ঢাকা, বুধবার   ১৮ মে ২০২২, || জ্যৈষ্ঠ ৩ ১৪২৯

দারুণ জয়ে এগিয়ে গেল শ্রীলঙ্কা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৪৪, ১৭ জানুয়ারি ২০২২

সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর দারুণ এক জয়ে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে এগিয়ে গেল শ্রীলঙ্কা। শেন উইলিয়ামসের শতকে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ২৯৬ রান সংগ্রহ করে জিম্বাবুয়ে। যা ৮ বল হাতে রেখেই টপকে যায় শ্রীলঙ্কা, তুলে নেয় পাঁচ উইকেটের জয়।

রোববার বিকেলে পাল্লেকেলেতে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামে জিম্বাবুয়ে। ৮০ রানের উদ্বোধনী জুটিতে জিম্বাবুয়েকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন রেগিস চাকাভা ও তাকুজাওয়ানাশে কাইটানো। ৫০ বলে ৪২ রান করে কাইটানো সাজঘরে ফিরলে দ্বিতীয় উইকেটে ৩০ রানের জুটি পায় জিম্বাবুয়ে। এসময় ৯ রান করেই বিদায় নেন অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন।

তবে তৃতীয় উইকেটে আবারও অর্ধশত রানের জুটি আসে জিম্বাবুয়ের। উইলিয়ামসের সঙ্গে ৫০ রান যোগ করে বিদায় নেন চাকাভা। ৮১ বলে ৭২ রান আসে এই ওপেনারের ব্যাট থেকে। চাকাভার বিদায়ের পর অবশ্য আর কেউ তেমন সঙ্গ দিতে পারেননি উইলিয়ামসকে। তারপরও একাই দলকে টেনে নিয়ে যান সাবেক অধিনায়ক।

ঠিক ১০০ রান করে চামিকা করুনারত্নের বলে বোল্ড হন উইলিয়ামস। তাঁর ৮৭ বলের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৯টি চার ও ২টি ছক্কার মারে। যাতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে জিম্বাবুয়ে জড়ো করে ২৯৬ রান।

স্বাগতিকদের পক্ষে চামিকা করুনারত্নে ৩টি এবং নুওয়ান প্রদীপ ও জেফ্রি ভাণ্ডারসে ২টি করে উইকেট নেন।

জবাবে বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান তোলা শুরু করলেও শ্রীলঙ্কা প্রথম উইকেট হারায় ৪০ রানেই। এরপর নিয়মিত উইকেট না পেলেও রান রেটে চেপে ধরে শ্রীলঙ্কার লাগামটা নিজেদের হাতেই ধরে রেখেছিল জিম্বাবুয়ে। তবে শেষ পর্যন্ত সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে ব্যর্থ হন সফরকারী বোলাররা।

৮১ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারানো স্বাগতিকদের পক্ষে তৃতীয় উইকেটে ৬৬ রানের জুটি গড়েন পাথুম নিসাঙ্কা ও দীনেশ চান্দিমাল। ফিফটি ছাড়িয়ে শতকের লক্ষ্যেই ছুটছিলেন লঙ্কান ওপেনার। তবে হঠাৎই ছন্দপতন। সিকান্দার রাজার স্পিনে পরাস্ত হয়ে মাঠ ছাড়তে হয়ে তাঁকে। 

তার আগে ৭১ বলে ৭৫ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন নিসাঙ্কা। তাঁর আক্ষেপ জাগানো এই ইনিংসে ছিল ১০টি চারের মার। এরপর চারিথ আসালঙ্কাকে নিয়ে চতুর্থ উইকেটে ১২৯ রানের জুটি গড়েন চান্দিমাল। এমনকি দুজনেই ছুটছিলেন নিজ নিজ শতক পানেই।

কিন্তু দলকের জয়ের পথে রেখে নিজেই নিসাঙ্কার পথ ধরেন চান্দিমাল। তাঁর ব্যাট থেকেও আসে অনবদ্য ৭৫ রান। ৯১ বলের এই ইনিংসে ছিল চারটি চারের সঙ্গে একটি ছক্কার মার। খানিক বাদে একই পথ ধরেন আসালঙ্কাও। ৬৮ বলে ৭১ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। 

এতে জয় থেকে মাত্র পাঁচ রান দূরে থাকতেই শ্রীলঙ্কা পঞ্চম উইকেট হারালেও চামিকা করুনারত্নেকে (৫) নিয়ে আর কোনও বিপদ হতে না দিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন অধিনায়ক দাসুন শানাকা (১০)। আর ৮ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটের জয় তুলে নিয়ে সিরিজে শুভ সূচনা করা লঙ্কানদের পক্ষে ম্যাচ সেরা হন দীনেশ চান্দিমাল। 

এনএস//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি