ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২০:১৩:৪০

Ekushey Television Ltd.
প্রথম ১০০ দিনের পরিকল্পনা

সর্বস্তরে ঢেলে সাজাবেন ইমরান

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:০৩ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০১৮ শনিবার

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন তেহরিক ই ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খান। আজ শনিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০ টা ১০ মিনিটে ইসলামাবাদের প্রেসিডেন্ট ভবনে তাকে শপথবাক্য পাঠ করার প্রেসিডেন্ট মামনুন হুসাইন।

এর আগে সেখানে উপস্থিত হন ইমরান খান। শপথ অনুষ্ঠান শুরু হয় দেশটির জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে। এরপর পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করা হয়। পরে শুরু আনুষ্ঠানিক শপথ বাক্য পাঠ করানো। এরপর শপথের বিভিন্ন নথিতে ইমরান স্বাক্ষর করেন।

এর আগে পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল)-এর প্রার্থী শেহবাজ শরিফকে বড় ব্যবধানে পরাজিত করে একদিন আগে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন ইমরান খান।

ইতিমধ্যে সরকারের প্রথম ১০০ দিনের কর্মপরিকল্পনাও চূড়ান্ত করেছে ইমরানের দল। এ পরিকল্পনার আওতায় সরকারের উঁচুতলা থেকে নিচুতলা পর্যন্ত ঢেলে সাজাবেন সাবেক এ ক্রিকেট কাপ্তান।

কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের শীর্ষ পদ থেকে শুরু করে রাজস্ব বিভাগ, রেলওয়ে, বিমান সব বিভাগেই বদল আনা হবে।

গত ২৫ জুলাইয়ের নির্বাচনের আগেই সরকারের প্রথম ১০০ দিনের কর্মপরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু করে পিটিআই। বৃহস্পতিবার হবু প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও দলের শীর্ষ নেতাদের উপস্থিতিতে তা চূড়ান্ত করা হয়।

কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে সরিয়ে দেওয়া হবে। একইসঙ্গে গত সরকারের আমলে রাজনৈতিক বিবেচনায় নিয়োগ পাওয়া কর্মকর্তাদেরকেও ছাঁটাই করা হবে।

দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির লাগাম টেনে ধরতে এবং সর্বস্তরে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে পাকিস্তান কেন্দ্রীয় রাজস্ব বোর্ড (এফবিআর), জাতীয় বিদ্যুৎ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা (এনইপিআরএ), রেলওয়ে, সরকারি বিমান সংস্থাসহ (পিআইএ) সরকারের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের প্রধান পদগুলোতে পরিবর্তন আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইমরান খান।

কর্মপরিকল্পনার অংশ হিসেবে কেন্দ্রশাসিত উপজাতীয় এলাকা খাইবার পাখতুনখাওয়া, পাঞ্জাব ভেঙে নতুন একটি প্রদেশ গঠন, শাসনের ক্ষেত্রে বেলুচিস্তান প্রদেশকে বৃহত্তর কর্তৃত্ব দেয়া প্রাধান্য পাবে। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ শুরু করার ওপর জোর দিয়েছেন হবু অর্থমন্ত্রী আসাদ ওমর।

তিনি বলেন, তার সরকার উৎপাদনমুখী শিল্প কারখানা এবং ছোট ও মাঝারি শিল্পের উন্নয়নের পথ ত্বরান্বিত করবে। প্রথম ১০০ দিনের মধ্যে সরকারি অতিথি ভবনগুলোকে আবাসিক হোটেলে রূপান্তর করে পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন আসাদ।

জনগণের আস্থা অর্জনেই কেটে যাবে : প্রথম ১০০ দিনে সরকার ঢেলে সাজানো থেকে শুরু করে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে কাজ শুরুর পরিকল্পনা এঁটেছে ইমরানের দল পিটিআই। তবে বিশ্লেষক ও পর্যবেক্ষকরা বলছেন, জনগণের আস্থা এবং কাজের ক্ষেত্র বা টার্গেট ঠিক করতে করতেই কেটে যাবে প্রথম ১০০ দিন।

বিশ্লেষকরা এবং পিটিআই দলের শীর্ষ নেতারাই বলছেন, সরকার গঠনের পর প্রথম ১০০ দিনে জনগণের জন্য তেমন কিছুই করতে পারবে না সরকার। সবকিছু বুঝে উঠতেই কেটে যাবে এ সময়।

সূত্র : জিও নিউজ ও ডন।

/ এআর /

ফটো গ্যালারি



© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি