ঢাকা, শুক্রবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ৩:১৪:৩৭

মাটির নিচে মিলল দুইশ’বছরের পুরোনো জাহাজ

দুইশ’ বছরের পুরোনো একটি জাহাজের সন্ধান মিলেছে লক্ষ্মীপুরে। মেঘনা উপকূলে মাটি চাপায় থাকা জাহাজটি পাওয়া গেছে। গতকাল বুধবার রামগতি উপজেলার চর রমিজ ইউনিয়নের চর আফজল গ্রামে পুকুর খনন করতে গিয়ে এ জাহাজের খোঁজ পান শ্রমিকরা। বিষয়টি জানিয়ে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগে চিঠি পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় প্রত্নতত্ত্ব ও ইতিহাস বিষয়ের লেখকদের ধারণা, এটি দুইশ’বছরের পুরোনো ‘পর্তুগিজ জাহাজ’হতে পারে। সম্প্রতি নদী ভাঙা এক কৃষক পরিবার চর আফজল গ্রামে জমি কিনে বাড়ি করেন। নিজ পরিবারের ব্যবহারের জন্য জমির মালিক মাহফুজ বসতঘরের পাশে পুকুর খনন করছিলেন। খননের এক পর্যায়ে জাহাজের ‘মাস্তুলের’ দেখা মেলে। মুহূর্তে এ খবর ছড়িয়ে পড়ে গ্রাম থেকে গ্রামে। স্থানীয় সচেতন মহলের ধারণা, প্রায় দুইশ’ বছর আগে নদীতে ডুবে যায় এ জাহাজ। কেউ কেউ ধারণা করছেন, পর্তুগিজ বণিকদের ব্যবহৃত জাহাজ এটি। এতে ধনরত্ন ও অস্ত্রসস্ত্রসহ মূল্যবান সম্পদ থাকতে পারে। মাটি খুঁড়ে জাহাজ পাওয়ার খবর লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালীসহ আশপাশের জেলায় ছড়িয়ে পড়ায় কৌতূহলী লোকজন দেখতে ভিড় করছেন। জাহাজ কি-না তা নিশ্চিত হতে এলাকার লোকজন টিউবওয়েল মিস্ত্রি দিয়ে ঘটনাস্থলে পাইপ বোরিং করায়। আশপাশের দুই থেকে তিনশ’ফুট এলাকাজুড়েই এ বোরিং করানো হয়। দেখা যায় ১২-১৪ ফুট গভীরে গেলে পাইপ আটকা পড়ে। একইভাবে বেশ কয়েকবার ভিন্ন ভিন্ন স্থানে বোরিং করে এলাকার লোকজন ধারণা করেন, এটি বিশাল আকৃতির ‘জাহাজ’। / এআর /

লক্ষ্মীপুরে দীপ্ত হত্যায় ১৪ জনের যাবজ্জীবন

লক্ষ্মীপুরে কলেজছাত্র দীপ্ত পাল হত্যা মামলায় ১৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও প্রত্যেক আসামিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়। বুধবার দুপুরে লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নাজমুল হুদা তালুকদার এ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় পাঁচ আসামি আদালতে ছিলেন। বাকি নয়জন পলাতক রয়েছে। লক্ষ্মীপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদলতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১১ সালের ২ জুলাই রাতে সদর উপজেলার উত্তর হামছাদী ইউনিয়নের কাজীর দীঘির পাড় এলাকার কার্তিক পালের ঘরে সংঘবদ্ধ ডাকাতদল হানা দেয়। তারা ঘরের দরজা ভেঙে ডাকাতির চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে পরিবারের সদস্যরা বাধা দিলে কলেজ ছাত্র দীপ্ত পালের বুকে অস্ত্র ঠেকিয়ে গুলি করে ডাকাতরা। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান দীপ্ত। এসময় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন দীপ্ত’র চাচা সঞ্জয় পাল। এ ঘটনায় নিহত দীপ্ত’র বাবা কার্তিক পাল পরদিন ৩ জুলাই ১৪ জনকে আসামি করে  লক্ষ্মীপুর সদর থানায় হত্যা ও ডাকাতি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে ১৪ জনকেই অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। পরে আদালত দীর্ঘ শুনানিতে ২২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এ রায় দেন। তবে, মামলার বাদী কার্তিক পাল এ রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে জানান, এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে। আরকে//

চট্টগ্রামের সৌন্দর্য রক্ষায় অভিযান (ভিডিও )

চট্টগ্রামকে গ্রিণ ও ক্লিন সিটি করার কাজ শুরু হলেও নতুন উপদ্রব হিসেবে আর্বিভূত হয়েছে পোস্টার, ব্যানার, প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন। তবে নগরীর সৌন্দর্য রক্ষার জন্য আগামী মাসের শুরুতেই জঞ্জাল সরানোর অভিযান শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছে সিটি কর্পোরেশন। ৬০ বর্গমাইলের চট্টগ্রাম নগরীতে রয়েছে লেক-নদী পাহাড়। পাশেই সাগর; আছে দেশের প্রধান সামুদ্রিক বন্দরও। প্রকৃতির রূপে যেমন আকৃষ্ট করে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের, তেমনি প্রতিবছর বাড়ছে ২৫ হাজার মানুষ। তিন বছর আগে নির্বাচনের সময় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের অঙ্গীকার ছিল গ্রিণ ও ক্লিন সিটির। নগরীর রূপসৌন্দর্যের প্রতি এখণ মনযোগীও হয়েছে সিটি করপোরেশন। বিমানবন্দর সড়ক, জিইসি মোড়, লালখান বাজার, কাজির দেউড়ি, জামালখানসহ বিভিন্ন এলাকার মূল সড়কের মিড আইল্যান্ড ও ফুটপাতের সৌন্দর্য বর্ধন হচ্ছে। শুরু হয়েছে সবুজায়নের কাজ। কিন্তু অভিযোগ রয়েছে, এসব এলাকার যেখানে-সেখানে, যখন-তখন পোস্টার-ব্যানার লাগিয়ে সৌন্দর্য বিনষ্ট করা হচ্ছে। জরিমানার মাধ্যমে কিভাবে পোস্টার-ব্যানার সাটানো বন্ধ করা যায় সেই নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনার কথা বললেন করপোরেশনের এই কর্মকর্তা। প্রশ্ন হল, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠন, ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠানের প্রচার কি তাহলে বন্ধ হয়ে যাবে ? সেই ব্যাপারেও পরিকল্পনা করছে সিটি করপোরেশন। বাসযোগ্য, আধুনিক চট্টগ্রামের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হলে নাগরিকদেরও ভূমিকা রাখতে হবে বলে মনে করেন মেয়র।

কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে পুলিশের সঙ্গে  কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’  রুবাইয়াত হোসেন বাবুল (৩৫)  নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে দাউদকান্দি উপজেলার রায়নগর এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। এবিষয় জেলা ডিবি পুলিশের ওসি নাসিরউদ্দিন মৃধা বলছেন, মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে দাউদকান্দি উপজেলার  নিহত রুবাইয়াত হোসেন বাবুল (৩৫) নরসিংদীর কুরেরপাড়ের ইমান আলীর ছেলে। নাসিরউদ্দিন মৃধা বলেন, একটি ডাকাত দল কিছুদিন ধরে মহাসড়কে বিভিন্ন ট্রাক, কভার্ডভ্যান আটকে ডাকাতি করে আসছিল। বাবুল ওই দলেরই সদস্য। ঘটনার বিবরণে তিনি বলেন, ডাকাতদের অবস্থানের খবর পেয়ে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাখাওয়াত হোসেনের নেতৃত্বে থানা ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি যৌথ দল রাতে ওই এলাকায় অভিযানে যায়। “রায়নগর পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে অবস্থান নিয়ে থাকা ডাকাতরা পুলিশের দিকে গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। কিছুক্ষণ গোলাগুলি চলার পর ডাকাতরা পালিয়ে গেলে সেখানে বাবুলের গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়।” পুলিশ ওই ডাকাত দলের আরেকজনকে জীবিত অবস্থায় আটক করেছে এবং ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র উদ্ধার করেছে বলে জানান পরিদর্শক নাসিরউদ্দিন মৃধা।  টিআর/ এসএইচ/    

কুমিল্লায় বজ্রপাতে নিহত তিন

কুমিল্লা জেলায় বজ্রপাতে তিনজন নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার জেলার দেবীদ্বার ও দাউদকান্দি উপজেলায় এসব ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, দেবীদ্বার উপজেলার মো. মজিবুর রহমান মজু (৫৫) নামে বিএডিসির সাবেক এক কর্মকর্তার বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন। তিনি ওই উপজেলার গুনাইঘর দক্ষিণ ইউনিয়নের মধুমুড়া গ্রামের বাসিন্দা। বাড়ির পাশে কাজ করার সময় এ ঘটনা ঘটে। অপরদিকে, দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর এবং গোয়ালমারী ইউনিয়নে মঙ্গলবার বিকেলে বজ্রপাতের ঘটনায় দুই নারী নিহত হন। নিহতরা হলেন- গৌরীপুর ইউনিয়নের চান্দেরচর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার স্ত্রী রুফিয়া বেগম (৬০) এবং গোয়ালমারী ইউনিয়নের দক্ষিন নছুরুদ্দি গ্রামের শামছুল হক ভঁইূয়ার স্ত্রী আজমেরি বেগম (৪২)। একে// এসএইচ/

ছিনতাইয়ের অভিযোগে আটক যুবক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

ছিনতাইয়ের অভিযোগে পুলিশের হাতে আটকের একদিন পর খোকন সূত্রধর (৩০) নামে এক যুবক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলায়। মঙ্গলবার ভোর রাতে উপজেলার বাইপাস রেলগেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি, খোকন তার সহযোগীদের গুলিতে মারা গেছেন। এ ঘটনায় আখাউড়া থানা পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) নুরুল ইসলাম, কামাল হোসেন ও কনস্টেবল শামীম আহত হয়েছেন। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল ও দুই রাউন্ড গুলিও উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত খোকন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার সিঙ্গারবিল গ্রামের রমেশ সূত্রধরের ছেলে। আখাউড়ার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোশাররফ হোসেন তরফদার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গতকাল দুপুরে একটি বেসরকারি কোম্পানির প্রতিনিধিকে ছুরিকাঘাত করে সাড়ে ১৮ লাখ ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় জনতা খোকনকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে তার দেওয়া তথ্য মতে ভোর রাতে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে গেলে বাইপাস রেলগেট এলাকায় আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। এ সময় আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ ঘটনায় তার সহযোগীদের গুলিতে আহত হন খোকন।পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এসএইচ/

মারমাদের সাংগ্রাই উৎসব ঘিরে পাহাড়ে লাখো পর্যটকের ঢল (ভিডিও)

নিজস্ব কৃষ্টি-সংস্কৃতি ঐতিহ্য তুলে ধরে সাংগ্রাই উৎসব পালন করছেন পাহাড়ী মারমা সম্প্রদায়। বৌদ্ধমূর্তি স্নান, জলকেলি, হাজারো মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলনসহ আনন্দ-উল্লাসে মেতে উঠেছে আদিবাসীরা। মারমাদের বৈচিত্রময় আয়োজন দেখতে বান্দরবানে ঢল নেমেছে হাজরো পর্যটকের। নতুন বছরকে বরণে মারমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী উৎসব সাংগ্রাই। বান্দরবান রাজার মাঠে এবারের সবচেয়ে বড় জলকেলি উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। যুগ যুগ ধরে একে অপরের গায়ে পানি বর্ষণের মাধ্যমে পূর্বের সব গ্লানি ভুলে নতুন দিনকে বরণ করে তরুন-তরুনীরা। রাজগুরু জাদি থেকে বৌদ্ধমুর্তি নিয়ে একটি শোভাযাত্রা শহর ঘুরে সাঙ্গু নদীর চরে চন্দ জল দিয়ে স্নান করানো হয়। জলকেলিসহ নানা বৈচিত্রময় অনুষ্ঠানে ভীড় জমিয়েছেন হাজারো দেশি-বিদেশি পর্যটক। আদি নৃত্য-গানসহ ধর্মীয় অনুষ্ঠান, পিঠা তৈরির আয়োজনও করা হয় বিভিন্ন স্থানে। এছাড়া সন্ধ্যায় মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জল এবং পল্লীগুলোতে ছিলো নানা সামাজিক আচার অনুষ্ঠান। বৌদ্ধ বিহারগুলোতে সমবেত প্রার্থনা এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করা হয়।    

হাতিয়ায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে স্কুলছাত্র নিহত

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিরব উদ্দিন নামে এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। রোববার রাতে উপজেলার পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড ভেজুলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নিরব (১২) স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ও পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মিরাজ উদ্দিনের ছেলে।হাতিয়া থানার ওসি কামরুজ্জামান শিকদার জানান, আওয়ামী লীগ নেতা মিরাজ উদ্দিনের সঙ্গে প্রতিপক্ষ মোহাম্মদ আলী গ্রুপের দ্বন্দ্ব চলছিল। এ নিয়ে প্রতিপক্ষের একদল সন্ত্রাসী রাত ৮টার দিকে মিরাজের বাড়িতে ঢুকে হামলা চালায় ও এলোপাতাড়ি গুলি করে। এ সময় মিরাজের ছেলে নিরব টেবিলে বসে বই পড়ছিল। সেখানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিরবসহ পাঁচজন আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন দিবাগত রাত ২টার দিকে নিরব মারা যায়। অন্যদের চিকিৎসাধীন চলছে। এ ব্যাপারে তদন্ত ও মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি। এসএইচ/

চট্টগ্রামে বর্ণাঢ্য আয়োজনে পহেলা বৈশাখ উদযাপিত

চট্টগ্রামে দিনব্যাপী বর্ষবরণের আয়োজনে উঠে এসেছে আবহমান বাংলার হাজার বছরের সংস্কৃতি। উৎসবে যোগ দিতে ভোর থেকে ঢল নামে শিশু-কিশোরসহ বিভিন্ন বয়েসী মানুষের। এ ধরণের উৎসব বাঙ্গালিকে সব ধরণের অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সাহস যোগাবে বলে মনে করেন উৎসবে আগতরা। পুব আকাশে ভোরের প্রথম আলো ফোটার আগে থেকেই নগরীর রাজপথে শুরু হয় মানুষের দীপ্ত পদচারণা। বর্ণিল সাজে সজ্জিত নারী-পুরুষ-শিশু-কিশোর সবারই লক্ষ্য পহেলা বৈশাখের উৎসবে মিলিত হওয়া। বন্দর নগরীতে ভোর ছয়টা থেকে শুরু হয় বর্ষবরণের অনুষ্ঠান। নতুন বছর বরণ উপলক্ষে নগরীর ডিসি হিল, সিআরবি, শিল্পকলা একাডেমী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, চারুকলা ইনস্টিউিট সহ নগরীর বিভিন্ন স্থানে বসে বর্ষ বরণের বর্ণিল আয়োজন। কবিতা-গানে-নৃত্যে অসাম্প্রদায়িক ও সম্প্রীতির দেশ গড়ার আহবান জানানো হয়। নতুন বছরকে বরণ উপলক্ষ্যে সকালে চারুকলা ইনস্টিটিউট থেকে বের করা হয় বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা। চিরায়ত বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে ধারণ করা এই উৎসবের মাধ্যমে বাঙ্গালি তার শতভাগ নিজস্বতা প্রকাশের সুযোগ পায়।  বাঙালির প্রধান ও সার্বজনীন এই উৎসব মানুষের মাঝে অসাম্প্রদায়িক চেতনার উন্মেষ ঘটায়। এদিকে পহেলা বৈশাখকে ঘিরে বিশেষ সতর্কতা ও কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ প্রশাসন।  সিএমপি (দক্ষিণ) এর উপ-পুলিশ কমিশনার এস এম মোস্তাইন হোসাইন জানান, এবছর পহেলা বৈশাখে সর্বাত্মক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।   টিকে  

সন্দ্বীপ উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পহেলা বৈশাখ উদযাপন

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে সারাদেশে বাংলা বছরের প্রথম দিন পহেলা বৈশাখ উদযাপিত হয়েছে। বাংলা ১৪২৫ নতুন বছরকে বরণ করতে বৈশাখী মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করে সন্দ্বীপ উপজেলা প্রশাসন। শনিবার সকালে উপজেলা কমপ্লেক্সে  মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নেন সংসদ সদস্য মাহফুজুর রহমান মিতা, উপজেলা চেয়ারম্যান মাস্টার শাহজাহান বি এ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নুরুল হুদা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইদুজ্জামান চৌধুরী, অফিসার ইনচার্জ মো. শাহজাহান, ভাইস চেয়ারম্যান মাইনুদ্দিন মিশন, মশিউর রহমান বেলাল, উপজেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তাসহ সর্বস্তরের জনগণ। শোভাযাত্রা শেষে উপজেলার কবি আব্দুল হাকিম অডিটিরিয়ামে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কেআই/টিকে

নতুন বছর বরণ করে নিতে প্রস্তুত চট্টগ্রাম [ভিডিও]

বাঙালির সার্বজনীন উৎসব পহেলা বৈশাখ বরণ করতে চট্টগ্রামে মঙ্গল শোভাযাত্রার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে। বর্ণিল মঙ্গল শোভাযাত্রার জন্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটে প্রতিকৃতি আর মুখোশ তৈরিতে ব্যস্ত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। শিল্পী রশিদ আর্ট গ্যালারিতে চলছে শেষ মুহূর্তের ব্যস্ততা। নগরীর বিভিন্ন স্থানে চলছে উৎসব আয়োজনের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। শোভাযাত্রার বিভিন্ন অনুষঙ্গ তৈরিতে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে টানা কাজ করছেন ছাত্র-শিক্ষক সবাই।  বাদশা মিয়া সড়কের এক কিলোমিটার দেয়ালজুড়ে আল্পনা আঁকার কাজও শেষ পর্যায়ে। গত বছরে মৌলবাদের কালো থাবায় আল্পনা নষ্টের ক্ষত এখনো পোড়ায় শিল্পীদের। শিক্ষকরা বলছেন, নববর্ষের এই বাঙালিয়ানা রঙ ছড়িয়েই মৌলবাদকে রুখতে হবে।  এছাড়াও নববর্ষ বরণের জন্য প্রস্তুত নগরীর ডিসি হিল, সিআরবি, শিল্পকলাসহ বিভিন্ন উৎসবস্থল। ভিডিও: 

খাগড়াছড়িতে ট্রাকচাপায় নিহত ১

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাপমারা ব্রিজ এলাকায় ট্রাকচাপায় লিটন চাকমা (১৯) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার ভোর পৌনে ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, নিহত লিটন চাকমা পানছড়ির জগানশ্বর পাড়ার অধিবাসী ফুলোময় চাকমার ছেলে। মাটিরাঙ্গা থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মো. রমজান জানান, শুক্রবার ভোরের দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা শান্তি পরিবহনের একটি বাসকে ওভারটেক করতে গিয়ে খাগড়াছড়ি থেকে ছেড়ে আসা কলাবাহী জিপ ও খাগড়াছড়িগামী ট্রাক দুর্ঘটনা কবলিত হয়। এ সময় জিপের সামনের সিটে বসে থাকা হেলপার লিটন চাকমা রাস্তায় পড়ে গেলে ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে। আহত অবস্থায় পুলিশ তাকে দ্রুত উদ্ধার করে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘাতক ট্রাকটিকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এএসআই। একে//এসএইচ/

ঘুরে আসুন প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন (ভিডিও )

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অন্যতম লীলাভূমি দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন। প্রতিদিনই দেশি-বিদেশি শত শত পর্যটকের পদভারে মুখর থাকে নারিকেল জিঞ্জিরাখ্যাত এই দ্বীপ। তবে, আবাসন আর নিরাপত্তার ঘাটতিতে অস্বস্তিতে পড়তে হয় ভ্রমণ পিপাসুদের। এমন নীল আকাশ আর সাগরের স্বচ্ছ ঢেউ খেলা করে সেন্টমার্টিনের সৈকতে। তীরে বাঁধা নৌকা, নান্দনিক নারকেল গাছের সারি, সব মিলে এক নৈসর্গিক সৌন্দর্যের হাতছানি প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন। ব্যস্ত জীবনে একটু প্রশান্তি পেতে প্রতিদিন এখানে ভিড় জমায় ভ্রমণ পিপাসু মানুষ। কিন্তু, পর্যটকের তুলনায় দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপে অবকাঠামোগত উন্নয়ন হয়নি। অভিযোগ রয়েছে হোটেল-মোটেল, রে¯েঁ—ারা আর পরিবহনে বাড়তি ভাড়া নেয়ার। নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও অসন্তোষ রয়েছে অনেকের। তবে, ট্যুরিস্ট পুলিশের দাবি, সব সময়ই পর্যটকদের জন্য বাড়তি নিরাপত্তাবলয় থাকে সেন্টমার্টিনে। প্রবালদ্বীপে পর্যটক বাড়াতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আরো পদক্ষেপ চায় স্থানীয়রা।

জলাবদ্ধতা নিরসনে চট্টগ্রাম নগরীতে ক্র্যাশ প্রোগ্রাম [ভিডিও]

নগরবাসীকে জলাবদ্ধতার হাত থেকে রক্ষা করতে মাসব্যাপী ক্র্যাশ প্রোগ্রাম শুরু করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। মঙ্গলবার সকালে এ প্রোগ্রাম উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র আ জ ম নাসির উদ্দিন। একসঙ্গে ৫০০ শ্রমিক নগরীর নালা নর্দমা পরিষ্কার করার কাজ করবে বলে জানিয়েছেন তিনি।  এদিকে জলাবদ্ধতা নিরসনে সিটি করপোরেশন ক্ষমতায়ন এবং ড্রেনেজ মাস্টার প্ল্যান অনুসরণ করার পরামর্শ দিয়েছেন নগর বিশেষজ্ঞরা। বিপ্লব মজুমদারের ক্যামেরায় রিপোর্ট করছেন হাসান ফেরদৌস। সামান্য বৃষ্টিতেই তলিয়ে যায় বন্দর নগরী চট্টগ্রামের অধিকাংশ এলাকা। সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। নগরীর পানি নিষ্কাশনের পথ সুগম করতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন শুরু করেছে নগরীর বিভিন্নস্থানে নালা নর্দমা সংস্কারের কাজ। চট্টগ্রামের উন্নয়নে সিডিএ’র নেওয়া মহাপরিকল্পনা অনুযায়ী ড্রেনেজ ব্যবস্থা গড়ে না উঠার কারণে চট্টগ্রামে জলাবদ্ধতা দিনে দিনে বাড়ছে বলে মনে করেন নাগরিক আন্দোলনের এ নেতা। আর্থিক সক্ষমতা এবং সরকারের সহযোগিতা পেলে সিটি করপোরেশনেই জলাবদ্ধতা নিরসনের পাশাপাশি চট্টগ্রামকে নান্দনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলতে পারে বলে মনে করেন নগর পরিকল্পনাবিদরা। এদিকে বর্ষায় নগরবাসীর দুর্ভোগ কমাতে মঙ্গলবার থেকে নালা-নর্দমা পরিষ্কার করতে ক্র্যাশ প্রোগ্রাম শুরুর কথা জানিয়েছেন চট্টগ্রামের মেয়র। মাসব্যাপী এই কর্মসূচিতে প্রতিদিন অংশ নেবে ৫০০ শ্রমিক।   এসএইচ/

জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বেগ (ভিডিও )

জলাবদ্ধতা নিয়ে জটিলতা কাটাতে পারছে না চট্টগ্রাম। ৫শ কোটি টাকা ছাড়, এমনকি অনুমোদনের ৮ মাস পরও শুরু হয়নি চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের মেগা প্রকল্পের কাজ। প্রকল্পের ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রামের মেয়র। দেশী-বিদেশী বিনিয়োগ ব্যহত হওয়ার আশংকা করছেন নগর পরিকল্পনাবিদরা। উন্নয়নের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় ভরাট হয়ে যাচ্ছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকার খালগুলো, এর প্রভাবে জলাবদ্ধতায় আটকে যাচ্ছে বাণিজ্যিক রাজধানীর স্বাভাবিক জীবনযাত্রা।  জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫ হাজার ৬শ কোটি টাকার মেগা প্রকল্প অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক সভা একনেক। চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-সিডিএকে দেয়া হয় প্রকল্প বাস্তবায়নের দায়িত্ব। তবে ৮ মাসেও কাজ শুরু করতে পারেনি সিডিএ। আগামী বর্ষায় আবারও জলাবদ্ধতার আশঙ্কা করছে চট্টগ্রামবাসী। অবশ্য শিগগিরই কাজ শুরুর কথা বললেন সিডিএ চেয়ারম্যান। তবে সিডিএর আশ্বাসে সন্তুষ্ট নন চট্টগ্রামে মেয়র। জলাবদ্ধতা নিরসনে সিডিএ’র নেয়া মেগা প্রকল্পের আওতায়  চলতি অর্থবছরে ৫০০ কোটি টাকা ছাড় করার পরও কেন কাজ শুরু করতে পারেনি এই নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।জলাবদ্ধতার হাত থেকে চট্টগ্রামে রক্ষা করা না গেলে দেশী-বিদেশী বিনিয়োগ ব্যহত হবে বলে মনে করেন নগর পরিকল্পনাবিদরা। তবে ক্ষোভ-বিক্ষোভ যাই থাকুক, নগরবাসী চান জলাবদ্ধাতা নিরসনে সরকারের নেয়া মেগা প্রকল্পের দ্রুত বাস্তবায়ন। এজন্য সমন্বয় বাড়ানোর কথা বলছেন তারা।

‘বাপ বানায় ভূত আর শিক্ষক বানায় পুত’

‘বাপ বানায় ভূত আর শিক্ষক বানায় পুত’‘পিতা বড় না শিক্ষক বড় বলবে সে কোন জন’? আমাদের মোয়াজ্জেম স্যার, অতপরঃ এই আমি। মাধ্যমিক স্কুলে পড়ার সময় এমন কয়েকজন শিক্ষক ছিলেন যাঁদের মধ্যে এ কে একাডেমির প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক প্রয়াত মোয়াজ্জেম হোসেন স্যারের মন জয় করে তাঁর প্রিয়ভাজন হয়ে ওঠেছিলাম। আজ সেই স্যারের ৩য় মৃত্যুবার্ষিক । ২০১৫ সালের এই দিনে তিনি আমাদের ছেড়ে চলে যান, না ফেরার দেশে। হে আল্লাহ্! তাঁকে জান্নাতের সর্বোচ্চ স্থান দান করুন। আমিন। তাঁর মধ্যে কী এমন বিশেষত্ব ছিল, যা দেখে আমি মুগ্ধ হয়ে যায়? এই শিক্ষক যেমন আমার কাছে স্মরণীয় হয়ে আছেন তাঁর শিক্ষাদানের জন্য, তেমন পড়ুয়াদের প্রতি তাঁর সহমর্মিতা ও সহানুভূতিশীল আচরণ তাঁকে আমার কাছের মানুষ হতে সাহায্য করেছে । একজন উৎকৃষ্ট মানের শিক্ষকের মধ্যে যে গুণের উপস্থিতি প্রায়শই চোখে পড়ে, তার সবকিছুই ছিল তাঁর মাঝে। ইংরেজি পাঠদানের সময় সবটুকু উজাড় করে তিনি ছাত্রছাত্রীদের মাঝে যে অনুপ্রেরণার সৃষ্টি করেছিলেন তার একটি উদাহরণ উল্লেখ করার মত ‘কুকুরটি ঘেউ ঘেউ করে” অনুবাদ করাতে গিয়ে আমাকে বলেন ‘The dog is ঘেউ ঘেউ’ কারণ, আমার ঘেউ ঘেউ শব্দের ইংরেজি জানা ছিল না। আদর করে বুকে টেনে নিতেন তিনি। চক (খড়ি) দিয়ে নাকের ডগায় দাগ টেনে দিতেন। কবি গোলাম মোস্তফা যথার্থই বলেছেন- পিতা গড়ে শরীর, শিক্ষক গড়েন মন। পিতা বড় না, শিক্ষক বড় বলিবে কোন জন! শিক্ষক একজন মননশীল মানুষ গড়ার শিল্পী। শিক্ষক...... (শিক্ষা-পরিবেশ, শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাদান উপকরণ ও পদ্ধতি প্রণীত গ্রন্থাদি ও লাইব্রেরি, সিলেবাস-কারিমুলাম-লেসনস্কিম, শিক্ষকের হাত সর্বত্র সক্রিয়) শিশুর সার্বিক বিকাশের নাম শিক্ষা। এ বিকাশ দেহ ও মনের সামঞ্জস্যপূর্ণ বিকাশের সঙ্গে সমান্তরাল রেলের পাতের মতো বহমান। মানব শিশুর এ বিকাশে সম্ভবত ৮০ শতাংশ দায়িত্ব পালন করেন শিক্ষক সমাজ। কথায় বলে ‘বাপ বানায় ভূত আর শিক্ষক বানায় পুত।’ আমার প্রতি স্যারের আর্থিক,মানসিক, প্রশাসনিক সহযোগিতা ছিল অবারিত। তাঁরই অবদানে অষ্টম শ্রেণীতে বৃত্তিপ্রাপ্তদের মধ্যেই কেবল আমি একজন ছিলাম। অতপরঃ এই আমি। এ ঋণ পরিশোধ করার সাধ্য কি আছে আমার? কেবল মহান আল্লাহ পাকের নিকট প্রার্থনা ছাড়া ? হ্যাঁ, হে মহান প্রভু! তুমি মরহুম স্যারকে জান্নাতুল ফেরদাউস দান কর। আমিন!!! লেখকঃ ব্যাংকার

চট্টগ্রামে চাহিদার তুলনায় পানি সরবরাহ কম(ভিডিও)

চাহিদার তুলনায় ৩০ শতাংশ কম পানি সরবরাহ করছে চট্টগ্রাম ওয়াসা। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে আট হাজার কোটি টাকা ব্যায়ে তিনটি মেগা প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। তিন বছরের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ২০২০ সালের মধ্যে চট্টগ্রাম হবে পর্যাপ্ত সুপেয় পানির নগরী। থাকবে না কোনো নলকূপ। স্বীকৃতি মিলবে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে প্রথম নলকূপবিহীন নগরীর। একদিকে বঙ্গোপসাগর, পাশেই কর্ণফুলী নদী। রয়েছে বিশাল প্রাকৃতিক ফয়’সলেক। এরপরও দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী চট্টগ্রামে সুপেয় পানির সংকট কাটছেই না। সরকারী পরিসংখ্যানে নগরীর জনসংখ্যা ২৯ লাখ, বাস্তবে এর দ্বিগুন বলেই মনে করেন অনেকে। চট্টগ্রাম ওয়াসা লোকসংখ্যা ৪০ লাখ ধরেই প্রকল্প পরিকল্পনা করে। তাই রয়েই গেছে পানি সংকট। বর্তমানে ওয়াসার সরবরাহ করে ৩০ কোটি লিটার পানি। জাইকা ও বিশ্বব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় তিনটি মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়ন হলে আরও ১৬ কোটি লিটার পানি পাওয়া যাবে ২০২০ সালে। ৪৬ কোটি লিটার পানি সরবরাহ করা গেলে সংকট থাকবে না বলে দাবি করলেন ওয়াসার এই কর্মকর্তা। বন্দরনগরী চট্টগ্রামে বাড়ছে ব্যবসা বাণিজ্য ও শিল্পায়ন। গ্রাম থেকে নগরমুখী হচ্ছে মানুষ। এর সঙ্গে পরিকল্পনা করে পানির চাহিদা নিশ্চিত করা সত্যিই কঠিন কাজ বলে মনে করেন নগরবিদরা। ওয়াসা বলছে, ৮ হাজার কোটি টাকার বিদেশি বিনিয়োগে সরবরাহ ব্যবস্থায় আধুনিক পদ্ধতি চালু হবে, নিশ্চিত করা যাবে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ। মেগা প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন হলে ২০ হাজারের মতো গভীর-অগভীর নলকূপ বেআইনি ঘোষণা করার কথাও জানান ওয়াসার এই কর্মকর্তা।

চট্টগ্রামে গৃহবধূকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

চট্টগ্রাম নগরের মাদারবাড়িতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বালি বেগম (২২) নামে এক গৃহবধূকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত ১১টার দিকে পশ্চিম মাদারবাড়ির যুগিচাঁদ মসজিদ লেইনে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, একটি মোবাইল ফোন চুরির ঘটনা নিয়ে প্রতিবেশীর সঙ্গে বাদানুবাদ তুমুল সংঘর্ষে রূপ নেওয়ার একপর্যায়ে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে বেবী আকতার (৫০), তার মেয়ে বালি বেগম (২২) ও ছেলে সুমন (২০) আহত হন। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক বালি বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন। চমেক পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক জহিরুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে আহত তিনজনকে চমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হয়। পরে ডাক্তার বালি বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়া বাকি দু’জন ক্যাজুয়্যালিটি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাতসহ জখমের চিহ্ন রয়েছে বলে জানান জহিরুল। সদরঘাট থানার ওসি মো. নেজাম উদ্দিন বলেন, শনিবার বিকেলে বেবী আকতারের পরিবারের একটি মোবাইল ফোন চুরি হওয়ায় প্রতিবেশী একটি ঘরে রাত ১০টার দিকে মোবাইল ফোনটি পাওয়া যায়। কিন্ত মেমোরি কার্ড খুলে রাখা হয়। এ নিয়ে উভয় পরিবারের সৃষ্ট বিরোধ একপর্যায়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে রূপ নেয়। পরে প্রতিপক্ষরা দা-ছুরি নিয়ে বেবী আকতারের ঘরে হামলা চালালে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি।   একে//এসএইচ/

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে কার্যকর উদ্যোগ নেয়ার দাবিতে মানববন্ধন(ভিডিও)

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে কার্যকর উদ্যোগ নেয়ার দাবিতে চট্টগ্রামে বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ ৪০ কিলোমিটার দীর্ঘ মানববন্ধন করেছে।শনিবার সকাল ১০টায় চট্টগ্রামের সিটি গেট থেকে সীতাকুণ্ডের বড় দারোগাহাট পর্যন্ত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। স্থানীয় সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া, সেবামূলক সংগঠন, ৯ ইউনিয়ন পরিষদ, ১টি পৌরসভার প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা এতে অংশ নেন। এসময় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতিরোধে, বেপরোয়া যান চলাচলের উপর মনিটরিং জোরদারের দাবি জানান তারা। এছাড়া উল্টোপথে চলাচল ও ফিটনেসবিহীন যানবাহন বন্ধে কার্যকর উদ্যোগ নেয়ারও আহ্বান জানানো হয়।  

সড়ক দুর্ঘটনা রোধের দাবিতে সীতাকুণ্ডে মানববন্ধন (ভিভিও)

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ডে দুর্ঘটনামুক্ত ও নিরাপদ মহাসড়কের দাবিতে আজ শনিবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এক ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেছে সীতাকুণ্ডবাসী। চট্টগ্রাম নগরীর সিটি গেট থেকে বড়দারোগারহাট পর্যন্ত দীর্ঘ ৪০ কিলোমিটার মানববন্ধনে বিভিন্ন স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা, এতিমখানা, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া, সেবামুলক সংগঠন, বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান, ৯টি ইউনিয়ন পরিষদসহ সব শ্রেণির পেশার মানুষ মানববন্ধনে অংশ নেন। উপস্থিত নেতারা বলেন, শিল্পাঞ্চল সীতাকুণ্ডের ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সম্প্রতি সড়ক-দুর্ঘটনা আশঙ্কাজনকহারে বেড়ে গেছে। বিশেষ করে অদক্ষ ও লাইসেন্সবিহীন চালক দ্বারা পরিচালিত ‘সেইফ লাইন’ পরিবহনের গাড়িগুলো এ রুটে চলাচলকারী যাত্রী সাধারণের আতঙ্কের বিষয়ে পরিণত হয়েছে। গত তিন মাসে এখানে সড়ক-দুর্ঘটনায় মারা গেছেন ৩৩ জন। আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। এক বছরে নিহত হয়েছে ১৪৫ জন। যানবাহনগুলোর মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যাওয়া, রাস্তাপারাপারের সময় দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে পথচারিদের হতাহতের ঘটনা এখানকার নিত্যদিনের ঘটনা। লাগাতার সড়ক-দুর্ঘটনা মহামারীতে রূপ নিয়েছে বলে আজকের এই মানববন্ধনে সংশ্লিষ্টরা দাবি করেন। এসএইচ/  

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি