ঢাকা, রবিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৮ ৭:৫৮:৪৫

দগ্ধ আটজনের একজন মারা গেলেন

রাজধানীতে গ্যাস লাইনে বিস্ফোরণ

দগ্ধ আটজনের একজন মারা গেলেন

রাজধানীর উত্তরখানের বেপারিপাড়ার একটি বাসায় চুলার গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে বিস্ফোরণে একই পরিবারের আটজন দগ্ধ হয়েছেন। দগ্ধদের মধ্যে আজিজুল (২৭) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তার শরীরের ৯৯ শতাংশ  দগ্ধ হয়েছিল।দগ্ধদের মধ্যে আরও পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
রাজধানীতে গ্যাসের আগুনে দগ্ধ ১ জনের মৃত্যু (ভিডিও)

রাজধানীর উত্তরখানে বাসায় গ্যাসের আগুনে দগ্ধ একজন ঢাকা মেডিকেলে মারা গেছেন। তার নাম আজিজুল। ৬ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের ৭০ থেকে ৯০ ভাগই পুড়ে গেছে। ফায়ার সার্ভিসের ধারণা- গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। গতরাত ৪টায় ব্যাপারি পাড়ায় একটি ভবনের নিচতলায় গ্যাসের চুলা জ্বালাতে গেলে, হঠাৎ আগুন লেগে যায়। মুহূর্তেই দগ্ধ হয় ৮ জন। তাদের মধ্যে ৪ নারী, তিন পুরুষ ও এক শিশু রয়েছে। ফায়ার সার্ভিস তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে নিয়ে আসে। একজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। বাকিদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান চিকিৎসক। উত্তরখানের এই দুর্ঘটনার শিকার সবার বাড়ি পাবনার ভাঙুড়ায়। তারা আত্মীয় বলে জানা গেছে।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনের দাবি (ভিডিও)

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নয়টি ধারাকে গণমাধ্যম ও বাক স্বাধীনতার জন্য হুমকি দাবি করে এর প্রতিবাদ জানিয়েছে সম্পাদক পরিষদ। বর্তমান সংসদের শেষ অধিবেশনে ধারাগুলো সংশোধনের দাবি জানিয়েছেন সম্পাদকরা। জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনকে সংবিধান ও মানুষের মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী বলেও উল্লেখ করেন তারা। দাবি আদায়ে ১৫ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। আপত্তিকর ধারাগুলো সংশোধন না করে সংসদে ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্ট পাশের প্রতিবাদে সম্পাদক পরিষদের এই সংবাদ সম্মেলন। লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নয়টি ধারা কেন গণমাধ্যমের জন্য হুমকি, তার বিস্তারিত ব্যাখ্যা দেন তিনি। বলেন, এই আইন মুক্তিযুদ্ধের অন্তর্নিহিত স্বাধীনতার চেতনার পরিপন্থী। গণমাধ্যম কর্মীদের অপরাধ বিচারে প্রেস কাউন্সিলের মাধ্যমে প্রাথমিক তদন্তসহ সাত দফা দাবি তুলে ধরা হয়। এক প্রশ্নের জবাবে সম্পাদক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম জানান, নতুন আইনের বিরোধীতা করছে না সম্পাদক পরিষদ। কেবলমাত্র সুনির্দিষ্ট কয়েকটি ধারার ব্যাপারে তাদের আপত্তি রয়েছে। এই আইনের প্রতিবাদে ১৫ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনের ঘোষণা দেয়া হয় সংবাদ সম্মেলনে।

এতিমখানার নামে চাঁদাবাজি (ভিডিও)

মানুষের ধর্মীয় অনুভূতি আর সরল বিশ্বাসকে কাজে লাগিয়ে, নাম পরিচয়হীন এতিমখানার নামে চাঁদাবাজী করছে এক শ্রেণীর মানুষ। পথশিশু, বস্তি কিংবা ছিন্নমূল শিশুদের শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা, বিনোদনসহ বিভিন্ন সেবার কথা বলেও টাকা আদায় করছে এক শ্রেনীর সমাজকল্যাণমূলক সংস্থা। এভাবে সেবার নামে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে টাকা। এ’বিষয়ে বিস্তারিত থাকছে রাত ১০টায় একুশের চোখ অনুষ্ঠানে। মানুষের অনুভূতিকে কাজে লাগিয়ে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বা এতিমখানার নামে একশ্রেণীর প্রতারক নিয়মিত টাকা আদায় করছে। লিফলেট বা রিসিটে নাম থাকলেও অনুসন্ধানে অনেক প্রতিষ্ঠান খুঁজেই পাওয়া যায়নি। রাজধানীর কারওয়ান বাজার রেল গেট, সাত রাস্তার মোড়, তেজগাঁও, বিজয় সরণী, পান্থপথ, বনানী, মহাখালীসহ বিভিন্ন মোড় বা সিগনাল ও হাতিরঝিলে দিন রাত চলে এ’ধরণের চাঁদাবাজি। রাজধানীর অন্তত দশটি স্পটে চলে পন্থিশাহ মাদ্রাসার নামে টাকা আদায়। কিন্তু মাদ্রাসায় গিয়ে দেখা যায়, শিক্ষার্থী নিজ খরচে লেখাপড়া করে। অন্যদিকে, সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা, খাদ্য সহায়তাসহ বিভিন্ন কাজের নামে আধুনিক পদ্ধতিতে চাঁদাবাজি বা ভিক্ষাবৃত্তিতে ব্যস্ত কিছু তরুন-তরুনী। সমাজ সেবার নামে চলে এই চাঁদাবাজী। রাজধানীতে যে’সব সমাজকল্যাণ নামধারী ভুয়া প্রতিষ্ঠান সেবার নামে মানুষের সহানুভূতিকে কাজে লাগিয়ে চাঁদাবাজি করছে তাদের মধ্যে অন্যতম হলো:- পুরানা পল্টনের ফিউচার বাংলা সমাজকল্যাণ সংস্থা। মিরপুরের প্রথম আলো দিশারী, শান্তিনগরে চিলড্রেন কেয়ার, ফার্মগেটে খুকুমনি সমাজকল্যাণ সংস্থা, মিরপুরের মুক্ত আলো ফাউন্ডেশন, ফার্মগেটে ডাক্তার বাড়ী ফাউন্ডেশন, মিরপুরে পরশ পাথর, ধানমন্ডিতে অস্তিত্ব চিত্র পাঠশালা, মৈত্রী ফাউন্ডেশন ও ড্রিম বিচ হিউম্যান এসোসিয়েশন। সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নামে টাকা উত্তোলন করে ইচ্ছামত ভাগ বন্টন করে নিচ্ছে এসব অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠান। সমাজ সেবা অধিদপ্তর থেকে অনুমোদন নিয়ে এভাবে চাঁদাবাজির সুযোগ আছে কী-না, তা জানাতে চাইলে সদুত্তর দিতে পারেননি ওই সব প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তিরা। এনজিও, মাদ্রাসা বা এতিমখানার নামে টাকা তোলা আইনের পরিপন্থি বলে জানিয়েছে পুলিশ। কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেয়ার কথাও জানান এই কর্মকর্তা।

এবার সিদ্ধ ডিম দিবে বিপিআইসিসি

প্রাণিজ আমিষের চাহিদা পূরণ, স্বাস্থ্যবান ও মেধাবী জাতি গঠন, সর্বোপরি ডিমের গুণাগুন সম্পর্কে জনসচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে ১৯৯৬ সাল থেকে এ দিবসটি বিশ্ব জুড়ে একযোগে পালিত হয়ে আসছে।  আগামীকাল শুক্রবার, ২৩তম ‘বিশ্ব ডিম দিবস’। দিবসটি উপলক্ষ্য নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে সরকার। গত বছরের মত এবারও দিবসটি যৌথভাবে উদযাপন করছে পোল্ট্রি সংশ্লিষ্ট ৭টি অ্যাসোসিয়েশনের সমন্বয়ে গঠিত- এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর (ডিএলএস)। এবার সকাল ১০টা থেকে সিরডাপ মিলনায়তনে শুরু হবে ডিম দিবসের আলোচনা সভা। এছাড়া জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে, কারওয়ান বাজার, মিরপুর এবং ধানমন্ডিস্থ রবীন্দ্র সরোবর এলাকায় শ্রমজীবি ও সাধারন মানুষের মাঝে বিনামূল্যে সিদ্ধ ডিম বিতরণ করা হবে। এছাড়াও বিভিন্ন শিশু সদন ও এতিমখানা এবং বৃদ্ধাশ্রমের সদস্যদের জন্যও বিনামূল্যে ডিম প্রদান করা হবে। আজ বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে- দিবসটি উপলক্ষ্যে ঢাকাসহ সকল বিভাগীয় শহরে বর্ণাঢ্য র‍্যালী ও আলোচনা সভা এবং শ্রমজীবী মানুষ, এতিম ও সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে বিনামূল্যে ডিম বিতরণের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। বিশ্ব ডিম দিবস উদযাপনের অংশ হিসেবে আগামীকাল সকাল সাড়ে ৯টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে শুরু হবে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। ঢাকার বাইরে সবক’টি বিভাগীয় শহরে বিপিআইসিসি ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের উদ্যোগে র্যা লী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের উদ্যোগে বিভিন্ন জেলা শহর ও উপজেলা সদরে ডিম দিবস উপলক্ষ্যে কর্মসূচি পালন করা হবে। এবছর বিশ্বব্যাপী ডিম দিবসের থিম হচ্ছে ‘প্রোটিন ফর লাইফ’। আমাদের দেশে এবারের স্লোগান হচ্ছে “সুস্থ সবল জাতি চাই, সব বয়সেই ডিম খাই”। উল্লেখ্য গত বছর ডিম দিবসে খামারবাড়িতে স্বল্প মূল্যে ডিম বিক্রির ঘোষণা দিয়েছিল সংগঠনটি। পরে এ নিয়ে ব্যাপক গোলযোগ হয়। এক সময় ডিম বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। টিআর/

৫ শতাংশ কোটার দাবিতে প্রতিবন্ধীদের শাহবাগে বিক্ষোভ  

সরকারী চাকরীতে বিনা শর্তে ৫% কোটা প্রজ্ঞাপন আকারে প্রকাশ করার দাবিতে শাহবাগে বিক্ষোভ সমাবেশ করছে বাংলাদেশ প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ঐক্য পরিষদ।   আজ সন্ধ্যা ৬ টা থেকে আগামীকাল সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত ধর্মঘট করার ঘোষণা দিয়েছে আন্দোলনকারীরা। আগামীকাল শুক্রবার থেকে কঠোর কর্মসূচী চলবে বলে জানান আন্দোলনকারীরা। সংগঠনের আহবায়ক আলী হোসেন জানান, প্রতিবন্ধী হওয়া কোন অপরাধ নয়। প্রকৃতির নিয়মেই আমরা প্রতিবন্ধী। অনেক কষ্ট করে, অন্যদের চেয়ে কম সুযোগ সুবিধা পেয়ে আমরা পড়াশুনা করছি। দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে পড়ালেখা করছি। আলী হোসেন প্রশ্ন রেখে বলেন, তাহলে কেন আমাদের ন্যায্য অধিকার এই ‘কোটা’ কেড়ে নেওয়া হলো? সংগঠনের যুগ্ম আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম জানান, আমরা কোন করুণার জন্য এখানে আসিনি। আমরা আমাদের অধিকার আদায়ের জন্য এসেছি। এসি    

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা: ন্যায়বিচার চেয়ে আ.লীগের মিছিল

আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ঘটনার ন্যায়বিচার চেয়ে পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডে আওয়ামী লীগ নেতারা মিছিল করেছেন। এছাড়া এ মামলার রায়কে কেন্দ্র করে আহতরা ঘটনাস্থল রাজধানীর বঙ্গবন্ধুর এভিনিউয়ে জড়ো হয়েছেন। আজ বুধবার ভোর থেকেই আহতদের মধ্যে অনেকেই জড়ো হন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সমানে। কারো কারো পরিবারের সদস্যরা হাজির হয়েছেন। অনেকেই এসেছেন হুইলচেয়ারে করে, কেউ বা ক্র্যাচে ভর দিয়ে এসেছেন। তাদের শরীরে গ্রেনেড হামলার ক্ষতচিহ্ন। সেখানে আওয়ামী লীগের নেতারা বক্তব্য দেন। তারা বলছেন, এ ধরনের নৃশংস হত্যাকাণ্ড যেন বাংলাদেশে আর ফিরে না আসে। তারা ন্যায়বিচারের মাধ্যমে এই ঘটনার অবসান চান। বুধবার বর্বরোচিত ও নৃশংস ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে ১৪ বছরের অপেক্ষার অবসান হলো। রাজধানীর নাজিমুদ্দিন রোডে পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিনের আদালতে ২১ আগস্টের ওই ঘটনায় আনা পৃথক মামলায় একই সঙ্গে বিচার অনুষ্ঠিত হয়। মামলার প্রধান আসামি সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ ১৯ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। আর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ১৭ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে দলটির সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলার ঘটনা ঘটে। ওই নৃশংস হামলায় ২৪ জন নিহত ও নেতাকর্মী-আইনজীবী-সাংবাদিকসহ তিন শতাধিক লোক আহত হন। নিহতদের মধ্যে ছিলেন তৎকালীন মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমান। একে//  

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় বিএনপির সংশ্লিষ্টতা নেই : ফখরুল

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় বিএনপির কোন নেতাকর্মীর সংশ্লিষ্টতা নেই বলে মন্তব্য করছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। একইসঙ্গে রাজনৈতিক উদ্দেশে তারেক রহমানসহ অন্য নেতাকর্মীদের জড়ানো বলেও তিনি দাবি করেন। আজ মঙ্গলবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) শহীদ নাজির উদ্দিন জেহাদের ২৮তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ শীর্ষক এক স্মরণসভায় তিনি এমন্তব্য করেন। বিএনপির মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার রাজনৈতিকভাবে হয়রানি করতে, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তারেক রহমান, আব্দুস সালাম পিন্টু এবং লুৎফুজ্জামান বাবরসহ বিএনপি নেতাদের জড়িয়েছে। তিনি বলেন, জাতীয়তাবাদী দলকে নিশ্চিহ্ন করতে তারেক রহমানসহ অন্য নেতাকর্মীদের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জড়ানো হয়েছে। এ মামলায় বিএনপির কোনো নেতাকর্মী জড়িত নয়। টিআর/

আমি কাউকে প্রতিপক্ষ মনে করি না: ইলিয়াস কাঞ্চন

সড়ক দুর্ঘটনা নিরসনে কাজ করতে গিয়ে আমি কাউকে প্রতিপক্ষ মনে করিনা। আমাকে কি কারণে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হলো তা আমার বোধগম্য নয়। আমার স্ত্রীর মৃত্যুর ২৫ বছর পর এসে ভুল তথ্য দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) আন্দোলনের চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।      বিভিন্ন বাস টার্মিনালে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ কর্তৃক অবাঞ্ছিত ঘোষণার প্রতিবাদে সোমবার দুপুর ২টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন ইলিয়াস কাঞ্চন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি তার বক্তব্য তুলে ধরেন।       ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘প্রথমেই বলতে চাই আমার এবং আমার সন্তানদের জীবনের স্পর্শকাতর ঘটনা- ১৯৯৩ সালের ২২ অক্টোবর মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় আমার স্ত্রীর জাহানারা কাঞ্চনের মৃত্যু। ২৫ বছর পর এসে আমার স্ত্রীর এই মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ কর্তৃক ভুল তথ্য দিয়ে নাটক সাজানোর অপপ্রয়াস চালাচ্ছে। তাদের বরাত দিয়ে সংবাদে লেখা হয়েছে আমার স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে আমার নিজস্ব গাড়িতে। কিন্তু প্রকৃত সত্য হচ্ছে ঐদিন জাহানারা কাঞ্চন (আমার স্ত্রী) হোটেল সোনারগাঁও থেকে একটি মাইক্রোবাস ভাড়া নিয়ে দুই সন্তানকে সাথে করে বান্দরবানে আমার স্যুটিং স্পটে যাচ্ছিলেন। কিন্তু পথিমধ্যে চট্টগ্রামের অদূরে চন্দনাইশ পেরিয়ে পটিয়ার কাছাকাছি একটি ট্রাকের ধাক্কায় মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং আমার স্ত্রীর মৃত্যু হয়। সেদিন গাড়িতে অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানও ছিলেন। পুরো দেশবাসী ঘটনাটি জানেন। প্রশাসন থেকে বিভিন্ন অনুসন্ধানেও ঘটনাটি উঠে এসেছিল। আমি এ ধরনের মিথ্যা অপপ্রচার থেকে বিরত থাকার জন্য বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ নেতৃবৃন্দকে আহবান জানাচ্ছি। তাদের উদ্দেশ্যে আরও বলতে চাই আমার দরজা তাদের জন্য সবসময় খোলা। তারা আমার প্রতিপক্ষ নন, যে কোনো সময় তারা আমার সাথে আলোচনা করতে পারেন।’ ইলিয়াস কাঞ্চন আরও বলেন, ‘আমাকে কেন অবাঞ্ছিত করা হয়েছে তা প্রকাশিত সংবাদে উঠে আসেনি। তবে এ ঘটনা নতুন নয়। ২০১২ সালে শহীদ মিনারে পরিবহন মালিক শ্রমিক সমাবেশে আমার ছবিতে জুতার মালা পরনো হয়েছিল, আমার ছবি পোড়ানো হয়েছিল। এমনকি রাজধানীর কুড়িল রেলক্রসিং-এ দাঁড়িয়ে থাকা আমার গাড়িকে পেছন থেকে ধাক্কা দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত করে আমার উপর আক্রমণের প্রয়াসও চলেছিল। এমনকি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় খুলনা এবং ঢাকার যাত্রাবাড়িতে ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের নেপথ্যের নায়ক উল্লেখ করে আমার ছবি পোড়ানো হয়েছিল। তখন আমি বিষয়টি জানার পরেও আপনাদের বলিনি সকলের মঙ্গলের কথা ভেবে। এমনকি এসব ঘটনায় আমি বিচলিতও হইনি। নিজেকে নিয়ে চিন্তিতও নই। আমি চিন্তিত সড়ক নিয়ে, সড়কের মানুষকে নিয়ে।’   প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘আমরা প্রচণ্ড আশাবাদী বর্তমান সরকারের আন্তরিকতা ও কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণে। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সড়ক দুর্ঘটনা নিরসনে যে ১৭ দফা নির্দেশনা দিয়েছেন তা বাস্তবায়নে সরকারের প্রতিটি সংস্থার তৎপরতা চোখে পড়ার মতো। পাশাপাশি সড়ক দুর্ঘটনারোধে নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) জনগণের সম্পৃক্ততা বাড়ে সেধরনের কর্মসূচিতে আরও বেশি করে উদ্যোগী হয়েছে। আমি মনে করি এ জন্য সরকারি, বেসরকারি এবং সকল সামাজিক সংগঠন বিশেষ করে রোড সেফটি বিষয়ে কাজ করছেন সে সকল সংগঠনকে জনগনের মানসিকতা পরিবর্তনের বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচি পালনে আরও তৎপর হয়ে উঠতে হবে।’ সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন নিসচার ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুজ্জামান, মহাসচিব সৈয়দ এহসান-উল হক কামাল, যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদ, যুগ্ম মহাসচিব বেলায়েত হোসেন নান্টু, যুগ্ন মহাসচিব লায়ন গনি মিয়া বাবুল, অর্থ সম্পাদক নাসিম রুমি, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম আজাদ হোসাইনসহ আরও অনেকে।   এসি    

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি