ঢাকা, রবিবার   ১৮ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৫ ১৪২৮

কঙ্গনার অফিস ভাঙায় মুম্বাইকে ‘পাকিস্তান’ বলে আক্রমণ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:৫৯, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

মুম্বাইতে কঙ্গনা রানাউতের বিএমসির অফিসে ভাঙচুরের ঘটনা নিয়ে শোরগোল শুরু হয়েছে প্রায় গোটা দেশ জুড়ে। বুধবার সকালে কঙ্গনা রানাউতের পালি হিলের অফিসের সামনে হাজির হন বিএমসির কর্মীরা। মুম্বাই পুলিশকে সঙ্গে নিয়েই কঙ্গনার পালি হিলের বাংলো এবং অফিসের সামনে হাজির হন বিএমসির একাধিক কর্মী। এরপরই অভিনেত্রীর অফিসে ভাঙচুরের কাজ শুরু হয়। একের পর এক করে যার ফটো এবং ভিডিয়ো ভাইরাল হতে শুরু করে।

বিএমসি কীভাবে তার অফিসে ভাঙচুর চালাচ্ছে, সেই ছবি নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে প্রকাশ করেন কঙ্গনা রানাউত। পাশাপাশি নিজের অফিসকে রাম মন্দিরের সঙ্গে তুলনা করেন কঙ্গনা। তার রাম মন্দিরের মতো অফিসে ভাঙচুর চালাতে এসেছে বাবরের সেনা। কঙ্গনার ওই আক্রমণের পর ফের একদফা জোর শোরগোল শুরু হয়ে যায়।

কঙ্গনার ওই টুইট দেখে তাকে পালটা আক্রমণ করেন এনসিপির রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ মজিদ মেমন। বাবর এবং তার সেনা বলে মুম্বাই পুলিশের কর্মীদের অপমান করেছেন কঙ্গনা। পুলিশ প্রশাসনের উপর থেকে সাধারণ মানুষের আস্থা চলে যাক। এটাই কি কঙ্গনা চান বলে প্রশ্ন তোলেন মজিদ মেমন।

এরপর ফের মুখ খোলেন কঙ্গনা। তিনি বলেন, শিবসেনার বিরুদ্ধে তোপ দাগার ফলেই মহারাষ্ট্র সরকার সরাসরি তার সঙ্গে সংঘাতে নেমে পড়েছে। বেআইনিভাবে তিনি কোনও নির্মাণ কাজ করেননি। তা সত্ত্বেও তার অফিস কেন ভাঙচুর করা হচ্ছে বলে প্রশ্ন তোলেন কঙ্গনা। পাশাপাশি কোভিড পরিস্থিতিতে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যেখানে সমস্ত নির্মাণের কাজ বন্ধ রয়েছে, সেখানে বেআইনিভাবে তার অফিসে বিএমসি ভাঙচুর চালাচ্ছে বলেও তোপ দাগেন বলিউড অভিনেত্রী। 

কঙ্গনা যখন মুম্বইয়ের পথে রয়েছেন, তার মধ্যেই বিএমসির একের পর এক ছবি শেয়ার করতে শুরু করেন অভিনেত্রী। কখনও 'গণতন্ত্রের মৃত্যু' বলে তার অফিস ভাঙার ছবি শেয়ার করেন কঙ্গনা। পাশাপাশি মুম্বাইকে এবার সরাসরি 'পাকিস্তান' বলেও কটাক্ষ করেন অভিনেত্রী। পাশাপাশি 'পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর', 'পাকিস্তান' এবং 'বুলিউড' একযোগে এসব কাজ করছে বলেও তোপ দাগতে দেখা যায় বলিউড কুইনকে। সূত্র: জিনিউজ

এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি