ঢাকা, শনিবার, ২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৩:২৬:৪৫

কনসার্টে মেজাজ হারালেন অরিজিৎ

কনসার্টে মেজাজ হারালেন অরিজিৎ

অরিজিৎ সিং। যার গলার মেলোডিতে আচ্ছন্ন হয় সঙ্গীতপ্রেমীরা। তিনি স্টেজে উঠলে গানের জাদুতে বাঁধা পড়েন অনেকেই। তবে এবার সেই সুরেই দেখা দিলো ছন্দ পতন। মেজাজ হারালেন তিনি। সম্প্রতি ইন্টারনেটে অরিজিৎ সিংয়ের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। কনসার্টে রণবীর কাপুরের ‘রকস্টার’ সিনেমা থেকে ‘নাদান পরিন্দে’ গানটি মাত্র শুরু করেছিলেন অরিজিৎ। হঠাৎ করেই মাইকে সমস্যা হওয়ায় অরিজিৎ সিংয়ের মেজাজ বিগড়ে যায়। চটে যান তিনি। এ সময় কিছু অশ্রাব্য ভাষা বেরিয়ে আসে তাঁর মুখ থেকে। চটজলদি টেকনিশিয়ানসরা এসে মাইক ঠিক করেন। এ সময় স্টেজের মধ্যে গিটার নিয়ে ঘোরাফেরা করেন ক্ষুব্ধ অরিজিৎ। তারপর অবশ্য সবকিছু ভুলে আবারও গান শুরু করেন সাম্প্রতিক কালের রকস্টার অরিজিৎ সিং। সে গান শুনে যাথারীতি মুগ্ধ শ্রোতারা। প্রসঙ্গত, ‘নাদান পরিন্দে’ গানটি সিনেমাতে গেয়েছেন মোহিত চৌহান। সূত্র : জি নিউজ এসএ/
সোহেল খানের ‘দিল’ গানে নকলের গুঞ্জন (ভিডিও)

সম্প্রতি সংগীতার ব্যানারে মুক্তি পায় সোহেল আলী খানের ‘দিল রে দিল’ গানটি। মুক্তির পর থেকেই গানটি নিয়ে নকলের গুঞ্জন উঠেছে। গানটি নিয়ে অভিযোগ ওপার বাংলার জনপ্রিয় নায়ক জিৎ এর অভিনীত একটি চলচ্চিত্রের গানকে নকল করে এটি করা হয়েছে। মিউজিক ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন মামুনুর রশিদ রোকন। ক্যামেরায় ছিলেন এম এইচ লিটন। গানটির সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন জাহিদ বাশার পংকজ। এ বিষয়ে মডেল সোহেল আলী খান বলেন, যে কোনো গানের ক্ষেত্রেই কিছু না কিছু মিল থাকতে পারে। কিন্তু কাউকে নকল করার কোনো ইচ্ছে আমার নেই। আমি চেষ্টা করছি ভালো কিছু করার।   নির্মাতা মামুনুর রশিদ রোকন বলেন, অনেকেই গানটি নিয়ে স্যোশাল মিডিয়ায় কমেন্টস করছেন। এ ক্ষেত্রে আমি বলবো আপনারা আগে গানটি দেখেন। এখানে নকলের কিছু নেই। এর কথাগুলো অনেক সুন্দর। ‘তোমার লাগি কাঁন্দে আমার দিল’ এ কথাগুলো অনেকেরই মন ছুঁয়েছে।  এসি/টিকে

ঘর ভেঙেছে আনুশকার

দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটিয়েছেন ভারতের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী আনুশকা শঙ্কর। কিংবদন্তী সঙ্গীতজ্ঞ রবীশঙ্করের মেয়ে তিনি। তার স্বামী ব্রিটিশ নির্মাতা জো রাইট। ৪৫ বছর বয়সী এ নির্মাতার সঙ্গে সাত বছরের দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটিয়েছেন ভারতের জনপ্রিয় এই সঙ্গীতশিল্পী। ২০১৭ সালের ১১ আগস্ট বিয়ের সপ্তম বার্ষিকী পালন করেন এই দম্পত্তি। ওই সময় ফেসবুকে আনুশকা লিখেছিলেন, ‘আজ থেকে সাত বছর আগে আমার স্বামী আমাকে বিয়ের প্রস্তুাব দিয়েছিল। যেটা খুবই রোমান্টিক ছিল।’ কিন্তু গত মাসে লন্ডনে ও লস অ্যাঞ্জেলেসে স্বামী জো রাইট নির্মিত সিনেমার প্রিমিয়ারে ছিলেন না আনুশকা শঙ্কর। তখন থেকেই শুরু হয় গুঞ্জন। অবশেষে বিচ্ছেদের বিষয়টি প্রকাশ হয়েছে। জো রাইট ও আনুশকার দুটি সন্তান রয়েছে। উল্লেখ্য, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী চার্চিলের জীবনী নিয়ে নির্মিত ‘ডার্কেস্ট আওয়ার’ সিনেমার জন্য প্রশংসার বন্যায় ভাসছেন জো রাইট। ব্রিটিশ নির্মাতার বৃহস্পতি এখন তুঙ্গে। কিন্তু পর্দার আড়ালের চিত্রটা পুরোই বিপরীত। সূত্র : ডেইলি মেইল এসএ/    

সুরকার ফুয়াদ ক্যানসারে আক্রান্ত

সুরকার ও সংগীত পরিচালক ফুয়াদ আল মুক্তাদির। রোববার দিনের শুরুতেই ভক্তদের মন খারাপ করা মত এক সংবাদ দিলেন নিজের ফেসবুক পেজে। এক ভিডিও বার্তায় ফুয়াদ বলেন, তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত। সম্প্রতি তাঁর দেহে ক্যানসারের জীবাণু থাকার বিষয়েটি নিশ্চিত হয়েছেন চিকিৎসকেরা। ভিডিওতে ফুয়াদ আরও বলেন, ‘গত সপ্তাহে আমি চিকিৎসকের পরামর্শে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করেছি। আমার শরীরে প্যাপিলারি কারসিনোমা ধরা পড়েছে। এটা থাইরয়েড ক্যানসার। তবে কোন পর্যায়ে আছে, তা এই মুহূর্তে বলতে পারছি না। থাইরয়েড ক্যানসার হচ্ছে সব ক্যানসারের মধ্যে সহজে নিরায়মযোগ্য। এই অসুখ নিয়ে অনেকে অনেক দিন বেঁচে থাকেন। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।’ ছোটবেলা থেকে ফুয়াদের জীবনের একটা বড় সময় কেটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। পড়াশোনার পাশাপাশি গান নিয়ে ব্যস্ত রেখেছেন নিজেকে। গানের টানে একসময় বাংলাদেশে ফিরে আসেন ফুয়াদ। বাংলাদেশের গানের জগতে একটা বড় পরিবর্তনে ইতিবাচক ভূমিকা রাখেন তিনি। তরুণ প্রজন্মের অনেক শিল্পী তাঁর সুর আর সংগীত পরিচালনায় গান গেয়ে জনপ্রিয় হয়েছেন। কাজ দিয়ে সংগীতাঙ্গনের সবাইকে আপন করে নেন তিনি। এবার দীর্ঘ দিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে পরিবার নিয়ে আছেন ফুয়াদ। সেখানে থাকলেও বাংলা গানের চর্চা নিয়মিতই করছেন। রোববার সকালে হঠাৎ জানালেন, তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত। ফুয়াদের ক্যানসার আক্রান্তের খবরে গানের জগতের অনেকেই সহানুভূতি জানিয়েছেন। তাঁরা সবাই ফুয়াদকে ধৈর্য ধরার পরামর্শ দিয়েছেন।উল্লেখ্য, ফুয়াদ ১৯৮৮ সালে আট বছর বয়সে বাংলাদেশ ছেড়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চলে যান এবং সেখানে একটি জুনিয়র স্কুলে ভর্তি হন। তিনি সবসময় সঙ্গীত নিয়ে ব্যস্ত থাকতেন। মধু, হিমেল, শুমন এবং ফ্রেডকে সঙ্গে নিয়ে ১৯৯৩ সালে তিনি একটি ব্যান্ড দল ‘যেফির’ গঠন করেন। ১৯৯৯ সালে ব্যান্ড ভেঙে যাওয়ার পূর্ব পর্যন্ত তারা অনেকগুলো গান রেকর্ড করে। তারা যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরের বাংলাদেশী বসবাসকারীদের জন্য দুইটি এ্যালবাম মায়া-১ এবং মায়া-২ বের করেন।যেফির ব্যান্ড ছেড়ে আসার পর তার প্রথম রেকর্ড হয় ‘রি-এভুলেশন’। অবস্কুর ব্যান্ডের কীবোর্ড বাদক সোহলে আজিজের সহায়তায় এই এ্যালবামটি বের হয়। এটিতে প্রধান গায়ক ও গৌণ গায়কের গাওয়া ১৪টি গান অন্তর্ভুক্ত আছে। এই এ্যালবামে আসল গানের পাশাপাশি একই গানের রিমিক্স গান অন্তর্ভুক্ত আছে। লিটুর ‘সিলতি’ অনীলা নাজ চৌধুরীর ‘ঝিলমিল’, আমরিন মুসার ‘ভ্রমর কইয়ো’ এবং ‘মন চাইলে মন’ এর রি-মিক্সড গান এই এ্যালবামে অন্তর্ভুক্ত আছে। ফুয়াদ’স ভ্যারিয়েশন নং. ২৫ প্রযোজিত হয় ২০০৬ সালে। ২০০৬ সালে এরপর জি-সিরিজ এবং আরশির ব্যনারে এই এ্যালবামে আরও দুইটি নতুন গান অন্তর্ভুক্ত করে পূর্বের এ্যালবামটি ভ্যারিয়েশন নং. ২৫.২ নামে পুনরায় বের করা হয়। এই এ্যালবামের কয়েকটি গানের মধ্যে - পুনমের ‘নবীনা’, রাজিব/ফুয়াদের ‘নিটোল পায়ে’ এবং বাপ্পা মজুমদারের ‘কোন আশ্রয়’। ফুয়াদের ‘বন্য’ এ্যালবামটি বের হয় ২০০৭ সালে জি-সিরিজের ব্যানারে। এই এ্যালবামের কয়েকটি গানের মধ্যে রয়েছে- উপলের ‘তোর জন্য আমি বন্য’, ফুয়াদ/বিসপের ‘বন্য র‍্যাপ’, ফুয়াদের ‘জংলী’, ‘দা-দুষ্ট নাম্বার’ এবং নিটোল পায়ে (লাইভ)। এছাড়া ফুয়াদ আরও কিছু এ্যালবামে কাজ করেছেন। এগুলো মধ্যে - সুমন ও অনীলা’র ‘এখনো আমি’, তপুর (যাত্রী’র কন্ঠে) ‘বন্ধু হবে কি?’, ফুয়াদ ফিচারিং কনা, ফুয়াদ ফিচারিং মালা, ফুয়াদ ফিচারিং মিলা ‘রি-ডিফাইন্ড’ এবং ফুয়াদ ফিচারিং বিভিন্ন শিল্পী ‘ক্রমান্বয়’ বের হয় ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে। তিনি শেরিন, অনীলা, সুমন, তপু এবং অন্যান্য শিল্পীদের বিভিন্ন একক ও মিক্সড এ্যালবামেও কাজ করেছেন। এসএ/  

সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন বেবী নাজনীন

কন্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন। সুর দিয়ে শ্রোতাদের খুব কাছে টেনে নিয়েছেন এই সঙ্গীত শিল্পী। এবার তিনি ভিন্ন রূপে হাজির হচ্ছেন সবার সামনে। রাজনীতিতে সরব হচ্ছেন তিনি। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নীলফামারী-৪ আসনে (সৈয়দপুর-কিশোরগঞ্জ) লড়তে যাচ্ছেন এই ব্লাক ডায়মন্ড। সম্প্রতি সৈয়দপুর জেলা বিএনপি কার্যালয়ে তিনি এ ঘোষণা দেন। বেবী নাজনীন বলেন, ‘সামনে নির্বাচন, আপনাদের সঙ্গে থেকে কাজ করতে চাই। এ নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করছি। আপনাদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করে যাবো। দল চাইলে আগামী সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হবো।’ বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহ-সম্পাদক বেবী নাজনীন আরও বলেন, ‘দলকে সংগঠিত করে আগামী দিনে আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।’ সৈয়দপুর জেলা বিএনপি কার্যালয়ে এসময় আরও ছিলেন দলের সহ-সভাপতি এহসানুল হক, পৌর বিএনপি সভাপতি শামসুল আলম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট ওবায়দুর রহমান, বিএনপি নেতা প্রভাষক শওকত হায়াৎ শাহ, যুবদল সভাপতি আনোয়ার হোসেন প্রামানিক, ছাত্রদল সভাপতি রেজোয়ান হোসেন পাপ্পু, ছাত্রদল নেতা দিনার প্রমুখ। এসএ/

মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে হাবিব-শার্লিনা (ভিডিও)

প্রকাশ পেয়েছে হাবিব ওয়াহিদ ও ফুয়াদ আল মুক্তাদিরের মিউজিক ভিডিও ‘চলো না’। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান গানচিল ১২ জানুয়ারি রাতে অন্তর্জালে এটি প্রকাশ করেছে। আসিফ ইকবালের কথায় হাবিব-ফুয়াদের সুর, কণ্ঠ আর সংগীতের পাশাপাশি ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন তানিম রহমান অংশু। গানটিতে আলাদা একটি মাত্রা যোগ করেছেন নির্মাতা। ভিডিওটিতে হাবিবের বিপরিতে আছেন মডেল শার্লিনা। ভিডিওটির শুটিং হয়েছে শ্রীলঙ্কায়। সেখানে ২৬ ও ২৭ ডিসেম্বর শুটিং করেন তিনি। প্রকাশিত ভিডিও দেখে দর্শক মুগ্ধ। কারণ এটি প্রকাশের পর থেকেই প্রশংসা কুড়াচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। প্রকাশের পর এক রাতেই গানটির ভিউ অতিক্রম করেছে লাখের ঘর। ইউটিউবে মন্তব্যও আসছে অনেক। অধিকাংশই প্রশংসামূলক। তবে গানটিতে কিছু বিজ্ঞাপন কৌশল ব্যবহারের কারা হয়েছে। যা নিয়ে সমালোচনা করেছেন দর্শক-শ্রোতারা। অনেকেই বলছেন, শেষ পর্যন্ত মিউজিক ভিডিওতেও ঢুকে যাচ্ছে বিজ্ঞাপন যন্ত্রণা। এদিকে গানটি নিয়ে হাবিব বলেন, ‘শার্লিনা এর আগেও আমার গানে কাজ করেছেন। চমৎকার এক অভিজ্ঞতা হলো। এবার বেশ আলাদা আবহে এলাম আমরা। নতুন গানটিতে আমাদের আরও সুন্দর মানিয়েছে।’ উল্লেখ্য, ভিডিওটি গানচিল মিউজিকের ইউটিউব চ্যানেল ছাড়াও কলকাতার প্রতিষ্ঠান এসভিএফ মিউজিকের মাধ্যমে ভারতে প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন : এসএ/  

চমকের অপেক্ষায় কনা

সংগীতশিল্পী দিলশাদ নাহার কনা। কণ্ঠে তার মধুরতা রয়েছে। সুরের টানে, প্রাণের গানে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তিনি। গানের পাশাপাশি প্রকাশিত মিউজিক ভিডিওগুলোতে তার পারফরমেন্স সবার নজর কেড়েছে। আর এ জন্য তার কাছে ২০১৭ সালটা ছিলো সৌভাগ্যের বছর। ওই বছর বেশ ফুরফুরে মেজাজে ছিলেন তিনি। কারণ এ বছরে তিনি সর্বোচ্চ সফলতা অর্জন করেছিলেন। অন্যদিকে সারা বছরই স্টেজ শো নিয়ে তুমুল ব্যস্ত ছিলেন তিনি। প্লেব্যাক, জিঙ্গেল এবং ভয়েস ওভার এর কাজ নিয়েও সারা বছর সরব ছিলেন এই শিল্পী। সব মিলিয়ে গত বছর দেশের সবচেয়ে সফল নারী কণ্ঠশিল্পী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছেন কনা। ২০১৭ সালে তার গাওয়া ‘দিল দিল দিল’ গানটি ইউটিউবে আড়াই কোটির মাইলফলক স্পর্শ করে। গানটিতে তার সঙ্গে দ্বৈত গেয়েছেন ইমরান। কবির বকুলের কথায় এর সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন শওকত আলী ইমন। অন্যদিকে ‘নবাব’ সিনেমাতে তার গাওয়া ‘ও ডিজে’ গানটিও খুবই অল্প সময়ে এক কোটির মাইলফলক স্পর্শ করে। এর বাইরে তার গাওয়া ‘রেশমি চুড়ি’ গানটিও ২০১৭ সালের এক কোটি স্পর্শ করে ইউটিউবে। এছাড়া জুয়েল মোর্শেদের সঙ্গে তার গাওয়া ‘গার্ডেন গার্ডেন’ গানটিও ছিল শ্রোতাপ্রিয়তায়। গত বছরের সফলতার পর নতুন বছরও নানা চমক দিতে চান কনা। আর তারই ধারাবাহিকতায় টানা স্টেজ শো দিয়ে বছর শুরু করেছেন তিনি। এর আগে শওকত আলি ইমনের সুর ও সংগীতে চলচ্চিত্রে কনার গাওয়া অনেক গানই শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে। তবে এবার প্রথমবারের মতো ইমনের সুর ও সংগীতে চলচ্চিত্রের বাইরে একটি সিঙ্গেল করছেন কনা। এরই মধ্যে নতুন গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। এ গানটি ভিডিওসহ প্রকাশ হবে বলে জানা গেছে। আর অডিও এবং ভিডিওতে বেশ চমকও থাকবে বলে জানান তিনি। এ বিষয়ে কনা বলেন, ‘নতুন কিছু আসছে। এই প্রথম আমি ইমন ভাইয়ের সুরে একটি সিঙ্গেল করছি। বিষয়টি নিয়ে আমি খুবই উত্তেজিত। বেশ ভিন্নধর্মী একটি গান হয়েছে। এর ভিডিও নিয়েও আলাদা রকম পরিকল্পনা রয়েছে। তবে এখনই বলবো না। চমক হিসেবে থাকুক। ভালোবাসা দিবস কিংবা তার পর পরই এ গানটি প্রকাশ করবো। আমি আমার দিক থেকে শতভাগ দেয়ার চেষ্টা করবো শ্রোতা-দর্শকদের জন্য। তবে এটুকু বলতে পারি সবার খুব ভালো লাগবে।’ এসএ/

আজ আঁখির জন্মদিন

সঙ্গীতশিল্পী আঁখি আলমগীর। আজ তার জন্মদিন। জন্মদিনে তিনি তার বাবা, মা এবং সন্তানদের সঙ্গে সময় কাটাবেন। একুশে টেলিভিশন (ইটিভি)’র পক্ষ থেকে এই গুনি শিল্পীর প্রতি রইলো অনেক অনেক শুভেচ্ছা। আজকের দিনটি নিয়ে আঁখি বলেন, ‘জন্মদিনে সবার কাছে দোয়া চাই যেন আল্লাহ আমাকে সুস্থ্য রাখেন, ভালো রাখেন। আর আমি আমার সন্তানদের যেন মানুষের মতো মানুষ করতে পারি।’ এদিকে আঁখি এখন স্টেজ শো নিয়ে দেশ ও বিদেশে দারুণ ব্যস্ত সময় পার করছেন। গতকাল তিনি চট্টগ্রামে একটি শোতে অংশ নিয়েছিলেন। সেখান থেকে আজ সকালের ফ্লাইটেই ঢাকায় ফেরার কথা। আজ পরিবারের সঙ্গে দিনটি উদযাপন করে আগামীকাল সকালের ফ্লাইটে কলকাতা যাচ্ছেন তিনি। সেখানে যোধপুর পার্কে ‘বাংলাদেশ উৎসবে’ ৮ জানুয়ারি সন্ধ্যায় সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। আঁখি বলেন, ‘সঙ্গীত নিয়ে আমার এ ব্যস্ততা আল্লাহর রহমত। বছরজুড়েই স্টেজ শো নিয়ে আমার ভীষণ ব্যস্ততা থাকে। স্টেজ শোতে অংশ নেয়া জীবনের একটি অংশ হয়ে গেছে। এমনও হয়েছে একই দেশে একই স্থানে আমি পরপর টানা পাঁচ বছর গান গেয়েছি। দর্শক শ্রোতা আমাকে ভালোবাসেন বলেই আমি ছুটে গিয়েছি তাদের ডাকে। এই ভালোবাসা নিয়েই বেঁচে থাকতে চাই। আর একটি কথা না বললেই নয়, আমি কখনো কোনকিছু নিয়ে লোভ করি না।’ তিনি আরও বলেন, ‘এখনতো ফেসবুকের কল্যাণে অনেকেই আমার আপডেট পান। কিন্তু বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই আমার এই ব্যস্ততা।’ প্রসঙ্গত, গাজী মাজহারুল আনোয়ারের লেখা গানে আঁখি আলমগীর সর্বশেষ তার বাবা নায়ক আলমগীরের ‘একটি সিনেমার গল্প’ চলচ্চিত্রে রুনা লায়লার সুর সংগীতে প্লে-ব্যাক করেছেন। সামনে শওকত আলী ইমন, জেকে মজলিশ ও কিশোর দাসের সুর সংগীতে এ তারকা বেশ কয়েকটি মৌলিক গানে কণ্ঠ দেবেন। এসএ/  

এভ্রিলকে সমর্থন দিলেন আসিফ

ছোটবেলায় মা-বাবার দেওয়া নাম ছিল জান্নাতুল নাঈম আমেনা। তখন তাঁকে নিয়ে বা তাঁর নাম নিয়ে কোনো আলোচনাই ছিল না। তাঁকে কেউ চিনতও না। কিন্তু আজ তিনি জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতায় প্রথম চ্যাম্পিয়ন হওয়া আলোচিত প্রতিযোগি। বিয়ের খবর লুকানোর অভিযোগে যদিও বিজয়ের মুকুট হারিয়েছেন এই স্প্রিড গার্ল তবে পিছিয়ে যাননি একটুও। মিউজিক ভিডিও এবং নাটকে কাজ করে মিডিয়ায় নিজের জায়গা করে নেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। চলচ্চিত্রে কাজ করার কথাও চলছে তার। এদিকে কাজের পাশাপাশি বাল্যবিবাহ বন্ধে কাজ করে যাচ্ছেন এই তারকা। সম্প্রতি শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন এভ্রিল। নতুন খবর হচ্ছে- জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবরের সঙ্গে দেখা করেছেন তিনি। তার অফিসে ঝটিকা ঢুঁ মারেন হালের ‘স্পিড গার্ল’। বাল্যবিবাহ বন্ধের এই সামাজিক পদক্ষেপে এভ্রিল দর্শক নন্দিত কিছু তারকাকে তার পাশে পেতে চাচ্ছেন। সেই চাওয়ার প্রথম পর্ব হিসেবে তিনি ছুটে যান প্রিয় গায়ক আসিফ আকবরের সমর্থন আদায়ে। এভ্রিল জানান, প্রিয় গায়কের পূর্ণ সমর্থন তিনি পেয়েছেন। সামাজিক এই কাজে যতটুকু সম্ভব এভ্রিলের পাশে থাকবেন আসিফ। এভ্রিল বলেন, ‘আমি মিডিয়ায় কাজ করে যাবো। এছাড়া সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে যা করার তা করবো। বিশেষ করে বাল্যবিবাহ বন্ধে আমার বেশকিছু পদক্ষেপ রয়েছে। সেই পদক্ষেপের প্রথম ধাপ হিসেবে আমি কয়েকজন তারকার সমর্থন চাই। আসিফ ভাই সেই সমর্থন আমাকে দিয়েছেন। আমি তার প্রতি কৃতজ্ঞ। আমার বিশ্বাস বাল্যবিবাহ বন্ধে অন্যরাও আমাকে পূর্ণ সমর্থন জানাবেন।’ এসএ/  

রোমান্টিক গান নিয়ে তাহসান-পূজা (ভিডিও)

‘একটাই তুমি’ শিরোনামের রোমান্টিক গান নিয়ে আবারও এক সঙ্গে হাজির হলেন তাহসান ও পূজা। গানটির কথা লিখেছেন সোমেশ্বর অলি। সুর ও সংগীত আয়োজন করেছেন সাজিদ সরকার। এটি প্রকাশ করছে ‘ধ্রুব মিউজিক স্টেশন’ (ডিএমএস)। ঢাকা শহরের বিভিন্ন লোকেশনে চিত্রায়িত হয় ‘একটাই তুমি’ গানের ভিডিও। ভিডিও নির্মাণ করেছেন শাহরিয়ার পলক (প্রেক্ষাগৃহ)। ডিওপি হিসেবে ছিলেন রাজু রাজ। গানটির ভিডিওতে দেখা যায় একজন কর্পোরেট লাভারের বিভিন্ন পাগলামি। শহরের বিভিন্ন বাসস্টপে চলন্ত বাসে ভিডিও ধারণ ছিলো বেশ চ্যালেঞ্জিং, জানালেন ভিডিও নির্মাতা। এতে মডেল হিসেবে আছেন- শার্লিনা ও সুমিত। গানটি প্রসঙ্গে তাহসান বলেন, ‘পূজার সঙ্গে এর আগেও কাজ করেছি। ওর গানের গলা চমৎকার। আর গানটিও দু’জনের কণ্ঠ অনুযায়ী তৈরি করেছেন সংশ্লিষ্টরা। এক কথায় অসাধারণ। ভালো লাগবে দর্শক-শ্রোতাদের। পূজা বলেন, ‘তাহসান ভাইয়া আমার অনেক পছন্দের শিল্পী। তার সঙ্গে আবারও গান করতে পেরে ভালো লাগছে। সব মিলিয়ে বলব, গতানুগতিক ধারার বাইরের কাজ হয়েছে এটি। ভিডিওটিও চমৎকার একটি গল্পে নির্মিত হয়েছে।’ গানটি দেখতে ক্লিক করুন : এসএ/  

ব্যস্ততায় বিয়ের কথা ভুলেছেন লিজা

সময়ের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী সানিয়া সুলতানা লিজা। স্রোতের সঙ্গে এগিয়ে চলছেন তিনি। গত বছর বেশ সাফল্য পেয়েছেন নিজের গাওয়া গান ও মিউজিক ভিডিওতে মডেল হয়ে। নতুন বছরটাও শুরু করেছেন ভালোভাবে। বছরের শুরুটা বেশ ব্যস্ততার মধ্যেই কাটছে তার। টিভি শো, স্টেজ শো, মিউজিক ভিডিও, রেকর্ডিং, উপস্থাপনা নিয়ে এতোটাই ব্যস্ত রয়েছেন যে নিজের বিয়ের কথা ভুলেই গেছেন এই তারকা। নিজের বিয়ে নিয়ে লিজা বলেন, ‘বিয়েটা সৃস্টিকর্তার উপর নির্ভর করে। আমি আসলে সময়ই পাচ্ছি না এসব নিয়ে ভাবার। ব্যস্ততাটা কমুক, তারপর চিন্তা করবো।’ তবে কাজ পাগল এই মেয়েটি গানের মধ্যেই ডুবে থাকতে চান। গান নিয়ে নিত্য নতুন ভাবনা আর পরিকল্পনা দিয়ে সাজাতে চান নতুন বছর। এ বিষয়ে লিজা বলেন, ‘বলতে পারেন গানে গানে কেটেছে প্রথম দিন। নতুন বছরের শুরুতে খুব ব্যস্ততা যাচ্ছে। কারণ এখন টানা শো চলছে। শো করেছি, রেকর্ডিং করেছি। আমি শিল্পী হিসেবে এমন একটা শুরুই চেয়েছিলাম। আশা করছি পুরো বছরটাই এমন ভালো কাটবে।’ লিজা আরও বলেন, ‘বছরের প্রথম দিন অর্থাৎ জানুয়ারির এক তারিখ একটি নতুন গান রেকর্ডিং করলাম। তবে এটি চলচ্চিত্র কিংবা অ্যালবামের গান নয়। এটি করেছি আনজাম মাসুদ ভাইয়ের ‘পরিবর্তন’ ম্যাগাজিনের জন্য। গানটির নাম ‘মন উচাটন’। জাহিদ আকবরের কথায় এর সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন জাহিদ বাশার পঙ্কজ। সব মিলিয়ে বেশ ভালো একটি কাজ হয়েছে। কথা ও সুর আমার মনে ধরেছে। আশা করছি এটি ‘পরিবর্তন’-এর দর্শকদেরও ভালো লাগবে। প্রত্যাশা ও প্রাপ্তিতে লিজা এগিয়ে গেছেন অনেকটা পথ। নিয়মিত কাজ করছেন বিভিন্ন মাধ্যমে। টিভি শো, স্টেজ শো, মিউজিক ভিডিও সব মিলিয়ে প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তি কোন অংশে কম নয়। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির মধ্যে মিল খুব কম হয়। তবে আমি জীবনে অনেক কিছু পেয়েছি। ক্লোজআপ ওয়ানের চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি। এরপর গান করে যাচ্ছি নিয়মিত। শ্রোতারা চাচ্ছেন বলেইতো গান করতে পারছি। তাদের জন্যই আমি আজকের লিজা। সেদিক থেকে ছোট জীবনে প্রাপ্তি কম নয়।’ সর্বশেষ গত বছর লিজার ‘ভালোবাসি বলা হয়ে যাক’ শিরোনামের একটি গান প্রকাশ পায় ইউটিউবে। ব্যপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে গানটি। এ প্রসঙ্গে লিজা বলেন, ‘আসলে আমি গানটি বানিজ্যিক দিকের কথা মাথায় রেখে করিনি। আমার নিজের খুব পছন্দের কথা-সুর দিয়ে এটি করেছি। এর ভিডিও করেছে প্রেক্ষাগৃহ। মডেল হিসেবেও আমি কাজ করেছি। সব মিলিয়ে যে সাড়া মিলেছে তাতে আমি সন্তুষ্ট। এটি আসলে দীর্ঘদিন বেঁচে থাকার মতো একটি গান।’ নতুন বছরে নতুন চমক কি থাকছে এমন প্রশ্নের জবাবে লিজা বলেন, ‘আমার মধ্যে তড়িঘড়ি নেই। আমি এখন শো নিয়ে ব্যস্ত রয়েছি। খুব বেশি সময় হয়নি ‘ভালোবাসি বলা হয়ে যাক’ গানটি প্রকাশ হয়েছে। তবে এরই মধ্যে পরিকল্পনা শুরু করছি নতুন গানের। কথা-সুর নির্বাচনের পর রেকর্ডিংয়ে যাবো। আশা করছি ভালোবাসা দিবসে অথবা পহেলা বৈশাখে নতুন গান শ্রোতা-দর্শকদের হাতে তুলে দিতে পারবো।’ এসএ/  

নতুন বছরে ন্যান্সির উপহার

দেশিয় সঙ্গীতাঙ্গনের জনপ্রিয় গায়িকা ন্যান্সি। নতুন বছরে নতুন গান দিয়ে দর্শক-শ্রোতাদের শুভেচ্ছা জানালেন তিনি। বছরের শুরুতেই ইউটিউবে প্রকাশিত হল ‘মৌনতা’ শিরোনামে তার নতুন গানের মিউজিক ভিডিও। গানটির ভিডিও নির্মাণ করেছেন সৌমিত্র ঘোষ ইমন। গত বছরের নভেম্বরে গানটির অডিও ভার্সন প্রকাশ হয়। প্রকাশের পরই এটি শ্রোতাপ্রিয়তা পায় বলে জানিয়েছেন ন্যান্সি। এর পরিপ্রেক্ষিতেই নতুন বছরের চমক হিসেবে গানের ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়েছে। সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওর এবং সিলেটের জাফলং ও মাধবকুণ্ডে মিউজিক ভিডিওটির শুটিং করা হয়। এতে মডেল হিসেবে রয়েছেন রিফাত ও পৃথা। নতুন মিউজিক ভিডিও প্রসঙ্গে ন্যান্সি বলেন, ‘গানটিতে একদিকে যেমন বিরহ রয়েছে, তেমনি রয়েছে প্রিয় মানুষের জন্য হাহাকার। গত বছর যখন গানটি প্রকাশ পায় তখন শ্রোতারা গানটি দারুণভাবে গ্রহণ করেন। তাদের আগ্রহের কারণেই গানের কথার ওপর ভিত্তি করেই ভিডিওটি নির্মাণ করা হয়েছে। আমার বিশ্বাস মিউজিক ভিডিওটি দর্শকদের ভালো লাগবে।’ গানটি দেখতে ক্লিক করুন : এসএ/  

নতুন বছরে পড়শীর আবদার

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী সাবরিনা পড়শী। কণ্ঠে তার জাদু আছে। তাইতো গানের পড়শীকে চেনেন সবাই। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম। জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা এই শিল্পী গত বছর চলচ্চিত্র এবং বেশ কিছু অডিও গান নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। প্রকাশিত গানগুলো শ্রোতামহলেও সমাদৃত হয়েছে। গত বছর অধিকাংশ সময়ই পড়শী ব্যস্ত ছিলেন স্টেজ শো নিয়ে। দেশ ও দেশের বাইরে বিভিন্ন স্থানে শো করেছেন তিনি। এছাড়া পুরো বছরই তিনি জাগো এফ এম এ ‘পড়শী নাইট’ শোতে আরজেগিরি নিয়েও ব্যস্ত ছিলেন। নতুন বছরে পড়শী যাত্রা শুরু করতে চাইছেন গানে গানে। খুব শিগগিরই নতুন একটি গান ভিডিওসহ প্রকাশ করবেন তিনি। গানের নাম ‘আবদার’। রবিউল ইসলাম জীবনের কথায় গানটির সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন ইমরান। আর দ্বৈত গানটি ইমরানের সঙ্গে গেয়েছেন পড়শী। সিডি চয়েজের ব্যানারে এটি প্রকাশ হবে ভিডিওসহ। নেপালে এ গানটির শুটিং হওয়ার কথা রয়েছে। মজার ব্যপার হচ্ছে- ভিডিওতে পারফর্ম করবেন ইমরান ও পড়শী। এটি নির্মাণ করবেন তানিম রহমান অংশু। এ বিষয়ে পড়শী বলেন, ‘এটি নতুন বছরে শ্রোতাদের জন্য আমার পক্ষ থেকে উপহার। গানটির অডিও অনেক দিন ধরেই তৈরি হয়ে আছে। তবে বিভিন্ন কারণে ভিডিওর কাজটা করতে হয়নি। তবে খুব শিগগিরই এর ভিডিওর কাজে অংশ নেবো। আমি ও ইমরান ভাইয়া এই ভিডিওটিতে নতুন চমক নিয়ে আসছি। আশা করছি নতুন বছরে খুব ভালো একটি কাজ হবে এটি।’ এসএ/

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি