ঢাকা, রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৭ ৫:০৬:০৯

মিশরে জঙ্গি হামলায় ৫৩ নিরাপত্তা কর্মী নিহত

মিশরে জঙ্গি হামলায় ৫৩ নিরাপত্তা কর্মী নিহত

জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে মিশরের নিরাপত্তা বাহিনীর ৫৩ জন সদস্য নিহত হয়েছেন। দেশটির রাজধানী কায়রোর দক্ষিণ-পশ্চিমে বাহারিয়া মরুভূমির কাছে জঙ্গিদের একটি আস্তানায় অভিযান চালাতে গিয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা হামলার শিকার হন। এ সময় জঙ্গিগোষ্ঠীর অন্তত ১৫ জন নিহত হন। মিশরের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, হাসম নামের একটি জঙ্গিগোষ্ঠীর সদস্যরা হামলাটি চালিয়েছে। আভিযানিক দলের মধ্যে পুলিশ ও সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা ছিলেন। সংঘর্ষ শুরু হলে নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে উন্মুক্ত গুলি ছোড়ে জঙ্গিরা। এতে নিরাপত্তা বাহিনীর ৫৩ জন সদস্য এবং হাসমের ১৫ জন জঙ্গি নিহত হন।
আফগানিস্তানে শিয়া মসজিদে আত্মঘাতী হামলা, নিহত ৪০

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে একটি শিয়া মসজিদে আত্মঘাতী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৪০ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ওই হামলায় আহত হয়েছেন আরও ৪৫ জন। আহতদের অনেকের অবস্থা অাশঙ্কাজনক; সে ক্ষেত্রে নিহতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, শুক্রবার মাগরিবের নামাজের সময় কাবুলের পশ্চিমাংশে দাস্ত-ই-বারসি এলাকার ইমাম জামান মসজিদে ওই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। কাবুলের একজন জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেছেন, ঘটনাস্থল থেকে অন্তত ৪০ জনের লাশ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তবে হতাহতের প্রকৃত সংখ্যা নিয়ে তারা এখনও নিশ্চিত হতে পারেননি। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেজর জেনারেল আলিমাস্ট মোমেন্ড এপি`কে জানান, হামলাকারী মসজিদের ভিতর প্রবেশ করে বিস্ফোরণ ঘটায়।

২৩ অক্টোবর ঢাকা আসছেন সুষমা

দুই দিনের বাংলাদেশ সফরে আগামী ২৩ অক্টোবর ঢাকা আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। এই সফরে তিনি ভারতের অর্থায়নে বাস্তবায়ন করা ১৫ টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে নেওয়া সিদ্ধান্তগুলোর বাস্তবায়ন নিয়ে পর্যালোচনা হবে সুষমার সফরে। ২৩ অক্টোবর ১৫টি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন সুষমা। এ উপলক্ষে ঢাকায় দিল্লি হাইকমিশনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। গত এক মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো দেশটির শীর্ষ কোনো মন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে আসছেন। এর আগে আসেন ভারতের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। তার সফরে রোহিঙ্গা ইস্যুও প্রাধান্য পাবে। সফরে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর পারস্পারিক সফরে নেওয়া বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নিয়ে পর্যালোচনা করবে দুই দেশের যৌথ কমিশন। এর আগে ২০১৫ সালের জুনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলাদেশ সফরে আসেন। আর চলতি বছর এপ্রিলে ভারত সফরে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভারত-বাংলাদেশ যৌথ কমিশনে সভাপতিত্ব করবেন সুষমা স্বরাজ ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী। এ বৈঠকে তিস্তা পানি বন্টন চুক্তি নিয়ে আলোচনা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও বৈঠক করবেন তিনি। আর/ডব্লিউএন

কারাগারে রাম রহিমকে মিস্টি খাওয়ালেন স্ত্রী

দুই অনুসারীকে ধর্ষণের দায়ে সাজা পাওয়ার ৫০ দিন পর কারাগারে ভারতের স্বঘোষিত ‘ধর্মগুরু’ গুরমিত রাম রহিম সিংয়ের সঙ্গে দেখা করেছেন তার স্ত্রী হরজিৎ কৌর। গত সোমবার বিকেলে পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে রাম রহিমের স্ত্রী হরজিৎ কৌর। কারাগারে রাম রহিমের সঙ্গে স্ত্রী হরজিৎ কৌরসহ পরিবারের সদস্যরা আধা ঘণ্টা সময় কাটিয়েছেন। এ সময় তারা রাম রহিমকে দীপাবলির মিষ্টি ও শীতের পোশাক দিয়ে গেছেন। হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, হরজিৎ কৌরের সঙ্গে ছিলেন তাঁদের ছেলে জসমিত ইনসান, পুত্রবধূ হুসানপ্রীত ইনসান, মেয়ে চরণপ্রীত ও মেয়ে অমরপ্রীতের স্বামী রুহ-ই-মিত। কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে চারটি গাড়িতে করে তারা সানোরিয়া কারাগারে পৌঁছান। কারাগারে থাকা রাম রহিমের সঙ্গে পরিবারের অন্য সদস্যদের এটা তৃতীয় সাক্ষাৎ হলেও স্ত্রী হরজিতের এটাই প্রথম দেখা। এর আগে রাম রহিম কারাগারে যাদের সঙ্গে দেখা করতে চান তাদের একটি তালিকা সানোরিয়া কারা কর্তৃপক্ষকে দিয়েছেলেন। ১০ জনের এই তালিকায় স্ত্রী হরজিৎ কৌরের নাম না থাকলেও হানিপ্রীতের নাম রয়েছে। রাম রহিমের দেওয়া তালিকায় তার মা নসিব কৌর, পালিত কন্যা হানিপ্রীত, ছেলে জসমিত ইনসান, পুত্রবধূ হুসানপ্রীত ইনসান, মেয়ে অমরপ্রীত ও চরণপ্রীত, জামাই শান-ই-মিত ও রুহ-ই-মিত, ডেরার ব্যবস্থাপক বিপাসনা এবং দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত দান সিংহের নাম রয়েছে। এমনকি কারাগারে যাওয়ার সময় হানিপ্রীতের সঙ্গে জেলে রাত্রিবাস করার আবেদন করেছিলেন রাম রহিম। সেই আবেদন খারিজ করে দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। কারাগারে দেখা করতে চাওয়া স্বজনদের তালিকায় নাম না থাকা সত্ত্বেও হরজিত কৌরকে কীভাবে রাম রহিমের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পেয়েছেন তা জানা যায়নি। উল্লেখ্য, দুই নারী ভক্তকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের হওয়া দুটি মামলায় গত ২৫ আগস্ট রাম রহিমকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। এরপর রাম রহিমকে নেওয়া হয় রোহতক শহর থেকে ১০ কিলোমিটার দূরের সানোরিয়া কারাগারে।   সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস এমআর/এআর    

পাকিস্তানে পুলিশ ভ্যানে বিস্ফোরণ : নিহত ৭, আহত ২২

বিস্ফোরণে রক্তাক্ত পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশের রাজধানী কোয়েটা ৷ ভয়াবহ বিস্ফোরণে ৭ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত ও ২২ পুলিশ আহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় বুধবার বেলুচিস্তান প্রদেশের রাজধানী কোয়েটা শহরের সিবি রোডে ভয়াবহ এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে । পাকিস্তানের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ঘটনাস্থল সিবি রোড এলাকায় পুলিশের টহল ভ্যানে করে ৩৫ জন পুলিশ যাচ্ছিলেন৷ সেই সময় এ বিস্ফোরণ ঘটানো ঘটে। বেলুচিস্তান প্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সরফরাজ বুগতি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ৭ জন পুলিশ নিহত এবং ২২ জন পুলিশ আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আহত পুলিশ সদস্যদের মধ্যে অন্তত ৮ জনের অবস্থা গুরুত্বর বলে হাসপাতাল সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে সূত্র: দ্য ডন এম/এআর  

যেকোনো সময় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যুদ্ধ বাঁধতে পারে : উত্তর কোরিয়া

শান্তি প্রতিষ্ঠায় উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনার কোনো অবকাশ নেই৷ মঙ্গলবার এমনটাই জানিয়েছে মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের ডেপুটি সেক্রেটারি জন জে সুলিভান৷ অন্যদিকে যেকোন সময় যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে পারমাণবিক যুদ্ধ লেগে যেতে পারে ৷ এমনই হুঁশিয়ারি দিয়েছে জাতিসংঘে নিযুক্ত উত্তর কোরিয়ার উপরাষ্ট্রদূত কিম ইন-রিয়ং ৷ যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক সিটিতে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে স্থানীয় সময় সোমবার নিরস্ত্রীকরণ কমিটির কাছে কিম এমন আশঙ্কার কথা জানান। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র শক্তি জাপান উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যেকোন আলোচনার টেবিলে বসতে নারাজ৷ যুক্তরাষ্ট্রের  পক্ষ থেকে জানান হয়েছে, আলোচনার টেবিলে বসে নয়, কূটনীতির মাধ্যমে সমস্যা সমাধানে আগ্রহী তারা এবং ওয়াশিংটন স্পষ্ট  জানিয়েছে, তাদের মিত্র জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে রয়েছে তারা ৷ গুয়াম,যুক্তরাষ্ট্রের প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকায় ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার হুমকির পর উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামরিক শক্তিধর রাষ্ট্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে স্নায়ুযুদ্ধ তুঙ্গে ওঠে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা একের পর এক উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন। উত্তর কোরিয়া নিয়ে কিছুদিন আগেই একটি কড়া বিবৃতি দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ তিনি বলেছিলেন , উত্তর কোরিয়ার ক্ষেত্রে “একটিমাত্র জিনিসই কাজ করবে”৷  তবে কী সেই জিনিষ তা নিয়ে মুখ খোলেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট৷ ট্যুইটারে ট্রাম্প বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ও কর্তৃপক্ষ উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে ২৫ বছর ধরে কথা বলছে৷ অনেক চুক্তি হয়েছে ও অনেক টাকা দেওয়া হয়েছে৷ কিন্তু কোন কাজ হয়নি৷ সূত্র:আল-জাজিরা ও রয়টার্স এম/এআর

কারাগারে খাওয়া-ঘুম হারাম হানিপ্রীতের, দেখতে চান রাম রহিমকে

কারাগারে একদম ভালো নেই ভারতের স্বঘোষিত ‘ধর্মগুরু’  ধর্ষক গুরমিত রাম রহিম সিংয়ের পালিত ‘মেয়ে’ প্রিয়াঙ্কা তানেজা ওরফে হানিপ্রীত ইনসান। কারাগারের প্রথম রাতে তিনি কিছুই খাননি। এমনকি নির্ঘুম কাটিয়েছেন সারা রাত। ভারতের ‘দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া’র খবরে এমনটাই বলা হয়েছে। হরিয়ানা রাজ্যের আম্বালা কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি রয়েছেন হানিপ্রীত। সঙ্গে রয়েছেন তাঁর সহযোগী সুখদীপ কাউর। দু’জনকে আলাদা করে রাখা হয়েছে। গত শুক্রবার কারাগারে যাওয়ার পর রাতের খাবার খাননি হানিপ্রীত। রাতে ঘুমাননি ঠিকমতো। সেখানে পৌঁছানোর পর বারবার পালক ‘বাবা’ রাম রহিমের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছেন তিনি। এদিকে হানিপ্রীতের শারীরিক অবস্থা একেবারেই স্বাভাবিক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। কারাগারে কঠোর নিয়মকানুন মেনে চলতে হচ্ছে তাকে। শনিবার ভোর ৬ টায় তাকে ঘুম থেকে তুলে দেওয়া হয়। এরপর গোসল করে নাশতায় দেওয়া হয় দুই টুকরা রুটি। গত শুক্রবার হরিয়ানার পঞ্চকুলা আদালত হানিপ্রীতকে কারাগারে পাঠনোর নির্দেশ দেন। পাঞ্জাব রাজ্যের জিরকাপুর-পাতিয়ালা মহাসড়কে গাড়ি থেকে এক নারীসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হানিপ্রীতকে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়। দুই নারী ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে গত ২৫ আগস্ট হরিয়ানার পঞ্চকুলার আদালত রাম রহিমকে দোষী সাব্যস্ত করে। এরপর ছড়িয়ে পড়ে সহিংসতা। রাম রহিমের ভক্তরা পুলিশের উপর হামলা চালায়, গাড়ি ভাঙচুর করে ও বিভিন্ন স্থানে অগ্নিসংযোগ করে। এতে ৪১ জন নিহত ও প্রায় ২০০ জন আহত হয়। ২৫ আগস্টের এই সহিংসতার পেছনে নিজের হাত ছিল বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেন হানিপ্রীত। সূত্র: দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া এমআর/ডব্লিউএন

এমন অনেক ট্রাম্পকে আমরা মাটিতে পুঁতেছি: এসমাইল ঘানি

ইরানের সঙ্গে বহুল আলোচিত পারমাণবিক চুক্তি থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরে আসার হুমকিতে বেজায় ক্ষেপেছে ইরান। দেশটির সামরিক বাহিনী কুদস ফোর্সের ডেপুটি কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এসমাইল ঘানি তো সরাসরিই মৌখিক আক্রমণ করে বসেছেন ট্রাম্পকে। পাল্টা হুমকির দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘এমন অনেক ট্রাম্পকে আমরা মাটিতে পুঁতেছি।’ শুক্রবার ট্রাম্পের ওই হুমকির পরে কুদস ফোর্সের ডেপুটি কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার পাল্টা এ হুমকি দেন। ঘানি বলেন, ‘আমরা যুদ্ধবাজ দেশ নই। ইরানের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের সামরিক পদক্ষেপ নিলে আফসোস করতে হবে। ইরানকে ট্রাম্পের হুমকি যুক্তরাষ্ট্রেরই ক্ষতি করবে। আমরা এমন অনেক ট্রাম্পকে মাটিতে পুঁতেছি। আর এটাও জানি কীভাবে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধের মাঠে নামতে হয়।’ এর আগে শুক্রবারেই ইরান সরকারকে ‘অতি গোঁড়া’ আখ্যায়িত করে দেশটির সঙ্গে পরমাণু চুক্তি থেকে সরে আসার হুমকি দেন ট্রাম্প। এ সময় তিনি ইরানকে ‘সন্ত্রাসের পৃষ্ঠপোষক’ বলেও মন্তব্য করেন । এছাড়া দেশটির ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞার পরিকল্পনার কথাও জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ট্রাম্প আরো বলেন, ২০১৫ সালে বিশ্ব শক্তিগুলোর সঙ্গে করা চুক্তির শর্তগুলো ইতিমধ্যেই লঙ্ঘন করেছে ইরান। তবে এই চুক্তির মধ্য দিয়ে পারমাণবিক স্থাপনায় পরমাণু সমৃদ্ধকরণ কমিয়ে এনেছিল ইরান। বিনিময়ে ইরানের ওপর থেকে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছিল। চুক্তির শর্তগুলো ইরান পুরোপুরি মেনে চলছে বলে জানায় আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকরাও। তবে ট্রাম্প এই চুক্তি থেকে সম্পূর্ণভাবে সরে আসবেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কারণ ট্রাম্প স্পষ্ট করে বলে দিয়েছেন যে, কংগ্রেস যদি চুক্তির বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত না নেয়, তাহলে তিনি নিজেই সেটি বাতিল করবেন।   সূত্র: তাসনিম নিউজ এজেন্সি এমআর/এআর

ইরানের পরমাণু চুক্তি থেকে সরে আসার হুমকি ট্রাম্পের

২০১৫ সালে তেহরানের সঙ্গে করা পরমাণু  চুক্তি থেকে সরে আসার হুমকি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় শুক্রবার দেওয়া আক্রমণাত্মক এক ভাষণে ট্রাম্প এই হুমকি দেন। এ চুক্তি থেকে ওয়াশিংটনের সমর্থন প্রত্যাহারের ঘোষণাসহ তেহরানের বিরুদ্ধে আরও ‘আগ্রাসী কৌশল’ নেয়ার কথাও ভাবছেন ট্রাম্প। দীর্ঘ ২৯ বছর পর ২০১৫ সালে ওয়াশিংটন ও তেহরানের মধ্যে প্রেসিডেন্ট পর্যায়ে একাধিক আলোচনা-সংলাপের ধারাবাহিকতায় ইরানের বিতর্কিত পরমাণু কর্মসূচি বিষয়ে ইরান ও বিশ্বের ছয় শক্তিশালী দেশের (পি৫+১) মধ্যে এক সমঝোতা চুক্তি সই হয়।  মার্কিন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এ চুক্তি থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট তার সমর্থন তুলে নিলে দেশটির কংগ্রেস ইরানের ওপর পুনরায় নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়টি বিবেচনা করতে ৬০ দিন সময় পাবে। তারপর প্রেসিডেন্টের অনুমোদনক্রমে আবারও ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারে দেশটি। এর আগে  বৃহস্পতিবার রাতে দেশটির গণমাধ্যম ফক্স নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ‘আমার দেখা মতে এই সমঝোতা সবচেয়ে অদক্ষতার মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। আমরা ইরানকে ১৫ হাজার কোটি ডলার পরিশোধ করেছি। কিন্তু বিনিময়ে যুক্তরাষ্ট্র কিছুই পায়নি। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে আরও জানা যায়, এ বিষয়ে ইউরোপ ও চীনে সমপর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে শলা-পরামর্শ করছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন। যদিও চীন-যুক্তরাজ্য-ফ্রান্সসহ পশ্চিমা মিত্ররা যুক্তরাষ্ট্রকে এ চুক্তিতে থাকতে বলছে। তবে ট্রাম্প তার নির্বাচনী প্রচারণায় দেয়া অঙ্গীকার থেকেই এ চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার হুমকি দিলেন । ২০১৩ সালের ২৪ নভেম্বর সুইজারল্যান্ডের জেনেভোয় ইরান ও জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী পাঁচ সদস্যরাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, রাশিয়া, চীন ও জার্মানির মধ্যে এ অন্তর্বর্তীকালীন সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। আর ২০১৫ সালে চুক্তি সইয়ের মধ্য দিয়ে চূড়ান্ত রূপ পায়। এ সমঝোতা অনুযায়ী, ইরানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ ৫ শতাংশে সীমিত থাকবে। তারা নতুন কোন সেন্ট্রিফিউজ চালু করতে পারবে না এবং তাদের পারমাণবিক চুল্লির নকশা আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থার (আইএইএ) কাছে সরবরাহ করতে দায়বদ্ধ থাকবে। তবে প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হওয়া থেকেই ইরানের বিরুদ্ধে বাকযুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছেন বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইরানের সঙ্গে পশ্চিমা ৬ দেশের পরমাণু চুক্তি বাতিল করারও হুমকি দিয়ে চলেছেন তিনি। তার মতে, ইরান এ চুক্তির মূলমন্ত্র  অমান্য করছে, সুতরাং যুক্তরাষ্ট্র এ চুক্তিতে আর থাকতে পারে না। সূত্র:বিবিসি,রয়টার্স এম/এআর

বাঘিনীর মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখল ভারতের আদালত

দুই বছর বয়সী এক মানুষখেকো বাঘিনীকে হত্যার পরোয়ানা বহাল রেখেছে ভারতের একটি আদালত। এই বাঘিনীর হাতে এ পর্যন্ত চারজন মানুষ প্রাণ হারান।   এর আগে মানুষখেকো এ বাঘিনীকে গত ২৩ জুন হত্যার নির্দেশ জারি করে মহারাষ্ট্রের বন বিভাগ। কিন্তু মহারাষ্ট্রের আদালতে এই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে পশু অধিকার কর্মীরা। গত জুলাই মাসে মহারাষ্ট্রের ব্রাহ্মপুরিতে বাঘিনীটি দুজন মানুষকে হত্যা করে। এসময় তার আক্রমণে আহত হয় আরও চারজন। এরপর বন বিভাগের হাতে এটি ধরা পড়ে। পরে রেডিও কলার পরিয়ে এটিকে আবারও একটি টাইগার রিজার্ভে ছেড়ে দেওয়া হয়। কিন্তু ছাড়া পাওয়ার পর এই বাঘিনীর হামলায় আরও দুজন মানুষ প্রাণ হারান। তারপর বন বিভাগ এটিকে গুলি করে হত্যার নির্দেশ দেয়। কিন্তু আদালতে সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করেন পশু অধিকার কর্মী ড. জেরিল বানাইট। তাদের যুক্তি ছিল, এটিকে গুলি করে না মেরে চেতনানাশক বুলেট ছুঁড়ে ধরা হোক। তারপর দূরের কোন জঙ্গলে ছেড়ে দেয়া হোক। এই মানুষখেকো বাঘিনী নিয়ে ইতোমধ্যে পুরো অঞ্চলে আতংক তৈরি হয়েছে। বন বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, কালা নামের এই বাঘিনী গত ২৯শ জুলাই সংরক্ষিত বনে ঢোকার পর এ পর্যন্ত পাঁচশো কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। রেডিও কলার দিয়ে এটি গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, বিশ্বে যত বাঘ আছে, তার ৬০ শতাংশই ভারতে। কিন্তু বনাঞ্চল ধ্বংসের ফলে এবং শিকারিদের উৎপাতে বাঘের সংখ্যা এখন অনেক কমে গেছে। ২০১৫ সালে ভারতে ৮০টি বাঘ মারা গেছে। এর আগের বছর মারা গেছে ৭৮ টি।   আর/এআর

বাঘিনীর মৃত্যুপরোয়ানা বহাল রাখলো ভারতের আদালত

দুই বছর বয়সী এক মানুষখেকো বাঘিনীকে হত্যার পরোয়ানা বহাল রেখেছে ভারতের এক আদালত। এই বাঘিনীর হাতে চারজন মানুষের জীবন যাওয়ার পর এটিকে হত্যার জন্য গত ২৩শে জুন নির্দেশ জারি করে মহারাষ্ট্রের বন বিভাগ। কিন্তু পশু অধিকার কর্মীরা মহারাষ্ট্রের আদালতে এই নির্দেশ চ্যালেঞ্জ করে। গত জুলাই মাসে মহারাষ্ট্রের ব্রাহ্মপুরিতে বাঘিনীটি দুজন মানুষকে হত্যা করে। এটির আক্রমণে আহত হয় আরও চারজন। এরপর বন বিভাগের হাতে এটি ধরা পড়েছিল। কিন্তু রেডিও কলার পরিয়ে এটিকে আবার একটি টাইগার রিজার্ভে ছেড়ে দেয়া হয়। কিন্তু ছাড়া পাওয়ার পর এই বাঘিনীর হামলায় নিহত হয়েছে আরও দুজন মানুষ। এরপরই বন বিভাগ এটিকে গুলি করে হত্যার নির্দেশ দেয়। কিন্তু আদালতে সেটি চ্যালেঞ্জ করেন পশু অধিকার কর্মী ড. জেরিল বানাইট। তাদের যুক্তি ছিল, এটিকে গুলি করে না মেরে চেতনানাশক বুলেট ছুঁড়ে ধরা হোক। তারপর দূরের কোনো জঙ্গলে ছেড়ে দেয়া হোক। কিন্তু এই মানুষখেকো বাঘিনী নিয়ে ইতোমধ্যে পুরো অঞ্চলে আতংক তৈরি হয়েছে। বন বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, কালা নামের এই বাঘিনী গত ২৯শে জুলাই সংরক্ষিত বনে ঢোকার পর এ পর্যন্ত পাঁচশো কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। রেডিও কলার দিয়ে এটি গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। বিশ্বে যত বাঘ আছে, তার ষাট শতাংশই ভারতে। কিন্তু বনাঞ্চল ধ্বংসের ফলে এবং শিকারিদের উৎপাতে বাঘের সংখ্যা কমে গেছে অনেক। ২০১৫ সালে ভারতে ৮০টি বাঘ মারা গেছে। এর আগের বছর মারা গেছে ৭৮ টি। সূত্র : বিবিসি বাংলা। ডব্লিউএন

ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার ও রাজনীতিক ইমরান খানের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি) এ পরোয়ানা জারি করে। ডন অনলাইনের খবরে বলা হয়, মামলার শুনানির জন্য আদালতে হাজির হতে বারবার ব্যর্থ হওয়া ও এর জন্য লিখিত ক্ষমা না চাওয়ায় পরোয়ানা জারি করা হয়। ইরমান খানকে গ্রেপ্তার করে আগামী ২৬ অক্টোবর পরবর্তী শুনানিতে হাজির করতে নির্দেশ দিয়েছে ইসিপি। পিটিআই প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও দল থেকে বেরিয়ে যাওয়া রাজনীতিক আকবর এস বাবর তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননা মামলা দায়ের করেন। পিটিআইয়ের মুখপাত্র নায়েমুল হক জানিয়েছেন, ইসলামাবাদ হাইকোর্টে এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানার বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ করবে তাদের দল। বৃহস্পতিবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি (অব.) সরদার মুহাম্মদ রাজার নেতৃত্বে মামলার শুনানি শুরু হয়। ইমরান খান হাজির না হওয়ায় শুনানি স্থগিত করে তার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। এর আগে ১৪ সেপ্টেম্বর ইমরান খানের বিরুদ্ধে একই অভিযোগে জামিনযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ইসিপি। তবে ইসলামাবাদ হাইকোর্ট তা স্থগিত করে। আরকে/ডব্লিউএন

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি