ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ মে ২০২২, || জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৯

ব্রাজিলের বালির বাদশাহ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:০১, ২১ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ১৬:৪৪, ২১ জানুয়ারি ২০১৮

বালির কোনো ভাস্কর‌্য কিংবা প্রতিকৃতি তৈরির বিষয়টি মনে পড়লেই সামনে আসে সুদর্শন পাটনায়েকের কথা চোখের সামনে ভেসে উঠে। তিনি ভারতের  পুরি শহরের সমুদ্র সৈকতে বালি  দিয়ে বহু ভাস্কর‌্য তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। সুদর্শনের হয়তো আফসোস হতে পারে এই তথ্য জেনে যে, ব্রাজিলে একজন বালির বাদশাহ খ্যাতি পেয়েছেন। যিনি বালির প্রাসাদ তৈরি করে ফেলেছেন। যেখানে তিনি বসবাসও করছেন।  খবর ডেইলি মেইলের।

বালির বাদশাহর নাম মার্সিও মিজায়েল মাতোলিয়াস। তিনি দীর্ঘ ২২ বছর ধরে বালির প্রাসাদে বাস করছেন। স্থানীয়রা ও তার বন্ধু মহল তাকে ‘কিং বা বাদশাহ’ বলে ডাকে। ব্রাজিলের রিও ডি জোনোরিওর বারা দা তিজুকা সমুদ্র সৈকতে বানানো হয়েছে এ প্রাসাদ।

তার ছোট ওই রাজকীয় প্রাসাদটিতে একজনের থাকার মতো জায়গা রয়েছে। রয়েছে একটি ছোট লাইব্রেরি। সেখানে বহু লেখকের বইও রয়েছে। কারণ বালির বাদশাহ মার্সিওর বই পড়ার শখ। প্রাসাদ যাতে ধসে না পড়ে এজন্য রোজ এতে পানি দেন তিনি। গ্রীষ্মকালে বালি গরম হয়ে গেলে প্রাসাদে থাকতে কষ্ট হয় মার্সিওর। সে সময় তিনি পাশে বন্ধুর বাড়িতে থাকেন।

 বাদশাহ মার্সিওর রাজপ্রাসাদ থাকলেও নেই কোনো কর্মচারী। একাই প্রাসাদের দেখভাল করেন তিনি। প্রাসাদের বাইরে একটি সিংহাসনও রয়েছে। সেখানে রোজ তিনি বসেন। স্থানীয় বাসিন্দা ও পর্যটকদের সঙ্গে কথা বলেন। মার্সিও বলেন, রিও ডি জেনিরিওর পাশে গুয়ানাবারা উপত্যকায় আমি বড় হয়েছি। আমি ছোটবেলা থেকেই সমুদ্র সৈকতে বাস করে আসছি। সমুদ্রের পাশে বাস করার জন্য মানুষ বহু অর্থ ব্যয় করে। কিন্তু আমি এখানে বিনা খরচে বসবাস করছি এবং ভালোই আছি।

/ এআর /


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি