ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭ ২০:০৩:০৮

ঝিনাইদহে জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের অভিযানে নিহত ২, আহত ২ পুলিশ সদস্য

ঝিনাইদহের মহেশপুরের বজরাপুর গ্রামে পুলিশের অভিযানের সময় আত্মঘাতী বিস্ফোরনে ২ জঙ্গি নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন, কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের এডিসি নাজমুল ইসলামসহ ২ পুলিশ সদস্য। আশপাশের এলাকায় জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। এদিকে, জেলা সদরের লেবুতলা গ্রামের একটি বাড়ি থেকে ৮টি বোমা, একটি পিস্তল ও বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে। দুই অস্তানা থেকে আটক করা হয়েছে ৩ জনকে। জঙ্গিদের অবস্থান জানতে পেরে বজরাপুর গ্রামের জহিরুল ইসলামের বাড়িটি ভোররাত থেকেই ঘিরে রাখে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। আশপাশের এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। স্থানীয়রা জানান, গ্রামের জহিরুল ইসলাম বাড়িতে লাড্ডু বানিয়ে বিক্রি করা হতো। তবে বাইরের কাউকে বাড়িতে ঢুকতে দেয়া হতো না।বজরাপুর গ্রামের ওই বাড়িতে সকালে শুরু হয় অভিযান । এ সময় আত্মঘাতি বিস্ফোরনে দুই জঙ্গি নিহত হয়। আটক করা হয় বাড়ির মালিককে। অভিযানের সময় আত্মঘাতি জঙ্গিদের ধরতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হন মহেশপুর থানার এসআই মহসিন। এছাড়া আহত হন কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের এডিসি নাজমুল ইসলাম। তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।এদিকে জেলা সদরের লেবু তলায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৮টি বোমা, একটি পিস্তল ও বিস্ফোরক উদ্ধার করে পুলিশ। সেখান থেকে আটক করা হয় ২ জনকে। বাড়িটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ।

নড়াইলে চলছে ধানকাটা উৎসব

প্রাকৃতিক দুর্যোগ কাটিয়ে নড়াইলে চলছে ধানকাটা উৎসব। তবে একসঙ্গে সবার ধান কাটা প্রয়োজন হওয়ায় দেখা দিয়েছে শ্রমিক সংকট। প্রতিমণ ধান ৭০০ থেকে ৯০০টাকায় বিক্রি হলেও একজন শ্রমিককে প্রতিদিন মজুরি হিসেবে দিতে হচ্ছে ৮০০ টাকা। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। নড়াইলে সোনালি ধান ঘরে তোলার জন্য ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা। মাঠে মাঠে চলছে ধানকাটার উৎসব। এবার নড়াইলে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে ৪১ হাজার ৩২০ হেক্টর জমিতে।তবে, ধান কাটার জন্য পর্যাপ্ত শ্রমিক না পাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। একসঙ্গে বেশির ভাগ ধান পেকে যাওয়ায় এবং আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বেড়ে গেছে শ্রমিকের চাহিদা। প্রতিদিন একজন শ্রমিককে মজুরী দিতে হচ্ছে ৮০০ টাকা।এদিকে, নড়াইলে মণপ্রতি নতুন বোরো ধান বিক্রি হচ্ছে ৭০০ থেকে ৮০০ টাকায়। তবে, ভালো মানের ধান বিক্রি হচ্ছে ৯০০টাকা পর্যন্ত। গতবার দাম বেশি পাওয়ায় এবছর কৃষকরা ধানের আবাদ বাড়িয়ে দিয়েছেন বলে জানিয়েছে কৃষি অধিদপ্তর। এবারও ধানের ন্যায্য দাম পাওয়ার আশা করছেন নড়াইলের কৃষকরা।https://youtu.be/yoVN98YcxFg  

ঝিনাইদহের পোড়াহাটি গ্রামে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান সম্পন্ন

ঝিনাইদহের পোড়াহাটি গ্রামে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শেষ করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী। উদ্ধার করা হয়েছে বিস্ফোরক তৈরির উপাদান ভর্তি ২০ টি ড্রাম, বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক, একটি পিস্তল ও ম্যাগজিনসহ সাত রাউন্ড গুলি। এ বাড়িতে শীর্ষ জেএমবি নেতাদের আনাগোনা ছিল এবং বাড়ির বাসিন্দা নব্য জেএমবি’র সদস্য আব্দুল্লাহ’র বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। অপারেশন ‘সাউথ প’ বা দক্ষিণের থাবা সমাপ্ত ঘোষণা করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। শনিবার সকাল সোয়া ৯টা থেকে শুরু হওয়া অভিযান শেষ হয় বেলা ২টায়। অভিযানে যোগ দেন বোমা নিস্ক্রিয় দলের সদস্যরাও।জঙ্গি আস্তানা থেকে উদ্ধার করা হয় ২০ ড্রাম হাইড্রোজেন পার অক্সাইড, ১০০টি লোহার বল, ৩টি সুইসাইডাল ভেস্ট, ৯টি সুইসাইডাল বেল্ট, বিপুল পরিমান ইলেকট্রিক সার্কিট, ১টি বিদেশী পিস্তল, ম্যাগজিনসহ ৭ রাউন্ড গুলি, ১টি মোটরসাইকেল, ১টি চাপাতি ও ৬টি শক্তিশালী বোমা। জব্দ করা হয় বেশ কিছু জিহাদি বই। অভিযানের এক পর্যায়ে ৩টি সুইসাইডাল ভেস্ট ও ২টি বোমা নিষ্ক্রিয় করেন বোমা নিস্ক্রিয়কারী দলের সদস্যরা।সংবাদ সম্মেলনে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহম্মেদ জানান, এই বাড়ির বাসিন্দা নও মুসলিম আব্দুল্লাহ নব্য জেএমবির সদস্য। এটি তাদের অস্ত্র তৈরির কারখানা হতে পারে বলেও জানান তিনি।শুক্রবার সন্ধ্যায় পোড়াহাটি গ্রামের আধাপাকা বাড়িটি ঘিরে ফেলে পুলিশ। তবে, দুই কক্ষের বাড়িতে কাউকে পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসী জানিয়েছে, এক দম্পতি বাড়িটি ভাড়া নিয়েছিলো।  

ঝিনাইদহের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চলছে, বিস্ফোরক ও পিস্তল উদ্ধার

ঝিনাইদহের পোড়াহাটি গ্রামে জঙ্গি আস্তানা থেকে বিস্ফোরক ভর্তি ১৭টি ড্রাম, একটি পিস্তল ও ম্যাগজিন এবং সাত রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে আইন শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী। জব্দ করা হয়েছে বেশকিছু জিহাদী বই। অভিযান এখনো চলছে। ওই আস্তানায় শীর্ষ জঙ্গিরা অবস্থান করছিলো বলে জানিয়েছে পুলিশ। শনিবার সকালে দ্বিতীয় দিনের মতো ঝিনাইদহের পোড়াহাটি গ্রামের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালায় পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। ‘সাউথ প’ বা দক্ষিণের থাবা নামে ওই অভিযানে যোগ দেন বোমা নিস্ক্রিয় দলের সদস্যরাও।পরে বাড়ির ভেতর থেকে বিস্ফোরক ভর্তি ১৭টি ড্রাম, ১টি পিস্তল ও ম্যাগজিনসহ ৭ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। জব্দ করা হয় বেশ কিছু জিহাদি বই। অভিযানের এক পর্যায়ে ৫টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটান ঢাকা থেকে যাওয়া বোমা নিস্ক্রিয়কারী দলের সদস্যরা। শুক্রবার সন্ধ্যায় পোড়াহাটি গ্রামের আধাপাকা বাড়িটি ঘিরে ফেলে পুলিশ। গতকালই ওই আস্তানায় বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক, তিনটি সুইসাইডাল ভেস্ট ও একটি পিস্তল থাকার কথা জানায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। তবে, দুই কক্ষের বাড়িতে কাউকে পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসী জানিয়েছে, এক দম্পতি বাড়িটি ভাড়া নিয়েছিলো।    

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি