ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭ ২:৩৫:৫৩

জবি ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

জবি ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ‘ডি’ ইউনিটের অনার্স (সম্মান) ১ম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। সোমবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এবার জবির ‘ডি’ ইউনিটে ৫৮০টি আসনের বিপরীতে মোট ২৮ হাজার ৭৪৯ জন পরীক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করেছিলেন। তবে পাস করেছেন মাত্র ২ হাজার ৮৯৮ জন শিক্ষার্থী।  ‘ডি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে www.jnu.ac.bd পাওয়া যাবে। আর ভর্তি সংক্রান্ত পরবর্তী কার্যক্রমের তথ্যাদি পরবর্তীতে জানানো হবে বলে জানানো হয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।   আর / এআর
ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার ‘ঘ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ করা হয়েছে। প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগের মধ্যেই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার সবচেয়ে কম সময়ের মধ্যে এ প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। আজ দুপুর ২ টা ২০ মিনিটে ফল প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত ফলে দেখা যাচ্ছে, উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১০ হাজার ২৬৪। ফলে দেখা যাচ্ছে ৮৫ দশমিক ৬৫ শতাংশ পরীক্ষার্থী-ই অনুত্তীর্ণ হয়েছেন। অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৬১ হাজার ২৭৬। ‘ঘ’ ইউনিটের ফল admission.eis.du.ac.bd ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে। শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ডের নাম, পাসের সাল এবং মাধ্যমিক পরীক্ষার রোল নম্বরের মাধ্যমে তাদের ফল জানতে পারবেন। এছাড়া যেকোনো মোবাইল ফোন থেকে DU<>GHA<>Roll টাইপ করে ১৬৩২১ নম্বরে এসএমএস পাঠিয়েও ফল জানা যাবে।

যুক্তরাজ্যে উচ্চশিক্ষা নিতে চান, আবেদন করুন এখনই

যুক্তরাজ্য সরকারের অর্থায়নে সম্পূর্ণ বিনা খরচে সেদেশের লেখাপড়ার সুযোগ এসেছে। বহির্বিশ্বের শিক্ষার্থীদের জন্য এবারও শিভেনিং স্কলারশিপ অফার করেছে যুক্তরাজ্য সরকার। যারা যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মাস্টার্স কিংবা পিএইচডি করতে চান তারা আবেদন করুন এখন থেকেই।  আবেদনের শেষ তারিখ : ৭ নভেম্বর ২0১৭ যোগ্য আফ্রিকান দেশ : উন্নয়নশীল দেশগুলি স্কলারশিপ দেওয়া হয়: ১৯৮৩ সাল থেকে বৃত্তির সংখ্যা: ১৫০০ যেসব বিষয়ে পড়া যাবে : যুক্তরাজ্যর যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজনীতি, সরকার, ব্যবসা, গণমাধ্যম, পরিবেশ, নাগরিক সমাজ, ধর্ম ইত্যাদি বিষয়ে পড়ার সুযোগ রয়েছে। স্কলারশিপ সম্পর্কিত কিছু তথ্য : যাদের শক্ত একাডেমিক ভিত্তি ও যাদের মধ্যে নেতৃত্ব-সম্ভাবনা আছে তাদেরকে শিভেনিং স্কলারশিপ প্রদান করা হয়। এই বৃত্তিটি যুক্তরাজ্যের নেতৃস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে মাস্টার্স ডিগ্রি এবং ৪৪ হাজার প্রাক্তন ছাত্রীদের প্রভাবশালী বিশ্বব্যাপী নেটওয়ার্কের অংশ হওয়ার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করে থাকে। ২০১৮-১৯ সেশনের জন্য বিশ্বব্যাপী আনুমানিক ১৫০০টি শিভেনিং স্কলারশিপ রয়েছে। এই বৃত্তি পরবর্তী বিশ্ব নেতা তৈরির ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যের উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগের কথা তুলে ধরে।   যোগ্যতা একটি শিভেনিং স্কলারশিপের জন্য যোগ্য হতে হলে আপনাকে অবশ্যই নিম্ন লিখিত বিষয়গুলোর শিভেনিং-যোগ্য দেশের নাগরিক হতে হবে। স্কলারশিপ শেষ হওয়ার পর দুই বছরের মধ্যে নিজ দেশে ফিরে আসতে হবে। যুক্তরাজ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে প্রবেশ করতে হলে আপনার অস্নাতক ডিগ্রি থাকতে হবে। এটি সাধারণত যুক্তরাজ্যের উচ্চতর দ্বিতীয় শ্রেণীর ২:১ সম্মান ডিগ্রীর সমতুল্য। অন্তত দুই বছর কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।   যেভাবে আবেদন করবেন:  শেভেনিং বৃত্তি জন্য আবেদন করার জন্য অনলাইনে একটি আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে এবং জমা দিতে হবে। নিচের লিংকে গিয়ে আবেদন করা যাবে: http://www.chevening.org/apply স্কলারশিপ সম্পর্কে বিস্তারিত নিচের লিংকে http://scholarship4all.com/uk-uk-government-fully-funded-chevening-scholarship-international-students-2018/   এমআর/ এআর      

রাত ৮টার মধ্যে টিএসসি বন্ধের নির্দেশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক চর্চার কেন্দ্রবিন্দু। সাংবাদিক সমিতিসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে এখানে । এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) সব ধরনের কার্যক্রম রাত আটটার মধ্যে শেষ করার নির্দেশ দিয়েছে । টিএসসির পরিচালক মহিউজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, টিএসসিতে অবস্থিত সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোকে  নিরাপত্তার স্বার্থে নিজ নিজ কার্যক্রম রাত আটটার মধ্যে শেষ করতে হবে। তবে কাজের স্বার্থে  কর্তৃপক্ষের বিশেষ অনুমতি নিয়ে  রাত ১১টা পর্যন্ত তাদের কাজ চালিয়ে যেতে পারে। এম/ এআর

ঢাবি প্রশ্নপত্র ফাঁস : ছাত্রলীগের রানা বহিষ্কার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটের প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে আটক ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক মহিউদ্দিন রানাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন শাহজাদা শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন । বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে সিআইডি এবং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শহীদুল্লাহ হলে তার নিজ কক্ষ থেকে প্রশ্ন ফাঁসের উপযোগী ডিভাইসসহ আটক করে। তার কাছ থেকে জব্দ করা প্রশ্ন ফাঁসের বিভিন্ন অডিও, ভিডিও ক্লিপস। যা সিআইডির হেফাজতে রয়েছে বলে জানা গেছে। রানা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ২০১১-২০১২ সেশনের শিক্ষার্থী। তিনি ছাড়াও ১৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এদিকে, শুক্রবার সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার (এসএস) মোল্লা নজরুল ইসলাম এক ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন, একটি বিশেষ কমিউনিকেশনস ডিভাইসের মাধ্যমে প্রশ্নের সমাধান দেওয়ার জন্য ৫ লাখ টাকার চুক্তি করেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক ও পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ২০১১-২০১২ সেশনের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন রানা। তার সহযোগী হিসেবে ছিলেন একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়নের ২০১৪-২০১৫ সেশনের শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ মামুন। তিনি জানান, জালিয়াতির ঘটনায় আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা বিষয়টি স্বীকার করেছেন। ডব্লিউএন

ঢাবির সব হলের খাবারের দাম এক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সব হলের ক্যান্টিনে খাবারের নতুন মূল্যতালিকা প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। নতুন তালিকা অনুযায়ী হলের ক্যান্টিনগুলোতে সকাল, দুপুর ও রাতে একই মূল্যে বিভিন্ন খাবার পাবেন শিক্ষর্থীরা। গত সোমবার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এক সভায় নতুন এই মূল্যতালিকা সুপারিশ করা হয়। নতুন মূল্যতালিকা অনুযায়ী সকালের খাবারে দাম রাখা হবে প্রতিটি পরোটার মূল্য তিন টাকা, ডাল, ভাজি বা সবজি পাঁচ টাকা, ডিম ভাজি ১০ টাকা, ফুল প্লেট খিচুড়ি ১২ টাকা ও হাফ প্লেট খিচুড়ি ছয় টাকা। এছাড়া সকাল ও রাতে ফুল প্লেট ভাত ছয় টাকা, হাফ প্লেট ভাত তিন টাকা, মুরগির মাংস ২০ টাকা, ভাতের সঙ্গে মুরগির মাংস ও ডাল ৩০ টাকা, গরুর মাংস ৩০ টাকা, ভাতের সঙ্গে গরুর মাংস ও ডাল ৪০ টাকা,  তেলাপিয়া বা পাঙ্গাস বা নলা মাছ বা ছোট মাছ বা শুটকি মাছ ১৮ টাকা, ভাতের সঙ্গে তেলাপিয়া বা পাঙ্গাস বা নলা মাছ বা ছোট মাছ বা শুটকি মাছ ২৮ টাকা, রুই বা কাতলা মাছ ২২ টাকা ও ভাতের সঙ্গে রুই বা কাতলা মাছ ও ডাল ৩২ টাকা। গত ১১ অক্টোবর ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আক্তারুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রভোস্ট কমিটির সভায় সব হলের খাবারের মূল্য তালিকা এক করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরে বিভিন্ন হলের আবাসিক শিক্ষক ও ১৫ জন ক্যান্টিন মালিকের উপস্থিতিতে এক সভায় তিনি নতুন এ মূল্যতালিকা সুপারিশ করেন।   আর/এআর

ঢাবির ‘ক’ ও ‘চ’ ইউনিটের ফল জানবেন যেভাবে

২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ও চারুকলা অনুষদভুক্ত ‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান আনুষ্ঠানিকভাবে এ ফল প্রকাশ করেন।      শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট এবং মোবাইল ফোন থেকে পরীক্ষার ফলাফল জানতে পারবেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট admission.eis.du.ac.bd থেকে ফলাফল জানতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। এ ছাড়া ‘ক’ ইউনিটের শিক্ষার্থীরা যেকোনো অপারেটরের মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে DU স্পেস Kh স্পেস (ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর) লিখে ১৬৩২১ নম্বরে পাঠালে ফিরতি এসএমএসে ফল জানতে পারবেন। ‘চ’ ইউনিট থেকে DU স্পেস cha স্পেস (ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর) লিখে ১৬৩২১ নম্বরে পাঠালে ফিরতি এসএমএসে ফল জানতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, এ বছর বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটে পাশের হার ২৩ দশমিক ৩৭ শতাংশ এবং ‘চ’ ইউনিটে পাশের হার ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ। ‘ক` ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয় ৮২ হাজার ৪৫৩ শিক্ষার্থী এবং ‘চ’ ইউনিটে ১১ হাজার ৭২জন শিক্ষার্থী ভর্তি পরিক্ষায় অংশ নেয়। আর/এআর

সংঘর্ষের পর বন্ধ ঘোষণা তাজউদ্দীন মেডিকেল কলেজ

শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শিক্ষার্থী ও আউটসোর্সিং কর্মচারীদের মধ্যে সংঘর্ষের পর অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সংঘর্ষে সাতজন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দুইপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। শিক্ষার্থীদের আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মো. আসাদ হোসেন গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে গতকাল সোমবার মেডিকেল কলেজের কয়েকজন উত্তেজিত ছাত্র হাসপাতালের এক্স-রে কক্ষ ও আসবাব ভাংচুর এবং আউট সোসিং কর্মচারীদের মারধর করে। সোমবার দুপুরে এক ছাত্র তার মাকে এক্স-রে করাতে গিয়ে কথা কাটাকাটি থেকে এ ঘটনার সূত্রপাত হয়। এসময় ছাত্ররা হাসপাতালের অনিয়ম, অব্যবস্থার প্রতিবাদ জানায় এবং আউট সোর্সিং ঠিকাদারের বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়। পরে জয়দেবপুর থানা পুলিশ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে পরিস্থিতি শান্ত করে। মঙ্গলবার সকালে আউট সোর্সিং কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এলাকায় বিক্ষোভ করে। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দুইপক্ষ মুখোমুখি হলে সংঘর্ষ বেধে যায়। এতে সাতজন আহত হয়। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য মেডিকেল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।   আর/এআর        

জবিতে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসে তদন্ত কমিটি গঠন

২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক পরীক্ষায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের   ‘এ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সোমবার সকালে এ তথ্য জানানো হয়েছে। তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. সরকার আলী আক্কাসকে ।ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. মনিরুজ্জামান এবং ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আতিয়ার রহমানকে সদস্য করা হয়েছে। এর আগে ১৩ অক্টোবর অনুষ্ঠিত ‘এ’ ইউনিটের (বিজ্ঞান অনুষদ ও লাইফ অ্যান্ড আর্থ সায়েন্স অনুষদ অন্তর্ভুক্ত) ভর্তি পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ আগে ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁস হয় বলে গণমাধ্যমে খবর বের হয়। তিন পরীক্ষার্থীর মোবাইলে প্রশ্নপত্রের স্ক্যান কপি ধরা পড়ে। প্রশ্নপত্র ফাঁসের এ  বিষয়টি খতিয়ে দেখের জন্য তিন সদস্যের এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। এম

সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেন ঢাবি শিক্ষক

কদিন আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষকদের বিরুদ্ধে কিছু অনিয়মের অভিযোগ তুলেছিলেন বিভাগটির সাবেক চেয়ার‍ম্যান ড. আবু মূসা মো. আরিফ বিল্লাহ। এ কারণে তার বিরুদ্ধে চক্রান্ত করে ছাত্রীকে দিয়ে অভিযোগ আনা হয়েছে বলে শনিবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনের এক ‌পর্যায়ে তিনি সাংবাদিকদের সামনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। বিভাগের বিভিন্ন অনিয়ম নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করায় তার বিরুদ্ধে ছাত্রীকে দিয়ে কটুক্তি ও ইভটিজিং করার অভিযোগ আনার প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি এ সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে অধ্যাপক আবু মূসা মো. আরিফ বিল্লাহ বলেন, ঢাবির সাবেক প্রক্টর অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান একটি গবেষণা প্রবন্ধ, অন্যজনের বই নিজের নামে প্রকাশসহ বিভিন্ন জালিয়াতি ধরিয়ে দিই। এ কারণেই ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবদুস সবুর খান ও বিশ্ববিদ্যালয় সাবেক প্রক্টর অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান ষড়যন্ত্র করে আমার বিরুদ্ধে এক ছাত্রীর মাধ্যমে ইভটিজিংয়ের অভিযোগ করিয়েছেন। মূলত ষড়যন্ত্র করে আমার বিরুদ্ধে ঘৃণিত এই অভিযোগ আনা হয়েছে।   তিনি আরও বলেন, যখন আমার পদোন্নতির সময় হয় তখনই আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়। আমি বিদেশে থাকাকালে চেয়ারম্যান কক্ষে আমার একটি আলমারি ছিল। যেখানে কিছু দূষ্প্রাপ্য বই ও ব্যাক্তিগত ডকুমেন্ট ছিলো। আমি বিদেশ থেকে এসে দেখি সেই আলমারি নেই। ২০১৬ সালে  সাবেক চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রক্টর অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খানের কাছে আলমারি ফেরত চাই। তিনি আমাকে বলেন, ‘আলমারী আমার বাসায় আছে, দিয়ে দেব।’ কিন্তু এতদিন না দেওয়ায় আমি আলমারি ফেরত চেয়ে গত ৯ অক্টোবর উপাচার্য বরাবর আবেদন করি। কিন্তু এর পরদিন হঠাৎ আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয় আমি কটুক্তি করেছে। যা আমাকে অফিসিয়ালি জানানো হয়নি। আবার কাউকে না জানিয়ে গত ১১ অক্টোবর জরুরি অ্যাকাডেমিক বৈঠকের চিঠি আসে যে, ১২ অক্টোবর জরুরি বৈঠক হবে।” ঢাবির এই অধ্যাপক বলেন, বৈঠকে চেয়ারম্যান একটা দরখাস্ত সবাইকে পাঠ করে শোনান। যেখানে কটুক্তি করেছে এমন কোনো শব্দ ছিল না। তখন আমি দরখাস্তের একটা কপি চাইলে আমাকে কোনো কপি দেওয়া হবে না বলে জানান। আমি কপি চেয়েছি কারণ, পরে এই দরখাস্ত না জানি আবার পাল্টে দেওয়া হয়। আমাকে কপি দেওয়া হয় না। এই সময় বিভাগের চেয়ারম্যান বলেন, ‘এই দরখাস্তে মেয়ে তো শাস্তির জন্য আবেদন করেন নি।’ এ সময় পেছনে বসা  সাবেক প্রক্টর সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘শাস্তির কথা উল্লেখ আছে। নীচ থেকে দুই নাম্বার লাইনে বাম পাশে শাস্তির কথা উল্লেখ আছে।’ এই সময় আমি বললাম, আপনি পেছন থেকে কীভাবে দেখলেন কোথায় শাস্তির কথা উল্লেখ আছে। এই সময় চেয়ারম্যান বৈঠক মূলতবী করে দেন।” আবু মূসা বলেন, অ্যাকাডেমিক বৈঠকে বলা হলো, আমি কটুক্তি করেছি। অথচ ইভটিজিংয়ের অভিযোগে এখন ভিসি অফিসে পাঠানো হয়েছে। আমি চক্রান্তের শিকার। আমাকে ফাসানোর জন্য এসব মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে।’   এমআর/এআর

জবিতে ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি)  ২০১৭- ২০১৮ শিক্ষাবর্ষের ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরুর আগেই চার পরীক্ষার্থীদের কাছে প্রশ্ন পাওয়া গেছে। শুক্রবার বিকালে পরীক্ষা শেষে ওই শিক্ষার্থীদের প্রার্থিতা বাতিল করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর নূর মোহাম্মদ বলেন, পরীক্ষা শুরুর আগে কিছু শিক্ষার্থীদের আটক করে তাদের মোবাইল জব্দ করা হয়। মোবাইলে থাকা প্রশ্নের স্কেনকপির সঙ্গে পরীক্ষার প্রশ্নের হুবহু মিল পাওয়ায় তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক রুনা লায়লা তাদের প্রার্থিতা বাতিল করে। পরীক্ষার্থীরা হলেন- শওকত হোসেন চৌধুরী (রোল-১০৬৯৭৭), আয়শা আক্তার লতা (রোল-১০২৫৮৬), মেহেদী হাসান (রোল-১০৮২৬৮) ও নাজমুল ইসলাম (রোল-১০৫৩১৭)। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, যে পদ্ধতিতে আমরাবার কোড, কালার কোড ও ভিন্ন ভিন্ন সেটে পরীক্ষা নিয়ে থাকি যা ফাঁকি দেওয়া জালিয়াত চক্রের সাধ্যের বাইরে। আমরাই প্রথম প্রশ্ন ফাঁস রোধে বারকোড ও কালার কোড পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছি। তা এখন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় অনুসরণ করছে। এখানে ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের কোনো সুযোগ নেই। উল্লেখ্য, শুক্রবার বিকাল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত জবিসহ ২৭টি পরীক্ষা কেন্দ্রে একযোগে বিজ্ঞান অনুষদ ও লাইফ অ্যান্ড আর্থ সায়েন্স অনুষদ অন্তর্ভুক্ত ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা হয়। এই ইউনিটের ৭৯৭টি আসনের বিপরীতে ৫৯ হাজার ৪৩৩ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার আবেদন করেছিলেন।   আর/এআর

ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি, আটক ১০

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ‘ক’ ইউনিটের প্রথম বর্ষ সম্মান শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে ১০ জনকে আটক করা হয়েছে। আজ শুক্রবার সকাল ১০টা ‘ক’ ইউনিটের ভর্তিপরীক্ষা শুরু হয়। শেষ হয় বেলা সাড়ে ১১টায়। আটককৃতদের ২ জনকে ঢাবির বিজনেস ফ্যাকাল্টি থেকে, ৪ জনকে বোরহান উদ্দিন পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কলেজ কেন্দ্র থেকে, একজনকে লালমাটিয়া মহিলা কলেজ কেন্দ্র থেকে আটক করা হয়। এ ছাড়া আরও তিনজনকে বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে আটক করা হয়েছে। ঢাবির বিজনেস ফ্যাকাল্টি থেকে আটক নূর আলম ও আল ইমরানকে ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরের মোট ৮৭টি কেন্দ্রে এই ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজারীবাগের লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউটসহ ক্যাম্পাসের বাইরের কেন্দ্রগুলো হলো- নীলক্ষেত হাই স্কুল, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, ড. শহীদুল্লাহ কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ,অগ্রণী স্কুল অ্যান্ড কলেজ,গভর্নমেন্ট টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাই স্কুল, ঢাকা সিটি কলেজ, আইডিয়াল কলেজ, নিউ মডেল ডিগ্রি কলেজ, লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, লালমাটিয়া উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, গভর্নমেন্ট সায়েন্স কলেজ, উইল্স লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজ, সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ, নটরডেম কলেজ, মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আইডিয়েল স্কুল এন্ড কলেজ, শেখ বোরহানুদ্দীন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজ, ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ এবং আহমেদ বাওয়ানী একাডেমি স্কুল অ্যান্ড কলেজ। উল্লেখ্য, এ বছর ১ হাজার ৭৬৫টি আসনের জন্য আবেদন করেন ৮৯ হাজার ৫০৬ জন ।   আর/টিকে  

ঢাবির ‘ক’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ‘ক’ ইউনিটের প্রথম বর্ষ সম্মান শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে পরিক্ষা চলে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরের মোট ৮৭টি কেন্দ্রে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজারীবাগস্থ লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউটসহ ক্যাম্পাসের বাইরের কেন্দ্রগুলো হলো- নীলক্ষেত হাই স্কুল, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, ড. শহীদুল্লাহ কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, অগ্রণী স্কুল অ্যান্ড কলেজ, গভর্নমেন্ট টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাই স্কুল, ঢাকা সিটি কলেজ, আইডিয়াল কলেজ, নিউ মডেল ডিগ্রি কলেজ, লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, লালমাটিয়া উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, গভর্নমেন্ট সায়েন্স কলেজ, উইল্স লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ, নটরডেম কলেজ, মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আইডিয়েল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, শেখ বোরহানুদ্দীন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজ, ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ এবং আহমেদ বাওয়ানী একাডেমি স্কুল অ্যান্ড কলেজ। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন বা টেলিযোগাযোগ করা যায় এমন কোনো ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস/যন্ত্র সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। পাশাপাশি পরীক্ষা চলাকালীন মোবাইল কোর্ট দায়িত্ব পরিচালনা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, এ বছর ১৭৬৫টি আসনের জন্য ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীর সংখ্যা ৮৯ হাজার ৫০৬ জন।   আর/টিকে

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি