ঢাকা, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১১:২৯:২৪

বৃষ্টি কমতে পারে কাল থেকে

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে আজ বুধবার সকাল থেকে আকাশ আংশিক মেঘলা থাকতে পারে। আর দেশের কোথাও কোথাও হালকা বৃষ্টি থেকে ভারি বৃষ্টি বা ভারি বর্ষণও হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। আবহাওয়া অধিদফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রুহুল কুদ্দুস জানান, আজ সারাদেশের দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। তিনি আরো জানান আগামীকাল ২১ সেপ্টেম্বর থেকে সারাদেশেই বৃষ্টিপাতের পরিমান কমতে পারে। আজ ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। আজ ঢাকার আশেপাশের এলাকার উপর দিয়ে দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ১০ থেকে ১৫ কি.মি. বাতাস প্রবাহিত হতে পারে। সেইসঙ্গে আজ ভোর ৫ টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত  দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমুহের জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে- রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, ঢাকা, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, যশোর, কুষ্টিয়া, ফরিদপুর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলের উপর দিয়ে দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে এবং বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টিও হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এছাড়াও উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালা তৈরির কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। তাই চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর  স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। আরকে//এআর

ঝড়ে উড়ে গেল প্রধানমন্ত্রীর বাড়ির ছাদ

হারিকেন মারিয়ার আঘাতে ক্যারিবীয় দ্বীপ ডোমেনিকা বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। মারিয়া নামে ক্যাটাগরি ৫ মাত্রার নতুন এই হারিকেনটি লণ্ডভণ্ড করেছে দ্বীপের বহু ঘরবাড়ি। ঝড়ের তাণ্ডবের হাত থেকে রেহাই পাননি দেশটির প্রধানমন্ত্রীও। উড়ে গেছে প্রধানমন্ত্রীর বাড়ির ছাদ। প্রধানমন্ত্রী রুসভেল্ট স্কেরি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে খোদ এ কথা জানিয়েছেন। তিনি তাঁর সরকারি বাসভবনে আশ্রয় নিয়েছেন। সেই সঙ্গে দরিদ্র দ্বীপপুঞ্জবাসীর জন্য তাঁর শঙ্কার কথাও জানিয়েছেন। খবর রয়টার্সের। ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জ হারিকেন ইরমার ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে না ওঠার আগেই আবার আঘাত হানল হারিকেন মারিয়া। সোমবার রাতে ঘূর্ণিঝড় মারিয়ার কারণে ক্যারিবীয় দ্বীপ ডোমেনিকায় ভূমিধস হয়। এর আগে আকস্মিকভাবে ঝড়টি ক্যাটাগরি পাঁচে রূপ নেয়। ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার জানিয়েছে, ডোমেনিকায় আঘাতের পর ঝড়টির তীব্রতা কমে যায়। ক্যাটাগরি চারে তা রূপ নেয়। এদিকে ঝড়ের সঙ্গে সঙ্গে উদ্বেগ দৃশ্যমান হয় প্রধানমন্ত্রীর ফেসবুক অ্যাকাউন্টে। ‘নির্মম ঝোড়ো হাওয়া! ঈশ্বরের কৃপাই আমাদের বাঁচাতে পারবে। আমার বাড়ির ছাদ উড়ে গেছে।’ পরে আরেকটি পোস্টে তিনি লিখেন, ‘আমার বাড়ির ছাদ উড়ে গেছে। আমি এখন হারিকেনের করুণায় বেঁচে আছি। বাড়ির ভেতর পানি থৈথৈ করছে।’ প্রায় এক ঘণ্টা পর স্কেরিট নিশ্চিত করেন, তাঁকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের পর ফেসবুকে তিনি লিখেন, ‘আমরা যা হারিয়েছি, তার ক্ষতি অর্থ দিয়ে পূরণ করা সম্ভব নয়। আমার ভয় হচ্ছে, সকালে উঠে বৃষ্টির ফলে ভূমিধসে হতাহতের খবর পাব।’ সোমবার রাত সোয়া ৯টার দিকে হারিকেনটি ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে আঘাত হানে। এটি প্রথমে ডোমিনিকা দ্বীপের ওপর দিয়ে বয়ে যায়। সে সময় ঝড়ের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ২৬০ কিলোমিটার। হারিকেনটি পুয়ের্তো রিকোর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া দপ্তর। এদিকে ফ্রেঞ্চ আইল্যান্ড, গুয়াদেলোপ, পুয়ের্তো রিকো, ইউএস ভার্জিন আইল্যান্ডস ও ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডসসহ বিভিন্ন দ্বীপে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এর মধ্যে ফ্রেঞ্চ আইল্যান্ড, পুয়ের্তো রিকো ও গুয়াদেলোপের বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিতে বলা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সোমবার ইউএস ভার্জিন আইল্যান্ডসে সতর্কতা জারি করেছেন।

মেসির দূর্দান্ত পারফরমেন্সে বড় জয় বার্সার

লিওনেল মেসির দূর্দান্ত পারফরমেন্সে ঘরের মাঠে এইবারকে ৬-১ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা। ম্যাসের শুরুতে এইবারের নৈপূণ্য চোখে পড়ার মতো হলেও পরে তা ধোয়াসাই মিলিয়ে যায়। অন্যদিকে সময়ের ব্যবধানে তরুণদের নিয়ে জয়রথ অব্যাহত রাখেন চিরতরুণ আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মেসি। পাসিং,প্রতি-আক্রমণ আর ফিনিশিংয়ের এক অনবদ্য পারফরমেন্সে জয় ছিনিয়ে নেই বার্সেলোনা। বার্সেলোনা একাদশে ছিল ৬টি পরিবর্তন। বেঞ্চে ছিলেন লুইস সুয়ারেজ ও ইভান রাকিতিচ। ইনজুরির কারণে উসমানে ডেম্বেলে ৪ মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে যাওয়ায় মেসির সঙ্গী হয়েছেন ডেনিস সুয়ারেজ ও জেরার্ড ডেলোফু। পাউলিনহো, সেমেদো, মাচেরানো ও দিনিয়েও ছিলেন শুরুর একাদশে। ৩ মিনিটেই কাঁপিয়ে দিয়েছিল এইবার। একা পেয়েও টের স্টেগানকে হারাতে পারেননি এইবার ফরোয়ার্ড সার্জি এনরিচ। ১০ মিনিটে আবারও এইবারের আক্রমণ, এবারে জাপানি অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ইনুই। সেই ইনুই, যার গোলে গেল মৌসুমে ক্যাম্প ন্যুতে বার্সাকে হারিয়ে দিচ্ছিল এইবার। তবে এবারে সুবিধা করতে দেননি বার্সা গোলরক্ষক। ২০ মিনিটে বার্সা ডিফেন্ডার নেলসন সেমেদোকে ফাউল করেন আলেহান্দ্রো গালভেজ। পেনাল্টি স্পট থেকে মৌসুমে নিজের ষষ্ঠ গোল করেছেন মেসি। ৩৭ মিনিটে কর্নার থেকে গোল করেছেন শুরুতেই বার্সা সমর্থকদের আস্থা হারানো পাউলিনহো। ডেনিস সুয়ারেজের কর্নার থেকে হেডে গোল করেন ব্রাজিলীয় মিডফিল্ডার। বহুদিন পর মাঠে শারীরিক ভাবে শক্তিশালী এক মিডফিল্ডারের অস্তিত্ব টের পাচ্ছে বার্সেলোনা। প্রথমার্ধ শেষে ২-০তে এগিয়ে ছিল বার্সা। দ্বিতীয়ার্ধের ৮ মিনিটে বিদ্যুৎগতির এক প্রতি আক্রমণে এইবার রক্ষণ ছিঁড়ে ফেলেন মেসি। তিন ডিফেন্ডার যখন মেসির শট আটকাতে ব্যস্ত তখন গোলরক্ষকের ঠেকিয়ে দেওয়া বলে কাছের পোস্টে গোল করেছেন ডেনিস সুয়ারেজ। বাম প্রান্তে অনেকটাই অপ্রতিরোধ্য ছিলেন বার্সার এই তরুণ ফরোয়ার্ড। ৪ মিনিট পর সফরকারীদের হয়ে এক গোল শোধ করেছিলেন এনরিচ। জুনকা রেনের ক্রস থেকে দর্শনীয় ফিনিশিং দেখিয়েছেন। কিন্তু পাঁচ মিনিট পর আবারও মেসি-ঝলক। তিন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল ঠেলেছেন পোস্টের বাঁ প্রান্তে। হ্যাটট্রিক পূর্ণ করতে আর মাত্র এরপর মাত্র ১২০ সেকেন্ড সময় নিয়েছেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। নিজেদের অর্ধে বল পেয়ে কাউন্টারে উঠেছেন দ্রুত। তারপর পাউলিনহোর সঙ্গে ওয়ান-টু করে দ্রুত শট নিয়েছেন। তিন ডিফেন্ডার আর গোলরক্ষক মিলেও শেষ রক্ষা হয়নি এইবারের। তবে ভাগ্যকে দুষতেই পারেন পেনা। তাঁর শটে বল গোললাইনের হাওয়া গায়ে লাগিয়েও পোস্টে যায়নি। এক মিনিট পরই বদলি খেলোয়াড় অ্যালেক্স ভিদালের ক্রস থেকে নিজের চতুর্থ গোল করেন লিও মেসি। লিগে এই নিয়ে ৫ ম্যাচে ৯ গোল করেছেন মেসি, সব মিলিয়ে মৌসুমে ১৬ গোল। তথ্যসূত্র : ইএসপিএন এফসি।

মেক্সিকোতে ভূমিকম্পে নিহত ১৪৯

মেক্সিকোর মধ্যাঞ্চলে শক্তিশালী ভূমিকম্পে অন্তত ১৪৯ জনের প্রাণহানি হয়েছে, এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার দুপুরে ৭ দশমিক ১ মাত্রার এই ভূমিকম্পে রাজধানী মেক্সিকো সিটির বহু ভবন ধসে পড়ে। সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে রাজধানী থেকে ১২০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মোরেলাস ও পুয়েবলা শহরে। নিহতদের মধ্যে একটি স্কুলের অন্তত ২২ জন শিশু শিক্ষার্থী রয়েছে। গত ৩২ বছরের মধ্যে মেক্সিকোতে এটিই সবচেয়ে বড় ভূমিকম্পের আঘাত। এর আগে ১৯৮৫ সালের এই দিনেই ভয়াবহ ভূমিকম্পে কয়েক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, লাঞ্চ আওয়ারে ভবনে প্রচন্ড ঝাকুনি শুরু হলে হাজার হাজার কর্মী রাস্তায় নেমে আসে। এসময় ভয়ে দ্রুত নামতে গিয়ে বহু মানুষ হতাহত হন। বহু ভবন ধসে পড়েছে। রাজধানী জুড়ে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা অচল হয়ে পড়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যান্ত ধ্বংসস্তুপ থেকে হতাহতদের উদ্ধারে তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে দমকল বাহিনী।  

অনলাইন ব্যবসার প্রতারণা রোধে নীতিমালা হচ্ছে: তোফায়েল

অনলাইন ব্যবসার প্রতারণা রোধে প্রয়োজনীয় নীতিমালা প্রণয়নের কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। মঙ্গলবার রাজধানীর ফার্মগেট কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী অনলাইন শপিং ফেস্টিবালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান। ডিজিটাল বাংলাদেশ ই-কমার্সের রুপরেখা সম্পর্কে ধারনা দিতে প্রথমবারের মতো এ অনলাইন শপিং ফেস্টিবাল আয়োজন করা হয়। মঙ্গলবার শুরু হওয়া এ মেলা চলবে আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। সরকারের তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগিতায় আরশি নগর মিডিয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই নিউজ এবং নিটল নিলয় প্রেসেন্তস এনআরবি বাজার গ্রেট এই মেলার আয়োজন করেন। বাণিজ্যমন্ত্রী এসময় বলেন, `দেশে প্রথমবারের মতো অনলাইন শপিং মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এটা আমাদের জন্য একটি মাইলফলক। এই মেলা আগামীতেও অব্যাহত রাখতে হবে। অনলাইন ব্যবসার প্রতারণা রোধে প্রয়োজনীয় নীতিমালা প্রণয়নের কাজ চলছে। এর ফলে ক্রেতাগণ পণ্য কেনা-বেচার হয়রানি থেকে মুক্তি পাবে। আগামী বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে ৫০০ অনলাইন উদ্যোক্তা কোম্পানি নিয়ে বড় পরিসরে এই মেলা বসবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের দেশের রপ্তানি বেড়েছে, রিজার্ভ, রেমিটেন্সে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আইসিটি সেক্টরে সরকার ১০ শতাংশ সহায়তা দিচ্ছে। যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে ভূমিকা রাখবে। ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরাপত্তার কাজ মনিটরিং করছে।’ সেই সাথে অনলাইন পণ্যের গুণগত মান নিশ্চিত করতে সকল উদ্যোক্তাদের প্রতি আহবান জানান তিনি । উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতি সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। দেশ সেরা ৪৮টি কোম্পানি এই মেলায় অংশগ্রহণ করে। প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে শুরু হয়ে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলবে এ মেলা। মেলা প্রাঙ্গন সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। দর্শনার্থীদের জন্য রয়েছে বিনামূল্যে প্রবেশের সুযোগ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেন ভুঁইয়া, ডাক ও টেলি যোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর শিকদার, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ, এফবিসিসিআই-এর সাবেক সভাপতি ও নিটল নিলয় গ্রুপ চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমেদ, এনআরবি বাজারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং সেন্টার ফর এনআরবি ফাউন্ডেশন এর প্রেসিডেন্ট এম ই চৌধুরী শামীম, বেসিসের সভাপতি মোস্তফা জব্বার এবং ওয়াইবিসিসিআই-এর প্রেসিডেন্ট রাজু আলিমসহ প্রমুখ।   কেআই/টিকে

আগামী দলবদলে খেলোয়াড় কিনার ইচ্ছা নেই বার্সার

ফরাসি ফরোয়ার্ড উসমান দেম্বেলে লম্বা সময়ের জন্য ছিটকে গেলেও জানুয়ারির দল বদলে নতুন কোনো খেলোয়াড় কিনবে না স্পেনিশ ক্লাব বার্সালোনা। ক্লাবটির জোজেপ মারিয়া বার্তোমেউ তার এই ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন। শনিবার লা লিগায় গেতাফের বিপক্ষে ২-১ গোলে জেতা ম্যাচে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান দেম্বেলে। পরে কাতলান এই ক্লাবটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, দেম্বেলের মাঠে ফিরতে সাড়ে তিন থেকে চার মাস সময় লাগতে পারে। গত মাসের শেষ দিকে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড থেকে প্রাথমিকভাবে সাড়ে ১০ কোটি ইউরোর বিনিময়ে দেম্বেলেকে দলে টানে বার্সেলোনা। গত মাসের শুরুতে রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমারের পিএসজিতে চলে যাওয়ার পর তার জায়গায় বার্সেলোনার শূন্যতা পূরণে দেম্বেলেকে দলে নেয়। দেম্বেলে চোটে পড়ায় বার্সেলোনার আক্রমণভাগ আবারও কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়লো। তবে সেজন্যে জানুয়ারিতে নতুন খেলোয়াড় কেনার ইচ্ছা নেই বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন কাতালান ক্লাবটির সভাপতি।   এম/টিকে

অণুকাব্য

এক স্রোতস্বিনী বহেদিনক্ষণ কি বা রাত ভোর বাতাসেএকটা গান ভেসে ভেসে আসেঅদেখা ছবি, নীরবে সহেআর দণ্ডিত দ্বিধায়ফসলের বীজকোষ বেড়ে ওঠে একাযাচে সহজ সখ্যতা, অথবা মাগে আকাশএ তার কোন দায়? দুই আমি আছি আকাশেমেঘের মতো, কখনো সাদা কখনো কালোরং বদলায তবে আজন্ম ভাসমানআমি আছি সমুদ্রেবালুচর ছুঁয়ে যাই,তৃষ্ণার্ত চাতক আর মাটির তৃষ্ণা মিটাইস্থিরতা নেই, চিরকাল আবহমানতিন শ্রাবণের পূর্ণিমা রাতজোৎস্না আর বৃষ্টির প্রেম ডাকে বারবারচলো সবুজে রাখি একে অন্যের হাতডেকেছে রূপালী আলোর বাণনদী আর পাহাড়ে পাতালো মিতালীকী করে ফেরাবো এ আহ্বান? চার যাইযাচ্ছি কিন্তু..আর বলবো না, এবার কিন্তু যাবোইএভাবে বলতে বলতেই একদিন ঠিক চলে যাবোকখনো কাঁটাতার যদি প্রেমিকার সাদা ওড়না হয়অথবা জেলখানা হয় পদ্মফুলের আসনতবে ফিরবো একদিন অতিথি হয়েতোমাদের এ নগরীতে।এখনো সীমান্ত খোলা আছে আমারদু’চোখ সতেজ, সদ্য ঘাসে ঝরা শিশিরের মতোতাই যাচ্ছিযাই কিন্তুযেতে যেতে পিছু ফিরবো না আর। পাঁচচৈত্রের শেষ বিকেলআলো ছায়ার খেলার মাঝে বিন্দু বিন্দু অভিমান জমে অন্ধকারেই মৃত্যু হলো একটা গল্পেরপ্রতিদিন দ্বন্দ্ব কিংবা প্রেম আজ দ্রোহের রুপে মুরতি একতবু নি:শ্বাস যা বাকি আছে, নাম নিয়ে টানে এফোঁড় ওফোঁড়কি বেহায়া নি:শ্বাস!যে কেউ অনায়াসে গলা টিপে হত্যা করতে চাইবে সে বেহায়া নি:শ্বাস। ছয় তোমার আকাশ ঝুলছে হাওয়ায়শহরে অতিথি কাকডাকে ভোরে, সঙ্গীদেরআর ডালে ডালে ডানা ঝাপটায়.. সাত ঝড়ের সাথে বৃষ্টি নাকি বৃষ্টির সাথে ঝড়?বৈশাখী এলোকেশ, দ্বন্দ্ব;নাকি অসম অণুস্বর..? 

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জাতিসংঘ মহাসচিবের

মিয়ানমারের রাখাইনে সেনা অভিযান বন্ধ ও রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফিরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। সাম্প্রতিক রাখাইন পরিস্থিতিতে জাতিগত দ্বন্দ্ব নাটকীয় পর্যায়ে উত্তীর্ণ দাবি করে উদ্বেগ জানিয়েছেন তিনি। গত তিন সপ্তাহে মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও পুলিশের হাতে প্রায় ১ হাজার রোহিঙ্গা নাগরিক নিহত হয়েছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। ইতোমধ্যে সংস্থাটির মানবাধিকারবিষয়ক প্রধান জেইদ রা’দ আল হুসেইন রাখাইনের ঘটনাটিকে ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞের পাঠ্যপুস্তকীয় দৃষ্টান্ত’ আখ্যা দিয়েছেন। আর জাতিসংঘের মহাসচিব গুতেরেস এর আগে প্রশ্ন রেখেছিলেন, এক তৃতীয়াংশ মানুষ দেশ থেকে উচ্ছেদ হলে তাকে জাতিগত নিধন ছাড়া আর কী নামে ডাকা যায়। জাতিসংঘ অধিবেশনে গুতেরেস বলেন,  ‘মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে জাতিগত দ্বন্দ্ব নাটকীয় মাত্রায় পৌঁছার ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন। নির্যাতন-নিপীড়ন, সামাজিক বৈষম্য, চরমপন্থা এবং সহিংস দমন প্রক্রিয়ার কারণে এরইমধ্যে ৪ লাখেরও বেশি মানুষ দেশ ছেড়েছে। এতে আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা ঝুঁকির মুখে পড়েছে।’

বিমানবন্দরে শিশুকেই সালাম দিলেন প্রধানমন্ত্রী (ভিডিও)

শিশুদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হৃদ্যতা এবং আন্তরিকতা অন্য সবার থেকে যেন আলাদা। শিশুদের কাছে পেলে তিনিও যেন শিশু হয়ে যান। তাইতো এক শিশুর সালামের জবাবে তাকেও সালাম দিলেন ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ শেখ হাসিনা। জাতিসংঘের ৭২তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দর নামার পর অনেকেই প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। এ সময় এক শিশু উচ্চস্বরে প্রধানমন্ত্রীকে সালাম দেয়। জবাবে প্রধানমন্ত্রীও তাকে সালাম দেন এবং বলেন, কেমন আছো তুমি, ভালো আছো? রোববার নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে গত ১২ সেপ্টেম্বর কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দুর্দশা দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নির্যাতিত এক শিশুকে দেখে তাকে অশ্রুসজল নয়নে বুকে জড়িয়ে ধরেন তিনি। গত বছর নভেম্বরে জলবায়ু সম্মেলন থেকে ফিরে গণভবনে সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, দলীয় নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিকদের সামনে এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে আলোচনার এক পর্যায়ে তাঁর কাছে চলে আসেন তাঁর দৌহিত্ররা। এ পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার সৈন্য বাহিনী এসে পড়েছে। আর থাকা যাবে না। ডব্লিউএন

অবৈধ রেমিটেন্স চ্যানেল বন্ধ হবে : গভর্নর

দেশের রেমিটেন্সের প্রবাহ বাড়ানোর জন্য অবৈধ সব চ্যানেল অপসারণ করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। তিনি বলেন, অবৈধ চ্যানেলের সঙ্গে সম্পৃক্ততা পাওয়ায় বিকাশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আরও যাদের সম্পৃক্ততা পাওয়া যাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে রেমিটেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০১৬ প্রদান অনুষ্ঠানে আজ মঙ্গলবার তিনি এসব কথা বলেন। গত বছর রেমিটেন্সের প্রবাহ কম ছিল জানিয়েছে গভর্নর বলেন, আশার কথা হচ্ছে গত ২ মাসে রেমিটেন্স বেড়েছে। কিছু অবৈধ চ্যানেল বন্ধ করে দেওয়ার কারণে এর ইতিবাচক প্রভাব পড়ছে। আশা করছি রেমিটেন্সের প্রবৃদ্ধি ধরে রাখা যাবে। কারণ বাংলাদেশ ব্যাংক ইতোমধ্যে বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। প্রয়োজনে আরও পদক্ষেপ নেওয়া হবে। গভর্নর ফজলে কবির আরো বলেন, অবৈধ চ্যানেলগুলো অতি কম সময়ে গ্রাহকের কাছে টাকা পৌঁছে দেয়। তাই রেমিটেন্স পাঠানোর ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোকে আরও কম সময় নিতে হবে। এতে তাদের খরচও অনেক কম পড়ে। এর জন্য বৈধভাবে প্রযুক্তিগত পন্থা বের করতে হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান। রেমিটেন্সের বিষয়ে তিনি বলেন, আইনের মাধ্যমে দেশে রেমিটেন্স পাঠানোর ক্ষেত্রে সব অপ্রয়োজনীয় বাধা দূর করতে হবে। বিদেশে যে দূতাবাসগুলো রয়েছে সেগুলো হতে হবে শ্রমাবাস বা বাণিজ্য কেন্দ্র। আমার বিশ্বাস দূতাবাসগুলো তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করবে। কারণ আজ যারা পুরস্কার পেলেন তারা সবাই গুরুত্বপূর্ণ। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. ইউনুসুর রহমান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. নমিতা হালদার, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এসকে সুর চৌধুরী, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল হামিদ মিয়া, অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শামসুল ইসলাম, সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওবায়দুল্লাহ আল মাসুদ, জনতা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুস সালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, সম্প্রতি অবৈধ চ্যানেলে রেমিটেন্স আনার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে বিকাশের ২ হাজার ৮৮৭টি এজেন্টের কার্যক্রম স্থগিতের (বন্ধ) নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। একইসঙ্গে এজেন্টদের ১ হাজার ৮৬৩টি হিসাব বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়। আর বেনামে হিসাব পরিচালনা করার দায়ে ৮০ হাজার এজেন্টের ৬ লাখ হিসাবের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ও সন্ত্রাস বিরোধী আইন অনুযায়ী এসব সিদ্ধান্ত দেয় বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টেলেজেন্ট ইউনিট (বিএফআইইউ)। অনুষ্ঠানে ৪টি ক্যাটাগরিতে ৩৫ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ রেমিটেন্স প্রেরণকারী ২১ জন, বন্ডে বিনিয়োগকারী ৫ জন, বিদেশি বাংলাদেশি মালিকানাধীন ৪টি এক্সচেঞ্জ হাউজ ও শীর্ষ রেমিটেন্স আহরণকারী ৫ ব্যাংককে পুরস্কৃত করা হয়েছে। সর্বোচ্চ রেমিটেন্স প্রেরণকারী ও বন্ডে বিনিয়োগকারী ব্যক্তিদের মধ্যে ১৭ জন সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবাস করছেন। অপর ৯ জন যুক্তরাষ্ট্র, কুয়েত, জার্মানি, সিঙ্গাপুর, কাতার ও অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করছেন। শীর্ষ রেমিটেন্স আহরণকারী ব্যাংকগুলো হচ্ছে যথাক্রমে ইসলামী ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ড, অগ্রণী, সোনালী ও জনতা ব্যাংক। এক্সচেঞ্জ হাউজগুলো হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের প্লাসিড ইনক করপোরেশন, ইতালির ন্যাশনাল এক্সচেঞ্জ কোম্পানি, যুক্তরাজ্যের এনইসি মানি ট্রান্সফার ও যুক্তরাষ্ট্রের সানম্যান গ্লোবাল এক্সপ্রেস। অনিবাসী বাংলাদেশিদের আর্থিক অন্তর্ভুক্তির আওতায় আনা এবং বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরণে উৎসাহিত করার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড প্রবর্তন করে। ডব্লিউএন

‘সু চির ভাষণে সেনাবাহিনীর বক্তব্যের প্রতিধ্বনি’

মিয়ানমারে পশ্চিমাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে দেশটির নেত্রী অং সান সু চি জাতির উদ্দেশ্যে যে ভাষণ দিয়েছেন তা প্রত্যাখ্যান করেছেন রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা। রোহিঙ্গা নেতারা বলছেন, সু চি সব জেনেও না জানার ভান করেছেন। তার এই ভাষণে সেনাবাহিনীর বক্তব্যেরই প্রতিধ্বনি করা হয়েছে। জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো বলছে, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে প্রাণ বাঁচাতে চার লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা গত তিন সপ্তাহে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছে। এখনো প্রতিদিন আরও ১০ থেকে ১৫ হাজার রোহিঙ্গা সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করছে । রোহিঙ্গারা বলছে, সু চি খুব ভালো করেই জানেন যে নির্যাতনের কারণেই আমরা আমাদের নিজের গ্রাম ও ভিটেমাটি ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়েছি। সব কিছু জানার পরেও সু চির বক্তব্য রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠিকে ক্ষুব্ধ করেছে। রোহিঙ্গাদের একটি সংগঠন ‘আরাকান রোহিঙ্গা ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন’এর চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম লন্ডনে থেকে সংগঠনটির কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন। তিনি বলেছেন, রাখাইনের পরিস্থিতি নিয়ে অং সান সু চি পুরোপুরি অসত্য বক্তব্য তুলে ধরেছেন। তিনি আরও বলেন, ‘সু চি তার বক্তব্যে যা বলেছেন তা মোটেও সঠিক নয়। তার না জানার মতো কোন কারণ নেই। সময়ে সময়ে রোহিঙ্গারা তাকে সব জানিয়েছে- কি হচ্ছে আর না হচ্ছে। আর সু চি জেনেও না জানার মতো করছেন। শি ইজ অ্যা প্রিটেন্ডার। একই সময়ে তিনি মিথ্যা কথা বলেছেন। আমরা তো খালি হয়ে গেছি সেটা আপনারা দেখছেন তো। ওখানে আছে কি এখন? মানুষ তো একদমই নাই হয়ে গেছে সেখানে। আমার মন্তব্য হলো উনি ভনিতা করছেন ও মিথ্যা কথা বলছেন। জেনেও না জানার মতো আচরণ করছেন।’ বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গারা মূলত অবস্থান করছেন কক্সবাজার জেলার শরণার্থী শিবিরগুলোতে। এই দফাতে নতুন করে আসা শরণার্থীদেরও একটি বড় অংশকে এসব শিবিরে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। এমনই একটি শরণার্থী শিবির কুতুপালং শরণার্থী শিবিরের রোহিঙ্গাদের একজন নেতা মোহাম্মদ নূর বলেছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতনের কারণেই লাখ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে এসেছে। কিন্তু সু চি এই সত্যকে গোপন করেছেন। তিনি বলেন ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা বলেছেন সু চি। অত্যাচার না করলে, নির্যাতন না করলে, গুলি না করলে, কাটাছেঁড়া না করলে মানুষ কেন আসবে এখানে। জীবনেও আসতো না। মিয়ানমারে মুসলিম ছিলো ১২ লাখ । এর মধ্যে সাত লাখই তো এখানে এসে পড়েছে। মানুষ শান্তিপূর্ণ ভাবে থাকতে পারলে কি একদেশ থেকে আরেক দেশে পালিয়ে আসে? সূ চি সামরিক বাহিনীর লোকজনকে ভয় পান। সেজন্যই এভাবে কথা বলেছেন ‘ সু চি তার ভাষণে কি বলবেন তা নিয়ে অনেক আগ্রহ ছিলো রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন সংগঠনের। কিন্তু তার ভাষণ ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়াই তৈরি করেছে রোহিঙ্গাদের মধ্যে। অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক রোহিঙ্গা ইন্টেলেকচুয়াল কমিউনিটির প্রেসিডেন্ট ড. লা মিন্ট বলেছেন, অং সান সূ চি-র বক্তব্য আর মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর বক্তব্যকে তারা আলাদা করতে পারছেন না। তিনি বলেন, ‘উনার বক্তব্য আর সেনাবাহিনীর বক্তব্যের সাথে কোন পার্থক্য নেই। একই কথা বলেন উনারা। এটা সেনাবাহিনীরই বক্তব্য। উনি যা বলেছেন তার বক্তব্যের ৯০ ভাগই মিথ্যা কথা। রোহিঙ্গাদের নিয়ে তিনি যা বলেছেন সবাই আমরা তা প্রত্যাখ্যান করি।’   সূত্র: বিবিসি বাংলা।  টিকে

৩ প্রতিষ্ঠান বেচতে পারবে লটারির টিকেট

আর্তমানবতার সেবামূলক কার্যক্রমের জন্য তহবিল সংগ্রহে ৩টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে শর্তসাপেক্ষে জাতীয় পর্যায়ে লটারি অনুষ্ঠানের অনুমতি দিয়েছে অর্থমন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ (আইআরডি)। আজ মঙ্গলবার অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের (স্ট্যাম্প প্রশাসন শাখা) উপ সচিব ডা. মো. হামিদুল হক স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে। আইআরডি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। আর্তমানবতার সেবা, চিকিৎসা সেবা ও অন্যান্য সেবামূলক কার্যক্রম পরিচালনাকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান জাতীয় পর্যায়ে লটারি অনুষ্ঠান আয়োজনের আবেদন করে। যাচাই-বাছাই শেষে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে অনুমতি দেয়া হয়। প্রতিষ্ঠানগুলো হল-মাদকদ্রব্য ও নেশা নিরোধ সংস্থা, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও ঢাকা আহছানিয়া মিশন ক্যান্সার হাসপাতাল। সব আবেদনপত্র যাচাই শেষে দেখা যায় ৩টি প্রতিষ্ঠানই জাতীয় পর্যায়ে সেবামূলক,  চিকিৎসা সংক্রান্ত কার্যক্রম গ্রহণ করে। আইআরডি’র আদেশে বলা হয়, মাদকদ্রব্য ও নেশা নিরোধ সংস্থার লটারির টিকেটের মূল্য হবে ২০ টাকা। ১১ সেপ্টেম্বর থেকে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত টিকেট বিক্রি ও ৪ নভেম্বর লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির লটারির টিকেটের মূল্য ২০ টাকা। ১২ নভেম্বর থেকে ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত টিকেট বিক্রি ও ২০১৮ সালের ৬ জানুয়ারি লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা আহছানিয়া মিশন ক্যান্সার হাসপাতালের লটারির টিকেটের মূল্য ১০ টাকা। ২০১৮ সালের ১৪ জানুয়ারি থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত টিকেট বিক্রি ও ১০ মার্চ লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হবে। আদেশে আরও বলা হয়, আইআরডি’র ২০১৩ সালের ৮ অক্টোবরের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী আইআরডি এর মাধ্যমে গঠিত ড্র কমিটির মাধ্যমে ড্র অনুষ্ঠান করতে হবে। জাতীয় লটারি নীতিমালা অনুযায়ী লটারি আয়োজনে ১২টি শর্ত দেয়া হয়। এরমধ্যে রয়েছে, পুরস্কারসহ টিকেট বিক্রির ব্যয় বিক্রিত টিকেটের মূল্যের ৪৫% এরমধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। বিক্রিত টিকেটে উৎসে কর ও মূসক কর্তন করে সরকারি কোষাগারে জমা দিতে হবে। লটারির অনুমতি কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রয় বা হস্তান্তর করা যাবে না। শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, ক্লিনিকের মাধ্যমে বা এসব প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরে টিকেট বিক্রি করা বা বিক্রয়ের প্রচারণা চালানো যাবে না। টিকেট বিক্রির জন্য এজেন্ট নিয়োগ ও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে টিকেট বিক্রির ক্ষেত্রে ইআরডিরকে অবহিত করতে হবে। প্রয়োজনে আইআরডি কার্যক্রম পরিদর্শন করবে।   বিক্রিত টিকেটের লটারি ও লটারি অনুষ্ঠানের ২ মাসের মধ্যে পুরস্কার হস্তান্তর করা এবং উৎসে কর ও মূসক লটারি অনুষ্ঠানের ৯০ দিনের মধ্যে সরকারি কোষাগারে জমা দিতে হবে। এসব শর্ত লঙ্ঘন বা অমান্য করলে জাতীয় লটারি নীতিমালা, ২০১১ এর ৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়। ডব্লিউএন

প্রথম টেস্টের আগেই দলে যোগ দিবেন রুবেল: আকরাম খান

ভিসা জটিলতার কারণে বাংলাদেশ টেস্ট দলের সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকা যেতে পারেননি পেসার ডানহাতি রুবেল হোসেন। তাই তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে খেলা শঙ্কায় পড়েছে রুবেলের। তবে তার টেস্ট সিরিজে খেলা নিয়ে কোনো শঙ্কা দেখছেন না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান। আগামী দুয়েক দিনের মধ্যেই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে বলে আশা করেন আকরাম খান। তিনি বলেন, ‘ওর ভিসা সংক্রান্ত কিছু ভুল হয়েছে। ভুলটা দক্ষিণ আফ্রিকা ভিসা অফিসের। ওর জন্ম তারিখ নিয়ে ঝামেলা হয়েছে। সমস্যার সমাধান হতে আরও দুই-একদিন লাগবে। টেস্ট সিরিজের আগেই যেতে পারবে।” দক্ষিণ আফ্রিকায় সাপ্তাহিক ছুটি শনি-রোববার। সে কারণেই হয়তো সমস্যা সমাধানে দেরি হচ্ছে বলে মনে করেন সাবেক অধিনায়ক আকরাম।     এদিকে বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী জানান, ভিসা পাওয়ার পরও রুবেলের দক্ষিণ আফ্রিকায় যাওয়া নিয়ে সমস্যা হওয়ায় বিস্মিত ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান নির্বাহী হারুন লরগাত। বিষয়টি তিনি খুব গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছেন। আকরাম খান আরও বলেন, “ওর সমস্যা সমাধানের জন্য গতকাল কাজ হয়েছে। আশা করি, আজ-কালের মধ্যে সমাধান হয়ে যাবে। আর সমাধান তো হতেই হবে। ও আমাদের দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় এবং তাকে বাংলাদেশের দরকার আছে। একটা ভুল বোঝাবুঝির জন্য ওকে তো আমরা বঞ্চিত করতে পারি না।”     দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্দেশে গত শনিবার দুই দফায় ঢাকা ছাড়ে বাংলাদেশ দল। অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে দ্বিতীয় দলে ছিলেন রুবেল। টেস্ট দলে ফেরা এই পেসারের সতীর্থদের মতো বৈধ ভিসা আছে। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের নতুন নিয়ম অনুযায়ী বিমানে ওঠার জন্য পাঠানো তালিকাতেও যাত্রীর নাম থাকতে হয়। কিন্তু সেখানে নাম ছিল না রুবেলের। বোডিং পাস না পাওয়ায় বিমানবন্দর থেকে বাসায় ফিরে আসতে হয় তাকে।  

ঢাকায় নভেম্বরে সিপিএ সম্মেলন

এ বছর ৬৩তম কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশনের (সিপিএ) সম্মেলন ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১ থেকে ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় এই সম্মেলনে রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়েও আলোচনার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। জঙ্গি হামলার প্রেক্ষাপটে গতবছর ঢাকায় সিপিএ সম্মেলন বাতিল করা হয়। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও সিপিসি’র ভাইস প্যাট্রন শেখ হাসিনা আগামী ৫ নভেম্বর জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় এ সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। সিপিএ চেয়ারপার্সন বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী মঙ্গলবার সংসদ ভবনের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এই সম্মেলনের বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন। সিপিএ’র ৬২তম সম্মেলন গতবছর সেপ্টেম্বরে ঢাকায় হওয়ার কথা থাকলেও জুলাই মাসে হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার কারণে তা বাতিল করা হয়। এরপার চলতি বছর এপ্রিলে ঢাকায় ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের (আইপিইউ) সম্মেলন হয়। শিরীন শারমিন চৌধুরী সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “কমনওয়েলথভুক্ত ৫২টি দেশের ১৮০টি জাতীয় ও প্রাদেশিক সংসদের স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, সংসদ সদস্যসহ ছয় শতাধিক প্রতিনিধি এ সম্মেলনে অংশ নেবেন।” এবারের সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য হল- ‘কনটিনিউনিং টু এনহ্যান্স দ্য হাই স্ট্যান্ডার্ড অব পারফরমেন্স অব পার্লামেন্টারিয়ানস’। সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশের প্রতিনিধি দল এই সম্মেলনে অংশ নেবেন। ডব্লিউএন

মঙ্গল যাত্রার প্রস্তুতি স্বরূপ ৮ মাস আগ্নেয়দ্বীপে ৬ অভিযাত্রী

মঙ্গল অভিযানের বছরটা আগেই ঘোষণা করে রেখেছে নাসা। আগামী ২০২৩ সালের মঙ্গলে পাড়ি দিয়ে অভিযাত্রীরা যাতে কোনো সমস্যায় না পরেন সেজন্য সব রকম পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে নিশ্চিত হতে চাচ্ছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা। মূত্রের অণুগুলো ভেঙে তা থেকে কীভাবে খাবার তৈরি করতে হয়, টানা অনেক দিন ভারশূন্য থাকার পরীক্ষার পাশাপাশি গত ৮ মাস ধরে চলছিল ধৈর্যের এক দীর্ঘ পরীক্ষা। গতকাল শেষ হয়েছে পরীক্ষার এই পর্ব।     পরিবার থেকে বহু দূরে জনমানবহীন পরিবেশে কীভাবে থাকতে পারে মানুষ, তা দেখতে গত জানুয়ারিতে হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের মৌনা লোয়া নামে এক জনশূন্য স্থানে গিয়েছিলেন নাসার ছ’জনের একটি দল। দ্বীপটিতে রয়েছে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সক্রিয় আগ্নেয়গিরি, যদিও আপাতত: সেটা ঘুমিয়ে রয়েছে। টানা আট মাস সেখানে কাটিয়ে রোববার লোকসমাজে, চেনা পরিবেশে ফিরে এসেছেন ৬ অভিযাত্রী। নাসা জানাচ্ছে, দীর্ঘদিন একা থাকতে থাকতে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলতে পারেন অভিযাত্রীরা। পড়তে পারেন খাদ্যাভাবে। জনহীন দ্বীপে ১২০০ বর্গফুটের উল্টোনো বাটির মতো দেখতে একটি বাড়ি। গত ক’মাস সেখানেই কাটিয়েছেন চারজন পুরুষ ও দুই মহিলা গবেষক। বাড়িটিতে ছোট দু’টি ঘর, ছ’জনের ছোট-ছোট ৬টি ঘুমোনোর জায়গা, একটি রান্নাঘর, গবেষণাগার, স্নানের ঘর ও দু’টি শৌচাগার। মঙ্গলের বায়ুমণ্ডলের কথা মাথায় রেখে সকলেই এই আট মাস স্পেসস্যুট পরে কাটিয়েছেন। বাড়ি থেকে বেরোলে, সব সময় বেরিয়েছেন দল বেঁধে। লালগ্রহে বেঁচে থাকার গুরুত্বপূর্ণ শর্ত খাবার সংস্থান। হাওয়াই-পরীক্ষায় সে কাজটি করেছেন দলের জীববিজ্ঞানী জোশুয়া এহরিল্চ। ফলিয়েছেন গাজর, গোলমরিচ, বাঁধাকপি, সর্ষে, টমেটো, আলু, পার্সলে। মঙ্গল থেকে পৃথিবীতে কোনো সিগন্যাল পৌঁছায় ২০ মিনিট পর। মৌনা লোয়া দ্বীপেও ছিল সেই ব্যবস্থা। পরস্পরের মধ্যে সুসম্পর্ক ও তালমিল রাখাটাও ছিল পরীক্ষার গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বিশেষ করে দলের সকলেই ছিলেন অল্প বয়সী। হাওয়াই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কিম বিনস্টেড বলেন, ‘‘একটা কথা আমাদের জানাই ছিল, ছয়জন লোক এক সঙ্গে থাকলে ঝামেলা বাঁধবেই। আমাদের সেরা দল পাঠালেও এটা হবেই। তাই মঙ্গলে এমন একটা দল পাঠাতে চাইছি, যারা ঝগড়া করলেও শেষমেশ নিজেদের মধ্যে মিটমাট করে নিতে পারবে। সেই বোঝাপড়াটা যাতে একে অপরের সঙ্গে থাকে।’’ গত আট মাস তারই মহড়া দিয়েছেন জোশুয়া এহরিল্চ, লরা লার্ক, স্যামুয়েল পেলার, জেমস বেভিংটন ও অ্যানসলে বার্নার্ড। তাঁদের মেজাজ-মর্জি সামলাতে সাহায্য নেওয়া হয়েছে যন্ত্রের। কথাবার্তা ও উত্তেজনা নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে বিশেষ সেন্সর। গলার স্বর চড়লেই যন্ত্র সজাগ করে দিয়েছে, ‘শান্ত হও’। এমনকি, কেউ যদি কারও সঙ্গে কথা না বলে কিংবা চুলোচুলি করে, সেটাও ধরা পড়েছে যন্ত্রে। সেই অনুযায়ী বার্তা দিয়েছে। সম্প্রতি এক ভিডিও মেসেজে লরা বলেছিলেন, ‘‘এই সব সমস্যা তো থাকবেই, তবে একটু চেষ্টা করলেই সব বাধা পেরোনো যাবে। আমরাই সেটা করে দেখাব। সূত্র:আনন্দবাজার এম/ডব্লিউএন      

নতুনদের জন্য চ্যানেল টোয়েন্টিফোরে চাকরির সুযোগ

নতুনদের জন্য সুযোগ রেখে জনবল নিয়োগ দিতে যাচ্ছে চ্যানেল টোয়েন্টিফোর। এজন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে টেলিভিশন চ্যানেলটি। চ্যানেলটিতে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট পদে এ নিয়োগ দেওয়া হবে।  যোগ্যতা: যেকোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যেকোনো বিষয়ে ন্যূনতম স্নাতক ডিগ্রিধারীরা আবেদন করতে পারবেন। তবে অনলাইন ওয়েবে পারদর্শীরা অগ্রাধিকার পাবেন। আবেদন প্রক্রিয়া অনলাইনে [email protected] ঠিকানায় ই-মেইল অথবা চ্যানেল ২৪, ৩৮৭ (সাউথ), তেজগাঁও আই/এ, ঢাকা-১২০৮ ঠিকানায় আবেদন করা যাবে।  আবেদনের সময়সীমা আগ্রহী প্রার্থীরা আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন। তবে আবেদনকারীদের বসয় ২৪ বছরের ভিতরে হতে হবে।  সূত্র : বিডিজবস ডটকম

সু চি বালিতে মাথা গুঁজে রেখেছে : অ্যামনেস্টি

রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি জাতির উদ্দেশ্যে যে ভাষণ দিয়েছেন তার তীব্র সমালোচনা করছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো। সু চি’র বক্তব্যে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের পরিচালক জেমস গোমেজ। লন্ডন-ভিত্তিক এই সংস্থাটির দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের পরিচালক তিনি। জেমস গোমেজ বলেন, "অং সান সু চি তার বক্তব্যের মাধ্যমে আবারও দেখিয়েছেন যে তিনি ও তার সরকার রাখাইন রাজ্যের ভয়াবহ পরিস্থিতির বিষয়ে বালিতে তাদের মাথা গুঁজে রেখেছেন।" রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে দীর্ঘ সময় নীরবতা পালন করেন অং সান সু চি। এতো বড় মানবিক বিপর্যয়ের পরও তার নীরবতা বিশ্বজুড়ে তীব্র সমালোচনা ও নিন্দার জন্ম দেয়। এর মধ্যে আজ মঙ্গলবার রোহিঙ্গা বিষয়ে প্রথম মুখ খোলেন শান্তিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী এই নেত্রী।

টরন্টোয় বন্যার্তদের সহায়তায় ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’

বাংলাদেশে সাম্প্রতিক বন্যায় দুর্গতের সাহায্যার্থে ত্রাণ সংগ্রহের জন্য কানাডার টরন্টোয় ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’ আয়োজন করা হয়। কানাডা এবং বাংলাদেশভিত্তিক দাতব্য প্রতিষ্ঠান হোপ বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন এ কনসার্টের আয়োজন করে। গত রোববার (১০ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিত কনসার্টের পুরো সময় "জলে ভেজা ক্যানভাস" শিরোনামে ছবি এঁকে তহবিল সংগ্রহ করা হয়। অনুষ্ঠান থেকে সংগৃহীত অর্থ বাংলাদেশের বন্যা পরবর্তী কার্যক্রমের অংশ হিসেবে কৃষকদের মাঝে বন্টন করা হবে বলে জানিয়েছেন হোপ বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন এর পরিচালকবৃন্দ। শহরের গ্র্যান্ড প্যালেস কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত এই কনসার্টে কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ছাড়াও সর্বস্তরের জনগণের উপস্থিতি কনসার্টকে টরন্টোবাসীর একটি মিলনমেলায় পরিণত করে। কনসার্টের মূল আকর্ষণ ছিলেন কিংবদন্তী শিল্পী উইনিং ব্যান্ডের চন্দন জামান আলী, আর্ক ব্যান্ডের টুলু আশিকুজ্জামান এবং তার নতুন ব্যান্ড Tulu & The Lightmen, ডি- রকস্টার শুভ, দুধ-ভাত ব্যান্ড, মামুন, ইন্টু এবং মঞ্জু জুটি, রিংকু, রাগীব, এবং ফাহিম আজীজ। পুরো কনসার্টের সাউন্ডের সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন ট্র্যাপ ব্যান্ডের মোহাম্মদ মাহবুবুল হক, পরিচালনায় ডি-রক স্টার শুভ এবং শমী সাত্তার। এছাড়া মিউজিকাল হ্যান্ডসের দায়িত্বে ছিলেন রাজীব এবং ধ্রুব ড্রামস, সোহেল লীড গীটার, পল বেইজ গীটার, শামী সাত্তার এবং মেহেদী কী-বোর্ডে এবং রনি পালমারসহ স্বনামধন্য যন্ত্র সঙ্গীত শিল্পীবৃন্দ। শহরে বসবাসকারী সঙ্গীত শিল্পী এবং যন্ত্র সঙ্গীত শিল্পীদের অংশগ্রহণে প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে এই আয়োজন। কনসার্টে ছবি আঁকেন শিল্পী শ্যামল বসাক। এছাড়া ও Fore Fest Media পুরো অনুষ্ঠানের সময় স্বনামধন্য ফটোগ্রাফারদের দিয়ে অংশগ্রহণকারী দর্শকদের পোট্রেট তুলে দেন। কনসার্ট ফর বাংলাদেশের সার্বিক সহযোগিতায় ছিল ঘরোয়া রেস্টুরেন্ট, কিশোরগঞ্জ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন অব কানাডা এবং জালালাবাদ এসোসিয়েশন টরন্টো।  

বিশ্বের সর্বদক্ষিণের শহর

আর্জেন্টিনার তিয়েররা দেল ফুয়েগো প্রদেশের রাজধানী উসুয়াইয়া। বিশ্বের সর্বদক্ষিণের শহর এটি। শহরটি তিয়েররা দেল ফুয়েগো দ্বীপের দক্ষিণভাগে একটি প্রশস্ত উপসাগরের উপকূলে অবস্থিত। শহরের উত্তরে মার্শাল পর্বতমালা এবং দক্ষিণে বিগল প্রণালী। বর্তমানে এখানে প্রায় ৬০ হাজার লোকের বাস। উসুয়াইয়া নামটি স্থানীয় আদিবাসী আমেরিকান ভাষা ইয়ামানা থেকে এসেছে, যার অর্থ ‘পশ্চিম দিকে প্রবেশকারী উপসাগর’। ১৯শ শতকের শেষভাগ পর্যন্তও এখানে কেবল আদিবাসী ইয়ামানা জাতির লোকজন বাস করত। এরপর থেকে ১৯৪৭ পর্যন্ত এটি সাজাপ্রাপ্ত অপরাধীদের একটি উপনিবেশ ছিল। ক্রোয়েশিয়া, ইতালি ও স্পেন এবং মূল আর্জেন্টিনীয় ভূখণ্ড থেকে অভিবাসীদের আগমনের ফলে অঞ্চলটির বিকাশ ঘটে। সরকার এর জন্য শুল্ক-মুক্ত পণ্য বেচাকেনার অনুমতি দেয়। শহরটি বর্তমানে অ্যান্টার্কটিকা অভিযান কিংবা হর্ন অন্তরীপ ঘিরে নৌবিহারের সূচনাবিন্দু হিসেবে পর্যটকদের কাছে সমানভাবেজনপ্রিয়| উসুয়াইয়া পর্যটকদের জন্য আরামদায়ক শহর । এ শহরটিতে গড়ে উঠেছে হোটেল,রেস্টুরেন্ট,দোকান,একটি স্থানীয় সংবাদপত্র এবং রেললাইন । উসুয়াইয়া দ্বীপের অংশ এস্তানসিয়া হেরর্বাটন। অঞ্চলটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৮৮৬ সালে। এটি প্রতিষ্ঠা করেন থমাস ব্রিজ(১৮৪২-১৮৯৮)। হারবার্টনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বিভিন্ন ধরনের পর্যটন এলাকা এবং নান্দনিক দৃশ্যপট। তার মধ্যে কয়েকটি হলো -এস্তানসিয়া হেরবার্টনের এ অঞ্চলটিকে ইংল্যান্ডের কুঠিরের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে। হেরবার্টনের এ আঞ্চলের মানুষের জীবন-যাপনের চিত্র ফুটে উঠেছে। পেংগুইনের আবাসভূমি হিসেবে এস্তানসিয়া হেরবার্টনের এ আঞ্চলটি পরিচিতি লাভ করেছে। তথ্যসূত্র : বিবিসি। /এম/এআর

ঘুমের মধ্যে মাসল ক্র্যাম্প সারানো ঘরোয়া টোটকা

মাসল ক্রাম্প (পেশি টান) যার হয় তিনিই বোঝেন এর যন্ত্রণা। আর যাদের ঘুমের মধ্যে এ ধরণের ঘটনা ঘটে তাদের কষ্টের মাত্রা আরো বেশি। প্রবল ব্যথায় কার্যত ডাক ছেড়ে কেঁদে ফেলার মতো অবস্থা হয়। কিছুক্ষণের মধ্যে তীব্র ব্যথাটা চলে গেলেও হালকা ব্যথা রয়ে যায়। বিশেষেজ্ঞদের দাবি, ৩টি কারণে ঘুমের মধ্যে পায়ে ক্র্যাম্পের সমস্যা হয়। প্রথমত: ডিহাইড্রেশন অর্থাত্‍ শরীরে পানির অভাব। দ্বিতীয়ত: পটাসিয়ামের অভাব। তৃতীয়ত: ম্যাগনেসিয়ামের অভাব। খুব সহজে ঘরোয়া কৌশলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি সম্ভব। পানির অভাব থেকে মুক্তির সবচেয়ে কার্যকর ও সহজ উপায়, বেশি করে পানি পান করা। তবে সারাদিন ধরে যদি পানি পানের পরিমাণ বাড়ানো সম্ভব না হয়, তাহলে শুতে যাওয়ার আগে অন্তত এক গ্লাস হালকা গরম পানি পান করার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। হালকা গরম পানির তাপমাত্রা আমাদের শরীরের রক্তের তাপমাত্রার কাছাকাছি। ফলে গরম পানি অতি দ্রুত মাংসপেশি শোষণ করে নিতে পারে। ডিহাইড্রেশন থেকেও তাই দ্রুত মুক্তি মেলে।  পটাসিয়ামসমৃদ্ধ খাবার বেশি করে খেতে হবে। পালং শাক, মিষ্টি আলু, নারকেল, দুধ, দই, কলা, মাশরুম বেশি করে খেলে শরীরে পটাসিয়ামের ঘাটতি মেটে।  মাছ, ডার্ক চকোলেট, পালং শাক, মুসুর ডাল, কুমড়ো বীজ, বাদাম, ঝোলাগুড় প্রভৃতি খাবারে প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম থাকে। বিশেষজ্ঞদের দাবি, এইসব খাবার বেশি করে খেলে ম্যাগনেসিয়ামের অভাব মিটবে। সূত্র : দ্য হেলথ সাইট। ডব্লিউএন

যাচাই করে রোহিঙ্গাদের ফেরানোর কথা বললেন সু চি

নব্বইয়ের দশকে করা প্রত্যাবাসন চুক্তির আওতায় ‘যাচাইয়ের মাধ্যমে’ বাংলাদেশে থাকা শরণার্থীদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন দেশটির নেত্রী অং সান সু চি। রাখাইনে সহিংসতার প্রেক্ষাপটে বিশ্বজুড়ে সমালোচনার মধ্যে মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে এ কথা বলেন দেশটির স্টেট কাউন্সেলর সু চি। তিনি বলেছেন, যে শরণার্থীরা মিয়ানমারে ফিরতে চায়, ওই চুক্তির আওতায় আমরা যে কোনো সময় তাদের ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া শুরু করতে প্রস্তুত। আর যে শরণার্থীরা মিয়ানমার থেকে গেছে বলে চিহ্নিত হবে, কোনো ধরনের সমস্যা ছাড়াই নিরাপত্তা ও মানবিক সহায়তার পূর্ণ নিশ্চিয়তা দিয়ে আমরা তাদের গ্রহণ করব। রাখাইন পরিস্থিতির কারণ ওই রাজ্যের মুসলমানদের পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়ার কথা স্বীকার করলেও বক্তৃতার কোথাও তাদের ‘রোহিঙ্গা’ হিসেবে উল্লেখ করেননি সু চি।   রাখাইন থেকে মুসলমানরা কেন পালিয়ে বাংলাদেশে যাচ্ছে, তা মিয়ানমার সরকার খুঁজে বের করতে চায় জানিয়ে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে রাখাইন পরিদর্শনে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন তিনি। সু চি দাবি করেন, ৫ সেপ্টেম্বরের পর রাখাইনে কোনো ধরনের সহিংসতা বা অভিযান চালানো হয়নি। সঙ্কট নিরসনে কফি আনান কমিশন যে সুপারিশ করেছে, তা দ্রুততম সময়ের মধ্যে সরকার বাস্তবায়ন করতে চায়। তিনি বলেন, আমরা শান্তি প্রতিষ্ঠায় অঙ্গিকারাবদ্ধ। রাখাইনের সবার দুর্দশার বেদনা আমরা গভীরভাবে অনুভব করছি। আরকে/ডব্লিউএন

স্নাতক পাশে নিয়োগ দিবে ব্যাংক এশিয়ায়

নতুন জনবল নিয়োগ দেওয়া জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ব্যাংক এশিয়া। ব্যাংকটি অ্যাসিস্ট্যান্ট রিলেশনশিপ অফিসার (এআরও) পদে এ নিয়োগ দেওয়া হবে।  পদের নাম: প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী অ্যাসিস্ট্যান্ট রিলেশনশিপ অফিসার (এআরও) পদে ব্যাংকটি নিয়োগ দিবে। যোগ্যতা: যেকোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যেকোনো বিষয়ে ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ/শ্রেণি/সিজিপিএ ২.৫সহ স্নাতক ডিগ্রিধারীরা আবেদন করতে পারবেন। চাকরির বয়সসীমা ৩০ বছর। বেতন: প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী নিয়োগপ্রাপ্তরা মাসিক ১৫হাজার টাকা বেতন পাবেন।   আবেদন প্রক্রিয়া: আগ্রহী প্রার্থীরা ব্যাংক এশিয়ার ওয়েবসাইটের : (www.bankasia-bd.com) মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের সময়: আগ্রহী প্রার্থীরা আগামী ৩ অক্টোবর, ২০১৭ পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।    সূত্র: বিডিজবস।

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি