ঢাকা, বুধবার, ১৮ জুলাই, ২০১৮ ৩:০৭:৩০

পঞ্চগড়ের বালু বিদেশেও রফতানি সম্ভব (ভিডিও)

পঞ্চগড়ের বালু, যার সুনাম এখন চারদিকে। উন্নত গুণমানের কারণে দিন দিন বাড়ছে এর চাহিদা। সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পেলে, বিদেশেও রফতানি করা সম্ভব। এই বালি উত্তোলনের ফলে বাড়ছে নদীর নাব্যতা। মহানন্দা, করতোয়া, ডাহুকসহ পঞ্চগড় জেলায় ছোটবড় নদীর সংখ্যা ৩৩। রোজ এসব জলধারার অনেক জায়গায় বালু উত্তোলনে ব্যস্ত শ্রমিকরা। প্রতিদিন তোলা হয় অন্তত আড়াইশ ট্রাক বালু। যা সরবরাহ করা হয় বিভিন্ন জেলায়। এতে কর্মসংস্থান হয়েছে বহু মানুষের। উত্তরাঞ্চলের এই বালুর গুণগত মান খুবই ভালো বলে জানালেন সরকারি কর্মকর্তা। এই কর্মযজ্ঞের কারণে বাড়ছে নদীর নাব্যতা। ফলে সৃষ্টি হচ্ছে মাছ চাষের সুযোগ। পঞ্চগড়ের ১৫টি বালুমহাল ইজারা দেয়া হয়েছে। এ থেকে বছরে রাজস্ব আয় হয় এক কোটি ৩০ লাখ টাকা।

গাইবান্ধায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকের সংঘর্ষে ছাইদার রহমান (৫০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার ঘোড়াঘাট সড়কের বাগমারা ব্রিজ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল আলম দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নিহত ছাইদার একই উপজেলার নিমদাশের ভিটা গ্রামের মৃত বয়ান ব্যাপারীর ছেলে বলে জানা গেছে। ওসি মাহমুদুল আলম জানান, বুধবার রাতে দিনাজপুর থেকে ইজিবাইকে করে ছাইদার পলাশবাড়ী যাচ্ছিলেন। এ সময় মেরিরহাট বাগমাড়া ব্রিজ এলাকায় পৌঁছালে সিএনজিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে ইজিবাইকের সংঘর্ষে ছাইদার গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। একে//

গাইবান্ধায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

গ্রেফতারের একদিন পর গাইবান্ধায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছামছুল হক (৩৮) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন।পুলিশের দাবি, নিহত শামসুল ডাকাত দলের সদস্য ছিলেন। তিনি একাধিক ডাকাতি মামলার আসামি ছিলেন। শামসুলের বাড়ি পলাশবাড়ী উপজেলার বেতকাপা ইউনিয়নের সাকোয়া গ্রামে।রোববার ভোরে পলাশবাড়ী উপজেলার সাকোয়া ব্রিজ এলাকায় গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়কে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।গাইবান্ধা সদর থানার ওসি খান মো. শাহারিয়ার জানান, শনিবার দুপুরে যৌথ অভিযান চালিয়ে শামসুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তার তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ অস্ত্র উদ্ধার ও অন্য সঙ্গীদের গ্রেফতারে আজ ভোরে সাকোয়া ব্রিজ এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় শামসুলকে ছিনিয়ে নিতে তার সঙ্গীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে।একপর্যায়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে শামসুল গুলিবিদ্ধ হন। পরে উদ্ধার করে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।নিহতের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।নিহত শামসুল আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য ছিলেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় হত্যা ও ডাকাতির ১২টি মামলা রয়েছে বলে জানান ওসি।এসএ/  

গাইবান্ধায় বজ্রপাতে একই পরিবারের ৩ জনের মৃত্যু

গাইবান্ধার সাদুল্যাপুরে বজ্রপাতে মা ও ছেলেসহ একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার দুপুরে উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়নের দক্ষিণ সন্তোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃতরা হলেন- এই গ্রামের সবুজের স্ত্রী রাশেদা বেগম (৩৫), ছেলে আশিফ ওরফে জয় (১৪) ও ভাগ্নে কামাল হোসেনের ছেলে সিয়াম বাবু (১১)। ভাতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেজানুল ইসলাম বাবু জানান, দুপুরে বৃষ্টিপাত শুরু হয়। এ সময় দক্ষিণ সন্তোলা গ্রামের সবুজ মিয়ার নির্মাণাধীন বাড়ির একটি ঘরে অবস্থানকালে হঠাৎ বজ্রপাত হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে সাদুল্যাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রহিমা খাতুন বলেন, ঘটনার পর আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাই। মৃতদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হয়েছে। এসএইচ/

দিনাজপুরে আমের বাজার ধসে দিশেহারা চাষীরা

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে চলতি বছরের শুরু থেকে আমের জন্য অনুকূল আবহাওয়া বিরাজ করায় এ বছর আমের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে বাজারগুলোতে ব্যাপক আমের আমদানি হওয়ায় কেনাবেচায় ধস নেমেছে। এতে বিপাকে পড়েছেন স্থানীয় আম বাগান মালিক ও ব্যবসায়ীরা। নবাবগঞ্জে চলতি মৌসুমে আম বিদেশে রফতানির লক্ষ্যে উপজেলার মাহমুদপুর ফলচাষি সমবায় সমিতি লিমিটেডের বাগানিরা আম বাগানের নিবিড় পরিচর্যা শুরু করেছে। উপজেলা কৃষি অধিফতরের সহায়তায় বিষমুক্ত ও রফতানিযোগ্য আম উৎপাদনের জন্য তারা মনোসেক্স ফেরোমন ফাঁদ ও ফ্রুট ব্যাগিং পদ্ধতি ব্যবহারের করেছে। ইতিপূর্বে চাষিরা এর ওপর প্রশিক্ষণও গ্রহণ করেছে। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, আম চাষে জেলার সবচেয়ে উপযুক্ত ও নির্ভরযোগ্য এলাকা মাহমুদপুর ইউনিয়ন। আমের ভাল ফলন হওয়ায় ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামেই শত শত বিঘাতে আমের বাগান গড়ে তোলা হয়েছে। কৃষি জমিতে ধান, গম, সরিষা, আলুর সাথে সাথী ফসল হিসেবে উন্নতমানের হাড়িভাঙ্গা, আম্রপালি, বোম্বাই প্রজাতির আম চাষ হয় এবং চলতি বছরে ফলনও আশানুরূপ হয়েছে। মাহমুদপুর ফল সমবায় সমিতি লি.-এর সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, এ এলাকার আম গুণগতমান ভালো। এখানকার আম বিদেশে রপ্তানিকল্পে উপজেলা কৃষি অফিস ও উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে মানসম্মত আম উৎপানের জন্য গেল বছর চাঁপাইনবাবগঞ্জ আম গবেষণা কেন্দ্র থেকে গবেষকদের নিয়ে এসে আম চাষিদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।  এ বছর আমের বাম্পার ফলন হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে ও রোগ বালাই না থাকায় এবং রফতানিতে প্রক্রিয়ায় সহায়তা পেলে এ বছর নবাবগঞ্জ উপজেলা থেকে ১০০ মে: টন উন্নত জাতের আম বিদেশে রফতানি করার লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। নবাবগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু রেজা মো. আসাদুজ্জামান জানান, উপজেলাতে প্রায় ৮০৫ হেক্টর জমিতে আমচাষ করা হয়েছে। এ বছর উপজেলাতে ৫০ হাজার মে. টন আম উৎপাদনের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে আম উৎপাদনে চাষিদের সব ধরনের সহায়তা করা হচ্ছে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, নতুন ও পুরাতন মিলে এ বছর প্রায় ৮০৫ হেক্টর জমিতে আমবাগান রয়েছে, যা গত বছরের তুলনায় প্রায় ২৫ হেক্টর বেশি। গত মৌসুমে আমের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল  ৪০ হাজার মে. টন এবং বর্তমানে  উৎপাদন হয়েছে প্রায়  ৫০হাজার মে. টন আম।  এ বছর বেশিরভাগ বাগানে আম দেখা দেয়ায় এবং আবহাওয়া অনুকূল থাকায় লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে প্রায়  ৫০ হাজার মে. টন আম। এতে চলতি বছর এ অঞ্চলের আমবাগান মালিক ও ব্যবসায়ীদের কয়েক কোটি টাকা লোকসান হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আমের দাম কম থাকায় আগামী বছরের জন্য নতুন করে আমবাগান কেনাবেচাও হচ্ছে না। বিগত বছরগুলোতে বেশি লাভের আশায় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী ও বাগান মালিক মৌসুম শুরুর আগেই অপরিপক্ষ আম ভাঙ্গা শুরু করত। পরে তারা ওই আমের রং ভালো করতে বিভিন্ন রাসায়নিক ওষুধ ব্যবহার করত। যার কারণে সরকার আম বাজারজাতকরণে সময় নির্ধারণ করে দিয়েছে। আর এ কারণে একসঙ্গে সবাই আম ভাঙার কারণে আমের বাজারে ধস নেমেছে। মাহমুদপুরের আম বাগান মালিক মো. আবুল কাশেম বলেন, এ বছরের প্রথম থেকে আমের বাজারে প্রভাব পড়েছে। এছাড়া উৎপাদনের চেয়ে বাজারে আমের চাহিদা অনেক কম। যার ফলে আমের দাম বিগত বছরগুলোর তুলনায় অনেক কম হয়েছে। আমের ব্যাপক দরপতন হওয়ায় ধারণা করা হচ্ছে এ বছর আম ব্যবসায়ী ও চাষীদের কয়েক কোটি টাকা লোকসান হবে।  এসএইচ/

গাইবান্ধায় সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের কালিতলা এলাকায় যাত্রীবাহী একটি বাস উল্টে আব্দুল মালেক নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এই দুর্ঘটনায় তিন যাত্রী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।রবিবার দিবাগত রাতে দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।জানা গেছে, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নীলফামারীগামী একটি যাত্রীবাহী বাস কালিতলা এলাকায় পৌঁছালে চালক নিয়ন্ত্রণ হারায়। এতে বাসটি রাস্তার উপর উল্টে গেলে আব্দুল মালেক নামের এক ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই মারা যান ও তিনজন যাত্রী আহত হন।গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি মো. আকতারুজ্জামান সাংবাদিকদের জানান, বাসটিকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ঘটনার পরে বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে।এসএ/

রংপুরে ট্রাকের ধাক্কায় নিহত ৬

রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় বালুবাহী ট্রাকের ধাক্কায় ৬ বাসযাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১৩ জন।  তারাগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবদুল্লাহ হেল বাকী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলার পাগলাপীরের সলেয়াশাহ বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে নিশাত (২০) এবং সাজ্জাদ (১৯) নামে দুইজনের পরিচয় জানা গেছে। তারা দিনাজপুর শহরতলী এলাকার বাসিন্দা। বাকিদের পরিচয় জানা যায়নি। আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ইনচার্জ আবদুল্লাহ হেল বাকী জানান, দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী বিআরটিসির ডাবলডেকার ঈদ স্পেশাল বাসটির পেছনের চাকা ফেটে গেলে সেটি মেরামতের জন্য সলেয়াশাহ বাজার এলাকায় বাসটি অবস্থান নেয়। এসময় প্রচণ্ড গরমের কারণে যাত্রীরা বাস থেকে নেমে বাসের পেছনে রাস্তায় দাঁড়িয়েছিলেন। চাকাটি বদল করছিলেন বিআরটিসির চালক ও চালকের সহযোগী। মহাসড়কে দাঁড়িয়ে দেখছিলেন কয়েকজন যাত্রী। সিগন্যাল লাইট না জ্বালিয়ে বাসের চাকা মেরামতের সময় বালুবাহী একটি ট্রাক পেছন থেকে এসে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীদের চাপা দিয়ে বাসটির পেছনে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে দুই নারীসহ ৬ জন নিহত হন। নিহতরা সবাই পোশাক শ্রমিক। ঈদ শেষে তারা কর্মস্থলে ফিরছিলেন বলে জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা। একে//

স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে শিশুসহ নারীর বিষপানে আত্মহত্যা

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন এক নারী ও তার দেড় বছরের শিশু সন্তান। একই পরিবারের আরেক শিশুকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঠাকুরগাও আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বুধবার রাতে পারিবারিক কলহের জেরে উপজেলার চেংটি হাজরাডাংগা ইউনিয়নের শেওরাতলী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- মমতা রানীর (৩৫) ও তার দেড় বছরের ছেলে রাতুল চন্দ্র। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, পারিবারিক কলহের জেরে বুধবার সকালে শেওরাতলী গ্রামের জয়দেব রায়ের সঙ্গে তার স্ত্রী মমতা রানীর (৩৫) ঝগড়া হয়। রাতে বাড়ি ফিরে ভাত রান্না করা নিয়ে উভরয়ের মধ্যে আবারও ঝগড়া বাধে। পরে মমতা রানী তার দুই শিশু সেতু রানী ও রাতুল চন্দ্র রায়কে আমের রসের সঙ্গে বিষ পান করান। এ সময় তিনি নিজেও বিষ পান করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় পরিবারের অন্য সদস্যরা তাদের উদ্ধার করে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেওয়ার পথে মা মমতা রানী ও তার দেড় বছরের ছেলে রাতুল চন্দ্র রায় মারা যায়। মুমূর্ষু অবস্থায় ছয় বছরের শিশু কন্যা সেতু রানীকে ঠাকুরগাও আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দেবীগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরেই দুই শিশুকে বিষ পান করান তাদের মা মমতা। পরে তিনি নিজেও বিষ পান করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। আমরা আবও খোঁজ খবর নিচ্ছি। এ ঘটনায় আপাতত অপমৃত্যুর মামলা করা হচ্ছে। / এআর /

২শ’ বছরের পুরোনো আমগাছ দেখতে দর্শনাথীদের ভিড় (ভিডিও)

ঠাকুরগাঁওয়ের ৫টি উপজেলায় ছড়িয়ে রয়েছে অসংখ্য দর্শনীয় স্থান। এসব স্থানের মধ্যে অন্যতম বালিয়াডাঙ্গি উপজেলার প্রাচীন আমগাছ। প্রায় ২শ’ বছরের পুরোনো এই আমগাছ দেখতে রোজ ভিড় করেন দর্শনার্থীরা। আমগাছটি সংরক্ষণ করে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলার দাবি স্থানীয়দের। আম গাছটির ডালপালা এমনভাবে ছড়ানো, যা দূর থেকে দেখলে মনে হয় প্রশস্থ একটি পাহাড় অথবা বাগান। প্রায় ২শ বছরের পুরনো এই সূর্যপুরী জাতের গাছটির কারনে স্থানটি ঠাকুরগাঁও জেলার দর্শনীয় স্থানে পরিণত হয়েছে। জেলা শহর থেকে ২৫ কিলোমিটার দুরে বালিয়াডাঙ্গির মন্ডুমালা গ্রামে প্রায় দুই বিঘা জমি জুড়ে এই আমগাছ। গাছটি দেখতে প্রতিদিন আসেন দর্শনার্থীরা। কিন্তু বালিয়াডাঙ্গির এই গ্রামে পর্যটকদের জন্য নেই তেমন কোন সুুযোগ-সুবিধা। এদিকে ঠাকুরগাঁওয়ের দর্শনীয় স্থানগুলো সংরক্ষণে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। ঐতিহ্যবাহী আম গাছটি সংরক্ষন করে এখানে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলার দাবি দর্শনার্থী ও স্থানীয়দের।

ঠাকুরগাঁওয়ে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ১

ঠাকুরগাঁওয়ে বিআরটিসি বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে আব্দুর রহিম নামে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৩০ জন। আহতদের ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার সকাল ৭টায় ঠাকুরগাঁও-ঢাকা মহাসড়কের ২৯ মাইল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।  ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহত আব্দুর রহিম বাসের হেলপার ছিলেন বলে জানা গেছে। তিনি বগুড়া জেলার সুত্রাপুরের বাসিন্দা।  পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকালে পঞ্চগড় থেকে ছেড়ে আসা যাত্রী ভর্তি একটি বিআরটিসি বাস ঠাকুরগাঁও মহাসড়কের ২৯ মাইল নামক স্থানে পৌঁছালে অপরদিক থেকে ছেড়ে আসা একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে অন্তত ৩১ জন আহত হন। এ সময় গাড়ির নিচে চাপা প‌ড়া বা‌সের হেলপা‌র রহিমের ডান পা কে‌টে তাকে উদ্ধার ক‌রে ফায়ার সা‌র্ভি‌সের কর্মীরা। পরে তাকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রহিম। এছাড়া আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। একে//

পঞ্চগড়ে বড় ভাইকে হত্যার অভিযোগ

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় পারিবারিক কলহের জেরে রেজাউল করিম লেবু (৪৫) নামে একজনকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় আরেক ভাই ওমর ফারুক আহত হন। ঘটনার পর থেকে ছোট ভাই মিনহাজ আলী (২২) পলাতক রয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার কাজলদীঘি কালিয়াগছ ইউনিয়নের গেদেরকুড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।  পঞ্চগড় সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সুদর্শন কুমার রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে গেদেরকুড়ি বাজারে ওই এলাকার সিরাজ উদ্দিনের বড় ছেলে রেজাউল করিম লেবুর সঙ্গে তার ছোট ভাই মিনহাজ আলীর কথাকাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে মিনহাজ তার পান দোকানের শুপারি কাটার ছুরি দিয়ে বড় ভাইকে এলোপাতাড়ি আঘাত করে। আহতাবস্থায় রাত ১২টার দিকে লেবুকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। জানা গেছে, ছয় ভাই এবং তিন বোনের মধ্যে রেজাউল করিম লেবু সবার বড় এবং মিনহাজ আলী সবার ছোট। একে//

রংপুরে বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

রংপুরের কাউনিয়া উপজেলায় যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের তিনজন আরোহী নিহত হয়েছেন।  কাউনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মামুনুর রশীদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে কাউনিয়া রেলগেট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।  নিহতরা হলেন- আব্দুস সাত্তার সাক্কু (৫৫), আবুল কালাম (২৫) ও সোলেমান (২৮)। পুলিশ জানিয়েছে, কাউনিয়া থেকে রংপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাস দ্রুত বেগে যাওয়ার সময় রংপুর থেকে কাউনিয়ামুখী একটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই দুজন মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হন। পরে কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর আরো একজনের মৃত্যু হয়। একে//

রংপুরে পাওনা টাকা চাওয়ায় যুবক খুন

রংপুরের বদরগঞ্জে পাওনা টাকা আদায় করতে গিয়ে রেজাউল করিম (১৮) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। বদরগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিসুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে পৌর শহরের স্টেশন পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রেজাউল করিম বদরগঞ্জ উপজেলার কালুপাড়া ইউনিয়নের গোয়ালাপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে বলে জানা গেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বদরগঞ্জ পৌরসভার বটপাড়া এলাকার নুর ইসলামের ছেলে ফিরোজ শাহর কাছে রেজাউলের বড় ভাই হাবিবুর ৩০ হাজার টাকা পেতেন। সোমবার রাতে রেজাউলের সঙ্গে ফিরোজের দেখা হলে তাদের মধ্যে পাওনা টাকা নিয়ে কথা কাটাকটির একপর্যায়ে রেজাউলকে ছুরিকাঘাত করেন ফিরোজ। এতে রেজাউল গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। একে//

রংপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

রংপুরে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আবু মুসা ওরফে বিষকালাই (২৬) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। রংপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে নগরীর কুকরুল ফুল আমেরতল তিন রাস্তার মোড়ে বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশি পিস্তল, ১৭৭ পিস ইয়াবা ও ৫২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত আবু মুসা নগরীর হনুমানতলা বস্তি এলাকার আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে বলে জানা গেছে। তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় ১২টি মাদকের মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ সুপার সাইফুর রহমান জানান, কুকরুল ফুল আমেরতল এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীরা অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সেখানে অভিযানে যায়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি ছোঁড়লে আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এতে মাদক ব্যবসায়ী আবু মুসা ওরফে বিষকালাই নিহত হন। একে//

চাকরি বাঁচাতে আখ চাষে চিনি শ্রমিকরা (ভিডিও)

ক্রমাগত লোকসানে ঠাকুরগাঁওয়ে প্রকৃত চাষীরা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন আখ চাষ থেকে। তবে চাকরি বাঁচাতে ও বকেয়া আদায়ে আখ চাষ করছেন চিনিকলের শ্রমিক-কর্মচারীরা। এদিকে, উৎপাদিত চিনি বিক্রি করতে না পারায় বেতন পরিশোধ করা যাচ্ছে না বলে জানায় মিল কর্তৃপক্ষ। আখক্ষেতে কর্মরত এরা কেউ প্রকৃত চাষী নন। চিনিকলের শ্রমিক-কর্মচারী তারা। আখের অভাবে বন্ধ হবার উপক্রম কল। আর চিনিকল না থাকলে চাকরিও থাকবে না তাদের। এমনিতেই বকেয়া পাঁচ মাসের বেতন-ভাতা। তাই কল বাঁচাতে নিজেরাই নেমেছেন আখচাষে। সময়মতো টাকা পরিশোধ না করা, উন্নত বীজ ও কীটনাশক সরবরাহে গড়িমসি এবং অন্য ফসল চাষে বেশি লাভবান হওয়ায়, আখচাষে দিন দিন আগ্রহ হারাচ্ছেন জেলার চাষীরা। বর্তমানে ৪ হাজার ৯৪৩ মেট্রিক টন চিনি পড়ে আছে জানিয়ে মিল কর্মকর্তা জানান, সময়মতো বিক্রি না হওয়ায় এমন সংকট তৈরি হয়েছে। সংকট কাটাতে জেলায় এবার ৮ হাজার একর জমিতে আখ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ হলেও আবাদ হয়েছে ৬ হাজার একর জমিতে।

হাড়িভাঙ্গা আমের বাম্পার ফলন, ন্যায্যমূল্য বঞ্চিত চাষীরা (ভিডিও)

রংপুরের জনপ্রিয় হাড়িভাঙ্গা আমের বাম্পার ফলন হলেও ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন না। আম চাষীদের অভিযোগ সংরক্ষনের ব্যবস্থা না থাকায় লাভ চলে যায় মধ্যস্বত্বভোগিদের কাছে। এদিকে, বেনাপোলে প্রশাসনের বেধে দেয়া সময়ের আগেই আম পেকে গেলেও বাজারজাত করতে না পেরে লোকসানে চাষীরা। ১০ বছর আগে হাড়িভাঙ্গা আম উৎপাদন শুরু হয় রংপুরের বদরগঞ্জের পদাগঞ্জে।  পরে মিঠাপুকুর উপজেলার খোড়াগাছসহ বিভিন্ন এলাকায় বাণিজ্যিক ভিত্তিতে আমের বাগান গড়ে উঠে। এ আম আঁশ মুক্ত ও সুস্বাদু হওয়ায় চাহিদা রয়েছে সারাদেশে। মুলত লালমাটি এলাকায় এই আমের চাষ হয়। এবার ফলনও হয়েছে বাম্পার। ব্যবসায়ীরা আগাম টাকা দিয়ে আম বাগান কিনে নেয়ায় ন্যায্যমূল্য পায়না বলে অভিযোগ ক্ষুদ্র চাষীদের। তবে কৃষি কর্মকর্তারা বলছেন আম সংরক্ষনের জন্য পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। রংপুরে ১ হাজার ৫৬০ হেক্টর জমিতে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও তার থেকে বেশী জমিতে আম চাষ হয়েছে। কৃষি বিভাগ আশা করছে, ২০ হাজার মেট্রিক টনের বেশী ফলন হবে হাড়িভাঙ্গা আমের। এদিকে যশোরের বেনাপোলসহ শার্শায় আম পাকা শুরু হয়েছে প্রশাসনের বেধে দেয়া সময়ের আগেই। কিন্তু জুনের প্রথম সপ্তাহের আগে বাজারহাত নিষেধ থাকায় বিপাকে পড়েন চাষীরা। চলতি বছর শার্শা উপজেলায় ৩৯০ হেক্টর জমিতে আমের আবাদ হয়েছে।

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি