ঢাকা, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৩:১৮:৫৯

অস্ট্রেলিয়ার লিড, ডাবল সেঞ্চুরির পথে স্মিথ

অস্ট্রেলিয়ার লিড, ডাবল সেঞ্চুরির পথে স্মিথ

অজি অধিনায়ক স্মিভেন স্মিথের ব্যাট হেসেই চলেছে। সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পার্থে অ্যাশেজ সিরিজের তৃতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসেও দুর্দান্ত ব্যাট করছেন তিনি। চমৎকার ব্যাটিং করে ইতোমধ্যে দেঢ়শো রানও পূরণ করে ফেলেছেন আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ এই ব্যাটসম্যান। তার তার ব্যাটে চড়ে লিড নিয়ে ফেলেছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডের ৪০৩ রানের জবাবে ৪ উইকেটে ৪০৫ রান তোলে ফেলেছে স্টিভ স্মিথের দল। স্টিভ স্মিথ ১৮০ ও মিচেল মার্শ ৮৬ রানে অপরাজিত আছেন। পাঁচ ম্যাচ সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ইতোমধ্যে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে আছে।                          সূত্র : ক্রিকইনফো /এমআর
টি-টেনে অভিষেকেই ম্যাচসেরা তামিম

সংযুক্ত আরব আমিরাতে চলছে ক্রিকেটের নতুন ফরম্যাট টি-টেন লিগ। ১০ ওভারের এই টুর্নামেন্টে নিজের প্রথম ম্যাচেই জাত চেনালেন বাংলাদেশের সেরা উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। তাঁর দুর্দান্ত অর্ধশতকে জয় পেয়েছে তার দল পাখতুনস। শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টিম শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাখতুনসের অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। ব্যাট করতে নেমে দলকে দারুণ শুরু এনে দেন তামিম ইকবাল ও আহমেদ শেহজাদ। ১০ ওভারে ৬ উইকেটে ১১১ রান সংগ্রহ করে পাখতুনস। ২৭ বলে ৫৬ রানে অপরাজিত থাকেন তামিম। ১১২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ৭ উইকেটে ৮৪ রানেই থেমে যায় টিম শ্রীলঙ্কার ইনিংস। ম্যাচসেরা নির্বাচিত হয়েছেন তামিম।   সূত্র : ক্রিকইনফো /এমআর

৮ বছর পর ঢাকায় ত্রিদেশীয় সিরিজ

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) শেষ হতে না হতেই আবারও ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। আগামী জানুয়ারিতেই দেশের মাটিতে শুরু হচ্ছে শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়েকে নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ। এরপর হবে লঙ্কানদের বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ। বাংলাদেশে সর্বশেষ ২০১০ সালে ত্রিদেশীয় সিরিজ হয়েছিলো। আট বছর পরে ঢাকার মাঠে আবারও বসবে ত্রিদেশীয় ক্রিকেটের আসর। আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে এই সিরিজ। ২৭ জানুয়ারি হবে প্রতিযোগিতার ফাইনাল। ত্রিদেশীয় সিরিজের সূচি :- ১৫ জানুয়ারি : বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ে (মিরপুর, দিবা-রাত্রি) ১৭ জানুয়ারি : শ্রীলঙ্কা বনাম জিম্বাবুয়ে (মিরপুর, দিবা-রাত্রি) ১৯ জানুয়ারি : বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা (মিরপুর, দিবা-রাত্রি) ২১ জানুয়ারি : শ্রীলঙ্কা বনাম জিম্বাবুয়ে (মিরপুর, দিবা-রাত্রি) ২৩ জানুয়ারি : বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ে (মিরপুর, দিবা-রাত্রি) ২৫ জানুয়ারি : বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা (মিরপুর, দিবা-রাত্রি) ২৭ জানুয়ারি : ফাইনাল (মিরপুর, দিবা-রাত্রি)   //এমআর

টি-টেনে খেলা হচ্ছে না মোস্তাফিজের

ক্রিকেটের নতুন ভার্সন টি-টেনে খেলতে পারছেন না বাংলাদেশের পেস আক্রমণের অন্যতম ভরসা মোস্তাফিজুর রহমান। দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ টুর্নামেন্টের জন্য সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল বিসিবির অনাপত্তি পত্র পেলেও অনুমতি পাননি মোস্তাফিজ। উদ্বোধনী ম্যাচে বেঙ্গল টাইগার্সের হয়ে সাকিবের বিপক্ষে খেলার কথা ছিলো মোস্তাফিজের। ১০ ওভারের এই ক্রিকেট টুর্নামেন্টে তামিম ইকবাল খেলবেন পাখতুন দলে। আর সাকিব আল হাসান খেলবেন কেরালা কিংসে। আসরে অংশ নিতে এরই মধ্যে আরব আমিরাতে চলে গেছেন দুজন। বীরেন্দর শেবাগ, শহীদ আফ্রিদি, কুমার সাঙ্গাকারা ও মিসবাহ-উল-হকের মতো তারকারা খেলবেন এই টুর্নামেন্টে। মোট ছয়টি দল অংশ নিচ্ছে এই ‍টুর্নামেন্টে। দলগুলো হলো - মারাঠা অ্যারাবিয়ানস, কেরালা কিংস, পাখতুন, পাঞ্জাবি লিজেন্ডস, টিম শ্রীলঙ্কা ও বেঙ্গল টাইগার্স।   //এমআর

প্রথম দিনটি ইংল্যান্ডের

পার্থে অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্টের প্রথম দিনটি ভালো কেটেছে সফরকারী ইংল্যান্ডের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম দিন শেষে ৪ ‍উইকেটে ৩০৫ রান সংগ্রহ করেছে জো রুটের দল। মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্স ও জস হ্যাজেলউডদের বোলিং তোপে ১৩১ রানেই চার উইকেট হারিয়েছিলো সফরকারীরা। তবে দিন শেষে ডেভিড মালানের অপরাজিত ১১০ ও জনি বেয়ারস্টোর অপরাজিত ৭৫ রানের কল্যাণে সুবিধাজনক অবস্থানে থেকে দিন শেষ করেছে ইংল্যান্ড। এর আগে টসে জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট। শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি সফরকারীদের। দলীয় ২৬ রানে ব্যক্তিগত ৭ রানে সাজঘরে ফিরেন অ্যালিস্টার কুক। পেসার মিচেল স্টার্কের বলে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন সাবেক এই অধিনায়ক। দলীয় ৮৯ রানে জেমস ভিন্সকে (২৫) ফেরান জস হ্যাজেলউড। দলীয় ১১৫ রানে অধিনায়ক জো রুটকে প্যাভিলিয়নে পাঠান প্যাট কামিন্স। ২০ রান আসে রুটের ব্যাট থেকে। এরপর ৫৬ রান করে স্টার্কের বলে স্টোনম্যান ফিরে গেলে ১৩১ রানে চার উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। এরপর অবিচ্ছিন্ন ১৭৪ রানের জুটি গড়ে দলকে সুবিধাজনক অবস্থানে নিয়ে গেছেন ডেভিড মালান ও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো। অজি পেসার মিচেল স্টার্ক দুটি, কামিন্স ও হ্যাজেলউড একটি করে উইকেট লাভ করেন। পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে আছে ‍অস্ট্রেলিয়া। সূত্র : ক্রিকইনফো //এমআর    

টি-টোয়েন্টিতে ২০ সেঞ্চুরির মালিক গেইল

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে চার-ছক্কার বৃষ্টি বললে চোখের সামনে যে মানুষটার ব্যাট ভেসে আসে, সে আর কেউ নন। ক্রিকেট দুনিয়ার দানব ক্রিস গেইল। না তিনি দানব নন, তিনি মহাদানব। মহাদানবের মতোই ছুড়ি চালান তিনি। বিশ্বের বাঘা বাঘা বোলারদের বুকে ছুরি চালিয়ে কচুকাটা করেন তিনি। এতো নিখুঁত ছুরি চালান যে, কোনো ভাবেই তাকে আটকানো যায় না। সেই ছক্কা-শৈল্পিক মহাদানব গতকাল টি-২০ ক্রিকেটে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে হয়ে গেলেন বিশ্বের প্রথম ২০টি সেঞ্চুরির মালিক। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে গতকাল রংপুর রাইডার্সের হয়ে ১৪৬ রানের এক অতিমানবীয় ইনিংস খেলেন ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল। ১৮টি ছক্কা হাঁকিয়ে সাকিব-নারাইনদের তুলোধুনো করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের এই মহামূল্যবাণ তারকা। ঘরোয়া ক্রিকেটে এ নিয়ে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ২০ সেঞ্চুরি করার রেকর্ড গড়লেন তিনি। তাকে ছুঁতে পারার সাধ্য এই মুহূর্তে আর কারও নেই। গেইলের পেছনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিক তিনজন। মাইকেল ক্লিঙ্গার, লুক রাইট এবং ব্রেন্ডন ম্যাককালাম-প্রত্যেকেরই আছে ৭টি করে সেঞ্চুরি। তিনজনের মোট সেঞ্চুরি ২১টি। আর গেইলের একাই আছে ২০ সেঞ্চুরি। গেইল ২০ সেঞ্চুরির ৫টিই করেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে। আর ৫টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন ভারতীয় প্রিমিয়ার লিগে। এর মধ্যে ২০১৩ সালে পুনেতে রয়েল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে ১৭৫ রানের সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলেন গেইল। এমজে/এমআর

ওয়ানডেতে রোহিত শর্মার তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরি

তৃতীয়বারের মতো ওয়ানডেতে ডাবল সেঞ্চুরি করার এক অসামান্য কীর্তি গড়েছেন ভারতের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা। চন্ডিগরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ বুধবার ১৫৩ বলে অপরাজিত ২০৮ রানের ইনিংস খেলেছেন তিনি। এর আগে অষ্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২০৯ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২৬৪ রানের ইনিংস আছে তার।   আজকের ২০৮ রানের ইনিংস খেলার পথে ভারতের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রোহিত শর্মা ১৩টি চারের পাশাপাশি হাকিয়েছেন ১২টি বিশাল ছক্কা। তাঁর ব্যাটিং তাণ্ডবে রানের পাহাড় গড়েছে ভারত। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৪ উইকেটে ৩৯২ রান করেছে তারা। রোহিত শর্মা ছাড়াও ব্যাট হাতে আলো ছড়িয়েছেন শ্রেয়াস আয়ার (৮৮) ও শিখর ধাওয়ানও (৬৮)।   এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নামে ভারত। সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে আছে সফরকারীরা।   সূত্র : ক্রিকইনফো   //এমআর

বাংলাদেশ চার বছরে ৩৫ টেস্টসহ ১২২ ম্যাচ খেলবে

আইসিসির প্রস্তাবিত ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রামে (এফটিপি) বাংলাদেশ খেলবে ৩৫টি টেস্ট। ২০১৯ থেকে ২০২৩ সালের এই ট্যুরে সব ফরমেট মিলিয়ে সংখ্যাটা দাঁড়াবে ১২২ ম্যাচে। এই এফটিপিতে বেশিরভাগ টেস্ট খেলুড়ে দেশ আগের থেকে কম টেস্ট পেয়ে থাকে। বাংলাদেশের জন্য সুখবর হচ্ছে, বাংলাদেশ এ ট্যুরে বেশি টেস্ট পাচ্ছে। বর্তমান এফটিপিতে পাঁচ বছরে বাংলাদেশের টেস্ট ৩৩টি। কিন্তু প্রস্তাবিত নতুন এফটিপিতে চার বছরেই ৩৫টি টেস্ট খেলার সুযোগ পাচ্ছে টাইগাররা। বিগ থ্রি-ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া আর ভারতের পর সবচেয়ে বেশি টেস্ট খেলার ‍সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ। এছাড়া ভারতের বিপক্ষে পূর্ণাঙ্গ হোম এন্ড অ্যাওয়ে সিরিজও রয়েছে। একে//  

পাঁচ আসরে চারবারই ‘চ্যাম্পিয়ন’ মাশরাফি

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) চতুর্থবারের মতো শিরোপা জিতলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। বিপিএলের প্রথম দুই আসরে ঢাকা গ্লাডিয়েটরসকে শিরোপা জিতিয়েছেন মাশরাফি। তৃতীয় আসরে নবাগত কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স শিরোপা জিতেছে মাশরাফির নেতৃত্বেই। চতুর্থ আসরেই কেবল শিরোপা জেতা হয়নি বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়কের। আর এবারের আসরে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক হিসেবে জিতলেন শিরোপা। সব মিলিয়ে পাঁচবারের মধ্যে চারবারই শিরোপা উঠেছে মাশরাফি বিন মুর্তজার হাতে। দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়া ও উজ্জীবিত রাখার ক্ষেত্রে অধিনায়ক মাশরাফির জুড়ি নেই। তাই তো তাঁর নেতৃত্বে খেলাটা উপভোগ করেন গেইল-ম্যাককালাম-মালিঙ্গাদের মতো বড় বড় তারকারা। ‘ক্যাপ্টেন’ মাশরাফি সবার সেরা। বিপিএলে অধিনায়ক মাশরাফির ধারেকাছেও নেই কেউ। এবারের শিরোপা জিতে নিজেকে আরও নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছেন ম্যাশ।   //এমআর

আমিই সেরা : গেইল

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের পোস্টারবয় তিনি। টি-টোয়েন্টিতে তার রয়েছে ২০টি সেঞ্চুরি, হাকিয়েছে ৮১৯ টি ছক্কা। রানের দিক দিয়েও তার ধারেকাছে নেই কেউ। বলছিলাম ক্যারিবিয় ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইলের কথা। রংপুর রাইডার্সকে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) শিরোপা জেতানোর পর ক্রিস গেইল বলেন, আই অ্যাম দ্য বেস্ট। এবারের বিপিএলের প্লেয়ার অব ম্যাচ ও প্লেয়ার অব দ্য টুর্নামেন্ট এর পুরস্কারও গেছে তাঁর ঝুঁড়িতে। গেইল বলেন, এবার টুর্নামেন্ট ভালো হয়েছে। আগামী বছরও আপনাদের বিনোদন দিতে আসব। গতকাল বিপিএলের ফাইনালে গেইল একাই উড়িয়ে দিয়েছেন স্বাগতিক ঢাকা ডায়নামাইটসকে। ৬৯ বলে খেলেছেন অপরাজিত ১৪৬ রানের এক বিধ্বংসী ইনিংস। হাকিয়েছেন ১৮টি ছক্কা। শুধু আন্তর্জাতিক ম্যাচেই নয়, যেকোনো ফ্র্যাঞ্চাইজ আসরেও এটি একটি রেকর্ড। ফাইনালে এতটাই বেপরোয়া ব্যাটিং করেছেন, কোনো বোলারই পার পায়নি তাঁর হাত থেকে। প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিপিএলে ছক্কার সেঞ্চুরিও করেছেন গেইল। ম্যাচ শেষে গেইল আরও বলেন, চেষ্টা করেছি আমাদের দুজনার (গেইল ও ম্যাককালাম) যেকোনো একজন শেষ পর্যন্ত টিকে থাকার এবং ইনিংস শেষ করে আসাটাও ছিলো জরুরি। আর ধীরে ধীরে আমরাও ছন্দ ফিরে পাই। আমরা আরও একটা কাজ করেছি, তাহলো ঢাকার সেরা বোলারদের উইকেট দেইনি।   //এমআর

মাশরাফির হাতেই বিপিএল শিরোপা

বিপিএলের প্রথম দুই আসরে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটরসকে চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন মাশরাফি মুর্তজা। তৃতীয় আসরে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অভিষেকও হলো তার নেতৃত্বে শিরোপা জিতে। কিন্তু গতবার ষষ্ঠ স্থানে থেকে শেষ করে মাশরাফির কুমিল্লা। এবার নতুন গন্তব্যে বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক, সফল হলেন সেখানেও। ক্রিস গেইলের রেকর্ড ইনিংসে রংপুর রাইডার্স জিতলো বিপিএলের প্রথম শিরোপা, আর চতুর্থবার ট্রফি হাতে নিলেন মাশরাফি। মঙ্গলবার মিরপুরে গেইলের ব্যাটিং তাণ্ডবে রানের পাহাড়ে চাপা পড়ে ঢাকা। শিরোপা ধরে রাখার মিশনটা কঠিন হয়ে পড়ে ২০৭ রানের লক্ষ্যে ছুটতে গিয়ে। ৯ উইকেটে ১৪৯ রানে থামে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। রংপুর প্রথম বিপিএল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বাদ পায় ৫৭ রানে জিতে। ২০৭ রানের টার্গেট, স্বাভাবিকভাবেই চাপে থাকার কথা। রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে দ্বিগুণ চাপে পড়ে ঢাকা। ক্রিস গেইলের অবিশ্বাস্য ব্যাটিংয়ের শিকার হওয়ার পর একের পর এক উইকেট হারিয়ে শিরোপা হারানোর শঙ্কায় পড়ে সাকিব আল হাসানের দল। ২৯ রানের মধ্যে ৪ উইকেট হারায় ঢাকা। ওই ধাক্কা আর কাটাতে পারেনি তারা।

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি