ঢাকা, শুক্রবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ১৬:৪০:৫৫

রাজশাহীতে একজনকে কুপিয়ে হত্যা

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় বিলে ‘মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে’আনসার রহমান মৃধা (৫০) নামে একজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহত আনসার ওই ইউনিয়নের কাষ্টডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা। আজ বুধবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার নরদাচ ইউনিয়নের মাঝনগর বাজারে এ ঘটনা ঘটে। সকালে মাঝনগর বাজারে একদল লোক তাকে এতোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। প্রত্যাক্ষদর্শীরা বলেন, আহত অবস্থায় আনসারকে বাগমারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আনসার মৃধাকে মৃত ঘোষণা করেন। এব্যাপারে জানতে চাইলে বাগমারা থানার ওসি নাসিম আহমেদ গণমাধ্যমকে জানান, স্থানীয় জোকা বিলে মাছ মারা নিয়ে এলাকার দুপক্ষের মধ্যে গত কিছু দিন ধরে বিরোধ চলছিল। একদিন আগে ওই দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষও হয়। এর জেরেই আনসার রহমান মৃধাকে হত্যা করা হয়েছে।   টিআর/এসএইচ/

চাঁপাইনবাবগঞ্জে হেরোইনসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর থানার নরেন্দ্রপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে এক কেজি ৪০৭ গ্রাম হেরোইনসহ মো. মনিরুল ইসলাম (৪০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব। জব্দ করা হেরোইনের বাজার মূল্য আনুমানিক এক কোটি ৪০ লাখ টাকা বলে জানিয়েছে র‌্যাব-৫। গত রোববার বিকেলে নরেন্দ্রপুর গ্রামের মুন্নাপাড়া এলাকার একটি আমবাগানের ভিতরে এ অভিযান চালানো হয়। মাদক ব্যবসায়ী মো. মনিরুল ইসলাম জেলার হরিশপুর থানার মৃত আলতাফ হোসেনের ছেলে বলে জানা গেছে। র‌্যাব-৫ জানিয়েছে, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে নরেন্দ্রপুর গ্রামের মুন্নাপাড়া এলাকার একটি আমবাগানের ভেতরে অবৈধভাবে হেরোইন বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে গোপনে মাদক ব্যবসায়ী অবস্থান করছে। ওই সংবাদের ভিত্তিতে মাদক ব্যবসায়ীকে হাতেনাতে আটকের জন্য র‌্যাবের একটি দল অভিযান চালায়। পরে সেখান থেকে এক কেজি ৪০৭ গ্রাম হেরোইনসহ  মো. মনিরুল ইসলামকে আটক করা হয়। মনিরুলকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এ সংক্রান্তে তাদের একটি সংঘবদ্ধ চক্র দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছে এবং তারা হেরোইনসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। র‌্যাব আরও জানায়, এ ঘটনার প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। একে// এসএইচ/            

‘ডিনস অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন রাবির ১২ শিক্ষার্থী

স্নাতকে  ভালো ফলাফল করায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কলা অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের ১২ শিক্ষার্থীকে ‘কলা অনুষদ ডিনস অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করা হয়েছে। সোমবার বিকেল পাঁচটার দিকে  বিশ্ববিদ্যালয়ের  ডিনস কমপ্লেক্স ভবনের কনফারেন্স রুমে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের হাতে ক্রেস্ট ও সম্মাননী তুলে দেন উপাচার্য অধ্যাক এম আব্দুস সোবহান।পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক এফ এম এ এইচ তাকীর সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান আল আরিফ, ইরানের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি বিভাগের অধ্যাপক রেজা সামী জাদে প্রমুখ।পুরস্কারপ্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীরা হলেন, দর্শন বিভাগের সীমা খাতুন, ইতিহাস বিভাগের  সৈয়দ নাঈমুর রহমান সোহেল, ইংরেজি বিভাগের ইরতিফা হাসান, বাংলা বিভাগের মঞ্জু রাণী দাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের জান্নাতী কাওনাইন কেয়া, আরবি বিভাগের আবুল ফুতুহ, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের আশরাফুল ইসলাম, সঙ্গীত বিভাগের জয়শ্রী পাল,নাট্যকলা বিভাগের জিনত আরা গুলশানা মার্জিয়া, ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের কবিতা আক্তার, সংস্কৃত বিভাগের নাজরীনা আক্তার ও উর্দু বিভাগের নূর মোহাম্মদ।এ সময় উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান বলেন,‘আজ যে পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে তা এ সকল মেধাবী শিক্ষার্থীদের দায়িত্বশীল করে তুলবে। তাদেরকে করে তুলবে নিরহংকারী। পাশাপাশি সমাজের প্রতি দায়িত্ববোধ তৈরি করবে। কেননা শিক্ষার আসল কাজ বিনয়ী করে তোলা। এ বিনয় তার দেশ, সমাজ, পরিবার তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের কল্যাণে নিয়োজিত করবে। তোমরা হবে তোমাদের বিভাগের পরবর্তী শিক্ষার্থীদের অনুপ্রেরনা।’তিনি আরো বলেন, প্রতিবছর দেশে হাজার হাজার সার্টিফিকেটধারী বিদ্বান বের হচ্ছে কিন্তু প্রকৃত শিক্ষিত বিদ্বান বের হচ্ছে না, যারা কল্যানে নিয়োজিত হবে। দেশকে এগিয়ে নেবে। তাই আমি আশা প্রকাশ করছি আজকের মেধাবীরা দেশের জন্য কাজ করবেন।অনুষ্ঠানে কলা অনুষদের সকল বিভাগের সভাপতি ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।উল্লেখ্য, শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া ও গবেষনায় আগ্রহী করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে এ  বছর থেকে এ পুরস্কারটি চালু করা হয়।আর

ইছামতি নদী যেন ময়লার ভাগাড় (ভিডিও)

দখল-দূষণে ময়লা আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে একদা স্রোতস্বীনি- পাবনা’র ইছামতি নদী। হোসিয়ারী শিল্পসহ বিভিন্ন ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল নদীটির। ইছামতিতে দূষণের ফলে পাবনার পরিবেশের উপর পড়েছে বিরূপ প্রভাব। স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে জেলার কয়েক লাখ মানুষ। নদীতে খননের জন্য বারবার উদ্যোগ নেয়া হলেও সমন্বয় আর অর্থাভাবে তা মুখ থুবড়ে পড়ে আছে। পাবনা শহরের বুক চিরে বয়ে যাওয়া ইছামতি নদী ঘিরেই গড়ে ওঠে এই অঞ্চলের ব্যবসা বাণিজ্য। বাংলার নবাব ইসলাম খাঁ ১৬০৮ থেকে ১৬১৬ খৃস্টাব্দে সৈন্য পরিচালনার সুবিধার্থে একটি খাল খনন করেন, নাম দেন ইছামতি। এই ইছামতি দিয়েই বজরায় করে পাবনা আসতেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। অসচেতনতার কারণে শহরের বাসা-বাড়ি, হোটেল রেঁস্তোরার আবর্জনা, হাসপাতাল ক্লিনিকের বর্জ্য- যাবতীয় ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে নদীতে। এছাড়া স্লুইস গেট দিয়ে পানি আটকে পরিকল্পিতভাবে নদীকে মেরে ফেলারও অভিযোগ এলাকাবাসীর। ২৪০ ফুট প্রস্থের ইছামতি এখন মাত্র ৮০ থেকে ৯০ ফুট। নদীটি বাঁচাতে পানি উন্নয়ন বোর্ড, পৌর কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্টরা বারবার উদ্যোগ নিলেও তা বাস্তব রূপ পায়নি। পাবনা পৌরসভা বলছে, ইছামতি খননে বৃহৎ পরিকল্পনা ও অর্থায়ন প্রয়োজন। তবে ইছামতি সংস্কারে প্রশাসন সচেষ্ট বলে জানান জেলা প্রশাসক। ঐতিহ্যবাহী ইছামতিকে ফিরিয়ে দিতে কার্যকর উদ্যোগ নেবে সরকার- এমন প্রত্যাশা জেলাবাসীর।

বাসের ধাক্কায় ইজিবাইকের ৪ যাত্রী নিহত

নওগাঁর পোরশা উপজেলায় যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় ইজিবাইকের চার যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৬ জন। রোববার দুপুরে উপজেলার কুসরপাড়া এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।নিহতদের মধ্যে দু`জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন— উপজেলার কচুন্দা গ্রামের প্রয়াত মুনির উদ্দিনের ছেলে আব্দুস সালাম (৫০) ও একই গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (৩২)।পোরশা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, বেলা ১২টার দিকে উপজেলার কচুন্দা গ্রাম থেকে একটি ইজিবাইক ৮ থেকে ১০ জন যাত্রী নিয়ে সরাইগাছী মোড়ে যাচ্ছিল। পথে কুসরপাড়া এলাকায় সাপাহার থেকে রাজশাহীগামী একটি যাত্রীবাহী বাস পেছন থেকে ইজিবাইকটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ইজিবাইকটি সড়কের পাশে উল্টে গেলে ঘটনাস্থলেই দুজন ও হাসপাতালের নেওয়ার পর আরও দুজনের মৃত্যু হয়।তিনি আরও জানান, বাসের দুই যাত্রীসহ দুর্ঘটনায় আহত ছয়জনকে পোরশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। / এআর /

দশ হাজার জামাই বরণের অনুষ্ঠানে অপু

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে বাংলা নতুন বছরের প্রথম দিন। বৈশাখের প্রথম দিন উৎসব ও আনন্দে কাটিয়েছে সবাই। শোবিজের অন্যান্য তারকাদের মত চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসও নতুন বছরকে বরণ করে নিয়েছেন ব্যস্ততার মধ্যে। তবে তার পহেলা বৈশাখের উদযাপনটা ছিল কিছুটা অন্যরকম। অপু জয়পুরহাটের মেয়ে। এবছর বৈশাখটাও সেখানেই করেছেন তিনি। তবে একা কিংবা শুধু পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তা কিন্তু নয়। ১০ হাজার জামাইয়ের সঙ্গে বৈশাখের আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন তিনি। প্রতি বছর জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার মাত্রাই গ্রামে বৈশাখকে বরণ করে নেওয়া হয় জামাইদের বরণের মধ্যে দিয়েই। এবার সেই উৎসবে উপস্থিত ছিলেন ১০ হাজার জামাই। অনুষ্ঠানে জামাইদের বিভিন্ন উপহারও সামগ্রী প্রদান করেন প্রতীকী শ্বশুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আ ন ম শওকত হাবিব তালুকদার লজিক। জামাইদের সঙ্গে তাদের স্ত্রীরাও উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানে। শনিবার সেই অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ ছিলেন অপু বিশ্বাস। বিকালে অপু হেলিকপ্টারে চড়ে ঢাকা থেকে সরাসরি মাত্রাই মডেল কলেজ মাঠে নামেন। অনুষ্ঠানস্থলে হাজির হয়ে এলাকার হাজার হাজার জামাইকে হাত নেড়ে স্বাগত জানান ঢালিউডের এই নায়িকা। এরপর নাচ-গান আর অভিনয় দিয়ে সবাই মুগ্ধ করেন তিনি। এসএ/  

দেশজুড়ে বাঘাবাড়ি ঘিয়ের সুনাম [ভিডিও]

সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়ির ঘি’র সুনাম ছড়িয়ে আছে সারাদেশেই। শুধু দুধ এবং ঘি উৎপাদনের মাধ্যমেই এই এলাকার প্রায় ৫০ হাজার খামারীর ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটেছে। এছাড়া, ঘিসহ দুগ্ধজাত নানা খাদ্য বাজারজাত করে দেশ-বিদেশে সুনাম কুড়িয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। শাহজাদপুরের জমিদার থাকাকালীন প্রিন্স দ্বারকানাথ ঠাকুর বাঘাবাড়ি, পোতাজিয়া, রেশমবাড়ি, রাওতারাসহ আশপাশের এলাকার কৃষকদের প্রায় সাড়ে ১৭শ’ একর বাথানী জমি গরু পালনের জন্য দান করেন। এরপর থেকেই উন্নত শংকর জাতের গরু পালনের প্রচলন শুরু হয়। ১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় নেতা ক্যাপ্টেন মনসুর আলীর পৃষ্ঠপোষকতায় গড়ে ওঠে সমবায়ভিত্তিক দুগ্ধ প্রক্রিয়াজাতকরণ প্রতিষ্ঠান মিল্কভিটা। সিরাজগঞ্জে শুধুমাত্র মিল্কভিটার আওতায় প্রায় ২০ হাজার গাভী থেকে প্রতিদিন অন্তত ৩ লাখ লিটার দুধ উৎপাদন হয়। এর প্রায় ৫০ ভাগ দিয়ে শিশুখাদ্য এবং বাকি দুধ দিয়ে ঘি ও অন্যান্য খাদ্যপণ্য তৈরি হয়। গাভীর খাঁটি দুধ সংগ্রহ করে বাঘাবাড়ি, সিলন্ধা, পৌরজনা, পোতাজিয়া, জামিরতাতের শতাধিক কারখানায় তৈরি হয় শতভাগ পরিশুদ্ধ খাঁটি ঘি। শুধু দেশ নয়, বিদেশেও বাঘাবাড়ির ঘি এখন সমাদৃত। দিনে দিনে আরো বিস্তৃত হবে বাঘাবাড়ির ঘিয়ের সুনাম, এমনটাই আশা স্থানীয়দের। ভিডিও:  

গ্যাস সংযোগ আসায় পোষাক শিল্পে এগিয়ে যাচ্ছে রাজশাহী (ভিডিও)

গ্যাস না থাকায় এতদিন শিল্পায়নে পিছিয়ে ছিল রাজশাহী অঞ্চল। সেই কাঙ্খিত গ্যাস আসায় এখন পোষাক শিল্পে এগিয়ে যাচ্ছে রাজশাহী। এখানে গড়ে উঠেছে উত্তরাঞ্চলের প্রথম গার্মেন্ট কারখানা। এ কারখানার তৈরি হওয়া পোশাক রফতানি হচ্ছে দেশের বাইরে। গ্যাস না থাকায় এতোদিন বিভাগীয় শহর রাজশাহীতে গড়ে ওঠেনি কোনো শিল্প-কারখানা। গ্যাস আসার পর ধীরে ধীরে রাজশাহীতে লাগছে শিল্পায়নের ছোঁয়া। গড়ে উঠছে পোশাক কারখানা। শিল্পায়নে আশার আলো দেখছেন উদ্যোক্তারা। স্বপ্নে নয়, বাস্তবে রাজশাহীর বিসিক এলাকায় কারখানাটি এখন পুরোদমে উৎপাদনে। ইতোমধ্যে কর্মসংস্থান হয়েছে প্রায় ৪ হাজার শ্রমিকের। আগামী এক বছরে আরো ১০ হাজার মানুষের চাকরী হতে পারে। এখানকার তৈরি পোশাক ইউরোপের বিভিন্ন দেশে রফতানি হওয়ায় খুশী শ্রমিকরা। পরিবহন সুবিধা বাড়ানো গেলে এ অঞ্চলে আরো শিল্প-কারখানা গড়ে উঠবে আশা স্থানীয়দের।

রাবিতে দুপুরে স্থগিত সন্ধ্যায় বিক্ষোভ

সরকারের শীর্ষনেতার সাথে কোটা সংস্কার আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকের পর আগামী ৭ই মে পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত ঘোষণার দেওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যে ফের আন্দোলন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার দুপুর একটার দিকে আন্দোলন স্থগিতের ঘোষনা দেয় ছাত্র অধিকার সংরক্ষন পরিষদ আন্দোলন রাবি শাখা। কিন্তুসন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটার দিকে আবার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন তারা। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বানে শিক্ষার্থীরা সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে জড়ো হন। এরপর সেখান থেকে তারা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। তারপর সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন তারা।জানা যায়, কয়েকটি দাবির পরিপ্রেক্ষিতে আবারও আন্দোলনের আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। দাবিগুলো হলো-দেশের ৯৮ শতাংশ সাধারণ শিক্ষার্থীকে কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরি রাজাকারের বাচ্চা বলেছেন, এর জন্য মতিয়া চৌধুরিকে শিক্ষর্থীদের নিকট ক্ষমা চাওয়া, বাজেটের পর কোটা সংস্কার করা হবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের এই বক্তব্যকে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সাংঘর্ষিক উল্লেখ করে তা দ্রুত প্রত্যাহার, ঢাকায় আটককৃত শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দেওয়া, পুলিশের নির্যাতনে আহতদের চিকিৎসার দায়িত্ব সরকারকে নেওয়া। সমাবেশে ছাত্র অধিকার সংরক্ষন পরিষদ আন্দোলন রাবি শাখার আহ্বায়ক মাসুদ মুন্নাফ বলেন, ‘মতিয়া চৌধুরি আমাদের রাজাকারের বাচ্চা বলেছেন। অর্থমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন তা গতকালের আলোচনার সাংঘর্ষিক। আমরা বুঝতে পেরেছি আমাদের অধিকার আন্দোলনের মাধ্যমে আদায় করে নিতে হবে। কেন্দ্রীয় কমিটির ঘোষণা অনুযায়ী আগামীকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত মহাসড়ক অবরোধ করা হবে।’কোটা সংস্কার বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর বিভাগের সহকারি অধ্যাপক আমিরুল ইসলাম কনক বলেন, ‘দেশের বিদ্যমান কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের প্রয়োজন। এখানে মেধাবীরা অবহেলিত। তবে সংস্কারের সময় এটা মাথায় রাখতে হবে যেন মুক্তিযোদ্ধারপরিবাররা নিগৃহীত না হয়। পাশাপাশি এটাও মাথায় রাখতে হবে এতে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী চক্র যেন সুবিধা না নিতে পারে।’  

সাপের বাচ্চা সাপ-ই হয়: তুরিন আফরোজ

যুদ্ধাপরাধী ও রাজাকারদের সন্তানেরা দেশে বিদেশে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে জানিয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ বলেন, তাঁদের ব্যাপারে সবাইকে সাবধান হতে হবে। মনে রাখতে হবে, সাপের বাচ্চা সাপ-হয়। তাই, তারা যাতে সরকারি ও বেসরকারি কোন উচ্চ পদে চাকরি করতে না পারে সে জন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। আজ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা গবেষণা সংসদের আয়োজনে ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ: শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতির অর্জন’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনারে তিনি এই মন্তব্য করেন। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ২১ গবেষক এই সেমিনারে বক্তব্য প্রদান করেন। তুরিন আফরোজ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সশস্ত্র সংগ্রামের একটি নির্দিষ্ট সময়সীমা থাকে। নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে আমরা স্বাধীনতা লাভ করেছি। তবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠার যে লড়াই, সেই লড়াইয়ের কোন নির্দিষ্ট সময় সীমা নেই। তাই সেই লড়াই চালিয়ে যেতে হবে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে। মুক্তিযুদ্ধ শেষ হয়েছে, কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠার লড়াই শেষ হয়নি, যোগ করেন তিনি। তুরিন আফরোজ আরও বলেন , ‘আমাদের পূর্বপুরুষেরা বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে যে স্বাধীনতা এনেছে সেই স্বাধীনতা রক্ষা করবার দায়িত্ব আমাদের। তাই আমাদের বন্ধু চিহ্নিত করার পাশাপাশি শত্রু চিহ্নিত করতে হবে। আমাদের ভুলে গেলে চলবে না যে, ১৬ই ডিসেম্বার বিজয়ের প্রাক্কালে ১৪ই ডিসেম্বর মোহাম্মদপুরে বদর কম্যান্ডার মুজাহিদের নেতৃত্বে যে সমাবেশ হয় সেখানে তাদের প্রতি নির্দেশ ছিলো সমাজের বিভিন্ন স্তরে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী চেতনা ছড়িয়ে দেওয়ার। সেই থেকে আজ অবধি তারা সমাজের বিভিন্ন স্তরে মিশে গিয়ে, পাকিস্তানিদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের বিষয়ে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। সাপের বাচ্চা সাপ ই হয় জানিয়ে তুরিন আফরোজ বলেন, এই সব সাপেরা বাংলাদেশকে দংশন করার অপেক্ষায় আছে । সুযোগ পেলেই বিষ দাত বসিয়ে দিবে। তাই এরা যেন সরকারি বা বেসরকারি কোন উচ্চ পদে চাকরি করতে না পারে সেই বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। প্রয়জনে ভিয়েতনামের মত আইন করে নিষিদ্ধ করতে হবে। জনাব প্রফেসর আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে সেমিনারে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ , গবেষক ডঃ নূহ-উল-আলম লেনিন , বিশিষ্ট কবি, সাংবাদিক ও প্রাবন্ধিক সোহরাব হাসানসহ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থী বৃন্দ। এমজে/

নাটোরে কিশোরকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

নাটোর সদর উপজেলায় রায়হান (১৬) নামে এক কিশোরকে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, দুদল কিশোরের মধ্যে বিরোধের একপর্যায়ে ওই কিশোরকে ছুরি মারা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সন্দেহভাজন তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার খোলাবাড়িয়া খামারপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার রাতে খামারপাড়া মাদ্রাসা এলাকায় ইসলামী মাহফিল চলাকালে সেখানে দুদল কিশোরের বিরোধ ও কথাকাটাকাটি হয়। এর একপর্যায়ে রায়হান নামের এক কিশোরকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় অন্য কিশোররা। এ সময় এলাকাবাসী রায়হানকে উদ্ধার করে প্রথমে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাতেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলে জানান ওসি। একে/ এসএইচ/

চিকিৎসার অভাবে চোখ হারাতে বসেছে শিশুটি

শামীম হোসেন। বয়স ১০। পাবনার চাটমোহর উপজেলার স্কুলছাত্র। জন্মের সময় কপালের ডান কোনায় একটি কালো তিলক ছিল শিশুটির। দিনকে দিন সেটি বড় হতে হতে বিশাল আকার ধারণ করেছে। আর এর ভেতরে তৈরি হয়েছে ক্ষত। এ কারণে নষ্ট হতে চলেছে শিশুটির একটি চোখ। চিকিৎসকরা অপারেশনের পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু দিনমজুর বাবার পক্ষে সেই অর্থ জোগাড় করা সম্ভব হয়নি। ফলে অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে চোখ হারাতে বসেছে ১০ বছর বয়সের এ শিশুটি। শিশু শামীম উপজেলার ফৈলজানা ইউনিয়নের আফসুর হোসেনের ছেলে। ছোট্ট একটি ভাঙাচোরা ঘরে থাকে পাঁচ সদস্যের এই পরিবার। দিন আনে দিন খেয়ে চলে পরিবারটি। যন্ত্রণায় শামীমের চোখ দিয়ে পানি ঝরছে। পুটলির মতো কালো তিলকটি মুখমণ্ডলের একপাশ দিয়ে কান পর্যন্ত ঝুলে পড়েছে। এতে বন্ধ হয়ে গেছে তার একটি চোখ। নিচের অংশে তৈরি হয়েছে ক্ষত। শামীম জানায়, তিলকটির মধ্যে সারাক্ষণ চুলকায়। যন্ত্রণায় সে স্থির থাকতে পারে না। রাতে ঘুমাতেও পারে না সে। এ কারণে বেশকিছু দিন হলো স্কুলেও যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। শিশুটির মা সাবেদান নেছা জানান, তিলকটি ক্রমেই বড় হয়ে এমন অবস্থা হয়েছে। ছেলেকে জেলা সদর হাসপাতালে দেখালে চিকিৎসকরা অপারেশনের পরামর্শ দিয়েছেন। এতে প্রায় তিন লাখ টাকার প্রয়োজন। পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক রফিকুল হাসান বলেন, এটিকে মেলানোমা রোগ বলা হয়। কয়েকটি ধাপে এর অস্ত্রোপচার করাতে হয়। ছেলের চিকিৎসার জন্য সমাজের হৃদয়বানদের কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন শামীমের বাবা-মা। কেউ সহযোগিতা করতে চাইলে তার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর ০১৭৬১-১৩৪৬০৩-তে যোগাযোগ করতে পারবেন। একে// এআর

বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে শাড়ি তৈরিতে তাঁতীরা ব্যস্ত(ভিডিও)

বাঙালীর সর্বজনীন উৎসব পহেলা বৈশাখ। বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে বাহারী শাড়ি তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন সিরাজগঞ্জের তাঁতীরা। বাঙালী ঐতিহ্যের সাথে মিল রেখে নিখুঁত বুননে এ’সব শাড়িতে আনা হয়েছে ভিন্নতা। ভারতের বাজারেও চাহিদা রয়েছে এখানকার শাড়ির। এবার বৈশাখে শত কোটি টাকার শাড়ি বিক্রির আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। সিরাজগঞ্জের তাঁতীরা সারা বছর শাড়ী, লুঙ্গী, ধুতি-গামছা আর থ্রি-পিস তৈরিতে ব্যস্ত থাকেন। তবে, দুই ঈদ ও পূজার সময় জমে উঠে বেচাকেনা। বছর দশেক ধরে এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বাংলা নববর্ষের বাজার। আসন্ন নববর্ষ উপলক্ষে দিনরাত কাজ করছেন বেলকুচি, শাহজাদপুর, এনায়েতপুরসহ সিরাজগঞ্জের অন্যান্য স্থানের তাঁত শ্রমিকরা। দেশের পাশাপাশি ভারতেও বেড়েছে এখানকার তাঁতের শাড়ির চাহিদা। উন্নত সুতায় নিখুঁত বুনন শৈলীতে তৈরি এ’সব শাড়ী নিতে আসেন সেখানকার ব্যবসায়িরা। ব্যবসা ভাল হওয়ায় খুশি তাঁত ব্যবসায়ি ও বৈশাখী শাড়ি প্রিন্টিং কারখানার সাথে জড়িতরা। এবার নববর্ষে শত কোটি টাকার শাড়ি বিক্রির আশা সংশ্লিষ্টদের। বাংলা নতুন বছরের অনুষ্ঠান উপলক্ষে এখানকার ৩৫ শতাংশ সুতি শাড়ি ভারতে রপ্তানী হচ্ছে বলে জানালেন সংশ্লিষ্টরা।

খনার বচন পরিচিত করবে বগুড়ার পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (ভিডিও)

‘খনার বচনের’ বেশিরভাগই কৃষি ভিত্তিক উন্নয়নের ছড়া। বচনগুলো সবার কাছে পরিচিত করতে এবার এগিয়ে আসলো বগুড়ার পল্লী উন্নয়ন একাডেমি। ‘খনার বচন’ এ ছেয়ে আছে একাডেমির পুরো এলাকা। এ উদ্যোগে শুধু কৃষকই নয়, সব পেশার মানুষকে কৃষি বিষয়ে সচেতন করবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। জ্যোর্তিবিদ্যায় পারদর্শী বিদুষী বাঙালি নারী খনা। আনুমানিক ৮ম থেকে ১২শ শতাব্দীর মধ্যে দেন বিভিন্ন বচন। কৃষিকাজের প্রথা ও কুসংস্কার, জ্যোর্তিবিজ্ঞান, আবহাওয়া জ্ঞান ও শস্যের যত্ন সম্পর্কিত তার উপদেশগুলোই ‘খনার বচন’ নামে পরিচিত। পরবর্তীতে মানুষের মুখে মুখেই ছিলো খনার বচন।  বচনগুলো অনেকটাই অজানা বর্তমান প্রজন্মের কাছে। নতুন প্রজন্মের কাছে পরিচিত করতে তাই বগুড়ার পল্লী উন্নয়ন একাডেমির ভিন্নধর্মী উদ্যোগ। সবুজে ঘেরা প্রতিষ্ঠানটির দেয়ালে দেয়ালে লেখা ‘খনার বচন’। শুধু তাই নয়, চোখে পড়বে দেশি-বিদেশি প্রায় দু’হাজারের মতো বিরল প্রজাতির গাছের পরিচিতি ও উপকারিতার বিস্তারিত। কৃষিভিত্তিক দেশে সর্বস্তরের মানুষকে সচেতন করতে এ উদ্যোগ বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। ভবিষ্যতে বচনগুলো এক করে বই আকারে প্রকাশের উদ্যোগ নেওয়ার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন কৃষি গবেষকরা।       একে//

শিশুর ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ দেখে পুলিশ সদস্যের মৃত্যু

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার দেউলী ইউনিয়নের বোয়ালমারি গ্রামে শাকিবুল হাসান শাকিব নামের এক শিশুকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার  বোয়ালমারি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা  শিশুটির চাচী শিউলি বেগমকে (৩৮) আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে।  শিউলীর আত্মীয়-স্বজন বেপরোয়া হয়ে পুলিশের ওপর  চড়া হয়ে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। শিশুটির ক্ষত বিক্ষত মৃতদেহ দেখে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের কনস্টেবল একরামুল হক হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন। নিহত শাকিকুল হাসান ওই গ্রামের বেলাল উদ্দিনের ছেলে এবং গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ফাঁসিতলা মডেল কেজি স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। গ্রেফতারকৃত শিউলি বেগম একই গ্রামের বেলাল উদ্দিনের স্ত্রী। শিবগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (অপারেশন) জাহিদ হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, ``দুপুরের  দিকে শাকিব বাড়ির পাশে নিজেদের বেগুন ক্ষেতে গরুর জন্য ঘাস তুলছিল । এসময় তার চাচী শিউলি বেগম সেখানে গিয়ে শাকিবের সঙ্গে ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়ে। এর পর্যায়ে ঘাস কাটার হাসুয়া নিয়ে তাকে সারা শরীরে কুপিয়ে জখম করে। এতে ঘটনাস্থলেই শাকিব মারা যায়। সংবাদ পেয়ে শিবগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি ও মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে ইনচার্জ মিজানুর রহমান পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিউলীকে গ্রেফতার করেন। এসময় শাকিবের ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ দেখে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের কনস্টেবল একরামুল হক অসুস্থ হয়ে পড়েন। দ্রুত তাকে পুলিশ ভ্যানে করে বগুড়ার জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নেওয়া হলে সেখানে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তার বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায়। শিবগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি শাহিদ মাহমুদ খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। কেআই/টিকে

রাজশাহীতে ফসলি জমিতে চলছে পুকুর খনন (ভিডিও)

রাজশাহীতে আবাদি জমিতে খনন করা হচ্ছে পুকুর। ফসলি জমিতে স্থাপন করা হয়েছে ইটভাটাও। এতে কমছে খাদ্যশস্য উৎপাদন, হুমকির মুখে পড়েছে পরিবেশ। কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা চেয়েও না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের। এভাবেই বিলগুলোতে ফসলি জমিতে খনন করা হয়েছে শতশত পুকুর। অধিক লাভের আশায় মাছ চাষ করে এক শ্রেনীর প্রভাবশালীরা খনন করেছে এসব। এতে কমেছে খাদ্যশস্যের উৎপাদন । নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে ফসলি জমিতে গড়ে তোলা হয়েছে ইটভাটাও। ফসলি জমি নষ্ট হওয়া খাদ্য উৎপাদন ও পরিবেশের জন্য হুমকি বলে মনে করছেন, পরিবেশবিদরাও। অবৈধ পুকুর খনন ও ইটভাটা বন্ধে প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েও পাওয়া যায়নি বলে জানালেন কৃষি কর্মকর্তা। তবে জেলায় কি পরিমান আবাদি জমি নষ্ট হয়েছে তার হিসাবে নেই কৃষি কর্মকর্তাদের কাছে।  

চাঁপাইনবাবগঞ্জে রেলওয়ে শুল্ক স্টেশনের কার্যক্রম ব্যাহত(ভিডিও)

অবকাঠামো সুবিধার অভাবে ব্যাহত হচ্ছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর রেলওয়ে শুল্ক স্টেশনের কার্যক্রম। পণ্য আমদানি-রফতানির চাহিদা থাকলেও নানা সংকটে জর্জরিত রেলরুটটি। এ অবস্থায় রহনপুর শুল্ক স্টেশনটিকে দ্রুতই পূর্ণাঙ্গ রেলবন্দরে উন্নীত করার দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, রেলবন্দর করা গেলে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ক্ষেত্রে এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। অবিভক্ত ভারতবর্ষে পণ্য পরিবহনসহ যোগাযোগের অন্যতম রুট ছিলো রহনপুর-সিঙ্গাবাদ রেল রুট। পরবর্তীকালে এ রেলপথে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পণ্য আনা নেয়া চলেছে। ২০০৮ সালে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সীমান্তবর্তী রহনপুর রেলওয়ে শুল্ক স্টেশনকে পূর্ণাঙ্গ বন্দরে উন্নীত করার ঘোষণা দেয়া সরকার। ১০ বছর পেরোলেও শুরু হয়নি প্রকল্প। এ রেলরুটে ভারতসহ নেপাল ও ভূটানে পণ্য পরিবহনে দেশি-বিদেশি ব্যবসায়ীদের আগ্রহ আছে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরের ৬ মাসে রহনপুর স্টেশনের শুল্ক বিভাগে ১১ কোটি ৪৮ লাখ ৪ হাজার টাকার লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আয় হয়েছে ৩৫ কোটি ৪৫ লাখ ৫২ হাজার টাকা। আমদানী-রফতানী কার্যক্রম আরো বাড়াতে স্টেশনে নানমুখী উন্নয়নের উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ব্যবসায়ীরা বলছেন, শুল্ক স্টেশনটিকে পূর্ণাঙ্গ বন্দর হিসেবে চালু করা গেলে পরিবহন খরচ কমার পাশাপাশি সরকারের রাজস্ব আয় কয়েক শ’ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। রহনপুর স্টেশন বন্দর হিসেবে গড়ে তোলার সম্ভাব্যতা যাচাই করে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ আশা করছেন ব্যবসায়ীরা।  

গণহত্যায় নিহত শহীদদের স্মরণে রাবিতে প্রদীপ প্রজ্বলন

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে পাকিস্তানি সেনাদের হাতে নির্মমভাবে নিহত শহীদদের স্মরণে প্রদীপ প্রজ্বলন কর্মসূচি পালন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রশাসন। রোববার সন্ধ্যা সাতটায় বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে তারা এ কর্মসূচি পালন করেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক এম এ বারী, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক মোস্তাফিজু রহমান আল আরিফ, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক জান্নাতুল ফেরদৌস, প্রক্টর অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমানসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। আব্দুস সোবহান বলেন, পাকিস্তানিরা আমাদের দমিয়ে রাখতে চেয়েছিলো। কিন্তু বাংলাদেশের স্বাধীনতাকামী মানুষ তা মেনে নেয় নি। তাই তারা এই গণহত্যায় মেতেছিলো। বিশ্ব সেদিন দেখেছিলো তারা কত বর্বর আচরণ করেছিলো। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পর আবাসিক হল ও বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা প্রদীপ প্রজ্বলন করেন। আর/টিকে

একাত্তরের মার্চে উত্তাল ছিলো নওগাঁ(ভিডিও)

একাত্তরের মার্চে উত্তাল ছিলো নওগাঁ। স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনতে অস্ত্র হাতে শত্র“র মোকাবেলা করেন জেলার মুক্তিকামী মানুষ। তাদের বীরত্বগাঁথা তুলে ধরে, নানা উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তবে, সম্প্রতি মান্দার প্রসাদপুর চৌরাস্তায় স্থাপিত ভাস্কর্যটি পড়েছে সমালোচনার মুখে। স্থানীয়দের অভিযোগ, মুক্তিযোদ্ধাদের আদলে নির্মিত হয়নি ভাস্কর্যটি। এ’বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবি মুক্তিযোদ্ধাদের। নওগাঁর মান্দা উপজেলার প্রসাদপুর চৌরাস্তা মোড়ে, মাসকয়েক আগে নতুন ভাস্কর্যটি স্থাপিত হয় জেলা পরিষদের উদ্যোগে। তবে এর পরেই ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে সেটি। স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা বলছেন, ভাস্কর্যে মুক্তিযুদ্ধের উপস্থাপনে ত্র“টি রয়েছে।সরেজমিনে দেখা গেছে, প্রায় ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগ থেকে আনা হয় ভাস্কর্যটি। যাতে দেখা যায়, দু’জন মুক্তিযোদ্ধা অস্ত্র উঁচিয়ে বিজয়োল্লাস করছেন। তবে তাদের পোশাক নিয়েই যত আপত্তি স্থানীয়দের। বলছেন, সামরিক বাহিনীর পোশাক বাংলার মুক্তিযোদ্ধাদের অবয়ব তুলে ধরে না।ভাস্কর্যের চেহারাতেও নেই বীর বাঙ্গালীর ছাপ উল্লেখ করে, এটি মেনে নিতে পারছেন না মুক্তিযোদ্ধারাও। জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলছেন, ভাস্কর্যের নকশায় ভুল থাকতে পারে। অসঙ্গতি ধরা পড়লে অপসারণের উদ্যোগ নেয়া হবে। ভাস্কর্যটি দ্রুত অপসারণ করে, মুক্তিযুদ্ধের সঠিক স্মৃতিফলক স্থাপনের দাবি স্থানীয়দের।

সোনামসজিদ স্থলবন্দরে ১০ সোনার বার উদ্ধার

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থল বন্দরের জিরো পয়েন্ট এলাকা থেকে ১০টি সোনার বার উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এর বাজার মূল্য প্রায় অর্ধ কোটি টাকা। তবে এই ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি। গতকাল বুধবার রাতে উদ্ধার হওয়া এসব সোনার ওজন এক কেজি ১৬০ গ্রাম বলে জানিয়েছে বিজিবি। বৃহস্পতিবার সকালে ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তরে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৯ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল রাশেদ আলী এ তথ্য জানান। তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবির একটি দল বুধবার রাত সোয়া ১২টার দিকে সোনামসজিদ স্থল বন্দরের জিরো পয়েন্টসংলগ্ন পানামা গেইট এলাকায় অভিযান চালায়। সেখান থেকে মালিকবিহীন অবস্থায় ১০টি সোনার বার উদ্ধার করে বিজিবির ওই দল। এসব সোনার বাজার মূল্য প্রায় অর্ধ কোটি টাকা। চোরাচালানিরা সোনা চোরাচালানের নতুন রুট হিসেবে সোনামসজিদ স্থল বন্দরকে বেঁছে নিয়েছে বলেও জানান কর্নেল। একে// এআর

নওগাঁ আলতাদিঘী পর্যটন কেন্দ্রে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি (ভিডিও)

ভারতীয় সীমান্ত ঘেঁষা নওগাঁর ধামইরহাটে প্রাকৃতিকভাবে গড়ে উঠা শালবন ঘেরা আলতাদিঘী এখন আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র। প্রতিদিন নানা বয়সের ভ্রমণপিপাসুরা যান নৈসর্গিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে। তবে জাতীয় উদ্যান ঘোষণার ৭ বছর পরও পর্যটকদের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিতে গড়ে ওঠেনি অবকাঠামো। যোগাযোগ ব্যবস্থাও বেশ অনুন্নত। আনুমানিক ১৪শ’ খ্রিষ্টাব্দে ধামইরহাট অঞ্চলে রাজা বিশ্বনাথ জগদ্দল রাজত্ব করতেন। সে সময় এ অঞ্চলের মানুষের পানির অভাব মেটাতে রাণীর ইচ্ছায় ৪২ দশমিক ৮১ একর আয়তনের আলতাদিঘী’ খনন করা হয়।  সীমান্ত ঘেঁষা এই দিঘীকে ঘিরে রয়েছে ২শ’ ৬৪ দশমিক ১২ হেক্টর শালবন। আলতাদিঘী ও শালবনে রয়েছে নানা জাতের প্রাণী। শালবনের ভেতর বিশাল দিঘীতে বন বিভাগের লাগানো পদ্মফুল বাড়িয়ে তুলেছে সৌন্দর্য। প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভ্রমণ পিপাসুরা প্রকৃতির নৈসর্গিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে যান। পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় ২০১১ সালে আলতাদিঘীকে জাতীয় উদ্যান ঘোষণা করে। কিন্তু সাত বছর পরও বিশ্রামাগার, পিকনিক স্পট নির্মাণ ও রাস্তাঘাটের উন্নয়ন না হওয়ায় হতাশ পর্যটকরা। তাছাড়া, ২০১৪ সালে পার্ক অফিস ও স্টাফ ডরমিটরি নির্মাণ করা হলেও আজো তা চালু হয়নি। তবে আশার বাণী শোনালেন জেলা প্রশাসক। আলতাদিঘী নিয়ে সমন্বিত পরিকল্পনা হাতে নেয়ার কথা জানান তিনি। পর্যটন শিল্পের বিকাশে শিগগিরই অবকাঠামো নির্মাণসহ সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা প্রয়োজন বলে মনে করেন স্থানীয়রা।  

অদ্ভুত সন্তান প্রসব করলো গৃহবধূ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক গৃহবধু দুই পা জোড়া লাগানো অবস্থায় এক অদ্ভুত সন্তান প্রসব করেছেন। স্বাভাবিক মানুষের জন্মের পরই দুই পা আলাদা থাকলেও শাহজাদপুরে জন্মগ্রহণ করা এ শিশুটির দুপা একসঙ্গে জোড়া লাগানো অবস্থায় জন্ম হয়েছে। সোমবার দুপুরে শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অস্ত্রপচারের পর (সিজার) দুটি শিশুর জন্ম হয়। জমজ শিশু দুটির মধ্যে স্বাভাবিক শিশুটি ছেলে ও পা জোড়া লাগানো অবস্থায় জন্মগ্রহণ করা শিশুটির শারিরীক গঠন দেখে ছেলে সন্তান বলে ধারনা করছেন চিকিৎসক। জমজ ছেলে সন্তানের মধ্য একটি সুস্থ ও স্বাভাবিকভাবে জন্মগ্রহণ করে বেঁচে আছে। কিন্তু পা জোড়া লাগানো অবস্থায় জন্মগ্রহণ করা এই শিশুটি জন্মের কিছু সময়ের পর মৃত্যু হয়। শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মাসুদ রানা এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, উপজেলার পোতাজিয়া গ্রামের ওই গৃহবধূ দুই পা জোড়া লাগানো অবস্থায় একটি শিশু সন্তান ও সুস্থ আর একটি শিশু সন্তান প্রসব করে। একটি সন্তানের শরীরের মাথা মুখমন্ডল স্বাভাবিক থাকলেও নাভীর নিচ থেকে পা’র পাতা পর্যন্ত অদ্ভুতভাবে জোড়া একটি সন্তান প্রসব করে। শরীরের অর্ধেক মানুষের আকৃতি আর অর্ধেক সাপের আকৃতিতে শিশুর জন্ম হয়েছে এমন গুজব দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে অদ্ভুত এই শিশু বাচ্চাটিকে দেখার জন্য হাসপাতালে ভীড় জমায়। তবে জমজ সন্তানের মধ্যে একজন বেঁচে থাকলেও অদ্ভুত আকৃতির শিশুটি মারা গেছে। এসএইচ/

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি