ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, || ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

মিমের রোমান্টিক ওয়েব ফিল্ম ‘হোয়াট দ্য ফ্রাই’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:৫৫, ২৫ জানুয়ারি ২০২১

বহুল জনপ্রিয় ‘মাইনকার চিপায়’-এর পর জি ফাইভ এনেছে তাদের দ্বিতীয় বাংলা অরিজিনাল ‘হোয়াট দ্য ফ্রাই’। এই ফিল্মে ‘শামা দ্য ফায়ারফ্লাই’ চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় তারকা বিদ্যা সিনহা মিম। অন্য চরিত্রগুলোর মধ্যে বাশার হিসেবে আছেন প্রীতম হাসান, জনি হিসেবে সাকিব বিন রাশিদ এবং শামার প্রাক্তন প্রেমিকের চরিত্রে আছেন ইরেশ যাকের। এই ছবির সূত্র ধরেই গ্লোবাল ওটিটি প্ল্য্যাটফর্মে আত্মপ্রকাশ করলেন বাংলাদেশের জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র পরিচালক অনম বিশ্বাস।

পটভূমি

মুভির শুরুতেই দেখা যায় শামা গভীর রাতে একটি সেতুতে দাঁড়িয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে লাইভ করে তার ফ্যান ফলোয়ারদের বলছেন যে এটাই তার শেষ সেলফি, বা শেষ লাইভ ভিডিও।  কিন্তু ফ্যান ফলোয়াররা কিছু না বুঝেই তাকে শুধু ‘লাভ’ আর ‘হট’ রিয়্যাকশন দিয়ে চলছে। যখনই তিনি সেতু থেকে লাফ দিতে যাবেন ঠিক তখনই এক অপরিচিত ব্যক্তি এসে তাকে বাঁধা দেন। এরপর থেকেই শুরু হয় একটি রোমাঞ্চকর ও মজার গল্প। 

একটি মেয়ের সাথে একটি ছেলের অদ্ভূত পরিচয়, রোমাঞ্চকর কথোপকথন, এবং সূক্ষ¥ রোমান্সে পরিপূর্ণ হোয়াট দ্য ফ্রাই খুবই মনোমুগ্ধকর একটি মুভি- যেখানে পরিচালক তারকাদের দ্বৈত জীবন এবং সাধারণ মানুষদের সরলতা খুবই চমৎকারভাবে তুলে ধরেছেন। এই শর্ট ফিল্ম বাস্তব জীবন বনাম ভার্চুয়াল জীবনের একটি অসাধারণ উপস্থাপনা যেখানে অকপটে আমাদের জীবনের বাস্তবতাগুলো ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। 

কাস্ট, অভিনয় ও সিনেমাটোগ্রাফি 
মিম, হাসান ও রাশিদ নিজ নিজ চরিত্রে স্বতঃস্ফূর্ত অভিনয় করেছেন। ফিল্মটিতে মিমকে দেখানো হয়েছে একরোখা একজন সুপারস্টার হিসেবে, যেখানে সে দর্শকদের চাহিদা এবং নিজের জীবনযাত্রা ও পছন্দের চাপে পিষ্ট। বাশার চরিত্রে হাসান খুবই সাদামাটা উদাসীন একজন যুবক। জনি চরিত্রে রাশিদ অনন্য মাত্রা যোগ করেছে “ভিলেনের লগে ফাইট কইর‌্যা নায়িকারে বাঁচায় নিয়া আসছি, এত সহজে ছাইড়্যা দিস না!”- এমন অনেক ডায়ালগ দিয়ে। 

অনম বিশ্বাসের নির্দেশনা এবং এই ছবির অনন্য সুন্দর সিনেমাটোগ্রাফি চরিত্রগুলোকে আরো সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছে। 

মতামত
ঢাকার উপকণ্ঠে অসাধারণ সব দৃশ্য দেখা গিয়েছে হোয়াট দ্য ফ্রাই’য়ে যা খুব একটা দেখা যায় না। তাছাড়া প্রাকৃতিক দৃশ্যের মুগ্ধতা, দিন ও রাত্রির সুন্দর নিস্তব্ধতা ধরা পরেছে এই ফিল্মের প্রতিটি পরতে পরতে। গল্পটি বহুল ব্যবহৃত হওয়া সত্বেও, এই ফিল্মে এর সরল উপস্থাপন একে অনন্য করে তুলেছে। 

ফিল্মটিতে একটি গান রয়েছে যা তুলে ধরে ভালবাসা কীভাবে একজনের বর্তমান ও পারিপার্শ্বিক অবস্থা বদলে দেয়। ‘কলিজার সিঙ্গারা’ শিরোনামে গানটি গেয়েছেন দেশের তরুণ লোকসঙ্গীত শিল্পী নাদিয়া ডোরা এবং গানটি কম্পোজ করেছেন প্রতিশ্্রুতিশীল কম্পোজার রুসলান রেহমান। 

গানটি ফিল্মে ব্যবহৃত অনম বিশ্বাসের দারুণ দারুণ সংলাপের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। উঠতি শিল্পীদের এমন একটা আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্ম দেয়ার জন্য ফিল্মটি বিশেষ দাবি রাখে। 

সব মিলিয়ে বলা যায়, হোয়াট দ্যা ফ্রাই’য়ে দর্শকরা শান্ত ও রোমাঞ্চর অসাধারণ এক অনুভূতি পাবেন এবং সংক্ষিপ্ত ও সাজানোগোছানো এই শর্টফিল্মটি বিশেষভাবে তরুণ দর্শকদের অনেক পছন্দ হবে। 
ট্রেইলারের লিংক:  https://www.zee5.com/global/videos/details/wtfry-trailer/0-0-manual_5k6ugdhfjri0 
মুভির লিংক:  https://www.zee5.com/global/movies/details/wtfry/0-0-296616 

আরকে//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি