে বড় রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান উবার। বাংলাদেশে এর নাম উবার বাংলাদেশ। মোবাইলের একটি সফটওয়্যার বা এপস-এর মাধ্যমেই ব্যবহার করা যাচ্ছে এ সেবা। একজন গ্রাহক ঢাকা শহরের যেখানেই থাকুক না কেন সেখান থেকেই এ সেবা নিতে পারবেন। মূলত এ এপসের মাধ্যমে একজন গ্রাহকের সাথে একজন গাড়ি চালকের সংযোগ করিয়ে দেওয়া হয় যারা একই দিকের গন্তব্যে যাবে। অথবা পেশাদার চালকও গ্রাহককে এ ধরনের সেবা দিতে পারেন। চালক এবং গ্রাহকের যোগাযোগ হবে এপসেই। উবারের শুরুটাও হয় এমনই এক ‘প্রয়োজন’ থেকে। প্যারিসের রাস্তায় তুষারঝরা এক সন্ধ্যায় অনেক খোঁজ করেও গাড়ি পাচ্ছিলেন না ট্র্যাভিস কালানিক ও গ্যারেট ক্যাম্প। সময়টা ২০০৮ সাল। তখনই তাদের মাথায় এলো সাধারণ একটি ভাবনা যে বাটনের এক চাপে হাজির হবে গাড়ি। এ ধারণা থেকেই মহানগর এলাকায় চমৎকার কালো রংয়ের গাড়ি ডাকার জন্য চালু হয় একটি অ্যাপ-উবার। এটিই এখন পাল্টে দিচ্ছে বিশ্বের নানা শহরের চেহারা। গত বছর উবার চালু হওয়ার পর থেকে ঢাকায় রাইড শেয়ারিং এর প্রচলন জোরে শোরে চালু হয়। উবার প্রথমে গাড়িতে রাইড শেয়ারিং চালু করলেও চলতি মাস থেকে মোটর সাইকেল দিয়ে রাইড শেয়ারিং চালু করে। এর আগে পাঠাও, মুভ, স্যাম নামক বেশকিছু প্রতিষ্ঠান রাইড শেয়ারিং এপস সার্ভিস চালু করে। এরমধ্যে মোটর সাইকেলের জন্য পাঠাও এবং গাড়ির জন্য উবার বাংলাদেশের ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। আগামী মাস থেকে চালু হতে যাচ্ছে ইজিয়ার। পাশাপাশি অনেকেই আগ্রহী হচ্ছে এ ধরনের স্টার্টাপ ভিত্তিক ব্যবসায়। শুধু তাই নয় অনেকেই ব্যক্তিগত পর্যায়ে খণ্ডকালীন বা পূর্ণকালীন চাকরী হিসেবে বেছে নিচ্ছেন রাইড শেয়ারিং ক্যারিয়ারে। নিজের গাড়ি উবারে ভাড়ায় দিয়ে অথবা পড়াশুনার ফাঁকে ফাঁকে বাইক রাইড দিয়ে খণ্ডকালীন অথবা পূর্ণকালীন আয়ের উৎস হিসেবে বেছে নিচ্ছেন। অন্যদিকে ঢাকা শহরের উবার-পাঠাও চালু হবার পর থেকে পরিবহন সেক্টরে উল্লেখযোগ্য প্রভাব পরিলক্ষিত হয়। সিটিং সার্ভিসের নামে চিটিং বাস সেবা, অতিরিক্ত সিএনজি ভাড়া এবং অন্যান্য নৈরাজ্যে পরিবহন সেবা যেখানে জর্জরিত সেখানে রাজধানীবাসীর জন্য এক কার্যকরী বিকল্প রাইড শেয়ারিং। যে কোনো জায়গা থেকেই রাইড পাওয়া, নির্ধারিত ভাড়া আগে থেকেই জানতে পারা এবং নিরাপত্তার সবটুকু ব্যবস্থা থাকায় ঢাকাবাসীর কাছে দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এই রাইড শেয়ারিং ফিচার। অনেকটা নিজের গাড়ি বা বাইকের স্বাদ পাওয়া যায় এখানে। প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিষ্ঠান ‘হারিকেন’ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আদিব শামস বলেন, “যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশুনা করার সময় থেকেই আমি উবার ব্যবহার করি। ঢাকার মত শহরে উবারের মত প্রতিষ্ঠানের সেবা অনেক বেশি জরুরি। ঢাকার মানুষের কর্মদক্ষতা এবং জীবন যাত্রার মান বাড়াতে উবার ভূমিকা রাখছে”। এরই মধ্যে এপস ভিত্তিক এসব সেবা বন্ধের দাবিতে ধর্মঘটের আহবান করেছে সিএনজি চালকদের একটি অংশ। অপরদিকে চালকদের আরেকটি অংশ নিজেরাও এপসের সাথে যুক্ত হচ্ছেন। বেসরকারি উদ্যোগে কাজ চলছে রাজধানীর সিএনজিগুলোকে এপসের আওতায় নিয়ে আসার। আর এতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন সিএনজি চালকদের একটি অংশ। উবার বাংলাদেশের এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ২০০৯ সালে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরুর পর থেকে বিশ্বের প্রায় ৭৪টি দেশের ৪৫০টি শহরে কার্যক্রম চালু আছে উবারের। প্রতিদিন প্রায় ৫০লাখেরও বেশি রাইড শেয়ার হয় এই এপসের মাধ্যমে।   এসএইচএস/টিকে

৫ কোটি ৭০ লাখ গ্রাহকের তথ্য চুরির কথা স্বীকার উবারের

উবার গ্রাহকদের গত এক বছরে ৫ কোটি ৭০ লাখ গ্রাহকের ব্যাক্তিগত তথ্য চুরি হয়েছে। ওই তথ্য হ্যাকারদের হাতে পড়ার পর তা মুছে ফেলতে এক লাখ ডলার দিতে হয়েছিল ওই কোম্পানীকে। স্মার্টফোন অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং নেটওয়ার্ক উবারের গ্রাহকদের তথ্য চুরির খবর সবার আগে প্রকাশ করে ব্লুমবার্গ। তাদের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, হ্যাকারের কবলে পড়ার বিষয়টি উবারের সাবেক প্রধান নির্বাহী ট্রাভিস কালানিক জানতেন। ওই ঘটনায় পাঁচ কোটি ৭০ লাখ গ্রাহকের নাম, ই-মেইল ঠিকানা ও মোবাইল ফোন নম্বর চুরি করে হ্যাকাররা। আর ক্ষতিগ্রস্ত ওই গ্রাহকদের মধ্যে ছয় লাখ চালকের নাম ও লাইসেন্সের তথ্যও হ্যাকারদের হাতে পড়ে। উবার এখন ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য নিজেদের ওয়েবসাইটে একটি পেইজ খুলেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি অনলাইন। চালকদের জন্যও সহায়তার ব্যবস্থা করছে। তবে ক্ষতিগ্রস্ত যাত্রীদের জন্য তেমন কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

অ্যাপের মাধ্যমে অটোরিকশা সেবা

বাংলাদেশে সাম্প্রতি বছরে অ্যাপ নির্ভর বেশ কিছু গাড়ি ও বাইক সার্ভিস চালু হয়েছে। অচিরেই এ তালিকায় যুক্ত হচ্ছে অটোরিকশা। `হ্যালো সিএনজি রাইড শেয়ারিং` নামে একটি প্রতিষ্ঠান নতুন একটি অ্যাপ তৈরি করছে। মোবাইল ফোনের সাহায্য নিয়ে অ্যাপটির মাধ্যমে যাত্রীরা অটোরিকশা ডাকতে পারবেন। `স্যাম` নামে আরেকটি রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানও তাদের অ্যাপে অটোরিকশা ভাড়া করার সুযোগ রেখেছে। অটোরিকশার জন্য অ্যাপ তৈরির কাজ প্রায় শেষ জানিয়ে হ্যালো সিএনজির প্রতিনিধি এএসএম জামাল জানান, কিছুদিনের মধ্যেই এটি গুগল প্লে স্টোরে দিয়ে দেয়া হবে। এটা ডিসেম্বরের শেষের দিকেই বাজারে চলে আসবে। রাইড শেয়ারিং সেবার স্রোতে অটোরিকশা যেন হারিয়ে না যায়, মূলত সেজন্যই অ্যাপটি তৈরি করা হচ্ছে বলে জানান এএসএম জামাল। তিনি বলেন, অটোরিকশায় যাত্রী অনেক কমে গেছে। একটি অটোরিকশা এক থেকে দেড় ঘণ্টা বসে থাকছে। সারাদিন গাড়ি চালানোর পর যে পারিশ্রমিক পাওয়ার কথা, তা তারা ঠিকমত পাচ্ছে না। মূলত সিএনজি অটোরিকশার সিস্টেমটাকে টিকিয়ে রাখতেই এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, হ্যালো সিএনজি অ্যাপ ব্যবহার করে সেবা নিলে সরকার নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে খরচ কিছুটা বাড়বে। প্রথম দুই কিলোমিটারের ভাড়া ৪০ টাকাই থাকবে। তবে পরবর্তী প্রতি কিলোমিটারে ১২ টাকার পরিবর্তে ১৩ টাকা করে গুণতে হবে যাত্রীদের। ফলে প্রতিটি রাইডে যাত্রীদের ২০ থেকে ৩০ টাকা বেশি দিতে হবে। হ্যালো সিএনজি অ্যাপটি ইতোমধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে চালানো হলেও অটোরিকশা চালকদের অনেকেই স্মার্টফোন ব্যবহারে দক্ষ না হওয়ায় কিছুট সমস্যা রয়েছে বলে জানান জামাল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অনেকের কাছেই স্মার্টফোন নেই। যাদের আছে, তারাও এর ফাংশন ঠিকমতো বোঝে না। এ জন্য হ্যালো সিএনজির পক্ষ থেকে চালকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও করা হবে। আরেকটি অ্যাপভিত্তিক মোটরসাইকেল শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান ‘শেয়ার আ মোটরসাইকেল’ বা `স্যাম`ও তাদের অ্যাপে অটোরিকশায় রাইড নেওয়ার সুযোগ রেখেছে বলে জানিয়েছেন ডাটাভক্সসেল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইমতিয়াজ কাসেম। এ প্রসঙ্গে সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ঢাকা জেলা কমিটির সদস্য সচিব সাখাওয়াত হোসেন দুলাল বলেন, তারাও অ্যাপভিত্তিক সেবায় যেতে চান। তবে অ্যাপভিত্তিক সেবায় গেলে মালিক কত টাকা পাবে, কত টাকা চালকরা পাবে- সে বিষয়ে নীতিমালায় পরিবর্তন আনতে হবে।   /ডিডি/

আরও তিন দেশে মাইক্রোসফটের এমডির দায়িত্বে সোনিয়া বশির

এখন থেকে চার দেশে মাইক্রোসফটের ‘ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশনের’ লক্ষ্যপূরণ সংক্রান্ত ব্যবসায়িক সিদ্ধান্ত নেবেন মাইক্রোসফট বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির। তিনি প্রতিষ্ঠানটির নেপাল, ভুটান লাওস শাখারও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের (এমডি) দায়িত্ব পেয়েছেন। শনিবার মাইক্রোসফট বাংলাদেশের দেওয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ  তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়েছে, দায়িত্ব পালনকালে সরকারি, বেসরকারি ও সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে আসন্ন প্রযুক্তি বিপ্লব সংক্রান্ত অবকাঠামোভিত্তিক কাজ করবেন সোনিয়া । অ্যাওয়ার্ড পুরস্কার অর্জন মাইক্রোসফটের পাশাপাশি জাতিসংঘের আওতাভুক্ত টেকনোলজি ব্যাংক ফর ডেভেলপড কান্ট্রিজের (এলডিসিএস) গভর্নিং কাউন্সিল মেম্বার হিসেবে কাজ করছেন তিনি । সম্প্রতি জাতিসংঘের জেনারেল অ্যাসেম্বলি ‍সপ্তাহে সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল (এসডিজি) সংক্রান্ত সেরা দশ পথিকৃতের একজন হিসেবে সোনিয়া বশির কবিরকে স্বীকৃতি দিয়েছে ইউএন গ্লোবাল কমপ্যাক্ট। এছাড়া ২০১৬ সালে মাইক্রোসফট ফাউন্ডারস  করেন তিনি। একে/ এআর    

পৃথিবীর পর মানুষের স্থান রস-১২৮ এ

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা দীর্ঘদিন ধরে মানুষের বসবাসের জন্য নতুন গ্রহের সন্ধ্যান খুঁজছেন। মঙ্গল গ্রহকে ইতোমধ্যে মানুষের বসবাসের উপযুক্ত হিসেবে ঘোষণা করেছেন তারা। এরপর নতুন গ্রহের সন্ধ্যানে নেমেছেন বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি সৌরজগতের খুব কাছাকাছি পৃথিবীর সমান আকৃতির একটি নতুন গ্রহ আবিষ্কার করেছেন গবেষকরা। গ্রহটি শীতল প্রকৃতির বলে জানা গেছে। এতে প্রাণের সন্ধ্যান আছে কি নেই, তা জানার জন্য আরও ব্যাপকভাবে গবেষণা চলছে। নতুন গ্রহটির নাম দেওয়া হয়েছে রস ১২৮ বি। পৃথিবী থেকে এটি ১১ আলোকবর্ষ্ দূরে অবস্থান করছে । এটি পৃথিবীর দ্বিতীয় নিকটতম গ্রহ । সৌরজগতের বাইরে পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটতম গ্রহটি হচ্ছে প্রক্সিমা বি। প্রক্সিমা বিকে মানুষের বসবাসের জন্য তেমন সহনীয় নয় বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। ২০১৬ সালে এটি আবিষ্কৃত হয়। ২০১৬ সালে আবিষ্কৃত গ্রহটি যে নক্ষত্রকে কেন্দ্র করে ঘুরছে তার নাম প্রক্সিমা চেন্টাওরি। যেটা লাল বামন হিসেবে চিহ্নিত করেছেন তারা। তবে এটি প্রক্সিমা বি তো ক্ষতিকর রশ্মি নির্গমণ করায় তা বসবাসের জন্য অতোটা উপযোগী নয়। বিপরীতে রস ১২৮ বি যে নক্ষত্রকে কেন্দ্র করে ঘুরছে সেটিও লাল বামন থেকে আলাদা নয় । তবে রস ১২৮ এ নির্গত রশ্মি প্রক্সিমাতে নির্গত রশ্মি থেকে কম ক্ষতিকর। অ্যালায়েনের সন্ধ্যান পাওয়া যাবে বলেও মনে করা হচ্ছে গ্রহটিতে। সুইজারল্যান্ডের জেনেভা পর্যবেক্ষক দলের সদস্য নিকোলা অ্যাসটিউডিল্লা ডেফরো বিবিসিকে বলেন, আমি মনে করি রস ১২৮ মানুষের জন্য বসবাসের উপযোগি হতে পারে। তবে সেখানের আবহাওয়া কেমন, তা আমাদের আগে জানতে হবে। গবেষণা কর্মটি অ্যাস্ট্রমি এন্ড অ্যাস্ট্রপিজিক্স নামক জার্নালে প্রকাশিত হবে বলে জানা গেছে। সূত্র: বিবিসি এমজে/

দেশের মোবাইল গ্রাহক ১৪ কোটির বেশি

দেশে প্রথমবারের মতো মোবাইল গ্রাহক ১৪ কোটির মাইলফলক ছুঁয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি)। বিটিআরসির সেপ্টেম্বর মাসের প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমানে দেশে  ১৪ কোটি ৭ লাখ ১৩ হাজার সক্রিয় মোবাইল গ্রাহক রয়েছে। যা তার আগের মাসের (আগস্ট) চেয়ে ১৪ লাখ ১১ হাজার বেশি। প্রতিবেদন অনুযায়ী, দেশের শীর্ষ মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন। তাদের গ্রাহক সংখ্যা এখন ৬ কোটি ৩৮ লাখ ৮২ হাজার। গ্রামীণফোনের পরেই রয়েছে রবি আজিয়াটা। তাদের গ্রাহক সংখ্যা এখন চার কোটি ১২ লাখ ১১ হাজার। আর ৩ কোটি ২৩ লাখ ৭৯ হাজার গ্রাহক নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে বাংলালিংক। অপরদিকে দেশের একমাত্র সরকারি অপারেটর  টেলিটকের গ্রাহক সংখ্যা ৩২ লাখ ৪১ হাজার। যা আগের মাসে ছিল ৩২ লাখ ৩৪ হাজার। উল্লেখ্য, ৯০ দিনের মধ্যে যেসব গ্রাহক ডাটা, ভয়েস অথবা এসএমএস বা অন্যান্য কিছু ব্যবহার করেন তাদের সক্রিয় গ্রাহক বিবেচনা করে বিটিআরসি।   আর  

ফোরজি : স্পেকট্রাম নিরপেক্ষতার ফি কমল

ফোরজি গাইডলাইনে অপারেটরগুলোর আপত্তির মধ্যেই ‘স্পেকট্রাম নিরপেক্ষতার ফি’ আরও কমানো হয়েছে। সংশোধিত এই গাইডলাইন বুধবার ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে পাঠিয়ে দিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। সর্বশেষ সংশোধিত গাইডলাইনে এই ফি ধরা হয়েছে প্রতি মেগাহার্জে ৪০ লাখ ডলার। প্রথমে এটি ছিল ১ কোটি ডলার পরে কমিয়ে ৭৫ লাখ ডলার রাখা হয়েছিল। ওই সময় মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো এই ফি ২০ লাখ ডলারের বেশি দিতে অনাগ্রহের কথা জানায়। বর্তমানে বিভিন্ন সার্ভিসে একেকটা ব্যান্ডের স্পেকট্রামে দেয় অপারেটরগুলো। স্পেকট্রাম নিরপেক্ষতায় যেকোনো সার্ভিস যেকোনো স্পেক্ট্রামে দেয়া যাবে। থ্রিজি সার্ভিস ২১০০ ব্যান্ডে, টুজি ৯০০ ও ১৮০০ ব্যান্ডে। ফোরজি দেয়ার কথা ছিল ৭০০ ব্যান্ডে। স্পেকট্রাম নিরপেক্ষতা দেয়া হলে আর ব্যান্ড স্পেসিফিকেশন প্রয়োজন হবে না। নীতিমালা অনুযায়ী ২১০০ মেগাহার্জ, ১৮০০ মেগাহার্জ এবং ৯০০ মেগাহার্টজ তরঙ্গ নিলাম হবে। এর মধ্যে ২১০০ ব্যান্ডের প্রতি মেগাহার্জের নিলামের ফ্লোর মূল্য হবে ২ কোটি ৭০ লাখ ডলার। আর ১৮০০ ও ৯০০ ব্যান্ডের প্রতি মেগাহার্ডজ স্পেকট্রামের নিলামের ভিত্তি মূল্য হবে তিন কোটি ডলার। এর আগে গত ১৩ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী ফোরজি নীতিমালা অনুমোদন দেন। এটি হাতে পাওয়ার পরই ২৩টি আপত্তি দেয় অপারেটরগুলো। তাদের আপত্তির মধ্যে ছিল, গ্রাহক ডেটা ১২ বছর সংরক্ষণ করা, দেশী ব্যাংক হতে ঋণ নেয়া বা স্থানীয় বিনিয়োগের সুযোগ না রাখা, সামাজিক দায়বদ্ধতা তহবিল খরচের ক্ষেত্রে বিটিআরসির অনুমতি নেয়া, সময় সময় সরকার চাইলে রাজস্ব ভাগাভাগির অংশে পরিবর্তন আনবে, ফোরজি ডেটার গতি ও গ্রাহকের অব্যবহৃত অর্থ ফেরত দেয়া ইত্যাদি। ১৮ অক্টোবর অপারেটরগুলোর ২৩ আপত্তির ২২টিরই সমাধান করে দেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। আর মূল্য নির্ধারণের বিষয়টি ছেড়ে দেন বিটিআরসির ওপরে। সূত্র: টেকশহর। আর/ডব্লিউএন

গুগলে ঢুকতে-ই হুমায়ূন

গুগলে ঢুকতেই দু’টি ছবি, যার একটি হুমায়ূন আহমেদ। বনে ঘেরা সবুজ পরিবেশে টেবিল। টেবিল চাপড়ে নীল জামা গায়ে বসে আছেন। লিখে চলেছেন হয়তো হিমুকে নিয়ে কোনো কিছু। আর সামনে কল্পনার সেই হিমুর মতো হলুদ পাঞ্জাবী গায়ে চড়িয়ে একজন হেঁটে যাচ্ছে। ছবিটার ওপরে ক্লিক করতেই দেখা গেল বাংলা সাহিত্যের নন্দিত কথাশিল্পী সেই হুমায়ূন সম্পর্কে নানারকম তথ্য। সোমবার প্রয়াত এই কথাসাহিত্যিকের ৬৯তম জন্মদিন। দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা বাংলা সাহিত্যানুরাগীরা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছেন হুমায়ূনকে। অনলাইন জগতের জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলও সামিল হলো সেই মিছিলে। গুগলের ডুডলে আজকের দিনটি উৎসর্গ করা হয়েছে অমর এই লেখকের সম্মানে। বছর জুড়েই আলোচিত বিষয় ও ব্যক্তিদের সম্মান জানানো হয় বিশ্বজুড়ে সর্বাধিক জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলের ডুডলে। আজ রাত ১২টার পর থেকে গুগলে প্রবেশ করলেই হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে তৈরি ছবিটি দেখা যাচ্ছে। যেখানে লেখক নিজে আছেন তার চরিত্রে, আর হলুদ পাঞ্জাবী গায়ে তার সৃষ্ট অমর চরিত্র হিমুকেই উপস্থাপন করা হয়েছে। হুমায়ূন ভক্তরা সেই ছবিটি শেয়ার করছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভুল করেনি গুগল কর্তৃপক্ষ ধন্যবাদ জানাতে। নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে হুমায়ূন আহমেদ জন্মগ্রহণ করেন ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর। ১৯৭২ সালে `নন্দিত নরকে` বই দিয়ে তার সাহিত্যে যাত্রা শুরু। বাকিটা ইতিহাস। কালের পরিক্রমায় তিনি হয়ে উঠেছিলেন বিংশ শতাব্দীর বাংলা সাহিত্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও প্রভাবশালী সাহিত্যিক। পাশাপাশি একজন নাট্যকার, গীতিকার, চলচ্চিত্রকার হিসেবেও সমাদৃত। কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ২০১২ সালের ১৯ জুলাই তিনি নিউ ইয়র্কের একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। তারই হাতে গড়া পরম ভালোবাসার নুহাশ পল্লীতে তাকে সমাহিত করা হয়েছে। আরকে//এআর

বাজারে এলো নতুন স্মার্টফোন স্পার্ক

স্মার্টফোনের ফিচার আর বাজেট সচেতন গ্রাহকদের জন্য টেকনো মোবাইল বাজারে নিয়ে এলো নতুন স্মার্টফোন স্পার্ক। স্পার্ক’র অন্যতম আকর্ষণ হলো মাউন্ট ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। পাশাপাশি রয়েছে দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি ব্যাকআপ, ক্যামেরা আর স্টাইলিশ ডিজাইন। টেকনো মোবাইল জানায়, স্পার্ক সিরিজের এই স্মার্টফোনটি গ্রাহক চাহিদা অনুযায়ী ভিন্নতার সমন্বয়ে হ্যান্ডসেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে গ্রাহকের অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করবে। সম্প্রতি টেকনো মোবাইল তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে স্পার্ক স্মার্টফোনটির উন্মোচন করেছে। স্পার্ক মডেলের এই  স্মার্টফোনটির খুচরা মূল্য হবে ৯ হাজার ৯৯০ টাকা। ১৩ মাস পর্যন্ত সার্ভিস ওয়ারেন্টির পাশাপাশি প্রতিটি স্মার্টফোনে ১০০দিন পর্যন্ত রিপ্লেসমেন্ট সুবিধা দিচ্ছে টেকনো মোবাইল। এটিতে রয়েছে, ৫.৫ ইঞ্চি এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে, ০২ গিগাবাইট র‌্যাম, ১৬ জিবি ইন্টারনাল মেমোরি, ৩ হাজার এমএএইচ ব্যাটারী, ০৫ মেগাঁপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা, ১৩ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা এবং অ্যানড্রয়েড ৭ নওগ্যাট ভার্সনে চালিত নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম হাইওএস।   সংবাদ বিজ্ঞপ্তি। আর/ডব্লিউএন      

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি