ঢাকা, শুক্রবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ৩:১৩:৪৪

ছাত্রলীগ নেতা রনি: পদত্যাগ নয়, সাসপেন্ড!

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনিকে সংগঠন থেকে বহিস্কার করা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ। এর আগে রনি পদত্যাগ করেছেন বলে গণমাধ্যমে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়। তবে ছাত্রলীগ সভাপতি বলছেন, রনির পদত্যাগ নয়, তাকে বহিস্কার করা হয়েছে। একুশে টেলিভিশন অনলাইনকে কিছুক্ষণ অাগে বিষয়টি নিশ্চিত করেন তিনি। যদিও এরআগে সাড়ে সাতটার দিকে নিজের ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে পদ থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন রনি। সেখানে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক হিসেবে নগর ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীরকে দায়িত্ব দেবার কথা উল্লেখ করেছিলেন তিনি। ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, ‘বির্তকিত কর্মকাণ্ডের কারণে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনিকে পদ থেকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তার অব্যাহতির কোনও সুযোগ নেই। রাত ৮ টার দিকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের এক জরুরী সভায় রনিকে সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ’ রনি ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নিজ গ্রুপের জাকারিয়া দস্তগীরকে ঘোষণা দিলেও এ বিষয়ে রনির এখতিয়ার নেই বলে জানান ছাত্রলীগ সভাপতি সোহাগ। কেন্দ্র থেকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হবে বলেও জানান ছাত্রলীগের র্শীর্ষ এ নেতা। প্রসঙ্গত, নগরীতে এক অধ্যক্ষকে মারধর নিয়ে সমালোচনার রেশ না কাটতেই এবার এক কোচিং সেন্টারের মালিককে পেটানোর অভিযোগ উঠে চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনির বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার এই ঘটনায় বাদী হয়ে মোহাম্মদ রাশেদ নামের ওই ভুক্তভোগী নগরীর পাঁচলাইশ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এতে রনি ও তার বন্ধু নোমানকে আসামি করা হয়েছে। এএ/ এমজে

ইরাকে ৩০০ জনের মৃত্যুদণ্ড

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত অন্তত ৩০০ সন্দেহভাজন জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে ইরাকের আদালত। জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগে তাদের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বিচার বিভাগের এক ঊর্ধতন কর্মকর্তা। দেশটির ফেডারেল আদালতে এ বিচার কার্যক্রম চলেছে বলে জানা গেছে। জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগ আরও কয়েক হাজার লোককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ কয়েক বছর করে দণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। বাগদাদ ও নিভেহ প্রদেশে তাদের বিচার করা হয়। গত বুধবার দেশটির রাজধানী বাগদাদের একটি আদালত ৬ তুর্কী নাগরিকসহ ১০৩ জনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। ওই সময় আরও ১৮৫ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। ইরাকের সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের মুখপাত্র আবুদল সাত্তার আল বারকাদর জানান, ২১২ জনকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ১৫০ জনকে দেওয়া হয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। এদিকে ব্যাপকহারে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেওয়ায় দেশটির সমালোচনা করেছে জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলো। ২০০৩ সালে ১০ জুন দেশটিতে সর্বোচ্চ শাস্তির বিষয়টি রদ করা হয়। তবে চলতি বছর ফের মৃত্যুদণ্ডাদেশের বিষয়টি বহাল করে দেশটির সরকার।

১ হাজার প্রকৌশলী নিয়োগে এইচবিআরআই’র প্রস্তাবনা

শিগগিরই এক হাজার প্রকৌশলী নিয়োগ দিবে হাউজিং অ্যান্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইন্সটিটিউট (এইচবিআরআই)। নিয়োগ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাবনা জমা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রস্তাবনাটি পরিকল্পনা কমিশন ও জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটিতে পাশ হলেই এ নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে এইচবিআরআই সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানায়, সারা দেশে পাঁচ লাখ পেশাদার নির্মাণশ্রমিক তৈরির পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে সরকারের গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা প্রতিষ্ঠান এইচবিআরআই। রাজধানীর কল্যাণপুরে অবস্থিত এ প্রতিষ্ঠানটি শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ দিতে এবং এ প্রকল্পের কাজ এগিয়ে নিতে খুব শিগগিরই ট্রেনার বা প্রশিক্ষক হিসেবে সারা দেশ থেকে ১ হাজার প্রকৌশলী নিয়োগ দিবে। তবে এ নিয়োগের ক্ষেত্রে শুধু ডিপ্লোমা ইন সিভিল ও ডিপ্লোমা ইন ইলেক্ট্রনিক্স এ পাশ করা প্রার্থীরাই আবেদনের সুযোগ পাবেন। প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা হিসেবে তাদের নিযোগ দেওয়া হবে। প্রকল্পের মেয়াদ অনুযায়ী আগামী ৫ বছরের জন্য অস্থায়ীভাবে এ নিয়োগ দেওয়া হবে। তবে সরকারি চাকরিতে প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তাদের সমমানের সব ধরণের সুযোগ সুবিধা থাকবে। প্রকল্পের বিষয়ে কথা হয় প্রকল্পটির সমন্বয়ক ও এইচবিআরআইয়ের জ্যেষ্ঠ গবেষক আকতার হোসেন সরকারের সঙ্গে। নিয়োগের বিষয়ে খসড়া প্রস্তাবনা মন্ত্রণালয়ে উপস্থাপনের বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। এটির আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয় এ বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি। প্রাথমিক পর্যায়ে এখন ট্রেনিং ফর ট্রেইনার (টট) কার্যক্রম চলছে। বর্তমানে গণপূর্ত, কারিগরি শিক্ষা বোর্ড, স্থানীয় সরকার ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানের প্রকৌশলীদের প্রশিক্ষণ এখানে দেওয়া হচ্ছে। তারা এ প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছেন। এই প্রশিক্ষণ শেষে তারা যে জ্ঞান অর্জন করবেন, তা সাধারণ শ্রমিকদের শেখাবেন। পরে নির্মাণশ্রমিকদের একটি সনদপত্র দেওয়া হবে। সেই সনদ তাঁরা দেশে-বিদেশে দেখাতে পারবেন। এটি দেখালে শ্রমিকের পেশাগত দক্ষতা প্রকাশ পাবে, যা তাদের পারিশ্রমিক বাড়াতে সহায়তা করবে বলে মনে করেন আকতার হোসেন। এই প্রকল্পের মাধ্যমে প্রথমে ৩৮৪ জন প্রকৌশলীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। প্রতি জেলায় দুজন প্রকৌশলী ও চারজন ডিপ্লোমা প্রকৌশলীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এই প্রকৌশলীরা ৬৪ জেলায় মাঠপর্যায়ে আগামী পাঁচ বছরে নির্মাণশ্রমিকদের ১২টি আলাদা আলাদা ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেবেন। এই প্রকল্পের জন্য সরকারের কাছে তিন হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব (ডিপিপি) পাঠিয়েছে এইচবিআরআই। প্রতি ব্যাচে ২০ জন শ্রমিককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। হাতেকলমে তারা শিখবেন মোট ৬০ দিন। প্রশিক্ষণের সময় শ্রমিকেরা প্রতিদিন খাওয়া ছাড়াও যাতায়াতের জন্য ভাতা পাবেন। ডিপিপি পাশ হলেই প্রকল্পের প্রশিক্ষণ কাজ এগিয়ে নিতে সারা দেশ থেকে ১ হাজার প্রকৌশলী নিয়োগ দেওয়া হবে। আরকে//

আবির-পাওলির নতুন প্রেম    

কৌশিক আর শ্রেয়া বেশ চুটিয়ে প্রেম করত একটা সময়৷ তবে কী কারণে যেন তাদের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়৷ মুখ দেখাও বন্ধ ছিল৷ কথায় আছে, অতীত ফিরে আসে। তেমনি আবারও সামনাসামনি হল পুরানো প্রেমিক-প্রেমিকা৷ ছাড়াছাড়ির কারণ কী, আবার কী করে দেখা হল, কার মনে কী ঘুরছে সব খোলসা হবে ‘তৃতীয় অধ্যায়’ ছবিতে৷ সিনেমাটির গল্প এইভাবেই শুরু হয়৷ কৌশিকের চরিত্রে অভিনয় করছেন আবির চট্টোপাধ্যায় এবং শ্রেয়ার ভূমিকায় পাওলি দাম৷       রোম্যান্টিক থ্রিলার ভরপুর এই ছবির প্লট অন্য পাঁচটা প্রেমের গল্প থেকে আলাদা৷ কৌশিক একজন স্পোর্টস টিচার এবং শ্রেয়া  ‍বুটানিস্ট৷ ছোটোবেলায় একে অপরের প্রেমের পড়েছিল তারা৷ ব্রেকআপ হয় কোনো কারণে৷ তারপর বহুদিন পর দু’জনের দেখা হতেই পালটে যায় তাদের জীবন৷     ঝাড়খণ্ডের একটি ছোট শহরে দেখা হতেই শুরু হয় সমস্যা৷ ব্রেকআপের কারণ যে একেবারেই সামান্য ছিল না তা খানিকটা টের পাওয়া গেল পরিচালকের কথায়৷ একটি সাক্ষাৎকারে তিনি জানান ছাড়াছাড়ির কারণটা ছিল মারাত্মক৷ তাই বহুদিন পর যখন কৌশিক-শ্রেয়ার দেখা হবে তখন একে অপরের প্রতি ক্ষোভ উগরে দেওয়ার প্রবণতা দেখা যাবে।   ‘তৃতীয় অধ্যায়’ এ আবির এবং পাওলি ছাড়াও দেখা যাবে সৌরভ দাস, অরুনিমা হালদার, ইকবাল সুলতানকে৷ এমএইচ/এসি    

গোয়েন্দা টুলস এর মাধ্যমে দুর্নীতির তথ্য সংগ্রহ করছে দুদক   

গোয়েন্দা টুলস বা গোয়েন্দা উপকরণ ব্যবহারের মাধ্যমে ঘরে-বাইরে সব ধরনের দুর্নীতির তথ্য সংগ্রহ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সংস্থাটির গোয়েন্দা শাখা দুর্নীতিবাজদের পাশাপাশি নিজেদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের তথ্যও সংগ্রহ করছে।    আজ বৃহস্পতিবার দুদক কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকে এমনটাই জানিয়েছেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।     দুদকের প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের সব সমন্বিত জেলা কার্যালয়, বিভাগীয় কার্যালয় এবং প্রধান কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে পর্যালোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় গোয়েন্দা শাখার এক কর্মকর্তা তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে সংগৃহীত একটি গোয়েন্দা তথ্য সবাইকে অবহিত করেন। ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুদক শুধু দুর্নীতিবাজদের পেছনেই গোয়েন্দাগিরি করবে না, কমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিষয়েও গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করবে। প্রতিটি অনুসন্ধান বা তদন্তের গুণগতমান এমন হবে যাতে প্রতিটি মামলায় প্রকৃত অপরাধীদের শতভাগ সাজা নিশ্চিত করা যায়। ইকবাল মাহমুদ বলেন, মামলা দায়েরের সঙ্গে সঙ্গে এজাহারের কপি কমিশনের আইন অনুবিভাগের মহাপরিচালক বরাবর পাঠাতে হবে, যাতে কমিশন মামলা দায়ের পরবর্তী সকল প্রকার আইনানুগ প্রক্রিয়া কার্যকরভাবে মনিটরিং করতে পারে। কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এখন থেকে প্রতিটি অনুসন্ধান বা তদন্ত নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যেই সম্পন্ন করতে হবে। একটি লোককেও হয়রানির জন্য দুদকের মামলার আসামি করা যাবে না। চূড়ান্ত অনুসন্ধান প্রতিবেদন দাখিলের সময় নথিতে এজাহারে কপি সংযুক্ত করতে হবে। নির্ধারিত ছক অনুসারে অনুসন্ধান প্রতিবেদন প্রণয়ন করতে হবে। দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, প্রতারক চক্রের সদস্যরা দেশের বিভিন্ন স্থানে কমিশনের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজি করছে। এ প্রতারক চক্রের সদস্যরা কমিশনের ভাবমূর্তি নষ্টের চেষ্টা করছে। তাই এ বিষয়ে তৃণমূল পর্যায়েও সচেতনতা তৈরি করতে হবে। পর্যালোচনা সভায় বক্তৃতা করেন দুদকের মহাপরিচালক (আইন) মঈদুল ইসলাম, মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী, মহাপরিচালক (তদন্ত) মোস্তাফিজুর রহমান, মহাপরিচালক (মানি লন্ডারিং) আতিকুর রহমান খান, মহাপরিচালক (বিশেষ তদন্ত) জয়নুল বারী, পরিচালক মীর জয়নুল আবেদীন শিবলী, ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক নাসিম আনোয়ার, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক আক্তার হোসেন ও পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন প্রমুখ। এসি   

ধর্ম অবমাননার অভিযোগে তসলিমার বিরুদ্ধে মামলা    

তসলিমা নাসরিন ও উইমেন চ্যাপ্টারের সম্পাদক সুপ্রীতি ধরসহ চার জনের বিরুদ্ধে ইসলাম ধর্ম অবমাননার অভিযোগে ৫৭ ধারায় মামলা করা হয়েছে। বাকি দু’জন হলেন উইমেন চ্যাপ্টারের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সুচিষ্মিতা সিমন্তি ও উপদেষ্টা সম্পাদক লীনা হক। বৃহস্পতিবার ঢাকার সাইবার ক্রাইম ট্রাইবুনালে যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ২০০৬ এর ৫৭ ধারায় মামলাটি করা হয় বলে জানা গেছে।    ট্রাইব্যুনাল মামলার বিষয়ে শুনানি নিয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)-এর সাইবার ক্রাইম ইউনিটকে অভিযোগটির বিষয়ে তদন্ত করার আদেশ দিয়েছেন। তবে কত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে হবে তা জানাতে পারেননি আইনজীবী।  বাদীপক্ষের আইনজীবী হুজ্জাতুল ইসলাম আল ফেসানী বলেন, ‘লেখিকা তসলিমা নাসরিন, উইমেন চ্যাপ্টারের সম্পাদক সুপ্রীতি ধর, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সুচিষ্মিতা সিমন্তি ও উপদেষ্টা সম্পাদক লীনা হকের বিরুদ্ধে পবিত্র ইসলামের অবমাননার অভিযোগে দৈনিক আল ইহসান ও মাসিক আল বায়্যিনাতের সম্পাদক আল্লামা মুহম্মদ মাহবুব আলম বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন। আমি তার পক্ষে আইনজীবী হিসেবে মামলাটি দায়ের করেছি।’ মামলা দায়েরের পর শুনানি শেষে ট্রাইবুনালের বিচারক মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটকে অভিযোগটি তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন।    বাদীর আনা অভিযোগে বলা হয়েছে, ‘উইমেন চ্যাপ্টার নামক ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সুপ্রীতি ধর, সুচিষ্মিতা সিমন্তি ও লীনা হকেরা প্রায়ই পবিত্র দ্বীন ইসলামের বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক লেখা প্রকাশ করেন। তারই ধারাবাহিকতায় গত ১৭ এপ্রিল বিকেলে তসলিমা নাসরিনের ‘ধর্ষকের কাছে নারীর কোনো ধর্ম নাই’ শীর্ষক একটি নিবন্ধ প্রকাশ করে। ওই নিবন্ধে লেখা হয়, ‘পয়গম্বরও আরব দেশে ইহুদি পুরুষদের মেরে ওদের মেয়েদের নিজের সঙ্গীদের মধ্যে বিতরণ করেছিলেন।’ আইনজীবী জানান, লেখিকার এই বক্তব্যে বাদীর দ্বীনি অনুভূতিতে আঘাত লাগায় তিনি লেখিকা ও সংশ্লিষ্ট ওয়েব সাইটের সম্পাদকদের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেছেন। এসি  

বাদ পড়া ক্রিকেটারদের পাশে মাশরাফি

বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়া ক্রিকেটারদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক জানালেন, তারা যেন আবারও ছন্দ ফিরে পান, সব সহায়তাই দলের সিনিয়র খেলোয়াড়রা করবেন।বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর এক হোটেলে আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসির সঙ্গে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বাদ পড়া ছয় ক্রিকেটারদের নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে তিনি এ কথা বলেন। বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়াটা ক্রিকেটারের জন্য বড় ধাক্কা উল্লেক করে মাশরাফি বলেন, তারা বাংলাদেশ দলের সত্যিকারের ভবিষ্যৎ, তাদের সমর্থন করা আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব। আমার জায়গা থেকে আমি পিছপা হব না। যত প্রকার সমর্থন দেওয়ার তাদের দেব। তিনি আরোও বলেন, জানি বাংলাদেশের এত বেশি বিকল্প খেলোয়াড় নেই। ধারাবাহিকতা বাড়িয়ে যদি তারা ফর্মে ফিরে আসে, লম্বা সময় ধরে তারা বাংলাদেশকে সেবা দিতে পারবে। একসময় সাকিব-তামিম বা আমরা এমনই ছিলাম। বলতে পারেন, ওই সময় প্রতিদ্বন্দ্বিতা এতটা ছিল না বলে আমরা টিকে গেছি। তাদের কাছে প্রত্যাশাটা অনেক। একটু খারাপ করলেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম সোচ্চার হয়ে ওঠে। ক্রিকেট খেলাটা এখন অনেক কঠিন হয়ে গেছে। বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়া মানে জাতীয় দলের দরজা বন্ধ হয়ে যাওয়া নয় উল্লেখ করে মাশরাফি বলেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট চুক্তির বাইরে থেকেও খেলা যায় । সৌম্য, তাসকিন, সাব্বিরদের সামনে সে সুযোগ থাকছে। এই সুযোগ কাজে লাগাতে হলে তাদের সামনে একটা পথই খোলা, ধারাবাহিক ভালো খেলা। বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়া ছয় ক্রিকেটার হলেন, তাসকিন আহমেদ, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, ইমরুল কায়েস, মোসাদ্দেক হোসেন ও কামরুল ইসলাম। তাদের বাদ পড়ার ব্যাখ্যা হিসেবে বিসিবি জানায়, এই ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স চুক্তিতে রাখার জন্য যথেষ্ট নয়।   এমএইচ/

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আরও ব্যবস্থা নেওয়া হবে: যুক্তরাষ্ট্র   

মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধন নিয়ে তদন্ত চলছে এবং এর ভিত্তিতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আরও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সফররত যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক দূত স্যাম ব্রাউনবেক।    বৃহস্পতিবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নের জবাবে ব্রাউনবেক এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, “আপনারা আরও পদক্ষেপ দেখবেন।” তিন দিনের সফরে বাংলাদেশে এসে বুধবার কক্সবাজারের কুতুপালং শরণার্থী শিবিরে গিয়ে রোহিঙ্গাদের মুখে তাদের নির্যাতনের কাহিনী শোনেন ব্রাউনবেক।    রাখাইনে ‘গভীর উদ্বেগজনক’ ঘটনা ঘটেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, যেসব শিশুর সঙ্গে তার কথা হয়েছে তাদের প্রত্যেকে বলেছে, তাদের সামনেই পরিবারের কোনো সদস্য বা নিকটাত্মীয়কে ছুরিকাঘাত, গুলি বা হত্যা করা হয়েছে। “একটি শিশু বলেছে, তার দাদা-দাদি দুজনকেই গুলি করে হত্যা করতে দেখেছে সে। এটা ভয়াবহ সহিংসতা। মায়ের সামনেই তার ১২ বছরের মেয়েকে কেটে ফেলা হয়েছে।” ইমামকে পিটিয়ে নারীদের ধর্ষণের ঘটনা দেখতে বাধ্য করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্র আগেই এই ঘটনাকে ‘জাতিগত নিধন’ আখ্যায়িত করে ফ্যাক্ট-ফাইন্ডিং মিশন চালু করেছিল বলে জানান বিশেষ দূত ব্রাউনবেক। গত ২৫ অগাস্ট থেকে রাখাইনে রোহিঙ্গাবিরোধী এই অভিযানের নেতৃত্ব দেওয়া মিয়ানমারের জেনারেল মং মং সোয়েসহ কয়েকজন সেনা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। ব্রাউনবেক বলেন, রোহিঙ্গা শিবিরে আলোচনার সময় একজন ছাড়া সবাই বলেছে মুসলিম হওয়ার কারণেই তাদের দেশ থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা বিভাগের দায়িত্বে থাকায় সুনির্দিষ্টভাবে রোহিঙ্গাদের কাছে এই প্রশ্নের জবাব চেয়েছিলেন বলে জানান তিনি। “এটা ধর্মীয় সংখ্যালঘুর বিরুদ্ধে জাতিগত নিধন। আমরা এর তদন্ত চালিয়ে যাব।” তদন্ত এগিয়ে চলায় ‘নতুন পদক্ষেপ আসছে’ বলে জানান তিনি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন হতে হবে তাদের সম্মতি, নিরাপত্তা ও মর্যাদার সঙ্গে। এসি  

ছাত্রলীগ নেতা নুরুল আজিম রনির পদত্যাগ   

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নুরুল আজিম রনি পদত্যাগ করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার তিনি লিখিত পদত্যাগপত্র কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতাদের কাছে জমা দেন।     রনির পদত্যাগ পত্রটি বিকেল থেকে ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। চট্টগ্রাম মহানগর, চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের নেতা কর্মীদের নুরুল আজিম রনি`র পদত্যাগে ক্ষোভ, হতাশা ও কষ্ট প্রকাশ করতে দেখা যায়। পদত্যাগ পত্রে নুরুল আজিম রনি ব্যাক্তিগত কারণে পদত্যাগ করছেন বলে উল্লেখ করেছেন। তার অবর্তমানে কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে নুরুল আজিম রনিকে ফোন করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এ প্রতিবেদনটি লিখা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজী হননি। উল্লেখ্য চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনির চট্টগ্রামের জিইসি মোড়ের একটি কোচিং সেন্টারের পরিচালক রাশেদ মিয়াকে চড় মারার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ওই ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়লে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে নুরুল আজিম রনি পদত্যাগ করেছেন বলে জানা যায়।  এ বিষয়ে কোচিং সেন্টার মালিক রাশেদ মিয়া অভিযোগ করে বলেন, রনি আমার কাছে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছে। চাঁদা দিতে না পারায় সে আমাকে মারধর করে।’   এর আগে চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেশী টাকা আদায় করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে নুরুল আজিম রনি শিক্ষার্থীদের পক্ষ অবলম্বন করে এর প্রতিবাদ জানালে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আলোচনায় ওঠে আসেন।  আআ/এসি     

সূচক বাড়লেও কমেছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দর

সূচক বেড়েছে দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে। তবে কমেছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দর।  বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দর বেড়েছে ১১০টির, কমেছে ১৮১টির, আর ৪৫টি প্রতিষ্ঠানের দর অপরিবর্তিত ছিল। ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২০ পয়েন্ট বেড়ে উঠে আসে ৫ হাজার ৮৪৩ পয়েন্টে। দিন শেষে লেনদেন হওয়া শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের বাজারমূল্য ছিল ৫৭৭ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। সূচক বেড়েছে সিএসইতেও। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ২২৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দর বেড়েছে ৭৪টির, কমেছে ১২০টির, আর ৩৪টি প্রতিষ্ঠানের দর ছিল অপরিবর্তিত। আর মোট লেনদেন হয়েছে ৪২ কোটি ৬২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড।    তৃতীয় প্রান্তিক: ২১ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিং মোজাফফর হোসেন স্পিনিং মিলস, বিবিএস কেবলস, এইচ আর টেক্সটাইল, ন্যাশনাল টি কোম্পানি ও হাক্কানী পাল্প অ্যান্ড পেপার লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২১ এপ্রিল। সভায় তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। ডিভিডেন্ড ইস্যু: ২২ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিংএশিয়া ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২২ এপ্রিল। সভায় ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৭ সমাপ্ত বছরের জন্য ডিভিডেন্ডের সুপারিশ আসতে পারে। তৃতীয় প্রান্তিক: ২২ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিং সাভার রিফ্রাক্টরীজ, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন, মেঘনা পেট্রোলিয়াম ও ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টস লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে আজ ২২ এপ্রিল। সভায় তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। তৃতীয় প্রান্তিক: ২৩ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিং যমুনা অয়েল, অলিম্পিক এক্সেসোরিজ, অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ ও ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ-আইসিবির পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৩ এপ্রিল। সভায় তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। ডিভিডেন্ড ইস্যু: ২৪ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিংইস্টার্ন ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক ও হাইডেলবার্গ সিমেন্ট বাংলাদেশ লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৪ এপ্রিল। সভায় ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৭ সমাপ্ত বছরের জন্য ডিভিডেন্ডের সুপারিশ আসতে পারে। তৃতীয় প্রান্তিক: ২৪ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিং ওয়াটা কেমিক্যালস, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, ইস্টার্ন হাউজিং, আরএসআরএম স্টিল, এপেক্স টেনারি, রেনউইক যজ্ঞেশ্বর ও এপেক্স ফুটওয়্যার লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৪ এপ্রিল। সভায় তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। ডিভিডেন্ড ইস্যু: ২৫ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিংম্যারিকো বাংলাদেশ লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৫ এপ্রিল। সভায় ৩১শে মার্চ ২০১৮ সমাপ্ত বছরের জন্য ডিভিডেন্ডের সুপারিশ আসতে পারে। তৃতীয় প্রান্তিক: ২৫ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিং মতিন স্পিনিং, ইবনে সিনা, বিএসআরএম লিমিটেড, বিএসআরএম স্টিলস, ম্যাকসন স্পিনিং, আনোয়ার গ্যালভাইনাইজিং ও মেট্রো স্পিনিং মিলস লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৫ এপ্রিল। সভায় তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। ডিভিডেন্ড ইস্যু: ২৫ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিংফেডারেল ইন্স্যুরেন্স, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক, ইউনিয়ন ক্যাপিটাল, বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, ফিনিক্স ফাইন্যান্স, এক্সিম ব্যাংক, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স, রূপালী ইন্স্যুরেন্স, পাইওনিয়র ইন্স্যুরেন্স ও ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৫ এপ্রিল। সভায় ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৭  সমাপ্ত বছরের জন্য ডিভিডেন্ডের সুপারিশ আসতে পারে। ডিভিডেন্ড ইস্যু: ২৬ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিংসোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স, ইসলামী ইন্স্যুরেন্স, বাটা সু, এবি ব্যাংক ও যমুনা ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৬ এপ্রিল। সভায় সভায় ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৭ সমাপ্ত বছরের জন্য ডিভিডেন্ডের সুপারিশ আসতে পারে।তৃতীয় প্রান্তিক: ২৬ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিং জিপিএইচ ইস্পাত, এএফসি অ্যাগ্রোবায়োটেক, অ্যাকটিভ ফাইন কেমিক্যালস, ইভিন্স টেক্সটাইল, আর্গন ডেনিমস, জাহিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ ও প্যাসিফিক ডেনিমস লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৬ এপ্রিল। সভায় তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। ডিভিডেন্ড ইস্যু: ২৮ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিংসাউথইস্ট ব্যাংক, ফিনিক্স ইন্স্যুরেন্স ও অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৮ এপ্রিল। সভায় ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৭ সমাপ্ত বছরের জন্য ডিভিডেন্ডের সুপারিশ আসতে পারে। ডিভিডেন্ড ইস্যু: ২৯ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিংজনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৯ এপ্রিল। সভায় ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৭ সমাপ্ত বছরের জন্য ডিভিডেন্ডের সুপারিশ আসতে পারে। তৃতীয় প্রান্তিক: ২৯ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিং গ্লোবাল হেভী কেমিক্যাল ও সোনারগাঁও টেক্সটাইল লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ২৯ এপ্রিল। সভায় তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। ডিভিডেন্ড ইস্যু: ৩০ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিংনর্দার্ন ইন্স্যুরেন্স, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং ও স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ৩০ এপ্রিল। সভায় ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৭ সমাপ্ত বছরের জন্য ডিভিডেন্ডের সুপারিশ আসতে পারে। তৃতীয় প্রান্তিক: ৩০ এপ্রিল যেসব কোম্পানির বোর্ড মিটিং অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে ৩০ এপ্রিল। সভায় তৃতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। স্পট মার্কেটের খবর তাকাফুল ইসলামী ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম ফাইন্যান্স ও আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক লিমিটেডের শেয়ার শুধু স্পট ও ব্লক মার্কেটে লেনদেন হচ্ছে। স্বাভাবিক লেনদেন শুরু রেকর্ড ডেটের পর ২২ এপ্রিল পূবালী ব্যাংক ও ফ্যাস ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের শেয়ার লেনদেন শুরু হবে। আগের কার্যদিবসে কোম্পানিগুলোর শেয়ার লেনদেন স্থগিত ছিল।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক ভলিবল শুরু শনিবার

আগামী শনিবার মিরপুরস্থ শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু এশিয়ান সিনিয়র মেনস সেন্ট্রাল জোন ভলিবল চ্যাম্পিয়নশিপ-২০১৮। এবারের আসরে স্বাগতিক বাংলাদেশসহ মোট ৬টি দল অংশগ্রহণ করছে। ছয়টি দলকে দুই গ্রুপে বিভক্ত করা হয়েছে। ‘এ’ গ্রুপে রয়েছে বাংলাদেশ, মালদ্বীপ ও নেপাল। আর ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে কিরগিজিস্তান, তুর্কমেনিস্তান ও উজবেকিস্তান। ২১ থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত হবে গ্রুপ পর্বের খেলা। ২৫ এপ্রিল হবে দু’টি সেমিফাইনাল। আর ২৭ এপ্রিল বিকেল ৩টায় হবে ফাইনাল। টুর্নামেন্ট সম্পর্কে বিস্তরিত জানাতে বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ভলিবল দলের নতুন অধিনায়ক হরিষৎ বিশ্বাস শিরোপা অক্ষুন্ন রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। ভলিবলকে আরো এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন সভাপতি আতিকুল ইসলাম। বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক হরিষৎ বলেন, ‘অধিনায়ক হিসেবে এটা আমার প্রথম টুর্নামেন্ট। আগের আসরের আমরা চ্যাম্পিয়ন। শিরোপা ধরে রাখাটাই আমাদের লক্ষ্য। অবশ্য গেল আসরের চেয়ে এবার আমাদের দলটা আরো বেশি শক্তিশালী। অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ের পাশাপাশি তরুণ প্রতিভাবান খেলোয়াড়রাও রয়েছে দলে। খেলোয়াড় বাছাই শেষে অনেক দিন অনুশীলন করেছি। ইরানে ২১ দিনের প্রশিক্ষণ ক্যাম্প ও প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। আশা করছি আমরা আমাদের শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখতে পারবো।’ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচ আলীপোর আলজির ও টুর্নামেন্ট কমিটির অন্যান্য সদস্যগণ। উদ্বোধনী দিনে একমাত্র ম্যাচে বিকেল ৪টায় মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও নেপাল। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল (এমপি)। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার, বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, আলহাজ ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ (এমপি), এফবিসিসিআই সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব অ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শেখর। বাসস   এমএইচ/

লন্ডন থেকে ১৩ ফাইলে স্বাক্ষর করলেন প্রধানমন্ত্রী    

লন্ডন থেকে ডিজিটাল ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ১৩টি ফাইলে স্বাক্ষর করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ২৫তম কমনওয়েলথ সরকার প্রধানদের বৈঠকে যোগ দিতে এখন লন্ডনে রয়েছেন। লন্ডনে ব্যস্ত কর্মসূচি সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল ব্যবস্থায় অফিস চালিয়ে যাচ্ছেন বলে লন্ডনে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম। ফাইলে স্বাক্ষর ও নিষ্পত্তি করছেন বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ইহসানুল করিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাজ্যে অবস্থানকালে সব গুরুত্বপূর্ণ ফাইল তার কাছে পাঠানোর জন্য অফিসকে নির্দেশ দিয়েছেন। এই নির্দেশের পর প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ডিজিটালাইজেশনের সুবিধা ব্যবহার করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে গুরুত্বপূর্ণ ফাইলগুলো ই-মেইল করেন। ১৭ এপ্রিল লন্ডনে পৌঁছার পর প্রধানমন্ত্রী এ পর্যন্ত ক্রয় কমিটি, জ্বালানি মন্ত্রণালয় ও জননিরাপত্তা বিভাগ সংশ্লিষ্ট ১৩টি গুরুত্বপূর্ণ ইলেকট্রনিক ফাইলে স্বাক্ষর করেছেন।    এমএইচ/এসি  

ঢাবি সিন্ডিকেটে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন সম্পন্ন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট, একাডেমিক কাউন্সিল ও ফাইন্যান্স কমিটিতে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ নির্বাচনে সকাল ৯টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ও প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করেন। নির্বচন কমিশন বিকেলে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করেন। চূড়ান্ত ফলাফলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশ- ১৯৭৩-এর অন্তর্ভুক্ত আর্টিক্যাল ২৩(১)(ডি) ও (২) এবং প্রথম সংবিধির ৫০(১) ধারা অনুযায়ী সিন্ডিকেটে নির্বাচিত ৬ জন শিক্ষক প্রতিনিধি হলেন- ডিন ক্যাটাগরিতে ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. হাসানুজ্জামান, প্রভোস্ট ক্যাটাগরিতে সূর্যসেন হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, অধ্যাপক ক্যাটাগরিতে আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রহমত উল্লাহ, সহযোগী অধ্যাপক ক্যাটাগরিতে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির, সহকারী অধ্যাপক ক্যাটাগরিতে অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মো. মিজানুর রহমান এবং প্রভাষক ক্যাটাগরিতে একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের প্রভাষক জান্নাতুল নাঈমা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশ- ১৯৭৩-এর অন্তর্ভুক্ত আর্টিক্যাল ২৬(১)(এইচ) এবং ক্যালেন্ডার ২য় খন্ডের ১৭নং অধ্যায়ে বর্ণিত পদ্ধতি অনুযায়ী একাডেমিক পরিষদে নির্বাচিত ৬ জন শিক্ষক প্রতিনিধি হলেন- ক গ্রুপে (সহযোগী অধ্যাপক ক্যাটাগরি) পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আলমগীর কবির, গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. নেপাল চন্দ্র রায়, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আশরাফ সাদেক। খ-গ্রুপে (সহকারী অধ্যাপক/প্রভাষক ক্যাটাগরি) বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন- গ্রাফিক ডিজাইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ফারজানা আহমেদ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ সাইফুল আলম চৌধুরী এবং সংস্কৃত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সঞ্চিতা গুহ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশ- ১৯৭৩-এর অন্তর্ভুক্ত আর্টিক্যাল ৩১(১)(ই) এবং প্রথম সংবিধির ৫১(১) ধারা অনুযায়ী ফাইন্যান্স কমিটিতে নির্বাচিত ১জন শিক্ষক প্রতিনিধি হলেন- একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ। নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীন।   আর

‘শাহরুখ আমার জীবন নষ্ট করেছে’   

শাহরুখ খান আমার জীবন নষ্ট করেছে। এই একটা লাইন দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ার জন্য যথেষ্ট। হলও তাই। স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার হওয়া মাত্রই ভাইরাল হয়ে গেল এই পোস্ট।  কিন্তু কে লিখলেন এমন কথা? সত্যিই কি শাহরুখ খানের জন্যই নষ্ট হয়েছে তার জীবন?     স্যোশাল মিডিয়ায় ঠিক এমনটাই পোস্ট করেছেন এক তরুণী। তবে প্রথম লাইনটি পড়ে যদি বিতর্কের গন্ধ পান, তা হলে তা ভুল। কারণ নব্বইয়ের দশকে বড় হওয়া অনেক তরুণীই শাহরুখের প্রেমে পড়েছিলেন। মুগ্ধ হয়েছিলেন শাহরুখের রোম্যান্টিক দৃশ্যে। হয়তো কেউ কেউ বাস্তবেও পর্দার কিং খানের মতো প্রেমিকের জন্য অপেক্ষা করেছেন। কিন্তু তা বাস্তবায়িত হয়নি।   ফলে কষ্ট পেয়েছেন। এই তরুণীর মতো কারো কারো হয়তো মনেও হয়েছে শাহরুখের জন্যই নষ্ট হয়েছে তার জীবন! সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করা পোস্টে ওই তরুণী লিখেন, ‘ছোট্ট থেকে স্বপ্ন দেখেছি পারফেক্ট ম্যান পারফেক্টভাবে প্রপোজ করব। ব্যাকগ্রাউন্ডে বেহালা বাজবে। সে ধীরে ধীরে আমার দিকে এগিয়ে আসবে। হাওয়ায় আমার চুল উড়বে, হাঁটু মুড়ে বসে আঙুলে পরিয়ে দেবে আংটি।’ কিন্তু বাস্তবে নাকি তা ঘটেনি। বরং ওই বাঙালি তরুণীকে তার বাবা মাকে বোঝাতে হয়েছে, কেন তিনি এক পঞ্জাবিকে বিয়ে করতে চান। তরুণী লিখেছেন, ‘অবশেষে বুঝলাম আমার জীবনে কোনো ফিল্মি মুহূর্ত আসেনি। তাই ওর জন্মদিনে ঠিক করলাম নিজেই যা করার করব।’ যে রেস্তোরাঁয় আমরা প্রথম ডেটে গিয়েছিলাম সেখানে সারপ্রাইজ পার্টির ব্যবস্থা করলাম। তার পর ফিল্মি কায়দায় ওকে প্রোপোজ করলাম।’ গোটা ঘটনায় অবাক হয়ে যান ওই তরুণীর বয়ফ্রেন্ড। তিনি খুশি হয়ে বলেন, ‘আমাদের ছেলেমেয়েরা আশা করি এমন ফিল্মি হবে না।’ এই পোস্টটি আপাতত ভাইরাল। যদিও পোস্টটি দেখে শাহরুখ অনুরাগীদের একটা অংশ রেগে গিয়েছেন। তবে অনেকেই মজা পেয়েছেন। শাহরুখ খান নিজে এখন পর্যন্ত এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। সূত্র: আনন্দবাজার    এমএইচ/এসি  

সৌদিতে দগ্ধ আরেক বাংলাদেশির মৃত্যু   

সৌদিতে অগ্নিকান্ডে আরেক বাংলাদেশি আজ মারা গেলেন। অনেক চেষ্টার পরও আনিসুর রহমান বাবুলকে বাঁচাতে পারেননি চিকিৎসকরা। হাইল জেলায় এক দিন আগে ঘটে যাওয়া এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মোট সাত বাংলাদেশির মৃত্যু হল।  বুধবার ভোররাতে রিয়াদ থেকে প্রায় এক হাজার কিলোমিটার দূরে হাইল জেলার হোলাইফা শহরের এক বাসায় ওই অগ্নিকাণ্ড হয়। ঘটনাস্থল থেকেই উদ্ধার করা হয় ছয় বাংলাদেশির লাশ। ওই বাসার আরেক বাসিন্দা আনিসুর রহমানকে দগ্ধ অবস্থায় ভর্তি করা হয় হাইলের কিং খালিদ হাসপাতালের আইসিইউতে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে তার বড় ভাই আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেন। আনিসের গ্রামের বাড়ি ফেনী জেলার গাংরা গ্রামে, তার বাবার নাম খলিলুর রহমান। নিহত বাকি ছয়জন হলেন- বসন্তপুর গ্রামের আবদুল হকের দুই ছেলে এমরানুল হক সোহেল (৩৪) ও ইমামুল হক মুন্না (২২); চৌদ্দগ্রামের গুণবতী ইউনিয়নের দক্ষিণ শ্রীপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে মো. সোহেল (৩০), ফেনীর বিরিঞ্চি এলাকার ইলিয়াস মেম্বারের বাড়ির রফিকুল ইসলামের ছেলে মহিউদ্দিন রাশেদ (৩৫) এবং লক্ষ্মীপুর জেলার কমলনগর উপজেলার করইতোলা বাজার সংলগ্ন চর লরেন্স গ্রামের নেছার আহম্মদের দুই ছেলে জসিম উদ্দিন (২৬) ও মো. ইব্রাহিম (২৩)। জানা যায়, সাত বাংলাদেশি একই বাসায় ভাড়া থেকে শহরে চাকরি করতেন। মঙ্গলবার রাতে রান্না ও খাওয়া শেষে একই ঘরে তারা ঘুমিয়ে পড়েন। কেউ একজন রুমের বারান্দায় সিগারেট খেয়ে ফেলে দেয়। আর ওই আগুন বিদ্যুতের তারে লেগে পুরো রুমে ছড়িয়ে পড়লে এই দূর্ঘটনা ঘটে।    এসি  

বৈঠকে বসছেন শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদি   

যুক্তরাজ্য সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসছেন। বৃহস্পতিবার লন্ডনের স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় কমনওয়েলথ সরকার প্রধানদের বৈঠকের ফাঁকে দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় বসবেন তারা।    ভারতীয় সরকারি সংবাদসংস্থা পিটিআই এক প্রতিবেদনে বলছে, শেখ হাসিনার সঙ্গে বসা ছাড়াও অস্ট্রেলিয়া ও সিসেলিসহ কমপক্ষে ১০টি দেশের প্রধানদের সঙ্গেও বৈঠকে মিলিত হবেন নরেন্দ্র মোদি। গত বছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে নয়াদিল্লিতে প্রথমবারের মতো নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক হয়। ওই বৈঠকের দীর্ঘদিন পর যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে বৈঠকে বসছেন প্রতিবেশী দেশের এ দুই রাষ্ট্রপ্রধান। তবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শহীদ খাকান আব্বাসির সঙ্গে মোদির বৈঠকে বসার সম্ভাবনা নেই বলে দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ভারতের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা বলেছেন, এই সম্মেলন কমনওয়েলথের পারস্পরিক সহযোগিতাসহ বিশ্ব নেতাদের দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় অংশ নেয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে ৯১ বছর বয়সী ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ কমনওয়েলভুক্ত ৫৩ দেশের প্রতিনিধিদের সম্মানে নৈশভোজের আয়োজন করেছেন। ওই নৈশভোজের আগে বাকিংহাম প্যালেসে মোদির সঙ্গে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সূত্র : পিটিআই। এসি  

ইয়াবা ব্যবসায়ীদের গুলিতে ৩ পুলিশ আহত

রাজধানীর গেন্ডারিয়া এলাকায় ইয়াবা ব্যবসায়ীদের গুলিতে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় ঘুন্ডিঘোর শেলটেক গলির একটি বাসায় অভিযানের সময় গুলি ছোড়ে মাদক ব্যবসায়ীরা।অভিযানে অংশ নেওয়া গেন্ডারিয়া থানার দুই এএসআই ও এক কনস্টেবল গুলিবিদ্ধ হন। তাদের স্থানীয় আজগর আলী হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গেন্ডারিয়া থানার ওসি কাজী মিজানুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, গোপন সংবাদ ছিল ইয়াবার একটি বড় চালান নিয়ে আসা হচ্ছে। এ লক্ষে ঘুন্ডিঘোর শেলটেক গলির একটি বাসায় অভিযানে যায় পুলিশ সদস্যরা।তবে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশের উপস্থিতি পেয়ে টের পেয়ে গুলি ছোড়ে। পরে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে।তিনি বলেন, ইয়াবা ব্যবসায়ীদের গুলিতে গেন্ডারিয়া থানার টহলরত এক এএসআই এর পায়ে আরেক এএসআই এবং এক কনস্টেবলের হাতে গুলি লাগে।ঘটনাস্থল থেকে এক নারী ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। এসময় বাসাটি থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ করা হয়েছে বলেও জানান ওসি।তিনি জানান, এ ঘটনার পর পলাতক ইয়াবা ব্যবসায়ীদের ধরতে ইতোমধ্যে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।আর

শুক্রবার ‘প্রেমের কেন ফাঁসি’ নিয়ে বড় পর্দায় রাকা  

শুক্রবার সারাদেশে মুক্তি পাচ্ছে রাকা বিশ্বাসের ছবি ‘প্রেমের কেন ফাঁসি’। ছবিটি পরিচালনা করেছেন আবু সুফিয়ান। এই ছবির মাধ্যমেই বড় পর্দায় অভিষেক হচ্ছে নাবাগতা নায়িকা রাকা বিশ্বাসের। ছবির নির্মাতা আবু সফিয়ান বলেন, ‘আমি অনেক দিন পর ফোক ঘরানার একটি ছবি নিয়ে দর্শকদের সামনে হাজির হচ্ছি। আমার মনে হয়েছে দর্শক এক ধরনের ছবি দেখতে দেখতে ক্লান্ত, যে কারনে এই ধরনের ছবি সবার কাছে ক্ষরার মধ্যে এক পশলা বৃষ্টি মনে হতে পারে। এই ছবির মাধ্যোমে আমি রাকা বিশ্বাস নামে একজন নায়িকাকে নিয়ে এসেছি, যে কিনা দর্শক মন জয় করার মতো সব গুনের অধিকারি। আমি মনে করি রাকা চলচ্চিত্রে স্থায়ী আসন করে নেবেন।’      নবাগত নায়িকা রাকা বিশ্বাস বলেন, ‘আমার ছবির পরিচালক আবু সুফিয়ান স্যারকে আমি মন থেকে ধন্যবাদ দিতে চাই। তিনি শুটিংয়ে আমাকে নানাভাবে সহযোগিতা করেছেন। এতে আমার মধ্যে একটা আত্ববিশ্বাস তৈরী হয়েছে। ছবিতে আমার চরিত্রটি রাজার মেয়ের। ভিন্নধারার গল্প নিয়ে এটি তৈরি হয়েছে। দর্শকরা পছন্দ করবেন বলে আমার বিশ্বাস।    ফোক ঘরানার এই ছবি দর্শক কেন দেখবে, এমন প্রশ্নের উত্তরে আবুসুফিয়ান বলেন, “আসলে ফোক ছবি দর্শক সব সময়ই দেখে। আমাদের দেশে ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ মাইল ফলক হয়ে আছে সিনেমা জগতে, একই ভাবে ‘রঙ্গিন রূপবান’সহ আরো অসংখ্য ছবি আছে, যা দর্শক পছন্দ করেছে। আমি মনে করি এখনো ফোক ছবির সময় শেষ হয়ে যায়নি, কখনই শেষ হবে না।” ছবিতে রাকা বিশ্বাসসহ আরো অভিনয় করেছেন এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা উজ্জ্বল, ড্যানি সিডাক, সাদেক বাচ্চু, রেবেকা, শিমু আহমেদ, শাহেন শাহ প্রমুখ। এসি     

জন্ডিস দূর করতে ৮ খাবার

জন্ডিস এক ধরণের পানিবাহিত রোগ। জন্ডিসে ত্বক, চোখের সাদা অংশ এবং অন্যান্য মিউকাস ঝিল্লি হলুদ হয়ে যায়। এছাড়া এই রোগে লিভারে কিংবা যকৃতে সমস্যা দেখা দেয়। এর সঠিক চিকিৎসা না নিলে রোগী মারাও যেতে পারে। তবে জন্ডিসের শুধু ওষুধই এর একমাত্র চিকিৎসা নয়, খাবারের মধ্যেই জন্ডিসের গুরুত্বপূর্ণ চিকিৎসা রয়েছে।   তাই জন্ডিস দ্রুত সারাতে চাইলে কিছু খাবার খাওয়া জরুরী। সেগুলো নিচে দেওয়া হলো- ১) পরিমিত পানি জন্ডিস হলে প্রতিদিন অন্তত আট গ্লাস করে পানি খেতে হবে। কেননা জন্ডিস এক ধরণের পানিবাহিত রোগ। তাই এ সময় শরীরে পানির ঘাটতি দেখা দেয়। তাই পরিমিত পানি খেলে অতিরিক্ত টক্সিন বের হয়ে যায়। ফলে লিভার ফাংশক ঠিক থাকে। ২) হার্বাল টি জন্ডিস রোগ হলে কখনই কফি বা চা কিংবা কোকো খাবেন না। এতে মারত্মক ক্ষতি হতে পারে। এইসব খাবারের পরিবর্তে হার্বাল টি খান। এমনকি দুগ্ধজাত খাবার থেকে বিরত থাকতে হবে। ৩) হজমে সাহায্যকারী খাবার জন্ডিস হলে খাবার হজম হতে সমস্যা হয়। তাই যেসব খাবার দ্রুত হজম হয় সেরকমই উৎসেচক সমৃদ্ধ খাবার তালিকায় রাখুন। যেমন- মধু, কমলালেবু, আনারস, পেঁপে, পাকা আম ইত্যাদি খান। ৪) ফাইবারযুক্ত খাবার জন্ডিস রোগে ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার অবশ্যই খাবেন। ফাইবার জাতীয় ফল, সবজি তো অবশ্যই। এছাড়াও বাদাম, শস্যদানা যেমন- ওটমিল, আমন্ড, ব্রাউন রাইস ইত্যাদি বেশি করে খাবেন। ৫) সুগার জাতীয় খাবার জন্ডিস হলে সুগার জাতীয় খাবার খেতে হবে তবে তা পরিমিত হতে হবে। যেমন- আখের রস জন্ডিসের জন্য খুবই উপকারী। তবে হ্যা, রাস্তার ধারে বিক্রি হওয়া আখের রস খাবেন না। বাড়িতে আখ কিনে এনে কেটে খান কিংবা রস করে খেতে পারেন। এছাড়া সামান্য চিনি দিয়ে ইয়োগার্ট খেতে পারেন। তবে অতিরিক্ত চিনি লিভারের জন্য ক্ষতিকর।  ৬) পুদিনার পাতা লিভার ফাংশনের জন্য খুবই উপকারী পাতা হচ্ছে পুদিনা। এর পাতা প্রতিদিন সকালে চার-পাঁচটি খেলে জন্ডিসের জন্য ভালো উপকার পাওয়া যাবে। এছাড়া পুদিনার জুস করে খেলে ভালো উপকার পাওয়া যায়। ৭) লেবুর রস পাকস্থলির জন্য সহায়ক লেবুর রস। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে পানির মধ্যে করে লেবুর রস খেলে আপনার পরিপাকতন্ত্রে ভালো কাজ করবে। ৮) আনারস জন্ডিসে আখের রস যেমন ভালো কাজ করে তেমনি আনারসও সেই ভূমিকা পালন করে। এছাড়া লিভার পরিশোধনে আনারস খুবই উপকারী। তথ্যসূত্র : এই সময়। কেএনইউ/

আধারের তথ্যকে সুরক্ষিত রাখতে এবার থেকে কিউআর কোড

আধার তথ্যকে সুরক্ষিত করতে নতুন উদ্যোগ নিল ইউআইডিএআই। এর জন্য ১২ সংখ্যার আধার নম্বরের পরিবর্তে একটি উন্নত মানের কিউআর কোড ব্যবস্থা চালু করল আধার পরিচালন সংস্থা। অফলাইন ভেরিফিকেশনের ক্ষেত্রে এই কিউআর কোডটিই যথেষ্ট বলে জানানো হয়েছে সংস্থার তরফে। এই নতুন কিউআর কোড যুক্ত আধারে থাকবে অসংবেদনশীল তথ্য, যেমন নাম, ছবি ইত্যাদি এবং এটি অফলাইন ভেরিফিকেশনের কাজে লাগবে। আর এই নতুন কিউআর কোড যুক্ত আধারে থাকবে না ১২ সংখ্যার আধার নম্বর। ফলে সে ক্ষেত্রে তথ্য নিয়ে কেউ সেই তথ্যের অবৈধ ব্যবহার করতে পারবে না বলেই দাবি করেছে ইউআইডিএআই। আধার ব্যবহারকারীরা ইউআইডিএআইয়ের ওয়েবসাইট বা মোবাইল অ্যাপ থেকে এই কিউআর কোড সমেত আধার কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। ডাউনলোডের সময় যদি আধার নম্বর ছেপে বেরিয়েও আসে তবে তা কালো কালি দিয়ে মুছেও দিতে পারেন আধার ব্যবহারকারীরা। তাতে কোনও অসুবিধা হবে না বলেই জানিয়েছে ইউআইডিএআই। শুধু মাত্র কিউআর কোডটি থাকলেই হবে। এই নতুন ব্যবস্থা অনেক সহজে সাধারণ মানুষ ব্যবহার করতে পারবে বলেই আশাবাদী তারা এবং পাশাপাশি সংবেদনশীল তথ্যেরও গোপনীয়তা রক্ষা হবে। উদাহরণ স্বরূপ বলা যেতে পারে, অনলাইন কোনও কিছু কেনার পর তা যখন ডেলিভারি করা হয় তখন অনেক সময় ব্যক্তির পরিচয়ের ক্ষেত্রে আধার দেখতে চাওয়া হয়। এবার থেকে সেই ক্ষেত্রে আর কোনও অসুবিধা হবে না বা সমস্ত তথ্য দেওয়ার প্রয়োজন থাকবে না। কারণ, একটি ডিকোড মেশিনের মাধ্যমে সেই কিউআর কোড স্ক্যান করেই সাধারণ যে তথ্য প্রয়োজন অর্থাৎ নাম, ছবি, ঠিকানা ইত্যাদি পাওয়া যাবে। কোনও ব্যক্তির সত্যতা যাচাই করতে যে তথ্য প্রয়োজন শুধু সেই প্রয়োজনীয় তথ্যই থাকবে এই কিউআর কোডে। আধার নম্বরের উল্লেখ থাকবে না সেখানে। ইউআইডিএআই এর আধিকারিক অজয়ভূষন পাণ্ডে জানিয়েছেন, ‘এই অফলাইন কিউআর কোড ব্যবস্থা একটি গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি আধার কার্ড ব্যবহার করার ক্ষেত্রে। এখন থেকে যেখানে আইনত আধার নম্বর প্রয়োজন, সেই জায়গাগুলি ছাড়া আর কোথাও আধার নম্বর দেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না এবং এর ফলে তথ্য অনেক সুরক্ষিত হবে এবং তথ্যের অবৈধ ব্যবহার কেউ করতে পারবে না।’ মূলত, আধারের তথ্য সুরক্ষিত কি-না এই নিয়ে অনেক জলঘোলা হয়েছে এবং রাজনৈতিক মহলও উত্তপ্ত হয়েছে এই বিষয়টি নিয়ে। আধার তথ্য কি আদৌ সুরক্ষিত এই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিভিন্ন মহল৷ আর এই পরিস্থিতিতেই আধারকে আরও সুরক্ষা দিতে এই উদ্যোগ বিশেষ ভাবে কাজে আসবে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন একে//

কন্যাশিশু হয়ে গেল মৃত ছেলে!

দুই দিনের একটি কন্যাশিশুর শ্বাসকষ্টসহ শারীরিক নানা জটিলতার কারণে চিকিৎসার জন্য ক্লিনিকে ভর্তি করেছিলেন মা। আশা ছিল সুস্থ সন্তানকে নিয়ে ঘরে ফিরবেন তিনি। কিন্তু পাঁচ দিনের মাথায় গত মঙ্গলবার মায়ের কোলে তুলে দেওয়া হলো মৃত শিশু। বুকে পাথর বেঁধে সন্তানের লাশ নিয়ে ঘরে ফিরলেন তিনি। বেগমগঞ্জ উপজেলায় গ্রামের বাড়ি নিয়ে যাওয়ার পর দাফনের সময় দেখা যায় ছেলে শিশুর লাশ। তাতেই গণ্ডগোলটি ধরা পড়ে। তবে অনেক নাটকীয়তার পর মেয়েকে ফিরে পান মা রোকসানা আক্তার। এমন ঘটনার জন্ম দিয়েছে চট্টগ্রাম নগরীর পাঁচলাইশ থানার গোলপাহাড় মোড়ের চাইল্ড কেয়ার ক্লিনিক।  বেসরকারি এ ক্লিনিকের বিরুদ্ধে নবজাতক নিয়ে লুকোচুরির অভিযোগ উঠেছে। বর্তমানে শিশুটি বেসরকারি রয়েল হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছে।      জানা যায়, গত ১৩ এপ্রিল প্রথম সন্তানের জন্ম দেন রোকসানা আক্তার। অসুস্থতার কারণে ওইদিনই তিনি কন্যাশিশুটিকে প্রথমে নোয়াখালীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং পরে নগরীর গোলপাহাড়ের চাইল্ড কেয়ার ক্লিনিকে নিয়ে ভর্তি করা হয়। গত মঙ্গলবার সকালে শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করে তুলে দেওয়া হয় মায়ের হাতে। পরে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে মৃত শিশুটিকে দাফনের আগে গোসল করানোর সময় তারা দেখতে পান ছেলের লাশ। তারপর ফের তারা ওই রাতেই মৃত শিশুকে নিয়ে আবার চট্টগ্রামের উদ্দেশে রওনা দেয়। রাত ১২টার দিকে চাইল্ড কেয়ার হাসপাতালে পৌঁছায় তারা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের ভুল বুঝতে পারে। ওই ছেলে নবজাতকটি ছিল আরেকজনের। পরে মৃত ছেলেটিকে তাদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়। রোকসানার কন্যাসন্তানটি বেঁচে আছে। রোকসানা আক্তার বলেন, শিশুটির লাশ নিয়ে আমরা সারারাত অ্যাম্বুলেন্সে বসেছিলাম থানার সামনে। বুধবার ভোরে মেয়ে পাওয়ার কথা জানানো হয়। পরে সকালে একটি অ্যাম্বুলেন্সে এসে ছেলের লাশ নিয়ে যায়, পরে আমার মেয়েকে ফেরত দেয় চাইল্ড কেয়ার ক্লিনিক।   ওই ঘটনায় দুই পক্ষই হাসপাতালের ওপর ক্ষুব্ধ। এমন ঘটনার পর বুধবার রোকসানা চাইল্ড কেয়ার হাসপাতাল থেকে শিশুটিকে বেসরকারি অন্য একটি হাসপাতালে নিয়ে যান।  তিনি আরও বলেন, চাইল্ড কেয়ার নাম দিলেও সেটি টাকা বানানোর মেশিন ছাড়া কিছু নয়। আমার সঙ্গে যা হয়েছে তা যেন আর কোনও মায়ের সঙ্গে না হয়। এ ঘটনায় চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, এ ঘটনায় চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালককে তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছি। তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।     চাইল্ড কেয়ার ক্লিনিকের পরিচালক ডা. ফাহিম হাসান রেজা বলেন, ভুল বোঝাবুঝির কারণে ঘটনাটি ঘটেছে। পরে আমরা প্রকৃত ঘটনা জানতে পেরে যার মেয়ে তাকে ফেরত দিয়েছি। একে//এসি    

ত্বক উজ্জ্বল করতে আমলকির ফেসপ্যাক

বিশেষজ্ঞদের মতে, আমলকির মধ্যে উপস্থিত রয়েছে উপকারি ফ্যাট, ভিটামিন এ, সি, ডি, ই, কে, বি ১২ এবং ক্যালসিয়াম ত্বকের ভিতরে পুষ্টির ঘাটতি দূর করে। এছাড়া ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। শুধু তাই নয়, এতে উপস্থিত আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস এবং পটাসিয়ামও নানাভাবে ত্বকের পরিচর্যা করে থাকে। সেই সঙ্গে নানাবিধ ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা কমাতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়। তাই ত্বকের খেয়াল রাখতে আমলকির ফেসপ্যাক ব্যবহার করুন। তবে চলুন জেনে নেই কোন কোন উপকরণ দিয়ে এই ফেসপ্যাক বানানো সম্ভব- আমলকি, দই এবং মধু  ত্বককে উজ্জ্বল করতে আমলকির ফেসপ্যাকটিকে কাজে লাগান। বিশেষজ্ঞদের মতে, নিয়মিত ত্বকের পরিচর্যায় এই প্রাকৃতিক উপাদানটিকে কাজে লাগালে ত্বক তো পরিষ্কার হয়ই, সেই সঙ্গে ত্বক হয়ে ওঠে নরম এবং প্রাণবন্ত। এক্ষেত্রে দুই চামচ বাটা আমলকির সঙ্গে পরিমাণ মতো গরম পানি মেশাতে হবে। তারপর এতে এক চামচ মধু এবং দই মিশিয়ে সবকটি উপাদানকে ভাল করে নাড়িয়ে পেস্ট তৈরি করতে হবে। এরপর পেস্টটি মুখে লাগিয়ে কম করে দশ থেকে ২০ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। অ্যাভোকাডো এবং আমলকি বেশ কিছু স্টাডিতে দেখা গেছে, অ্যাভোকোডো এবং আমলকি এক সঙ্গে বানানো ফেসপ্যাকে এত মাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং আরও সব উপকারি উপাদান থাকে যা ত্বকের পরিচর্যায় ভালো উপকার করে। বিশেষত বলিরেখা কমাতে এই ফেসপ্যাকটির কোনও বিকল্প হয় না। এক্ষেত্রে দুই চামচ বাটা আমলকি নিয়ে তার সঙ্গে দুই চামচ অ্যাভোকাডো নিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে। এই সময় মেশাতে হবে অল্প পরিমাণে দইও। তারপর সবগুলো ভাল করে মিশিয়ে নিয়ে সেটি মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। পেঁপে এবং আমলকি ত্বককে উজ্জ্বল করতে পেঁপে ও আমলকির ফেসপ্যাকের গুরুত্ব রয়েছে। বেশ কিছু স্টাডিতে একথা প্রমাণিত হয়েছে যে, অল্পদিনেই ত্বক উজ্জ্বর করতে এই প্যাকটির কোনও বিকল্প হয় না। এক্ষেত্রে দুই চামচ আমলা গুঁড়োর সঙ্গে পরিমাণ মতো গরম পানি মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। তারপর তাতে দুই চামচ পেঁপে মেশাতে হবে। সবশেষে পেস্টটি মুখে লাগিয়ে ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলতে হবে। আমলা এবং হলুদ গুঁড়ো আমলাকি এবং হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে বানানো ফেসপ্যাক মুখে লাগাতে শুরু করুন দেখবেন মুখের দাগ মিলে যাবে শুধু তাই নয়, এতে উজ্জ্বলতাও বেড়ে যাবে। এক্ষেত্রে তিন চামচ আমলা পাউডার, এক চামচ হলুদ গুঁড়ো এবং দুই চামচ লেবুর রস মিলিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। পেস্টটি মুখে লাগিয়ে কম করে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। সূত্র : বোল্ডস্কাই। কেএনইউ/

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি